এলো রমযান (আয়া রমাদান)

এই লেখাটা লাষ্ট রোযায় লিখছিলাম। 
আরে এক বছর হয়ে গেলো হুমায়ুন আহমেদ নাই।

কিছুক্ষণ আগে সেহেরী/ সাহরী খাইয়া আসলাম।
ইয়েস ব্রাদার এন্ড সিস্টার আমি মাহে রমাদানের সাওম পালন করিবো। আহারের সময় অবশ্য ডকিন্স সাহেবের ভিডিও দেখছিলাম। সাওম পালনের আগেই হালকা কইরা ফেললাম কি? ডকিন্স সাহেবের ভিডিও। আমি দিলাম বাংলাদেশের বিজ্ঞান সাধকদের জন্য।
Dawkins_at_UT_Austin

ঐইটা দেখার পর আরেকটা দেখলাম।  এইটা দিলাম এই কারণে যে ডকিন্স সাহেব নিজেরে অজ্ঞেয়বাদী বলেছেন।  আমি মহাখুশি।
আরেক ভদ্রলোক আছেন প্রফেসর ব্র্যায়ান কক্স। এতো সুন্দর আর প্রাঞ্জল করে বিজ্ঞান নিয়ে কথা বলেন যে কি বলবো! এমনকি আমার মতো মানবিক আর ব্যাবসায় পড়া ছেলের (বুড়া) ও বুঝতে সমস্যা হয় না। একটা নমুনা দিয়ে দিলাম।
Brian_Cox

 

একটা ভয়াবহ খবর শেয়ার দিচ্ছি। ঘোড়া সংক্রান্ত
কি কিছু বুঝা যায়?
horseskull

 

পাকিস্থান আমলে নজরুলের গান-কবিতা ইসলামীকরণ করা হইছিলো।
কোনদিন হয়তো শোনা যাবে, এবার ঈদেও শোনা যেতে পারে…
“রামাদানকে সাওমকে বাদ আয়া খুশিকা ঈদ।”

শেষকথাঃ অমুসলিম থিকা মুসলমান হইলে ঠিক আছে। কিন্তু মুসলমান যদি সেকেন্ড টাইম খৎনা করাইতে যায় তাইলে বিপদ। 

৭৯০ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “এলো রমযান (আয়া রমাদান)”

  1. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    প্রফেসর ডকিন্সের আল জাজিরার সাথে একটা ইন্টারভিউ আছে। যারা দেখেছেন তো দেখেছেন আর যারা দেখেন নাই তাদের জন্য


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।