পিলখানা হত্যাকাণ্ডে শহীদ ও নিখোঁজদের তালিকা

বিঃদ্রঃ এই তালিকার অসংগতিগুলো দূর করে শীঘ্রই নতুন তালিকা প্রকাশ করা হবে।

শহীদ

সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা

১. মেঃজেঃ শাকিল আহমেদ (বিডিআর এর ডিরেক্টর জেনারেল)
– ব্রিঃজেঃ এম এ বারী (বিডিআর এর ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল)
– কর্নেল আখতার হোসেন (আরসিসি, ১২/৬৬১/কাসিম হাউস)
– কর্নেল আনিসুজ্জামান
– কর্নেল আফতাবুল ইসলাম (আরসিসি, ৭৭-৮৩, ১৪/৭৮৮) [বাড়ি ফেরা হলো না কর্নেল আফতাবের]
– কর্নেল ইমাম শওকত
– কর্নেল এমদাদুল ইসলাম
– কর্নেল কাজী এমদাদুল হক
– কর্নেল কুদরত এলাহী রহমান শফিক (জেসিসি, ১১তম ব্যাচ)
– কর্নেল এহসান
– কর্নেল জাকির হোসেন (সিসিবি-র সামিয়ার [৯৯-০৫] বাবা, সিসিআর-এর মেডিক্যাল অফিসার ছিলেন) [কর্ণেল জাকির হোসেন], [গুড বাই আংকেল জাকির]
– কর্নেল জাহিদ হোসেন
– কর্নেল নকিবুর রহমান
– কর্নেল নাফিজউদ্দিন আহমেদ
– কর্নেল মশিউর রহমান (জেসিসি, ১১তম ব্যাচ)
– কর্নেল মুজিবুল হক (ইমরান [৯৭-০৩] ভাইয়ের মামা, মুজিবুল হকের বাসার ১২ বছর বয়সী কাজের মেয়েকেও হত্যা করেছে বিডিআর জওয়ানরা)
– কর্নেল কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন
– কর্নেল রেজাউল কবির
– কর্নেল লতিফুর রহমান
– কর্নেল শামসুল আরেফিন আহাম্মেদ
– লেঃকঃ এনায়েতুল হক
– লেঃকঃ এরশাদ
– লেঃকঃ ইনশাদ ইবনে আমীন (এফসিসি, ১৮তম ব্যাচ)
– লেঃকঃ আবু মূসা আইয়ুব কায়সার আহমেদ (এফসিসি, ২২তম ব্যাচ)
– লেঃকঃ গোলাম কিবরিয়া এম নিয়ামতউল্লাহ (এমসিসি, ১২তম ব্যাচ)
– লেঃকঃ (অবঃ) দেলোয়ার হোসেন (সিসিবি-র এহসান [৮৯-৯৫] ভাইয়ের ফুপা)
– লেঃকঃ বদরুল হুদা
– লেঃকঃ লুৎফর রহমান (সিসিবি-র জিহাদের [৯৯-০৫] কাজিন, এমসিসি-র ১৪তম ব্যাচের কলেজ প্রিফেক্ট, এসসিসি-র অ্যাডজুট্যান্ট ছিলেন [৯৭-৯৮])
– লেঃকঃ লুৎফর রহমান খান
– লেঃকঃ সাইফুল ইসলাম
– লেঃকঃ শামসুল আজম
– লেঃকঃ কাজী রবি রহমান
– লেঃকঃ সাজ্জাদুর রহমান
– মেজর আজহারুল ইসলাম
– মেজর আজিজ (আরসিসি, সিসিআর ও এমসিসি-র অ্যাডজুট্যান্ট ছিলেন; উনার ছেলে সিসিআর-এ পড়েন)
– মেজর মোস্তফা আসাদুজ্জামান (বিএমএ ৩৬ লং কোর্স)
– মেজর সৈয়দ মোঃ ইদ্রিস ইকবাল (জেসিসি, ২২তম ব্যাচ)
– মেজর খালিদ হোসেন
– মেজর মমিনুল ইসলাম সরকার
– মেজর মশিউর
– মেজর মাকসুম-উল-হাকিম (আরসিসি, ২০/১১২৫/খালিদ হাউস)
– মেজর এস এম মামুনুর রশীদ
– মেজর মাসুম
– মেজর মাহমুদ হাসান অপু (এফসিসি, ২৬তম ব্যাচ; লাভলু ভাইয়ের [৭৪-৮০] ছোট ভাই ফয়েজ ভাইয়ের কলেজ ব্যাচমেট)
– মেজর মাহমুদুল হাসান
– মেজর মাহবুব (বিসিসি, ৮১-৮৭) [এলোমেলো স্মৃতিগুলো]
– মেজর মাহবুব
– মেজর মিজান
– মেজর মুশতাক আহমেদ
– মেজর মোবাশ্বের (সিসিআর, ৭ম ব্যাচ; ৯৯-০০ এ কক্সবাজারে ডিজিএফআই-এ কর্মরত ছিলেন)
– মেজর মোশাররফ হোসেন
– মেজর কাজী মোসাদ্দেক হোসেন
– মেজর রফিকুল ইসলাম
– মেজর হোসেন সোহেল শাহনেওয়াজ (সিসিআর, ১ম ব্যাচ, ১ম কলেজ প্রিফেক্ট; সিসিবি-র আশিক [৯৬-০২] ভাইয়ের কাজিন, পকক-র রাব্বি [৯২-৯৮] ভাইয়ের বড় ভাই) [মেজর শাহনেওয়াজ স্মরণে……]
– মেজর আবদুস সালাম খান
– মেজর মোঃ সালেহ
– মেজর হায়দার (সিসিসি, ৯১-৯৭) [মাজহার ভাই, হায়দার ভাই………]
– মেজর হুমায়ন (এমসিসি) [একজন হুমায়ুন হায়দার]
– মেজর হুমায়ুন কবির সরকার
– ক্যাপ্টেন মাজহারুল হায়দার (সিসিসি, ৯২-৯৮; নুসরাত জাহান বাঁধনের সঙ্গে তার বিয়ের তিন মাসও হয়নি) [মাজহার ভাই, হায়দার ভাই………] [বন্ধু, সি ইউ এগেন] [বন্ধু…তোমায় মনে পড়ে]
৬৪. ক্যাপ্টেন মাসুদ

বিডিআর এর নন-কমিশন অফিসার ও সৈনিক

– সুবেদার আবুল কাশেম
– নায়েক সুবেদার বছির উদ্দিন
– ল্যান্স নায়েক মানিক
– সহকারী পরিচালক (এডি) খন্দকার আব্দুল আওয়াল

সেনা কর্মকর্তাদের পরিবার-পরিজন ও সিভিলিয়ান

– নাজনীন শাকিল শিপু (ডিজি মেঃজেঃ শাকিলের স্ত্রী, ২৮ তারিখ দুপুড়ে পাওয়া গেছে)
– লাভলী বেগম (দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী, সিসিবি-র এহসান [৮৯-৯৫] ভাইয়ের ফুপি)

নিখোঁজ (অসম্পূর্ণ তালিকা)

– কর্নেল গুলজার উদ্দীন আহমেদ (RAB এর ইন্টেলিজেন্স উইং এর প্রতিষ্ঠাতা ডিরেক্টর)
– লেঃকঃ মঞ্জুর এলাহী
– মেজর কাজী আশরাফ হোসেন
– মেজর আহমেদ আজিজুল হাকিম পলাশ (আরসিসি, ১৪/৭৬৩/তারিক হাউস)
– মেজর আবু সৈয়দ গাজ্জালী দস্তগীর
– মেজর নাজমুল (এফসিসি)
– মেজর মকবুল হোসেন
– মেজর শাহরিয়ার (এফসিসি)
– ক্যাপ্টেন তানভির হায়দার নূর (সিসিসি, ৯১-৯৭)

সূত্র:

Janaza of 7 army officers after Asr prayers – দ্য ডেইলি স্টার
42 more bodies retrieved from BDR headquarters – দ্য ডেইলি স্টার
প্রথম আলোর সূত্রমতে ২০ জনের লাশ সনাক্ত করা হয়েছে
Families wait in tears, shock
3 more mass graves found at BDR HQ, 10 bodies retrieved
Army officers’ janaza held

১৮৩ টি মন্তব্য : “পিলখানা হত্যাকাণ্ডে শহীদ ও নিখোঁজদের তালিকা”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    এই মাত্র নিহতদের তালিকায় লে ক লুৎফর রহমানের নাম চ্যানেল আইতে দেখলাম...
    তবে এক নামে অনেকেই থাকতে পারেন...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
      • জিহাদ (৯৯-০৫)

        আম্মার সাথে কথা হলো। সম্ভবত ঠিকই আছে। মুহাম্মদ, আপডেট করে দাও।

        গত দুইদিন ধরে মনের মধ্যে মেঘ জমে ছিল। আজকে আর পারলাম না। কতদিন পর যে বাচ্চা ছেলের মত কাঁদলাম নিজেও জানিনা। এখন ঠিক আছি। আমার বারবার শুধু ভাইয়ার হাসিখুশি মুখটা মনে পড়ছে।

        ভাবী আর ছোট ছেলেটা টয়লেটে লুকিয়ে ছিল। তারা আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন এখন। আশা করি ভাইয়াও ভাল থাকবেন।


        সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

        জবাব দিন
  2. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)

    মেজর মাহবুব (বকক, ১৯৮১-১৯৮৭) এখনও নিখোঁজ আছেন।
    মেজর গাজ্জালী এখনও নিখোঁজ আছেন বলে জানি।

    ক্যাপ্টেন মাজহারুল হায়দার (ককক, ১৯৯২-১৯৯৮)............।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
    • NADIR (1989-1995)

      আমার শঙ্কা হচ্ছে এই সব পড়তে পড়তে আমরা না আবার সব বোধশক্তি এবং ধৈয্র্ হারিয়ে ফেলি । তানভির আমার খুবই প্রিয় এক ছোটভাই । ৪ বছর একসাথে ছিলাম । আমার হাতে ওর রেজিমেন্টেশন হয় । ভাবী বাচ্চাদের কি খবর ‌‍॥ খুব টেনশন হচ্ছে। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।

      জবাব দিন
  3. কয়েকজনের পরিচয় আরেকটু ডিটেইলস দেয়া যায় কিনা দেখি। মুহাম্মদ মন্তব্যগুলি থেকে নিয়ে আপ-ডেট করে দিস।

    লেঃকঃ লুৎফর রহমান (মকক, ১৪তম ব্যাচ), সিলেটের এডজুট্যান্ট ছিলেন।

    আমরা তাকে পেয়েছি ক্লাস নাইন-টেনে। অসাধারন মানুষ। জিহাদ কে শ্বান্তনা দেবার ভাষা নেই আমার।

    মেজর হায়দার (ককক ৯১-৯৭)

    জবাব দিন
  4. মেহেদী হাসান সুমন (৯৫-০১)

    কর্নেল আফতাব
    পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, তিনি ১৯৮১ সালে রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ থেকে এসএসসি এবং ১৯৮৩ সালে এইচএসসি পাশ করে সেকেন্ড লেফটেনন্ট হিসাবে সেনাবাহিনীতে ঢাকায় যোগদান কেরন।

    জবাব দিন
  5. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    ফৌজদারহাটের ২২তম ব্যাচের যিনি নিহত হয়েছেন তাঁর নাম সিসিবিতে সবাই বলেছেন কায়সার আহমেদ। কিন্তু ডেইলি স্টারের খবরে নামটি আছে Lt Col Abu Musa Md Ayub Kaiser
    এই দুজন কি একই ব্যক্তি? সেক্ষেত্রে কি কায়সার আহমেদ না হয়ে আবু মূসা মু. আইয়ুব কায়সার হবে। নাকি দুজন আলাদা? কেউ জেনে থাকলে জানান।

    জবাব দিন
  6. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    এই মাত্র একটা এসএমএস পেলাম,

    JEXCA casualty at BDR episode:
    1. Col Moshiur, 11th intake
    2. Col Rahman Shafiq, 11th intake

    Lt Col Lutful Kabir, 14th intake could eskape with his family from Bolipara, Ruma, Bandarbans even after 2 raids by BDR Jowans.
    Do pray 4 the departed souls and inform others...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  7. রায়হান রশিদ (৮৬ - ৯০)

    ধন্যবাদ মুহাম্মদ, জরুরী এই তালিকার কাজটা শুরু করার জন্য। মৃত এবং নিরুদ্দেশদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর কাজটা এটা ছাড়া ঠিকভাবে শুরু করা যেত না। এখানে নীচের কয়েকটি দিকেও যদি আমরা সবাই মিলে নজর দিতে পারি, তাহলে মনে হয় একইসাথে আরও কিছু কাজ হয়ে যেতো:

    ১। উল্লেখিত প্রতিটি নামের সাথে তাঁদেরকে যাঁরা ব্যক্তিগত বা পেশাগতভাবে চিনতেন, তাঁরা যদি উদ্যোগ নিয়ে প্রত্যেকের সম্বন্ধে কয়েকটি করে লাইন যুক্ত করে দেন তাঁহলে তাদের চোখ দিয়ে হলেও এই মানুষগুলোকে আরও কাছ থেকে জানতে পারতো সবাই। যেমন: কেমন ছিলেন সেই মানুষটি, কি ধরণের উদ্যোগে সবসময়ই থাকতেন তিনি, বিশেষ কি অবদান তিনি রেখেছেন (যেমন কর্নেল গুলজার এর বিশাল ভূমিকা ছিল জেএমবি দমনে), দু'একটি স্মৃতি। এখানে সব মন্তব্যাকারে টুকরো টুকরো তথ্যগুলো নিয়েই তাহলে সম্পাদিত আকারে পরবর্তীতে সিসিবি হয়তো একটি ই-বুক সংকলন বের করতে পারতো।

    ২। পরিবারের নিখোঁজ অসামরিক সদস্যদেরও একটা তালিকা তৈরী করা দরকার মনে হয়। যাঁরা নির্যাতিত বা লাঞ্ছিত হয়েছেন কোন না কোনভাবে তাদেরও কথা কোথাও কোন ফর্মে তালিকাভূক্ত করা যায় কিনা, সেটা অবশ্য ভেবে দেখার বিষয়।

    ৩। বিডিআর এর যে সব জওয়ানদের মৃতদেহ পাওয়া যাচ্ছে, নাম বের করা গেলে তাদেরও একটা তালিকা মনে হয় রাখাটা জরুরী, পারলে এখানেই। এটা মনে হয় ধরেই নেয়া যায় যে এই সব জওয়ানরা জীবন দিয়েছেন এই হত্যাকান্ডের বিরোধিতা বা প্রতিরোধ করতে গিয়ে। পরিস্থিতির শিকার এঁরাও, সেটা মনে হয় দেশবাসীর ভুলে যাওয়াটা ঠিক হবেনা।

    সবশেষে, কিছু ব্লগে কিছু টকশোতে অনেক ধরণের আলাপ আলোচনা উঠে আসবে এখন। তাতে যে কারোরই আক্ষেপ বা ক্ষোভ হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক, betrayed বা unappreciated ফীল করাও স্বাভাবিক। যাঁরা স্বজন হারিয়েছেন কিংবা এখনো স্বজনের লাশ হাতড়ে বেড়াচ্ছেন, তাঁদের মানসিক অবস্থা যে কি তা মনে হয় স্রেফ ভুক্তভোগী ছাড়া আর কারও পক্ষেই অনুধাবন করা সম্ভব না। কিন্তু এমন সময়ে সবাইকে আহ্বান করবো আরেকটু ধের্য্য ধারণ করার। ক্ষোভের বশে, আবেগের (যথার্থ হলেও) বশে আমরা যদি সত্যিকারের দায়ীদের বা ঘটনার পেছনের শক্তিগুলোকে সুনির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করতে ব্যর্থ হই, তাহলে লাভ কাদের আর ক্ষতি কাদের? সেটা করলে মৃতদের প্রতি দায়িত্ব পালনে আমাদের সামষ্টিক ব্যার্থতাই প্রমাণিত হবে। এটা কোন আর্মি বনাম বিডিআর ইস্যু না, কিংবা সশস্ত্র বাহিনী বনাম জনগণ ইস্যু না। এটা এখন জাতীয় ইস্যু, জনগুরুত্বপূর্ণ, অস্তিত্ব রক্ষার ইস্যু ‌- সারা জাতির জন্য।

    স্থির পরিবেশের শান্তিময় নিরাপত্তায় যৌক্তিক বা rational থাকাটা হয়তো খুব কঠিন না। কিন্তু আক্রান্ত বা আহত অবস্থায় স্থির থাকা সত্যিই অনেক কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জটি শুধু দেশের সার্বভৌমত্বের প্রতীক সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিই ছুঁড়ে দেয়া হয়নি এ ঘটনার মাধ্যমে। ছুঁড়ে দেয়া হয়েছে সারা দেশের প্রতিটি গণতন্ত্রকামী, শান্তিকামী, সহজ সাধারণ decent মানুষের প্রতি। সেটি যেন আমরা না ভুলে যাই। we owe this to the dead and to the living.

    জবাব দিন
    • মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

      রায়হান রশিদ ভাই, আপনার কথাগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ।
      সবার প্রতি অনুরোধ:
      শহীদদের অনেককে নিয়ে বিভিন্ন ব্লগে ও ওয়েবসাইটে লেখা আসছে। সেগুলোর লিংক দেয়ার অনুরোধ রইল। আর শহীদ সম্পর্কে কয়েক লাইনে কিছু লিখতেও পারেন যার মাধ্যমে তার জীবনের একটা বড় দিক আমাদের সামনে ভেসে উঠবে। এই কথাগুলোও নামের সাথে যোগ করে দেয়া হবে।

      সবচেয়ে ভাল হয় যদি ভাল প্রস্তুতি নিয়ে সবাই যার যার পরিচিত ও কাছের জনদের কাছ থেকে জেনে শহীদদের নিয়ে আলাদা ব্লগ লিখেন। সেই লেখাগুলোর লিংক এখানে যোগ করে দেয়া হল। এতে পরবর্তীতে ই-বুক বের করা যাবে। তবে অবশ্যই অনুরোধ করব, পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে তারপর সেরকম লেখা লিখতে, যাতে সেটাতে তার জীবনের কিছুটা হলেও ফুটিয়ে তোলা যায়।

      পরিশেষে আপনার কথার সাথে একমত পোষণ করে বলি:
      we owe this to the dead and to the living.

      জবাব দিন
  8. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    মুহাম্মদ, লুৎফুল কবীর ভাইকে নিঁখোজ দেখিয়েছ কেন???
    উনি পরিবার সহ সহী সালামতে আছেন...

    অফটপিকঃ ঘটনার দোষীদের একটা লিস্ট পেলে ভাল হত...এরপর...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  9. আজীজ হাসান মুন্না (৯১-৯৭)

    Kabir,
    Jonoiko Nayek Shohid-er kotha besh koekbar potro potrikai uthe esheche (see naya Digonto report)...doshider obilombe shonakto kora dorkar...ar thik kotojon shoitan paliye gese etao find out korata khub joruri...specially family-der upor jara torture koreche tader-ke khub joldi chinhito korte hobe..also the killers....ashole amar mathai kaj kortese na...ki je bolbo ..ar likhbo...May Allah help us

    জবাব দিন
  10. ব্লগ অ্যাডজুট্যান্ট...এডু এবং মডু...
    বুক ফাটা কান্নার একটা ইমো চাই।
    অবশ্যই আর একটা ইমো চাই দৃপ্ত অঙ্গীকারের।
    আর যেন অবশ্যই থাকে শহীদ-এর ইমো।
    এবারের মত শেষ রিকোয়েস্ট...
    "কুত্তা-র বাচ্চা"র একটা ইমো যেন কোনমতেই বাদ না যায়

    জবাব দিন
  11. সামীউর (৯৭-০৩)

    লেঃকঃ লুৎফর রহমান (মকক, ১৪তম ব্যাচ)।সিলেটের আ্যডজুটেন্ট ছিলেন। সাদা টি-শার্ট আর ট্রাউজার পরে সকালের পিটিতে ক্যাডেটদের সাথে দৌড়ানো প্রাণবন্ত এই মানুষটি আর নিজের পায়ে দাঁড়াবেন না, শেষ আশ্রয় স্থলে যাবেন তাঁর সহকর্মীদের কাঁধে চড়ে জাতীয় পতাকায় আবৃত হয়ে এটা ভাবতেই চোখ ঝাপসা হয়ে আসছে। স্যারের আত্মা শান্তি পাক।

    জবাব দিন
  12. তৌফিক (৯৬-০২)

    পিলখানায় মাটিচাপা অবস্থায় ডিজিসহ ৪০ সেনা কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার

    আজ বিকেলে বিডিআর সদর দপ্তরের চত্বরের হাসপাতালের পাশে একটি খালি জায়গা থেকে মাটি খুঁড়ে ৩৮ সেনা কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে বিডিআরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদের লাশটিও রয়েছে।

    গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী যে ৩৮ জন কর্মকর্তার লাশ পাওয়া গেছে তাদের মধ্যে ২০ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। যাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছেন কর্ণেল মোয়াজ্জেম, কর্ণেল ইনসাদ, কর্ণেল মশিউর রহমান, কর্ণেল নকিবুল, কর্ণেল রেজা, কর্ণেল ইমাম, ক্যাপ্টেন মাসুদ, লেঃ কর্ণেল এমদাদ, লেঃ কর্ণেল রবি রহমান, লেঃ কর্ণেল লুৎফর রহমান, লেঃ কর্ণেল সাজ্জাদ, লেঃ কর্ণেল এরশাদ, লেঃ কর্ণেল এলাহি, লেঃ কর্ণেল বদরুল মেজর রফিক, মেজর হায়দার, মেজর খালিদ, মেজর মোসাদ্দেক, মেজর শাহনেওয়াজ ও মেজর সালেহ।

    তথ্যসূত্রঃ প্রথম আলো

    আমার জানামতে শাহনেওয়াজ ভাইয়ের আত্নীয়রা তাঁর লাশ এখন পর্যন্ত সনাক্ত করেন নাই। তিনি এখনো নিখোঁজ আছেন।

    জবাব দিন
  13. আশিক (১৯৯৬-২০০২)

    ভাইরে...
    ঘটনা হলো...তিনদিন হয়ে গেছে...লাশ বেশির ভাগই ডিফরমড...

    একজনের লাশ নিয়ে কথা উঠছিল মেজর শাহনেওয়াজের বলে, কিন্তু ঐটা আসলে না সেইটা কনফার্ম করে আসছে উনার ভাই...

    কিন্তু প্রথমআলো যেই তালিকা ছাপাইসে সেখানে মেজর শাহনেওয়াজের নাম আসে...কেউ কেউ বলতেসে, নেমপ্লেট দেখে নাকি অনেক লাশ আইডেন্টিফাই করা হইতেসে...কেউ কেউ বলতেসে নেমপ্লেট নাকি সব মিশে টিশে গেসে...

    উনার সাথে আরো তিনজন নাকি কাজ করত...তাদের কাউকেও এখনো পাওয়া যায় নাই...

    ঘটনার দিন উনারও দরবার হলে থাকার কথা...

    জানি না...

    জবাব দিন
  14. আজীজ হাসান মুন্না (৯১-৯৭)

    Sorry Mod, office-e asi..banglai lekhar babostha nai..karon user permission nai bangla install korar ..but na likhe parsi na..ar koto shojjo korbo ?

    Julhash vai-er lekha pore plus aro koekjon specially Saif-er lekha pore mon khub kharap hoye ase ........BDR premik so called shuorer bacha budhijibider khun korte icha kortese!!!

    It was a pre-planned and indiscriminate merciless holocaust

    No sympathy for those killers who didn't think a bit before commiting these heinous jobs

    The tragedy is all the unverified information of uncertain origin is turning true though we are praying for it not to be!!!

    find those bastards killers who were directly involved
    find those bastards planners who made it happen
    find those bastards looters
    find those bastards rapists

    and then Dear Army, you decide what you wanna do with them!!

    But please do proper investigation, don't do harm to any innocent or loyal and helpful soldiers who rescued lots of Ofiicers lives.

    and finally f**k those so called intellectuals who are still praising the heroic deeds of those bastards inda TV Channel and News media

    I'm not sorry at all to say this

    And our brothers in Army need our moral support...yes we should stand beside them now.

    জবাব দিন
  15. শামস (১৯৯৬-২০০২)

    পরশুদিন রাত ১টায় যখন কনফার্মড একটা মেসেজ পেলাম, মাজহার ভাই ইজ ডেড- গলার কাছে একটা দলা আটকে আছে। কিছুই ভাল লাগছেনা। একের পর এক এই রকম মৃত্যুর খবরে অসুস্থ বোধ করছি। আরো অসুস্থ বোধ করছি কতিপয় শিক্ষিত মানুষদের মতামত দেখে। হে বিধাতা, এদের বোধশক্তি দাও!

    জবাব দিন
  16. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    ইতিমধ্যে শহীদের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৬২ তে। তবে এই ৬২ জনের মধ্যে সবার লাশ সনাক্ত করা যায়নি। যাদের লাশ সনাক্ত করা গেছে তাদের নাম এই তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে। বাকিদের পরিবার-পরিজন এখনও অনিশ্চয়তার মধ্যে দিনযাপন করছেন।
    বিডিআর সদর দফতরের একটি কম্পাউন্ডের গণকবর থেকে ৩৮টি লাশ পাওয়া গিয়েছিল। এছাড়া ড্রেন ও সুয়ারেজ লাইন থেকে আরও ২৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

    এরপর আরও দুটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। কিন্তু এই গণকবর দুটি থেকে কতজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তা এখনও নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি।

    সূত্র: দ্য ডেইলি স্টার

    জবাব দিন
    • মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

      রায়হান আবীরের সাথে ১২ টার সময় কথা হয়েছে। সামিয়ার বাসার সবাই এখনও অনিশ্চয়তার মধ্যে আছে। চ্যানেল ওয়ানে যে "লেঃকঃ জাকির" এর নাম বলা হয়েছে তিনিই "কর্নেল জাকির হোসেন" কি-না সেটা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কিছুক্ষণের মধ্যেই সামিয়ারা ডিএমসি ও সলিমুল্লাহর মর্গে যাবে নিশ্চিত হওয়ার জন্য। আর ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যে কিছু একটা জানা যাবে আশাকরি, আমরা সবাই ভাল খবরের আশায় আছি...

      জবাব দিন
  17. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    গতকাল গণকবর থেকে উদ্ধার করা ৩৩ জন আর্মি অফিসারের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে আজ বিকেল ৩:০০ টায়।
    স্থান: আর্মি স্টেডিয়াম

    এই ৩৩ জনের মধ্যে বিডিআর এর প্রাক্তন ডিজি মেঃজেঃ শাকিল আহমেদও আছেন।
    সূত্র: Janaza of 33 officers at 3pm

    জবাব দিন
  18. জিহাদ (৯৯-০৫)

    মুহাম্মদ, পারলে ছবিটা তুলে দাও । দেখতে খুবই অস্বস্তি লাগছে। একজন মানুষের কষ্টবোধটুকুকে শ্রদ্ধা করে হলেও সেটা করা উচিত।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  19. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    নতুন যে দুটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে সেগুলো থেকে আরও ১০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে আজ সকালে বিডিআর হেড কোয়ার্টার এরিয়া থেকে আরও দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

    সিসিবি-র হিসেব মতে এখন উদ্ধারকৃত শহীদের সংখ্যা ৭৪
    উদ্ধারকাজ চলছে।
    সর্বমোট ১৬৮ জন আর্মি অফিসার শহীদ হওয়ার কথা বলা হয়েছিল। তাদের অনেকের লাশ এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

    জবাব দিন
  20. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    ডিজি মেঃজে শাকিলের স্ত্রী নাজনিন শাকিল শিপুর লাশ পাওয়া গেছে। মিসেস শাকিলের লাশের সাথে আরও নয়টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে গণকবর থেকে।
    এখনও উদ্ধারকার্য চলছে।
    উদ্ধারকৃত ১০ জনের মধ্যে আরও দুজনের লাশ সনাক্ত করা হয়েছে:
    মেজর মকবুল এবং মেজর মোশাররফ।

    জবাব দিন
  21. তৌফিক (৯৬-০২)

    আরেকটা দিন তো চলে যাচ্ছে বাংলাদেশে। নতুন কোন আপডেট আছে? কারও কোন খবর?

    মানুষ বড় অদ্ভুত। আজ প্রায় চারদিন হয়ে যাচ্ছে, মানুষগুলোর খোঁজ নাই। তবু মনের মাঝে ঠিকই আশা উকিঁ দিয়ে যাচ্ছে।

    জবাব দিন
  22. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    মেজর মাহমুদ হাসান অপু বিডিআর সদর দপ্তরে পোস্টেড ছিল। ফৌজদারহাট ২৬তম ব্যাচ। শুক্রবার ৩৯ জনের গণকবর থেকে উদ্ধার হয়েছে ওর মরদেহ।

    জিহাদ: এর নামটা ওপরের তালিকায় দেখলাম না। যোগ করে নিও। আমার ছোট ভাই ফয়েজের কলেজ ব্যাচমেট। ফয়েজ নিশ্চিত করেছে ওর মরদেহ মিলেছে।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  23. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    অবশেষে সেই কষ্টের-যন্ত্রণার খবরটা আমাকে দিতে হচ্ছে। কান্নায় আমার চোখ ঝাপসা হয়ে আছে, তবু আমি লিখছি। কারণ ব্লগের সব ভাই-বোনেরা একটা খবরের আশায় বারবার আমার কাছে জানতে চেয়েছে। আর সামিয়াও আমাকে দায়িত্ব দিয়েছে নির্মম সত্যটা আমি যেন সবাইকে জানিয়ে দিই।

    আমাদের সবার আদরের ছোট্ট বোন সামিয়া তার বাবাকে খুঁজে পেয়েছে। ঢাকা মেডিকেলের মর্গে বিডিআরের মেডিকেল সার্ভিসেস-এর ডিরেক্টর কর্নেল ডা. জাকির হোসেনের মরদেহ সনাক্ত করেছে তার আদরের কন্যা ও স্ত্রী।

    আজ সকালে গণকবর থেকে যে ১০ দশ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়, তাদের মধ্যেই ডা. জাকির ছিলেন।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  24. শরিফ সাগর (৯৭-০৩)

    রকা সিসিআর গ্রুপ মেইল থেকে পাওয়া আরও কিছু তথ্যঃ
    নিখোঁজঃ
    ১। মেজর মোবাশ্বের (৭ম ব্যাচ সিসিআর)
    ২। মেজর আজিজ (এক্স আরসিসি, এক্স এ্যাডজুটেন্ট সিসিআর, ওনার ছেলে এখন
    সিসিআর এ,নিজে আরসিসি-র হলেও ছেলেকে সিসিআর-এ দিছেন কারন ছেলের জন্ম
    সিসিআর ক্যাম্পাসে। আমরা তাকে ক্লাশ সেভেনে পাইছিলাম। খুউবি স্মার্ট এবং অত্যন্ত
    ভাল মানুষ ছিলেন। যদি ভুল শুনে না থাকি তাহলে উনি বি এম এ-তে সোর্ড অব অনার
    পাইছিলেন)

    এখনও নিখোঁজ কর্নেল জাকির সিসিআর এর এক্স-মেডিক্যাল অফিসার ছিলেন । উনিই খুব
    সম্ভবত সামিয়া(৯৯-০৫) -র বাবা।

    জবাব দিন
  25. মেজর মাহবুব (বকক, ৮১-৮৭) কে আইডেন্টিফাই করা হয়েছে। বেক্সকার মেইলে জানতে পারলাম। তাকে শহীদদের লিস্টে নাও। কোনো এক পেপারে পড়েছি লাইবেরিয়া থেকে ফিরে বিডিআর এ জয়েনের প্রথম দিন ছিল তার। আমার চার বছর সিনিয়র ছিলেন কলেজে। শরীয়তুল্লাহ হাউসের গেমস প্রিফেক্ট ছিলেন। জুনিয়রদের খুব হেলপ করতেন। খুব ভাল মানুষ একজন।

    জবাব দিন
  26. অর্চি (৯৯-০৫)

    একটু আগে ক্লাস থেকে এসে শুনলাম, জাকির আঙ্কেলের ডেডবডি DMC তে......ক্লাসমেট রা ওখানে গেছে আমাদের প্রিয় আঙ্কেলকে শেষবারের মত দেখতে...আর আমি এত দুরের দেশে থেকে খালি খবর দেখে গেলাম আর শুনে গেলাম...গলা ফাটায় যে কাদব, তারও উপায় নেই...

    জবাব দিন
  27. আলম (৯৭--০৩)

    মেজর মমিনুল ইসলাম সরকারের স্ত্রী অন্ত্বঃসত্বা। ওনি আমার রুমমেটের পূর্বপরিচিত, সে জানিয়েছে, তাঁর english vocabulary ছিল চমৎকার, তাঁর একটি বাংলা কবিতার বইও প্রকাশ হয়েছিল। তাঁর সম্পর্কে কনফার্মড আরো কিছু তথ্য আমি পরে জানাব।

    নিখোঁজ অনেকের খবর এসেছে এখানে। দু'একটা তথ্য পাওয়া যাবে বলে লিঙ্কটা দিলাম। ছবিতে বোধহয় সামিয়ারা... কী কষ্টের সময় কাটছে যে তাদের!!

    জবাব দিন
  28. জ়ে এম সারোয়ার মুজিব ( এডিসন) (১৯৭৯-১৯৮৫)

    কর্ণেল জাকির হোসেন স্যার আমদের ১১তম এবং ১২ তম ক্লাশে পড়ার সময় (১৯৮৪-৮৫)মেডিকেল অফিসার ছিলেন। যতদূর মনে পড়ে, তিনি তখন ক্যাপ্টেন এবং ওখানেই মেজর র‌্যাঙ্ক পড়েন।ওই সময় কিছুদিন এডজুটেন্ড না থাকার জন্য ভারপ্রাপ্ত এডজুটেন্ডের দায়িত্ন পালন করেন। বিশেষ করে উনাকে চিনি কারন উনি রংপুর মেডিক্যালে পড়ার সময় আমার মামার এক ব্যাচ সিনিয়র ছিলেন। এত সরল সোজা মানুষ ছিলেন যে উনার মতো মানুষ খুব কম দেখা যেত। আমার মামার পরিচিত হওয়াতে উনি আমাকে বিশেষ স্নেহ করতেন।আমি কমিশন পাবার পর ১৯৮৭-৮৮এর দিকে ঢাকা সি এম এইচের সামনে একবারি দেখা হয়। এরপর উনার প্রমোশনের খবর শুনি কিন্তু কোথায় আছেন তা জানতামনা।২৫ তারখে ব্লগে জানতে পারলাম উনি ডি এম এস আর একসাথে আমদের বোন সামিয়ার বাবা। উনার নিঁখোজ সংবাদে সবসময় চোখ রেখেছি। এতোদিন উনার সাথে যোগাযোগ নাই অথচ যখন উনার খবর জানলাম, কেমন আছেন উনি সেতা জিজ্ঞাসা করার সুযোগ নাই। এই কষ্ট আমি কোথায় রাখবো।আজ সারাদিন এজন্য মন খুব অশান্ত ছিল।

    জবাব দিন
  29. জ়ে এম সারোয়ার মুজিব ( এডিসন) (১৯৭৯-১৯৮৫)

    মেজর আজিজ (আরসিসি, সিসিআর-এর অ্যাডজুট্যান্ট ছিলেন) উনি কি ১২ তম লংকোর্সের এবং ইঞ্জিনিয়ার্সের? কেউ কি আমকে বলতে পারবে?

    জবাব দিন
  30. জ়ে এম সারোয়ার মুজিব ( এডিসন) (১৯৭৯-১৯৮৫)

    মেজর শাহনেওয়াজ (সিসিআর, ১ম ব্যাচ)এবং ১ম কলেজ প্রফেক্ট। আমরা যোগদানের কিছুদিন পর উনারা আসেন ৩০ জন। উনার ডাক নাম ছিল পিকু। সবচেয়ে চৌকশ হবার জন্য উনি ১ম কলেজ প্রফেক্ট হিসেবে দায়িত্ন পান।উনি আবার ছিলেন আমার হাউসের(তিতুমির) তাই উঠতে বসতে দেখা হতো উনার সাথে। আমি একটু বোকা প্রকৃতির হবার জন্য উনি আমাকে নিয়ে খুব ফান করতেন।সিসিবিতে ক্যডেট কলেজের দিনগুলু তে ঐসব দিনের কথা লিখার আগেই উনি চলে গেলেন।

    জবাব দিন
  31. জ়ে এম সারোয়ার মুজিব ( এডিসন) (১৯৭৯-১৯৮৫)

    মেজর মোবাশ্বের (সিসিআর, ৭ম ব্যাচ)। আমদের দুই ব্যাচ জুনিয়র আর তিতুমির হাউসের হওয়ার জন্য সবসময় ওদের দেখতাম। ১৯৯৯-২০০০ এ কক্সবাজারে পোষ্টিং থাকার সময় মোবাশ্বের ডিজি এফ আই কক্সবাজারে এ দীর্ঘদিন ধরে ছিল। সবসময় পড়ে থাকতো ১৭ ইসিবিতে। আমদের সেদিন গুলুর স্মৃতি আজ মনে পড়ে।

    জবাব দিন
  32. সামি হক (৯০-৯৬)

    মেজর আজিজ (আমাদের পলাশ ভাই) এমসিসি র এ্যাডজুটেন্ট ও ছিলেন। আমরা যখন এস্কারসনে গিয়েছিলাম এক রাত এমসিসি তে ছিলাম তখন উনাকে ওখানে পাই। ১৪তম ব্যাচের কলেজে উনাকে পাই নাই, আমাদের দেখে প্রথমেই বলেছিলেন এখানকার ক্যাডেটরা আমাকে আজিজ স্যার ডাকে তোমরা আমাকে পলাশ ভাই বলবা। উনার প্রচুর গল্প এমসিসির পোলাপানের কাছে শুনেছি। আমাদের ব্যাচকে প্রায়ই ওদের অফ পিরিয়ডে গ্যালারীতে নিয়ে গল্প করতেন। আমার এখন মনে পড়তেছে খালি উনার সেই হাসি হাসি মুখটা, গলায় একটা সোনার চেইন।

    জবাব দিন
  33. ইফতেখার (১৯৮৪-১৯৯০)

    র.ক.ক. এর বি. ডি. আর. পৈশাচিক হত্যাযজ্ঞের তালিকা:

    ১. মেজর আজিজুল হাকিম পলাশ (১৪/৭৬৩/তারিক হাউস) এখনও নিখোঁজ।
    ২. কর্নেল আফতাবুল ইসলাম, পি. এস. সি. (১৪/৭৮৮), মৃতদেহ পাওয়া গেছে।
    ৩. কর্নেল আখতার হোসেন, পি. এস. সি. (১২/৬৬১/কাসিম হাউস), মৃতদেহ পাওয়া গেছে।
    ৪. মেজর মাকসুম-উল-হাকিম (২০/১১২৫/খালিদ হাউস), মৃতদেহ পাওয়া গেছে।

    ৫. একমাত্র জীবিত কর্নেল আব্দুল মুকিম সরকার (১৫/৮৫৪)।

    বুক ফেটে কান্না আসে। চোখ ঝাপসা হয়ে আসে।

    জবাব দিন
  34. মুহাম্মদ

    মামুন রশিদ ভাইয়ের 'ওহ ক্যাপ্টেন ! মাই ক্যাপ্টেন !' লেখাটায় এবং এই পোস্টের মন্তব্যে অনেক সেনা কর্মকর্তার এক্স-ক্যাডেট পরিচয় এসেছে। একটু কষ্ট করে আপডেট করে দিবি ?

    জবাব দিন
  35. ত্রিমিতা (৯৬-০০)

    নিখোজ এর লিস্ট থেকে আরো দুজনকে পাওয়া গেলোঃ

    ১। কর্নেল গুলজার উদ্দীন আহমেদ (RAB এর ইন্টেলিজেন্স উইং এর প্রতিষ্ঠাতা ডিরেক্টর)
    //bdnews24.com/details.php?id=77402&cid=2

    ২। লেঃকঃ গোলাম কিবরিয়া এম নিয়ামতউল্লাহ (এমসিসি, ১২তম ব্যাচ)
    //www.thedailystar.net/newDesign/latest_news.php?nid=15329

    জবাব দিন
  36. ইফতেখার (১৯৮৪-১৯৯০)

    সর্বমোট ২০ জন এক্স-ক্যাডেটের তালিকা এ পর্যন্ত পেয়েছি, জে. সি. সি এর ক্যাপ্টেন আরিফ এর নাম দেখছি না।

    মুহম্মদ, জে. সি. সি এর কারো নিকট নিশ্চিত করবে?

    জবাব দিন
  37. ত্রিমিতা (৯৬-০০)

    এখন খবর পড়লাম, ৭২ জন না, ৭ জন নিখোঁজঃ

    1. Col Gulzar Uddin Ahmed
    2. Lt Col Manzur Elahi
    3. Major Abu Sayed Gazzali Dastgir
    4. Major Ahmed Azizul Hakim
    5. Major Kazi ashraf Hossain
    6. Major Makbul Hossain
    7. Captain Tanvir Haider Noor

    Source: //bdnews24.com/details.php?cid=2&id=77662&hb=top

    আজিব ব্যাপার, ওইদিনই এইখানে পড়লাম Col Gulzar এর dead body পাওয়া গেছে। খবরের কাগজগুলার কোন ঠিকঠিকানা নাই।

    জবাব দিন
    • মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

      আমাদের নিখোঁজের তালিকায় ৯ জনের নাম আছে। কেউ একজন এফসিসির মেজর নাজমুল এবং মেজর শাহরিয়ার নিখোঁজ আছে বলে জানিয়েছিলেন। এই দুজনের নাম সেনা সদর জানায়নি। এ দুজন বাদ দিলে এখানেও ৭ জন হয়ে যায়। ইনাদের ব্যাপারে কেউ কি নিশ্চিত করতে পারবেন?

      আর শহীদের তালিকা তো কিছুতেই মেরানো যাচ্ছে না। কিছু নাম হয়ত দুই বার এসেছে, কিছু নাম হয়ত ভুলে চলে এসেছে।

      জবাব দিন
  38. শওকত (৭৯-৮৫)

    অন্তত এই ক্ষেত্রে সংবাদ পত্রের কোনো দোষ নেই। সেনা সদর থেকেই আগে বলা হয়েছিল ৭১ জনের কথা। আর কার কার লাশ পাওয়া গেছে সেটিও তাদের বলা। ভুল করলে তারাই করেছে।

    জবাব দিন
  39. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    বিভ্রান্তিতে পড়ে গেছি। সেনা সদর থেকে বলা হচ্ছে ৫৪ (স্ত্রী দুজন ছাড়া) জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু আমার তালিকায় অলরেডি ৬৪ হয়ে গেছে। কোথাও সমস্যা হয়েছে।
    আর নিখোঁজের তালিকায়ও সমস্যা আছে। কারণ ডেইলি স্টার বলছে মেজর মকবুল হোসেনের জানাজা আজ সকালে হয়ে গেছে। তিনি এখনও নিখোঁজ থাকেন কিভাবে?
    কিছুই মেলাতে পারছি না। একটু সময় লাগবে।

    জবাব দিন
  40. এটা ছিলো আমার এবং আমার সাথের বাকি ৫২৭ জন নব সৈনিক এর জীবনের একটা নির্মম দিন আমরা কেউ এক রাউন্ড গুলিও করি নাই। তবে আমরা কেনো সাজা পেলাম সরকার কি পারবে জবাব দিতে যদি সরকার আমাদের কোন অপরাধ দেখাতে পারে হাসি মুখে গলায় ফাঁশির রশ্মি পড়ে নেবো। আমরা সরকার কে ওপেন চেলেঞ্জ করলাম আমাদের অপরাধ প্রমান করুক,না হয় আমাদের জীননটা কেনো ধংস করলো তার জবাব দিক----ছিঁ ধিক্কার আমাদের নিজেদের প্রতি কেনো এই দেশে জন্মালাম

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।