আখেরি আবজাব…

০১. দুপুরে রেস্ট টাইমে রুম ক্রিকেট চলাকালে হঠাৎই কলেজ ডিউটি মাস্টার এর আগমনে সবাই যে যেভাবে পারলো লুকিয়ে পড়ছে। কেউ ঘুমের ভান করে পড়ে আছে, কেউ সাবান নিয়ে ঢুলু ঢুলু চোখ বানিয়ে টয়লেটের দিকে রওনা দিয়েছে। শুধু হোসেন নামাযে দাঁড়িয়েছে। এবং সে’ই ধরা পড়লো শুধু। বেচারা তাড়াহুড়ায় স্লিপিং শার্টের সাথে হাফপ্যান্ট পড়ে বেশ মনোযোগ দিয়ে মুনাজাত করছিলো।

০২. মাগরিবের নামায শেষে ইভনিং প্রেপে যাওয়ার জন্য হাউসের সিড়ির সামনে এসে ডিউটি ক্যাডেটের খুব খুব জোরে জোরে হুইসেল দিচ্ছে। ঐ সময় সিড়ি দিয়ে অ্যাসিস্টেন হাউস প্রিফেক্ট উঠছিলেন। তো হুইসেলের তীব্রতা‌য় কানে তালা লেগে যাওয়ায় বলে উঠলেন, ইউ ব্লাডি শীট, আস্তে হুইসেল দিতে পারোনা?? ৭ দিন এক্সট্রা ডিউটি ক্যাডেট থাকবা টানা!
সপ্তমদিন পানিশমেন্ট শেষ হওয়ার দিন একই জায়গায় একই ভাবে দুজনের মোলাকাত, এবার বেচারা ডিউটি ক্যাডেট বেশ তমিজের সাথে মোলায়েম ভাবে হুইসেল দিতেই অ্যাসিস্টেন হাউস প্রিফেক সাউট করলেন, ইউ, ফা*ন অ্যা*হোল, পেটে বাতাস নাইইই?? ৭ দিন এক্সট্রা ডিউটি ক্যাডেট কন্টিনিউ করবা!!

০৩. ইসলামিয়াতের মিডটার্ম পরীক্ষার খাতা ক্লাশে বসেই দেখছেন যত কেজি তত নাম্বার মতাদর্শে বিশ্বাসী জনৈক স্যার। ধর্ম পরীক্ষার খাতা হওয়ায় ক্লাশের একমাত্র বৌদ্ধ ক্যাডেটের খাতাও বান্ডিলে ছিলো। দেখতে দেখতে এক পর্যায়ে তিনি সেই খাতাটাও মার্কিং শুরু করলেন। তখন তার ডায়লাগ, “বাহ্, ছেলেটাতো বেশ ফাইন লিখেছে [প্রশ্নের ভিন্নতার কারণে ওর খাতাটা পোয়াখানেক বেশি ওজনের ছিল] তার উপর বৌদ্ধ কোটেশনও দেখি দিছে অনেকগুলা!! মাশাল্লাহ॥”

০৪‌. একই স্যার একবার টের পেলেন ক্যাডেটরা ক্লাশে তার খাতার ওজন মোতাবেক নাম্বার দেয়া নিয়ে হাসাহাসি করছে।
সেইবার ইসলামিয়াত পরীক্ষা‌‌য় গণহারে সবাই ফেল করলো। হাতে গোণা যে দুয়েকজন পাশ করলো তারা ঘুম এসে যাওয়ায় পুরোটা উত্তর না দিয়েই বেরিয়ে গিয়েছিলো।

০৫. ফিজিক্সের মান্নান স্যার সবসময়ই বেশ মজা করতেন, সেটা শাস্তি দেবার সময়হলেও। একদিন কি কারণে যেন তিনি এক জনের কান টেনে ধরলেন বেশ জোরে। ব্যথা‌র চোটে ওই ক্যাডেট “স্যার স্যার স্যার” বলে চেচাতে লাগলে তিনি আরো জোরে কান মলতে মলতে বলতে লাগলেন, কত বড় সাহস আমারে তুই করে বলে! বল , ছাড়েন, ছাড়েন।

০৬. কৃষি শিক্ষা ক্লাশে গরু ছাগলের আকার/প্রকার সহ বিভিন্ন বিষয়াদি পড়ানো হচ্ছে। এ সময় ব্যাক বেন্চারদের মধ্যে নানাবিধ আলোচনার সময় রনি হঠাৎ দীর্ঘশ্বাস ফেলে বললো, দ্যাখছস গরুদের কত মজা! পাশের জন বলে ক্যান কি হইছে! রনির হাহাকারের ভাষায় উত্তর, মানুষ দুইটা পাইলেও গরুর চাইরটা **।

০৭. জুয়োলজি মিডটার্ম পরীক্ষায় হাসান ০ পেয়েছে। সবাই অবাক। পরে দেখা গেলো ব্যাঙএর প্রজননতন্ত্রের বিভিন্ন অংশের পরিচয় লেখার সময় সে লিখেছে “একটা ব্যাঙ আরেকটা ব্যাঙ’কে করতে যে যে অংশ ব্যবহার করে……..”!!!

ডিসক্লেইমার : কয়েকটা হালকা সেইরকম হয়ে যাওয়ায় এবং এবারেরটি মোটেও ভালো না হওয়ায় আবজাব আখেরি হয়ে গেলো। কোনো আপত্তিকর কিছু থাকলে এডু কিংবা অথোরিটি সাথে সাথে লেখাটা সিসিবি আউট করে দিবেন। 😉

২,৮৮২ বার দেখা হয়েছে

৩৪ টি মন্তব্য : “আখেরি আবজাব…”

  1. আহ্সান (৮৮-৯৪)

    ফৌজি,

    জটিল হইছে। হাসতে হাসতে এক্কেবারে গড়াগড়ি অবস্থা...। =))
    কিন্তু শেষে আইসা এইটা কি লিখলা?
    শোন, নাটকের বাকের ভাইয়ের ফাসি ঠেকানোর জন্য বাস্তবের জনতা রাজপথে নেমেছিল মিছিল করতে। আর তুমি কিনা বাস্তব ঘটনাগুলিরে জনতার সামনে আনতে কাইকুই করতেছ? জনতা জেগে উঠলে কিন্তু খবর আছে...। এখনো সময় আছে কথা ফিরাও আর অচিরেই এটার ৩য় পর্ব আসছে বলে ঘোষনা দাও।

    জনতারা কি বলেন?

    জবাব দিন
  2. ১.
    ডিসক্লেইমার টা একটুও মজা হয় নাই। ওইটা তুইলা নেওয়ার জোর দাবি জানাই। সবাই আমার সঙ্গে জোরে বলেন 'আবজাব আরো চাই, ডিসক্লেইমার-এর বেইল নাই'।
    ২.
    হাসতে হাসতে বরবাদ হইয়া গেলাম। =)) =)) কোনটা রাইখা কোনটার কথা কই। :)) :))
    ৩.
    হালকা সেইরকম গুলি পুরা ঘন হইছে। আরো ঘন ঘন চাই। 😉 😉

    জবাব দিন
  3. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)

    উপর থেকে নিচের দিকে পড়ে আসতে আসতে হাসির পারদ 😀 চড়ছিল তো :)) চড়ছিলই।
    শেষেরটায় এসে পারদ এক্সপ্যান্ড করে হাসির থার্মোমিটার একদম ফাইট্টা =)) =)) গেছে!
    নতুন একটা কিনতে হবে 😛 ।

    “একটা ব্যাঙ আরেকটা ব্যাঙ’কে করতে যে যে অংশ ব্যবহার করে……..”!!!

    মামা, বেশি জোস হইছে।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  4. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    আহ্সান ভাই
    কামরুল
    মাসরুফ
    রবিন
    সায়েদ দোস্ত
    টিটো
    মুহাম্মদ
    তারেক

    সবাইরে থ্যান্কু কষ্ট কইরা পড়নের লাইগা।
    কমেন্ট মারতেও ভালো টাইম নিতাসে ইদানিং। পোলাপাইনগুলার পরীক্ষা শেষ হওনের লগে লগে কামলা খাটতে বসায়া দিতে হইবো 😉

    আর, আরো লাখ লাখ আবজাব মসল্লা থাকনের পরও ফর্মে থাকতে থাকতেই অবসর নিয়া নিলাম। [যদিও এইডা নিজের বানানো ফর্ম 😕 ]


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  5. টিটো রহমান (৯৪-০০)

    😮 ইয়ে.. আখেরী আবজাব ক্যা হোতা হে 😮

    এইটা আখেরি আবজাব হইলে কইলাম পাপ লাইগা যাইব।তখন আপনের আখেরী আজাব কেউ ঠেকাইতে পারবোনা


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
  6. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    ফৌজিয়ান ভাই, সুপারম্যান রিটার্ন করতাছে...আর আপনি আবজাব রিটার্ন করবার চান না...ইনসাফ আসলেই উইঠা গেছে... :bash:

    আবজাব না আনেন, আখেরি আবজাব ১ ২ ৩ ৪...কইরা চালান... :-B
    পিলিজ... :((


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।