তারেক জিয়ার বক্তৃতা এবং রায়হান রশীদের ব্যাবচ্ছেদ

গত কয়েকদিন যাবত বেশ আলোচনা চলছে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক (জিয়া) রহমানের দেশবাসীর উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণ নিয়ে। বলা বাহুল্য এই ভাষণটি মূল মিডিয়াতে না এসে, এসেছে ইউ টিউবে।নিচে ভিডিওটির লিঙ্ক দিয়ে দিলাম যারা এখনো দেখেন নি তাদের জন্য।

তারেক রহমানের এই বক্তব্য ইউ টিউব থেকে প্রায় ৯০,০০০ বার দেখা হয়েছে। এছাড়া অন্য মাধ্যমেও এর পর ছড়িয়ে গেছে।

Screen Shot 2014-01-05 at 12.51.21

 

ডঃ রায়হান রশীদ (একজন এক্স ক্যাডেট ও তিনি) ভাই  তারেক জিয়ার এই বক্তব্যর একটি চমৎকার বিশ্লেষণ করেছেন তা নিচে শেয়ার করছি।

লন্ডনে বসে তারেক জিয়া পূর্বে ধারণকৃত একটি বক্তব্য দিয়েছেন। কোন এক বিচিত্র মোহের আবেশে দেশের সমস্ত মিডিয়া এবং চ্যানেলগুলো সেটা আবার আগ্রহ ভরে প্রচারও করেছে। লিখে আনা স্ক্রিপ্ট দেখে ভারি ভারি যে বিষয়গুলো তারেক পড়ে গেলেন, সেগুলো হল:

‘গণতন্ত্র’ [শাহ এ এম এস কিবরিয়া খুন দ্রষ্টব্য, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দ্রষ্টব্য, মাগুরা নির্বাচন দ্রষ্টব্য];
‘দুর্নীতি’ [মিস্টার টেন পার্সেন্ট, খাম্বা, তার এবং তার নিকটাত্মীয়ের ব্যাপারে এফবিআই এবং কানাডীয় আদালতের অবস্থান দ্রষ্টব্য]
‘রাজনৈতিক সহিংসতা’ [সাম্প্রতিক লিকে শমসের মুবিনকে দেয়া সহিংসতা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে তারেকের সুস্পষ্ট নির্দেশ দ্রষ্টব্য]
‘গণ মানুষের মুক্তির আকাংখা’ [বার্ণ ইউনিটে সে আকাঙ্খার আগুনে মৃত/মৃতপ্রায় শিশুরা দ্রষ্টব্য, জ্বালিয়ে দেয়া শতাধিক স্কুল দ্রষ্টব্য]
‘সার্বভৌমত্ব’ [পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি বাংলাদেশকে শায়েস্তা করা বিষয়ক খালেদা জিয়ার অনুরোধ দ্রষ্টব্য]
‘ধর্মীয় সম্প্রীতি’ [গত বিএনপি জোট সরকারের আমলে সংখ্যালঘুদের ওপর জামাত-বিএনপির সহিংস তান্ডব দ্রষ্টব্য]
‘প্রাণপ্রিয় (রক্তাক্ত) ইসলাম’ [রক্তাক্ত তো বটেই, রক্ত যখন অন্যদের। গত জোট সরকার আমলের বাংলাভাই ও জঙ্গীবাদ লালন দ্রষ্টব্য]
‘৭২ এর সংবিধান গণ আকাঙ্খা বিরোধী’ [আর পারছি না মন্তব্য করতে। আজ তারেক-খালেদার কাছ থেকে নিতে হবে সংবিধান আর গণ-আক্াঙ্খার পাঠ!]
‘যুদ্ধাপরাধের বিচার’ [কোন মন্তব্য না থাকাটা দ্রষ্টব্য]
‘পাকিস্তান’ [কোন মন্তব্য না থাকাটা দ্রষ্টব্য]

কিছু কি বাদ পড়লো? দয়া করে যোগ করুন মন্তব্যে।

উইকিলিক্স ও তারেক জিয়া:
——————————
উইকিলিক্সের সৌজন্যে মহান তারেক জিয়া সম্বন্ধে মার্কিন এমব্যাসাডর মরিয়ার্টির করা কিছু মন্তব্য (লিঙ্কে ক্লিক করুন) পড়ে নেয়া যেতে পারে :-

“. . .The Embassy believes Tarique is guilty of egregious political corruption . . .”

“. . .Tarique is . . . Notorious for flagrantly and frequently demanding bribes in connection with government procurement actions and appointments to political office, . . . “

“. . . Tarique is a symbol of kleptocratic government and violent politics in Bangladesh . . .”

” . . . His (Tarique‘s) flagrant disregard for the rule of law has provided potent ground for terrorists to gain a foothold in Bangladesh while also exacerbating poverty and weakening democratic institutions. . . .”

“. . . In short, much of what is wrong in Bangladesh can be blamed on Tarique and his cronies.”

পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মরিয়ার্টিরা তারেককে কি ভাবেন এখন – সেটা জানতে আগ্রহী।

উইকিলিক্সের ক্যাবলটির বিস্তারিত এখানে: (ক্লিক করুন) 

————————————————————————————————————————————————————

 

তবে সত্যি বলতে কি আমি আশাবাদী তারেক জিয়ার এই বক্তব্যে। অন্তত বিএনপি নিজের মুখে কিছু বলেছে। আমার ভালো লাগুক আর খারাপ লাগুক কাল বা পরশু দেশ চালাবে এই তারেক রহমান পিনো  আর সজীব ওয়াজেদ জয় এই দুইজনের একজন। জয় ক্রমশঃ বাংলাদেশের রাজনীতির সাথে নিজেকে জড়াচ্ছেন। তারেক জিয়া দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যে প্রথমে চিকিৎসা ও পরে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়ে বসবাস করছেন। কয়েকবার যুক্তরাজ্য ভিত্তিক নেতা-কর্মীদের সাথে বৈঠক করেছেন।

অনেকে আবার বলছেন তারেক জিয়া নাকি রাজনীতি থেকে সরে যাবার জন্য মুচলেকা দিয়েছেন।

তারেক জিয়ার মুচলেকা

তারেক জিয়ার মুচলেকা

 

যদিও এর সত্যতা জানা নেই। আর তখনকার আই এম এফ এর সময়ে নেয়া এই মুচলেকার মূল্য কতটুকু তাতে প্রশ্ন উঠতেই পারে। কারণ বিএনপির মূল ওয়েবসাইটটি বলছে ভিন্ন কথা।

তারেক রহমান বাংলাদেশ জাতিয়তাবাদী দলের স্ট্যান্ডিং কমিটির একজন মেম্বার।

Screen Shot 2014-01-05 at 12.45.07

তারেক রহমান এখনো জাতিয়তাবাদী দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান।

Screen Shot 2014-01-05 at 12.48.03

 

দেশে সুস্থ রাজনীতির পরিবেশ গড়ে উঠুক এই প্রত্যাশা করি।
ও ভালো কথা একতা ব্যাপারে একটু কনফিউজ্ড হয়ে গেলাম। বিএনপির ওয়েব [পেইজটি কি ইন্দোনেশিয়া থেকে হোষ্টিং করা নাকি???

Screen Shot 2014-01-05 at 13.29.00

 

আজ জাতীয় নির্বাচন হয়ে গেলো বাংলাদেশে। সামনে কি আছে দেশের মানুষের ভাগ্যে অপেক্ষায় আছি।

 

৪,৪২৮ বার দেখা হয়েছে

৫১ টি মন্তব্য : “তারেক জিয়ার বক্তৃতা এবং রায়হান রশীদের ব্যাবচ্ছেদ”

  1. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    ফয়েজ ভাই,

    রাজনৈতিক পোষ্ট নিষিদ্ধ না, কারণ 'রাজনীতি' নামের একটা বহুল ব্যবহৃত ট্যাগ আছে তালিকায়। তবে আমি এই পোষ্টের মত 'দলকানা' পোষ্ট না দেওয়াকে নিরুৎসাহিত করার পক্ষে। এইখানে রায়হান ভাইয়ের বরাতে যে পয়েন্টগুলো উল্লেখ করা হয়েছে, তা'র সর্বশেষ দুটো বাদে প্রত্যেকটাতে আওয়ামীলীগের কীর্তি কোন অংশেই কম নয়। আর এদের ভারত-তোষণের মাত্রা বিবেচনা করলে আর পাকিস্তান প্রীতি/বিদ্বেষ পর্যন্ত যাওয়ার টাইম থাকে না.........


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
    • ফয়েজ (৮৭-৯৩)

      "রাজনীতি" ট্যাগটি আছে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করার জন্য।

      এইসব পোস্ট পড়লে মনে হয় নিদির্স্ট মার্কায় ভোট চাওয়া, এবং অন্য মার্কার উপরে ঘৃনা ছড়ানো ছাড়া এদের আর অন্য কোন উদ্দেশ্য নেই।


      পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

      জবাব দিন
      • প্রতীক(২০০৫-২০১১)

        আপনারা এত কষ্ট পাচ্ছেন কেন বুঝলাম না।আমাদের ভাবী প্রধানমন্ত্রীর চরিত্র সম্পর্কে জানার অধিকার আমাদের সবারই আছে।এই পোস্টটা আমাদের একসাথে অনেক কিছু জানার সুযোগ করে দিয়েছে।এত পুড়ে কেন???? B-)


        যাহা বলিব,সত্য বলিব,সত্য বৈ মিথ্যা বলিব না

        জবাব দিন
        • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

          সেটাই।
          তারেক রহমান যে দেশের ভবিষ্যত প্রধানমন্ত্রী এতে কারো দ্বিমত করা উচিত নয়।
          এই সুযোগে তারেক ভাইয়া কে ::salute::


          এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

          জবাব দিন
        • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
          আপনারা এত কষ্ট পাচ্ছেন কেন বুঝলাম না।আমাদের ভাবী প্রধানমন্ত্রীর চরিত্র সম্পর্কে জানার অধিকার আমাদের সবারই আছে।এই পোস্টটা আমাদের একসাথে অনেক কিছু জানার সুযোগ করে দিয়েছে।এত পুড়ে কেন????

          @নূপুর ভাই,

          একদিন আক্ষেপ করে বলেছিলেন সিসিবি সামহোয়ারইন হোক তা আমরা চাইনা। উদ্ধৃত অংশের বোল্ড শব্দ/শব্দমালা লক্ষ্য করুন। ২০০৫ এর এক ক্যাডেট ঐগুলা ব্যবহার করেছে ১৯৯৩ আর ১৯৯৬ এর দুই সিনিয়রের প্রতি।

          ক্যাডেট পরিচয় যদি সিসিবি'তে লেখার পূর্ব শর্ত হয়ে থাকে, তাহলে এই সিনিয়রদের প্রতি এই মন্তব্য অবশ্যই গ্রহনযোগ্য নয়।

          ব্লগের অন্যান্য ক্যাডেটদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।


          There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

          জবাব দিন
      • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

        ভোট চাইলে ফয়েজ ভাই ইলেকশনের আগেই দিতাম।
        এইখানে তারেক জিয়ার ভাষণ নিয়া আলোচনা হইছে,
        এবং সেই সাথে সংস্লিষ্ট বিষয়গুলা আসছে।

        তারেক জিয়ারে পচানো উদ্দেশ্য হইলে বলতাম তারেক জিয়া কাগজে লেখা দেইখা

        আস সালামু আলাইকুম

        পর্যন্ত বলতে পারে না।
        বিশ্বাস না হইলে আপনি নিজে প্রথম ১৫ সেকেন্ড দেখেন। ভিডিওটার।


        এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

        জবাব দিন
    • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

      মাহমুদ,
      তবু ভালো বলোনাই তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে কুৎসা রটানো হচ্ছে।
      তবে জিয়া পরিবারের সমালোচনা করলেই 'দলকানা' ট্যাগ করাটা কি ঠিক হচ্ছে?
      আর বিএনপির সমালোচনার প্যারালালে একটু আওয়ামী সমালোচনাও সেরে নিতে হবে - পাকিস্তান বিদ্বেষের পাশাপাশি ভারতকেও একহাত দেখে নিতে হবে, তবেই না নিরপেক্ষ আর সুশীল থাক্তে পারবো - কি বলো!

      তারেক জিয়ার মতো একটা ঘৃণ্য ইডিয়টকে নিয়ে কথা বলার জন্যেও যদি দলকানা হতে হয়, তবে আমি পুরাই কানা -- দল রং ভঙ নির্বিশেষে।

      সিসিবিতে রাজনৈতিক লেখা যাবে কি না সেই তর্কে যাবোনা -- কারণ শেষ পর্যন্ত সবকিছুই রাজনীতি।

      জবাব দিন
      • ফয়েজ (৮৭-৯৩)

        নূপুর ভাই, ব্যালান্সটা কিন্তু ইফেক্টিভ, (জরুরী বলতে চেয়েছিলাম, মনে হল ইফেক্টিভ বেশি মানানসই)। যতই চিল্লা পাল্লা করেন। 😀

        তবে সুশীলরা কি ালটা ফালাইতেছে, যে আপনাকে সুশীল থাকতে হবে। সুশীল থাকার দরকার নাই, তারচেয়ে ঝর্নার জলে স্নান হইতে পারে এক আধবার।


        পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

        জবাব দিন
      • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

        নূপুর ভাই,

        ব্যালেন্সের কথা বলি নাই, বলছি নিছক চক্ষুলজ্জার কথা। এমনকি হলুদ মিডিয়ায় পর্যন্ত যেখানে ক্রমাগত চেতনার ব্যাপারী আওয়ামী সরকারের একেকজন এম্পির হাজারপতি থেকে কোটিপতি হওয়ার রিপোর্ট আসছে, যুদ্ধাপরাধের বিচার বানচালের জুজুর আড়ালে শেয়ার বাজার+ব্যাংক লুন্ঠনকারীদের সরকারী প্রশ্রয় দেওয়া হচ্ছে, দলীয় প্রধানের একগুয়েমীর জন্য রাষ্ট্রের সংবিধানকে টয়লেট-টিস্যুর মত ব্যবহার করা হচ্ছে, যার শিকার হয়ে প্রতিদিন সাধারণ মানুষ "নিহত" হচ্ছে, সেইগুলোর প্রতি যে বা যারা শুধুমাত্র দলীয় আনুগত্যের কারণে চোখ ফিরিয়ে নেয়, মুখ বুজে থাকে, সেই তারাই যখন বিরোধী দলের পূর্বের শাসনকালের অনুরূপ অপরাধের সমালোচনায় নামে, তা'কে কি বলবেন?

        বাংলায় একটা কথা আছে- "চালুনি বলে, সুঁই তোর পাছায় ফুটা"।

        কোনটা গ্রহনযোগ্য আর কোনটা লজ্জার, সেইটা সবাই সব সময় মনে না-রাখলেও এই বোধটা কিন্তু সবারই আছে, আওয়ামী/বিএনপি বা ভারত/পাকিস্তান ব্যালান্সের কথা না-টেনেই 🙂

        আশা করি, দলকানা কেন্ন বলেছি সেইটা পরিস্কার, কি বলেন নূপুর ভাই (কাইয়ুমের পোষ্ট পড়ে সিসিবি'র পুরাণ ডায়লগ মনে পড়ে গেলো...) (সম্পাদিত)


        There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

        জবাব দিন
        • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

          মাহমুদ,
          তোমার কি মনে হয় না আসলে তুমিই দলকানা, যখন শহীদ জিয়া তারেক জিয়াকে নিয়ে কিছু লিখলেই তাতে আওয়ামী লীগের বয়ান খুঁজে পাও? আর এসে 'দলকানা' শব্দসমেত কমেন্ট করে যাও? বারবার প্রশ্ন করছি, বিএনপি জিয়া খাজি তাজি-র সমালোচনা করলে আওয়ামী লীগ হতে হবে কেন? তার কোন উত্তর পাচ্ছিনা -- পাচ্ছি সেই সুপরিচিত ত্যানা।

          ব্যালান্সের কথা আমি বলিনি -- তুমিই বলে গেলে ভারত তোষণের মুখে পাকিস্তান বিদ্বেষ-প্রীতি পর্যন্ত যেতে পারছোনা! তাজি বা বিএনপির সমালোচনা করলে আমিই জিজ্ঞেস করছি, এত লাগে কেন? 'পুড়ে' না বলে 'লাগে' বললাম -- ক্যাডেটীয় নাই বা হলো প্রশ্নটা। অবশ্য বাই ডিফল্ট (হিন্দুনামধারী হবার কারণেই আর কি ) আওয়ামী লীগার (মতান্তরে ভারতের দালাল) এর এই প্রশ্ন করার অধিকার আছে কি না সেটাও আরেক প্রশ্ন।

          জবাব দিন
          • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

            নূপুর ভাই,

            এইটা ব্যালান্সের প্রশ্ন নয়, সাধারণ নৈতিকতার প্রশ্ন। সেইজন্যই "চালনি আর সূঁই/সূঁচের উপমা"টা দিছিলাম।

            আমি কোনভাবেই বলিনাই যে বিএনপির সমালোচনান করতে গেলে আওয়ামীলীগেরও করতে হবে। কিন্তু বিএনপির ৭ বছর আগের করা একই অপরাধগুলো একই মাত্রায় করতে থাকলেও সেগুলোকে বেমালুম চেপে যাওয়াটা কি বর্তমানকে আড়াল করার কুপ্রচেষ্টা নয়? তাও আবার বর্তমানে যখন আওয়ামীলীগের একই অপরাধগুলো প্রকাশ+প্রচার হচ্ছে? এইটা কি নিজদলের বর্তমান কুকর্মগুলোকে বৈধতা দেওয়ার অপচেষ্টা নয়? কই, একবারের জন্যও ত শুনলাম না শামীন ওসমানের কোন সমালোচনা, নাকি ত্বকীকে খুনের ঘটনা মিথ্যা? হাজারপতি থেকে শতকোটিপতি হলো ত' কয়েক ডজন আওয়ামী এম্পি, যারা এখনো গদিতে বসেই আছে, কই তাদের জন্য ত' এক মুহূর্তের জন্যও বিবেক জাগ্রত হতে দেখলাম না। আমাদের বিবেক শুধু জাগ্রত হতে পারবে যখন আওয়ামী কুকীর্তিগুলো মানুষের সামনে প্রকাশ হতে শুরু করে তখন, তাও আবার অতীতে বিএনপির করা কুকর্মের বয়ানে সেগুলোকে চাপা দেওয়ার জন্য!

            - চালনির পাছায় শত ফুটা, তারপরেও সুঁইকে বলে তোর পাছায় ফুটা। কি দারুন একটা উপমা, কিন্তু বিফলে গেল। আমারই ব্যর্থতা।

            নামের পাশে ক্যাডেট কলেজে অবস্থানের সাল উল্লেখ করে আমরা সিসিবি'তে নিজেদের পরিচয় জানান দেই, কারণ ঐটা এই ব্লগে আমাদের নিজস্ব আইডেন্টিটি প্রতিষ্ঠা করে। এইটা দেখেই আমরা সিসিবি'তে অংশ নিই, বড়দের সম্মান করি আর ছোট হিসেবে তার বদলে বড়দের স্নেহ পাই। - নামের পাশে পুরনো সালযুক্ত ক্যাডেটরা যখন এই বাস্তবতা অস্বীকার করে/ভুলে যায়, তখন সেই পরিচয় এবং তার উপর ভিত্তি করে গড়ে ওঠা জগৎটা ভেঙ্গে পড়তে বাধ্য। এবং যে ধারায় কিছু বড়ভাই এটাকে প্রশ্রয়/উৎসাহ দিচ্ছেন, তা'তে খুব দ্রুতই।

            চেতনায় অন্ধ হওয়া একদিক থেকে ভালো, স্বপক্ষের কোন দোষ দেখা যায়না, নিজের মধ্যে স্বাভাবিক লজ্জাবশতঃ হীনিমন্যতা তৈরী হয়, বুক ফুলিয়ে চলা যায়। আফসোস, সুলভ এই গুণটাও অর্জন করতে পারলাম না।

            নূপুর ভাই, কথায় কথা বাড়ে। আমি অফ গেলাম। ছাপার অক্ষরগুলোই শুধু থাক। আমার, আপনার, অন্যদেরও......... (সম্পাদিত)


            There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

            জবাব দিন
            • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

              আমি এইখানেই আমার পুরানো লেখা থেকে বের করে বলতে পারবো যে আমি হাসিনা-খালেদা দুই জনকেই গালি দিছি।
              মুজিবের একবার প্রেসিডেন্ট আরেকবার প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিয়ে উপহাস করছি।
              মখা রে নিয়া গতকাল বা আজকেও ফেসবুকে বইলা আসছি।
              আবুল রে নিয়া কতো কিছুই না বলছি।
              টিপাইমুখের বিপক্ষে বলছি।
              পাকিস্থানে খেলোয়াড় না পাঠানোর জন্য বলছি।
              তথাকথিত আওয়ামী ট্রাইব্যুনালের বিপক্ষে বলছি।
              সুন্দরবন রক্ষার জন্য বলছি।

              না এতে তোর মন ভরবে না।
              ওকে দেন।
              ::salute::
              :teacup:


              এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

              জবাব দিন
            • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

              মাহমুদ,
              এই এক মজা -- অফ যাওয়া যায় সুবিধামতন। দলকানা তালকানা সব বলে। যাক আমরা বোধহয় আলাদা ভাষায় কথা বলছি -- কমিউনিকেট করতে পারছিনা।
              তুমি তো করছো শামীম ওসমানের সমালোচনা, হাসিনা বা লীগের সমালোচনা -- পেয়েছো তো আমাকে সেখানে, না কি পাওনি? না কি এখানেও আমাকে ঘোষণা দিয়ে রাখতে হবে যে, শামীম ওসমানও একটা ঘৃণ্য কীট! নিরপেক্ষতা দেখানোর জন্যেই! আমি ঘোষণা না দিলে তুমি নিশ্চিত হতে পারছোনা আমার অবস্থান সম্পর্কে?

              রাজীব এসে তারেক জিয়াকে নিয়ে বললে তাকে দলকানা বলছো কোন বিবেচনায় -- এই প্রশ্নের কোন সদুত্তর পাচ্ছিনা। পাচ্ছি (হ্যাঁ, আবারো বলছি, পাচ্ছি) শুধু ত্যানা।

              আর ছোটদের প্রশ্রয় দিচ্ছি বলে যে কথাটা বললে সেটা এমন ফানি, কি বলবো। প্রতীকের প্রশ্নের উত্তরটা দিলেনা, আমি করলাম আমার প্রশ্নের উত্তরো পাইনি - উল্টে অভিযোগ করছো উস্কানি দিচ্ছি। তার 'পুড়ে কেন' কথাটা নিয়ে সিক রিপোর্ট পর্যন্ত গেলে -- একটু বেশী প্রতিক্রিয়া দেখানো হয়ে গেলোনা? তোমার সিনিয়রিস্টিক ইগো এতই আহত হয় একজন অনেক জুনিয়র একটা প্রশ্ন করে ফেললে! কিভাবে রিফ্রেম করলে প্রশ্নটা ঠিক থাকতো সেটা বলতে পারতে।

              সবশেষে, বয়সে ছোটদের প্রশ্রয় দিয়ে পরিবেশ নষ্ট করছি বলে যে অভিযোগ করলে সেটা মাথা পেতে নিলাম। আমার নামেও একটা সিক রিপোর্ট দিয়ে দিতে পারো। আর সম্মানের ব্যাপারটা যদি বলো, আমি কিন্তু তোমাকে অনেক সম্মান করি - মন থেকেই। আমার মনে হয় তুমি ম্যাচুরিটি বা কমন সেন্সে আমার থেকে বড় -- আমার মনেই হয়না তুমি আমার থেকে ছোট, কোন দিক দিয়েই।

              জবাব দিন
              • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
                প্রতীকের প্রশ্নের উত্তরটা দিলেনা

                ভাই, বলেন কি? সে প্রশ্ন করেছিল?!!! বাংলা ভাষাটা কিন্তু এখনো ভুলি নাই!

                আর আপনার প্রশ্নের উত্তর ত' দিছিলাম, মনে হয় ঠিকমত স্পষ্ট করে বলতে পারি নাই। আবার তুলে দিচ্ছি উপরে আমার মন্তব্য থেকে-

                ব্যালেন্সের কথা বলি নাই, বলছি নিছক চক্ষুলজ্জার কথা। এমনকি হলুদ মিডিয়ায় পর্যন্ত যেখানে ক্রমাগত চেতনার ব্যাপারী আওয়ামী সরকারের একেকজন এম্পির হাজারপতি থেকে কোটিপতি হওয়ার রিপোর্ট আসছে, যুদ্ধাপরাধের বিচার বানচালের জুজুর আড়ালে শেয়ার বাজার+ব্যাংক লুন্ঠনকারীদের সরকারী প্রশ্রয় দেওয়া হচ্ছে, দলীয় প্রধানের একগুয়েমীর জন্য রাষ্ট্রের সংবিধানকে টয়লেট-টিস্যুর মত ব্যবহার করা হচ্ছে, যার শিকার হয়ে প্রতিদিন সাধারণ মানুষ "নিহত" হচ্ছে, সেইগুলোর প্রতি যে বা যারা শুধুমাত্র দলীয় আনুগত্যের কারণে চোখ ফিরিয়ে নেয়, মুখ বুজে থাকে, সেই তারাই যখন বিরোধী দলের পূর্বের শাসনকালের অনুরূপ অপরাধের সমালোচনায় নামে, তা'কে কি বলবেন?

                নূপুর ভাই,
                আমার উত্তর পছন্দ হয়নি আপনার, সদুত্তর ত মনে হওয়ারও কোন কারণ নেই। কিন্তু তাই বলে দয়া করে বলবেন না যে আমি উত্তর দেই নাই। আপনি যুক্তি দেখবেন, না ত্যানা দেখবেন সেইটা আপনার মর্জি।

                আপনার উল্লিখিত বিষয়গুলোতে অতীতে আপনার অবস্থান দেখেছি, এবং মনেও রেখেছি। সেই জন্যই আপনার সাথে কথাও বলছি এখানে। সেই জন্য আপনার কখনোই ঘোষণা দিতে হবে না (আমি এই ঘোষোণাটা এখানে দিয়ে রাখলাম, যেন আবার কখনো একই ধারায় বিতর্ক না-তুলতে পারেন 🙂 )।

                - কিন্তু একটা বিষয় আপনি আমাকে বোঝায়ে বলেন তো- আপনার কেন মনে হলো যে আপনাকেই আমি 'দলকানা' বলেছি? এখানে ত বটেই, অতীতের কোন লেখা বা কমেন্টেও কি এমন করেছি? এই ব্লগের
                মন্তব্য লেখার সময় এক মুহূর্তের জন্যও আপনার কথা মনে হয়নি, সত্যি!

                আমার অবস্থান সম্পর্কে আমি পরিস্কার- সিসিবি'তে সিনিয়রিটি/জুনিয়রিটি বজায় রাখতে হবে। আমার ম্যাচ্যুরিটি কম/বেশি যা-ই হোক। আর এই কারণেই আমি মনে করেছি আমার আর ফয়েজ ভাইকে উদ্দেশ্য করে করা উক্ত মন্তব্য অগ্রহনযোগ্য। এ' প্রসঙ্গে মডুর উত্তরের জন্য আমি অপেক্ষা করবো।

                নূপুর ভাই,
                অফ-যাওয়ার মজাটা নিতে দিলেন না। ছোট ভাইয়ের প্রতি এতোটা নির্দয় হতে পারলেন কেমনে?! :((


                There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

                জবাব দিন
                • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

                  মাহমুদ,
                  সিনিয়রিটি-জুনিয়রিটি নিয়ে তোমার অবস্থানটি বুঝতে পারলাম। আমার অবস্থান হচ্ছে -- যে কথা বলা যাবেনা বা বলা উচিত হবেনা সেটা কাউকেই বলা উচিত নয়; আমি সিনিয়র হয়েও তোমাকে বলতে পারিনা -- সেই সুযোগ নিতে পারিনা। সেই বিবেচনায় 'লাগে কেন' প্রশ্নের জন্য নিঃশর্ত ক্ষমা চাইছি। তোমাকে আঘাত দিয়ে কথা বলার জন্যে লজ্জিত আমি।

                  আর সত্যিই, প্রতীকের প্রশ্নের মধ্যে আমি একটু হতচকিত রূঢ়তা ছাড়া মারাত্মক কোন 'বেয়াদবি' খুঁজে পাইনি। যাক এটা শুধুই আমার মতামত - আর আমাকেও বলা হয়নি, আমি তো রায় দিতেই পারিনা। আমি শুধু এটুকুই বলবো -- ও তো অনেক ছোট, ভুলে যাওয়া যায়না ভাই?

                  প্রতীককে বলছি, তুমিই এসে দুকথা বলে যাওনা কেন, যখন এত কথা হচ্ছে মন্তব্যটা নিয়ে?

                  আর বাকী কথা নিয়ে এখন আর না বলি মাহমুদ। আমাদের মতামতের যুদ্ধ, তর্ক হাড্ডাহাড্ডিভাবেই চালু থাক। আমাদের পার্থক্য নিয়েই একটা বাংলাদেশ গড়ে তুলতে পারি তো। অন্তত সিসিবির এই জমিতে।

                  ভালো থেকো ভাই।

                  জবাব দিন
                  • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

                    আপনার কমেন্ট দেখে প্রতীককে ফেবুতে নক করছিলাম।
                    তার পরীক্ষা সামনে।
                    তাই ব্লগে যাবার সুযোগ হয় নাই তার।
                    সে কিছুটা টাশকিত।
                    তবে মাপ চাবার ব্যাপারে আপত্তি আছে মনে হয় না।
                    সময় পেলেই সে এসে মাপ চেয়ে নিবে।


                    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

                    জবাব দিন
            • প্রতীক(২০০৫-২০১১)

              মাহমুদ ভাইয়া,
              এইখানে কারোর সাথে বেয়াদবি করা বা কাউকে হেনস্থা করতে আমি কমেন্ট করিনি।আমার মনে হয়েছে,আপনি অযথাই এই পোস্টকে নিয়ে বিতর্ক করছেন,তাই আমার মত করে প্রতিবাদ করেছি।এই প্রতিবাদের ভাষা আমি যতদূর সম্ভব শালীন ও সিনিয়রদের প্রতি ক্যাডেট কলেজীয় সম্মান রেখেই করার চেষ্টা করেছি।এরপরেও আপনার কাছে এটার ভাষা "বোল্ড" মনে হলে আমি দুঃখিত।তবে,আমার কমেন্টের কন্টেন্ট দ্বারা আমি আমার বক্তব্য দিয়েছি,যেইটার অধিকার এখানে আমার আছে বলে মনে করি।সেই সাথে,ধন্যবাদ সেই সকল ভাইকে,যারা আমার মন্তব্যের সঠিক অর্থ অনুধাবন করতে পেরেছেন।


              যাহা বলিব,সত্য বলিব,সত্য বৈ মিথ্যা বলিব না

              জবাব দিন
      • কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)
        আর বিএনপির সমালোচনার প্যারালালে একটু আওয়ামী সমালোচনাও সেরে নিতে হবে - পাকিস্তান বিদ্বেষের পাশাপাশি ভারতকেও একহাত দেখে নিতে হবে, তবেই না নিরপেক্ষ আর সুশীল থাক্তে পারবো - কি বলো!

        তারেক জিয়ার মতো একটা ঘৃণ্য ইডিয়টকে নিয়ে কথা বলার জন্যেও যদি দলকানা হতে হয়, তবে আমি পুরাই কানা -- দল রং ভঙ নির্বিশেষে।

        :thumbup: নূপুর দা!


        সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

        জবাব দিন
    • মোকাব্বির (৯৮-০৪)

      আচ্ছা আগের কথা বাদ। গঠনমূলক সমালোচনায় আসি (শব্দটায় একটা সুশীল গন্ধ আছে, ভালো লাগে)
      রায়হান রশীদ ভাইয়ের এনালিসিস বাদ দেই। অতীতের সববাদ। সবাই ভালো। সবার দেশ প্রেমে একাকার অবস্থা। ঠিক আছে? এখন একজন সম্ভাব্য দলকান্ডারী ও ভবিষ্যত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ভিডিওটি দেখি। উনার কথার মাঝে একটি কথা হলো ৭২ এর সংবিধান গণআকাঙ্খা বিরোধী। যদি তাই হয় তাহলে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান তখনই সেটা আটকাতে ঝাঁপায় পড়েন নাই কেন? মুক্তিযুদ্ধের একজন সেক্টর কমান্ডারের তো বাকশালের ভয় পাওয়ার কথা না! বাকশাল তো খারাপ। শুধু উনার প্রতিরক্ষায় থাকা বাকশালগুলো খুব ভাল। উনার জন্য জীবন দিয়েছে। যাহ শালা! অতীত টেনে এনে একদম লেজে গোবরে করে দিলাম।

      আচ্ছা থুক্কু আবার অতীত বাদ। সবাই ভালো। হাসি খুশি। সম্প্রতি উনি বললেন যেকোন মূল্যে ধ্বংসযজ্ঞ (থুক্কু অবরোধ) চলবে। বিএনপির ভবিষ্যত কান্ডারীর মুখে বাকশালী চিন্তা ভাবনা। এও সম্ভব? 😕 দুষ্টু পুলাপান এইসব ফোনালাপ আবার বাজারে ছেড়েও দিয়েছে। ~x( চিন্তাভাবনায় কাজে কর্মে ছোটখাট হায়েনার মত এই মানুষটা চাইলেও এই ভাষণে ইতিবাচক কথা বলে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারতেন। করেন নাই। উনি লিখে দেওয়া স্ক্রিপ্ট দেখে চাবি দেওয়া পুতুলের মত কথাগুলো বলে গেলেন। আওয়ামীলীগ খারাপ, খুব খারাপ। খারাপ বলেই আমরা ঘুরে তাকাই বিএনপির দিকে। তাকায় দেখি বৃহত্তর জামাতে ইসলামী (অথবা মায়ের পেটের থলেতে বসে থাকা ক্যাঙারু শাবক) এরপরে আর ঘুরে তাকানো তাকানোর জায়গা নেই। খারাপ আর খুব খারাপের মাঝে কোনটা বেছে নিবেন? কোনটাই না চাইলে নতুন দল খুলেন। সেটাও তো করবেন না।


      \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
      অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

      জবাব দিন
      • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
        খারাপ বলেই আমরা ঘুরে তাকাই বিএনপির দিকে। তাকায় দেখি বৃহত্তর জামাতে ইসলামী (অথবা মায়ের পেটের থলেতে বসে থাকা ক্যাঙারু শাবক) এরপরে আর ঘুরে তাকানো তাকানোর জায়গা নেই।

        জামাতকে নিয়ে আওয়ামীলীগ কি কম রাজনীতি করেছে? এই শাহবাগের গণজাগরণের আগের কয়েকদিনে হানিফ, আশ্রাফুল ইসলাম, আইন প্রতিমন্ত্রীর জামাত-শিবির নিয়ে বক্তব্য স্মরণ করে দেখো ত! আর কাদের মোল্লারা যাবৎজীবনের রায়ের পর বাংলা ব্লগে "আওয়ামী+জামাত আঁতাত" এর সন্দেহ। ভুলে যেতে চাইলেই সব ভুলে যাওয়া যায় না, ভোলানোও যায়না।
        যে সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার "অপব্যবহার" করে শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত ইচ্ছায় (এমনকি সংবিধান সংশোধনের কমিটিতে আওয়ামীলীগের দলীয় সদস্যরাও বিরুদ্ধে ছিল) সংবিধান পরিবর্তন করা গেলেও জামাতকে কেন একই সংসদে বসে নিষিদ্ধ করা যায় না?

        জামাত-শিবিরের দোহাই দিয়ে আওয়ামীলীগের যাবতীয় অন্যায়কে "বৈধ" করার চেষ্টাকেই আমি দলকানা হওয়া বলেছি। প্রাসঙ্গিক একটা লেখা আজকের প্রথম আলো থেকে যুক্ত করা দিলাম- http://www.prothom-alo.com/opinion/article/117142/%E0%A6%9C%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A7%9F%E0%A6%BE%E0%A6%A4_%E0%A6%86%E0%A6%B0_%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%9F_%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%96%E0%A6%BE%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%A8_%E0%A6%A8%E0%A6%BE (সরাসরি লিঙ্ক দিতে পারিনা)

        জামাত আর পাকিস্তানের জুজু-ভয়ের দিন শেষ, এই ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের সাথেই।


        There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

        জবাব দিন
        • মোকাব্বির (৯৮-০৪)

          জ্বী সম্পূর্ণ একমত। এইকারণেই বলেছি আর ঘুরে তাকানোর জায়গা নেই।

          জামাত আর পাকিস্তানের জুজু-ভয়ের দিন শেষ, এই ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের সাথেই।

          কিছু হিন্দু পরিবার লুটপাট, অগ্নিসংযোগ কিংবা কুপিয়ে যাকে খুশি তাকে হত্যা ইত্যাদি আওতামুক্ত! জানি না কোথায় আছেন বা আপনি সমাজের কোন পর্যায়ের মানুষ, পেট্রোল বোমায় দেহ, ব্যক্তিগত গাড়ি যেহেতু পুড়ছে না, চোখের সামনে দোকান, গদিঘর লুটপাটও যেহেতু হচ্ছেনা, সেহেতু ধরে নিচ্ছি আপনার পক্ষে জুজুর ভয়, এবং সাম্প্রদায়িক, কট্টরপন্থী জিহাদী ইসলামী চেতনায় উদ্বুদ্ধ কোমলমতি ছাত্র শিবিরের আক্রমনের পার্থক্য ও মজা বোঝা সম্ভব নয়।

          আওয়ামীলীগ যে পরিমাণ ভুল করেছে এবারে তার প্রত্যেকটার সুযোগ নিতে পারতো বিএনপি। কেন নেয় নাই জানি না। এটুকু জানি কোল থেকে নামে নাই। কোল থেকে নামলেই আশায় বুক বাইধা তাকাইতাম!


          \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
          অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

          জবাব দিন
          • মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

            আমার পক্ষে কি বোঝা সম্ভব আর অসম্ভব সেইটা আপাততঃ তুলে রাখো, আমি ত আর বোমা মারছি না 🙂

            আমি কোন সন্ত্রাসের সাফাই গাইনা, আবার সেই সন্ত্রাসের দোহাই দিয়ে আরেকটা সন্ত্রাসকেও বৈধতা দেই না। কখনো আমার কোন কথায়/লেখায়/মন্তব্যে এরকম পেলে দেখিয়ে দিও, শুধরে নিব।

            আওয়ামীলীগ যে পরিমাণ ভুল করেছে এবারে তার প্রত্যেকটার সুযোগ নিতে পারতো বিএনপি। কেন নেয় নাই জানি না।

            না-জানার কি আছে, বিএনপি'র কি সেই নৈতিক অবস্থা আছে নাকি জনগণের কাছে মুখ দেখাবার, আগের আমলের এতসব কুকর্ম করার পরেও। আর সেই কারণেই ত' তাদেরকে জামাতের মতো কুশক্তির উপর নির্ভর করতে হয়, যেমন এখন আওয়ামীলীগ নির্ভর করছে এককালের স্বৈরাচার এরশাদের উপর। (দয়া করে আবার জামাত আর এরশাদের অপরাধের তুলনামূলক বিচার নিয়ে এসো না)।


            There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

            জবাব দিন
        • দিবস (২০০২-২০০৮)

          মাহমুদ ভাই। ৭১ এর পরেও জামাত নিষিদ্ধ ছিল। পরবর্তীতে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান শহীদ হবার আগেই জামাতের রাজনীতি বৈধ করে দেন। গোলাম আযমকে দেশে ফিরিয়ে আনেন। জিয়া শহীদ হবার পর অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করেন বেগম জিয়া। কোর্টের আদেশে গোলাম আযমের নাগরিকত্ব ফিরে পায়। আর জিয়ার আমলে গোলামপুত্র আজমী সেনাবাহিনীতেও চান্স পায়। (শোনা কথা জয়েনিং ডেট এর একমাস পরে বিএমএ তে জয়েন করছিল আজমী)। দুইবার আই,এস,এস,বি দেওয়ার সুবাদে এতটুকু জানি যে প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হয়। এবং সিলেকশনের ক্ষেত্রে পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড একটা বড় ফ্যাক্টর। তাহলে কিভাবে আজমী সেনাবাহিনীতে ঢুকতে পারল। জামাতের পুনরায় রাজনীতি,গোলামকে ফিরিয়ে আনা, গোলামপুত্রকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মত একটি জায়গায় চান্স পাওয়ার সুযোগ করে দেওয়া, গোলামের নাগরিকত্বের বৈধতা জামাত এই সবই কিন্তু প্রমাণ করে জামাত-বিএনপির প্রেম বলেন আর যাই বলেন সেটা অনেক আগের।

          অপ্রাসঙ্গিক কথাগুলা বললাম আপনার

          যে সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার "অপব্যবহার" করে শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত ইচ্ছায় (এমনকি সংবিধান সংশোধনের কমিটিতে আওয়ামীলীগের দলীয় সদস্যরাও বিরুদ্ধে ছিল) সংবিধান পরিবর্তন করা গেলেও জামাতকে কেন একই সংসদে বসে নিষিদ্ধ করা যায় না?

          কথার ভিত্তিতে।

          দেখা যাবে আওয়ামীলীগ এবার নিষিদ্ধ করে দিবে। বিএনপি এসে পুরানো প্রেমের টানে আবার বৈধতা এনে দিবে। আপনি এই ক্ষেত্রে এই কথাটাও এড়িয়ে গেছেন যে, জামাত দলটির বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের মামলার প্রস্তুতি অনেকটাই এগিয়ে গেছে অনেক বাঁধা এবং আপনাদের সহযোগীতা ছাড়াই। ট্রাইব্যুনালের রায়ে হয়তো একদিন জামাত নিষিদ্ধ হবে। এরপর সর্বোচ্চ আদালত থেকে। তখন বিএনপি চাইলেও আর বৈধতা দিতে পারবে না। আমি নিজে চাই না সংসদ থেকে জামাতকে নিষিদ্ধ করা হোক। আমি চাই সর্বোচ্চ আদালত থেকে নিষিদ্ধ হোক জামাত। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মত যেন আর কেউ সুযোগ না পায় এই দলটিকে বৈধতা দেয়ার।


          হেরে যাব বলে তো স্বপ্ন দেখি নি

          জবাব দিন
  2. হুমায়ুন (২০০২-০৮)

    আমি ২০০২-০৮ সালের কচি একজন এক্সক্যাডেট। বড় ভাইদের আলোচনায় আমি খুব কনফিউজড। আওয়ামীলীগ বাকশাল,বিএনপি জামাতের দোসর,জামাত সাক্ষাত কুত্তার বাচ্চা,জাপা স্বৈরাচারী একনায়ক,কম্যুনিস্টরা নাস্তেক,স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও আগে এই দলগুলোতে ছিল।তাইলে আমি কাকে ভোট দিব?কোথায় আমার গণতন্ত্র? WHERE IS MY VOTE?


    তুমি গেছো
    স্পর্ধা গেছে
    বিনয় এসেছে।

    জবাব দিন
  3. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    যারা এই লেখাকে দলকানা হিসাবে দেখ্বে তাদের জন্য পুরান এক লেখার লিঙ্ক দিলাম।
    ক্লিক করুন।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।