পৃথিবী

 

Screen Shot 2014-07-30 at 16.55.58

পৃথিবী প্রায় ৪ বিলিয়ন বছর পুরোনো।
আর আমরা বা মনুষ্য প্রজাতি এর পৃষ্ঠে চড়ে বেড়াচ্ছে প্রায় ২০০ হাজার বছর ধরে।
অন্যান্য হাজার হাজার প্রজাতিকে পিছে ফেলে আমরাই এখন এই পৃথিবীর বিধাতা। জ্ঞান-বিজ্ঞানের রথে চেড়ে শনৈ শনৈ এগিয়ে চলছে সভ্যতা।
কিন্তু আসলেই কি আমরা এগুচ্ছি?
নাকি ক্রমশঃ এগিয়ে চলছি ধবংসের দিকে?

Screen Shot 2014-07-30 at 16.56.40

ফ্যাক্ট ০১

Screen Shot 2014-07-30 at 17.09.38

Screen Shot 2014-07-30 at 17.09.49

Screen Shot 2014-07-30 at 17.09.53

 

ফ্যাক্ট ০২

Screen Shot 2014-07-30 at 16.39.47

Screen Shot 2014-07-30 at 17.10.13

 

ফ্যাক্ট ০৩

Screen Shot 2014-07-30 at 16.40.05

Screen Shot 2014-07-30 at 17.10.33

 

ফ্যাক্ট ০৪

Screen Shot 2014-07-30 at 16.41.15

Screen Shot 2014-07-30 at 16.17.58

Screen Shot 2014-07-30 at 16.18.08

Screen Shot 2014-07-30 at 16.40.37

 

ফ্যাক্ট ০৫

Screen Shot 2014-07-30 at 16.41.32

Screen Shot 2014-07-30 at 17.11.11

 

ফ্যাক্ট ০৬

Screen Shot 2014-07-30 at 16.41.53

Screen Shot 2014-07-30 at 17.11.28

 

ফ্যাক্ট ০৭

Screen Shot 2014-07-30 at 16.42.11

Screen Shot 2014-07-30 at 17.11.45

 

ফ্যাক্ট ০৮

Screen Shot 2014-07-30 at 16.42.27

Screen Shot 2014-07-30 at 17.12.07

 

 

ফ্যাক্ট ০৯

Screen Shot 2014-07-30 at 16.42.47

Screen Shot 2014-07-30 at 17.12.24

 

ফ্যাক্ট ১০

Screen Shot 2014-07-30 at 16.43.04

Screen Shot 2014-07-30 at 17.12.39

 

ফ্যাক্ট ১১

Screen Shot 2014-07-30 at 16.43.24

Screen Shot 2014-07-30 at 17.12.58

 

ফ্যাক্ট ১২

Screen Shot 2014-07-30 at 16.43.40

Screen Shot 2014-07-30 at 17.13.24

Screen Shot 2014-07-30 at 17.13.18

Screen Shot 2014-07-30 at 16.31.13

 

তাহলে এখন আমরা কি করবো???
???
???
???

Screen Shot 2014-07-30 at 17.15.08আমাদের কি ছিলো আমরা কি হারিয়েছি সেদিকে না বৃথা সময় দিয়ে বরং আজ এখনো আমাদের যা কিছু আছে এবং কিভাবে তা থেকে আরো সমৃদ্ধি আনা যায়, কিভাবে একসাথে এগিয়ে যাওয়া যায় সেই লক্ষ্যে সবাইকে একসাথে কাজ করে যেতে হবে।Screen Shot 2014-07-30 at 17.16.12Screen Shot 2014-07-30 at 17.16.17
সূত্রঃ বিবিসি ৪

১,২৭৮ বার দেখা হয়েছে

৮ টি মন্তব্য : “পৃথিবী”

  1. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    অনেক কিছু বলতে চাইতেসিলাম। নিজের পড়াশোনার লাইনের জিনিস। কিন্তু কই থেইকা যে শুরু করবো বুইঝা পাইলাম না। বিজ্ঞানীরা ৫০ বছরের এস্টিমেট দেয়। আমার হিসাবে ৫০ বছর না আগামী ২০-২৫ বছর বাঁইচা থাকলেই এমন কিছু দেইখা যাইতে হবে যেগুলা নিজেদের ধ্বংস করার আলামত মতান্তরে কেয়ামতের আলামত হিসাবে গন্য হবে। কিন্তু ঘটনাগুলা এত ধীরে ধীরে হবে যে ক্রনোলজিকালী তুলনা না করলে বোঝা যাবে না। ক্লাইমেট ডিনায়াররা সবসময় কয় কই তাপমাত্রা তো বাড়ে না। এইবার বেশী ঠান্ডা পড়সে। কিন্তু ১৯০০ সালের তাপমাত্রার সাথে তুলনা দিলে চান্দি গরম হওয়া শুরু হইতে বাধ্য। যাই হোক আপাতত যা বললেন তার সাথে গলা মেলাই (যদিও আমার মনে হয় না মনুষ্য জাতির পক্ষে বৈশ্বিক ও একতাবদ্ধভাবে কিছু করা সম্ভব। করলে আরো আগেই শুরু হতো)

    its up to us to write what happens next...together


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।