একজন নগর পরিব্রাজক

এক.
একটা জিনিস আমি অনেক আগে থেকেই খেয়াল করে দেখেছি, সেটা হল, বডি পার্টসের কথা না শুনা। মানে আমি যেটা করতে চাই বা চাই না, আমার কিছু বেয়াদব অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ঠিক তার উল্টাটা করে। ধর্মে নাকি আছে শেষ বিচারে এইসব বডি পার্টস তাদের দ্বারা সংঘটিত ঘটনা নিজেরাই বর্ণনা করবে নালিশ হিসেবে। ব্যাপারটা আমার জন্য প্রবল হতাশার হবে কোন সন্দেহ নাই। কারণ একটা জিনিস আমি করতে চাইছিনা, কিন্তু বেয়ারা কোন পার্টস সিনিয়রের আদেশ এবং ইচ্ছা দুটোকেই বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে সেই ঘটনাটি ঘটিয়ে আমার নির্দোষ অন্য কোন পার্টসকে বাটে ফেলবে এটি সরল ভাবে মেনে নিতে আমার ব্যাপক আপত্তি আছে।

কলেজে যেটি নিয়মিতই ঘটতো। পিন ড্রপ সাইলেন্স থাকার চূড়ান্ত আদেশ কান দ্বারা মাথায় পৌছুনোর ঠিক সাথে সাথে মুখ এবং ঠোট একসাথে বিট্রে করে বসলো। পরিণাম নিম্নাঞ্চলের এক অবোধ এবং পুরো ঘটনাতেই নির্দোষ অংশের ব্যাপক বেত্রা এবং বেল্টা উভয় ঘাতের শিকার হওয়া। তবে একদিক থেকে এখনো দুর্ভাগা হইনি। কোন বেয়াদব পার্ট অযাচিত ভাবে এখনো সামাজিক জীবনের জন্য বিপজ্জনক টাইপ কোন বাটে ফেলতে পারেনি অন্য অনেকের মত। সবসময়ই যে ব্যাপারটা শুধু নেগেটিভ হয় তা কিন্তু নয়, মাঝে মাঝে বেশ মজাদার অভিজ্ঞতাও এনে দেয়। দেখি ছয়মাস পরের পরবর্তী ব্লগে এটি নিয়ে একটি বিশদ গোল টেবিল আলোচনার আয়োজন করা যায় কিনা।

দুই.
অন্যদেরকে টিজ করি বা ক্রমাগত কারো কোন কিছু নিয়ে হাসাহাসি করি এরকম অনেক কিছু নিয়তির চিপায় পড়ে নিজের লাইফেই মাঝে মাঝে ঢুকে যায়। কলেজে আমাদের একজন এস্টোনিশড কে বিদ্ঘুটে একটা টান সহ এস্টোনাইইইজড বলত। আমরাও যথারীতি বেচারাকে এটি নিয়ে ব্যাপক উৎপাত করতাম। কিন্তু শেষ রক্ষা হলোনা। ধর্মের কল বাতাসের সাথে সাথে ঠিক ঠিক মুভমেন্ট শুরু করলো। ভার্সিটি লাইফের সর্বশেষ প্রজেক্ট থিসিসের জ্যুরিতে আমি একগাদা জ্যুরার এবং শখানেক পোলাপানের সামনে ব্যাপক ভাবের সাথে কী একটা বোঝাতে গিয়ে বলে উঠলাম, আমি সিম্পলী এস্টোনাইইইজড। হেড জ্যুরার চেষ্টা করছিলেন আমি ফাজলামি করছি কী না এটি বুঝতে। ভাগ্যিস বেয়ারা কোন পার্টস তখন বিট্রে করেনি। কিন্তু ঠিক ঠিক টের পাচ্ছিলাম, পুরো জ্যুরি রুম এস্টোনাইইইজড অবস্থায় আছে।

তিন.
ঠিক একই ভাবে কিছু কিছু সিসিবি টার্ম দৈনন্দিন জীবনের সাথে জড়ানো শুরু করলো। সেদিন আমাদের অফিসে কানাডিয়ান এক লাম্বার ব্যাবসায়ীর সাথে মিটিং এ গিয়ে একটা ঘটনা ঘটিয়ে ফেললাম। সেই লোক নর্থ এমেরিকান টোনে আমাদের ডিজাইন নিয়ে কী জানি একটা মন্তব্য করলো। এর সম্পূরক মন্তব্যের আশায় এম ডি সহ সবাই যখন আমার দিকে উদ্দেশ্যমূলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে তখন আমি বাকিদের মাথায় মেঘ না চাইতে ঠাডা পড়ার অবস্থা সৃষ্টি করে বললাম,

চার.
আবার অফিসিয়াল মিটিং এবং আবার সিসিবি’র প্রভাব। একই ধরণের আরেকটি মিটিং এ এক কলিগ বিভিন্ন আলোচনা করছেন তার ডিপার্টমেন্ট সম্পর্কে। শেষের দিকে এসে আমার মনোযোগ আকর্ষণ করে বললেন, কী বলেন কাইয়ূম ভাই! কী ভাবলাম কে জানে, আমি ব্যাটাকে জিজ্ঞেস করে বসলাম, আচ্ছা আপ্নে কি ৯৪ সালে ক্লাস সেভেনে পড়তেন!

পাঁচ.
নিউ মার্কেটে গেলাম আমাদের তাসফিনের সাথে। ব্যাগ না কি যেন কিনবে ও আর আমাকে লাসসি খাওয়াবে। গাউছিয়ার সামনে দিয়ে হেটে আসছি, চোখের কোণা দিয়ে দেখলাম সেরকম একটি মেয়ে কী যেন কেনার জন্য কথা বার্তা বলছে সেলস ম্যান ছেলেটার সাথে। যথারীতি আমি না চাইলেও আমার বেয়াদব চোখ এবং কান বিট্রে করে বসলো আমার সাথে। আস্তে আস্তে হাটছি আর শুনছি। মেয়েটা বলছে আচ্ছা এই ড্রেস টা দিয়া কী দেখা যাবে নাকি! বিক্রেতা ছেলেটা কিছুই বুঝেনি মনে হয়। জ্বি আপা জ্বি আপা বলতে বলতে আরেকটা ড্রেস বের করার কায়দা করছে। মেয়েটা আবার জিজ্ঞেস করলো, আচ্ছা এইটা পড়লে কি দেখা যাবে কিছু? পোলাটা মনে হইলো তখনো কিছু বুঝেনাই। মেয়েটা এইবার মরিয়া, আচ্ছা এইটা দিয়া কি বডি দেখা যাবে নাকি!! এইবার সেলস্ম্যান খাবি খেলো। ছি ছি আপা কী বলেন, না না, একদমই না।
ও, তাইলে এইটা নিবনা।

——————————————————————————————-
[লেখার ক্ষেত্রে সিমেস্টার সিস্টেম মেনে চলছি, বছরে দুইটা। আশা করি নগর পরিব্রাজকের পরবর্তী রিপোর্ট একেবারে দুইহাজার দশে এনে দিতে পারবো। টাইটেল নিয়েছি আমাদের বাংলাদেশি ছেলে তুহিনের জার্মান ব্যান্ড ত্রিকাল’এর প্রথম এল্বামের টাইটেল থেকে। সমকালীন সিসিবি ধারায় পোস্টের সাথে গান যুক্ত করবো নেক্সট ইয়ার, এনশাল্লাহ ]

৯,৪২৭ বার দেখা হয়েছে

১৮৩ টি মন্তব্য : “একজন নগর পরিব্রাজক”

  1. আন্দালিব (৯৬-০২)

    ইলেক্ট্রনিক্স পড়াইতে আইসা স্যারে কইলো সেমাই কনডাকটর নাকি এই করে সেই করে। আমরা দুপুরবেলাতে ক্লাসে বইসা হাসির বোমা পেটে নিয়া রইলাম। সেই বোমাডা ফাটলো ৫ বছর পরে। ক্লাস নিতে গিয়া আমি বইলা বসলাম সেমাই কনডাকটরের ইত্যাদি ইত্যাদি... 🙁 😕

    জবাব দিন
  2. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    বস
    পাঁচ নাম্বারের মেয়েটা দেখতে ক্যামন ছিলো? ফিগার ক্যামন? 😛


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  3. রকিব (০১-০৭)

    দুইবার আইসা ঘুইরা গেছি, মনে করছি সার্ভার এরর হইছে। শেষে না পাইরা ঢুইকাই পড়লাম, না এইবার শিউর; সার্ভারটারে ভাইরাসেই খাইছে। :bash: কার না কার পুষ্টে কাইয়ূম ভাইয়ের নাম দেখাইতেছে। :-B ক্যাডা কাইয়ূম ভাইনি?
    অফটপিকঃ কাইয়ূম ভাই বস, বেশি বস, চ্রম বস, সুপার্ব :goragori: ।
    ৫ নাম্বারটা পইড়া বুঝলাম, কাইয়ূম ভাইয়েরও তিন প্রহরের বিল দেখতে যাওয়া সুনিশ্চিত।


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  4. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    জটিল দোস্ত ...... বিয়াপক ... :)) :)) :))
    দোস্ত চাকরী করতেসিস, এখন সেমিস্টার সিস্টেমের মধ্যে থাকলে চলবে ??? তোর বেতন যদি সেমিস্টার সিস্টেমে দেয়, তাইলে তোর কেমন লাগবে ??

    জবাব দিন
  5. তানভীর (৯৪-০০)

    😮 😮 😮
    ক্যাডা, কাইয়ূম ভাই নাকি?
    আমি স্বপ্ন দেখতেছি না তো? অবশ্য আমার স্বপ্নেও কাইয়ূম ভাইকে লেখা দিতে দেখা যায় না!

    বস্‌! উড়াধুরা হইছে লেখাটা... :boss: :boss:
    ৩ আর ৪ পইড়া হাহাপিগে...
    তাসফিন ভাইয়ের মত নামাজী ভালো মানুষকে নিয়া গাউছিয়ার দিকে যাওয়া আপনার উচিত হয়নাই। 😛
    ৫ নাম্বারটা পইড়া বুঝলাম দেশ এখন অনেক আগায়ে যাচ্ছে... :dreamy: :dreamy:

    জবাব দিন
  6. তাইফুর (৯২-৯৮)
    একটা জিনিস আমি অনেক আগে থেকেই খেয়াল করে দেখেছি, সেটা হল, বডি পার্টসের কথা না শুনা। মানে আমি যেটা করতে চাই বা চাই না, আমার কিছু বেয়াদব অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ঠিক তার উল্টাটা করে। ধর্মে নাকি আছে শেষ বিচারে এইসব বডি পার্টস তাদের দ্বারা সংঘটিত ঘটনা নিজেরাই বর্ণনা করবে নালিশ হিসেবে।

    ধন্দে পরা গেলাম ... কুন কুন বডি পার্টস তোর কথা শুনে না ...
    নাউজুবিল্লা ...
    বেয়ারা মন, বেয়ারা কত ভাবনা ভাবে ... :dreamy:


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  7. এহসান (৮৯-৯৫)

    কাইয়ুম সাহেব,

    বেশ লিখেছেন। তাইফুরের মত আমিও শুরুতে একটু অন্য লাইনে চিন্তা করতে ছিলাম। 🙁

    পরিণাম নিম্নাঞ্চলের এক অবোধ এবং পুরো ঘটনাতেই নির্দোষ অংশের ব্যাপক বেত্রা এবং বেল্টা উভয় ঘাতের শিকার হওয়া। তবে একদিক থেকে এখনো দুর্ভাগা হইনি। কোন বেয়াদব পার্ট অযাচিত ভাবে এখনো সামাজিক জীবনের জন্য বিপজ্জনক টাইপ কোন বাটে ফেলতে পারেনি অন্য অনেকের মত।

    আপনি কি খেয়াল করেছেন আপনি সৌমিত্র কিংবা আন্দালিব দ্বারা প্রভাবিত হয়ে যাচ্ছেন। তবে শেষের দিকে এসে আপনি আমাদের মত সাধারণ মানুষের মত লিখেছেন। অনেকদিন পর লিখলেন। জানি আপনি এখন শীত নিদ্রায় যাবেন। হ্যাভ আ নাইস স্লিপ। কিন্তু স্লিপটারে :just: ন্যাপ বানাইলে সবাই খুশী হবে। কারণ তাহলে আরেকটু নিয়মিত লেখা মিলতো।

    জবাব দিন
  8. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    ক্যাডা কাইয়ুম নি?? শইলডা ভালা।

    ব্লগ স্টোর রুম

    * ▼২০০৯ (৪)

    o ▼অগাস্ট (১)
    + একজন নগর পরিব্রাজক
    o ►ফেব্রুয়ারী (১)
    + সি-৫৯, দক্ষিণ ছায়াবীথি
    o ►জানুয়ারী (২)
    + অসম্ভব একটা জয়ের স্বপ্ন কি এখন দেখা যায়??
    + মূল্য এক হাজার টাকা মাত্র

    * ►২০০৮ (৭)

    এই বছরের কোটা তো মাত্র অর্ধেক পুরণ হইছে। গতবছর ৭টা পোস্ট আছিল। ডিসেম্বরের মইধ্যে আরো তিনডা না নামাইলে খবর আছে............

    কি বলেন তাইফুর এবং '৯৪-ক্লাস সেভেন ভাইসকল??


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  9. আব্দুল্লাহ্‌ আল ইমরান (৯৩-৯৯)
    একটা জিনিস আমি অনেক আগে থেকেই খেয়াল করে দেখেছি, সেটা হল, বডি পার্টসের কথা না শুনা। মানে আমি যেটা করতে চাই বা চাই না, আমার কিছু বেয়াদব অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ঠিক তার উল্টাটা করে। ধর্মে নাকি আছে শেষ বিচারে এইসব বডি পার্টস তাদের দ্বারা সংঘটিত ঘটনা নিজেরাই বর্ণনা করবে নালিশ হিসেবে।

    হুম, বহুট ঠিক। দুঃচিন্তার কারণ হ্ল। :dreamy: :duel:

    জবাব দিন
  10. রেশাদ (৮৯-৯৫)

    "একটা জিনিস আমি অনেক আগে থেকেই খেয়াল করে দেখেছি, সেটা হল, বডি পার্টসের কথা না শুনা। "

    সিদ্ধান্তঃ পার্টস যাই করুক কাইয়ুম পোলাটার কিন্তু কোনো দোষ নাই...

    অ টঃ পোলাটা ভালো লেখে, দেখতে হবেনা কোন কলেজ আর কোন হাউজ-এর

    জবাব দিন
  11. সামীউর (৯৭-০৩)

    কাইয়ূম ভাই, শম্পা ভাবীরে একদিন এরকম ড্রেস পড়ায়া পান্থপথ সিগ্নালে নিয়া আইসেন, একসাথে আলুর চপ খামু 😀 । তয় উনারে দেখলে তো দোকানদার ও পথচারীরা

    এস্টোনাইইইজড

    হয়া যাইবো।
    অঃটঃ লেখা ভালো হইসে, আপনি কি এই যুগের মার্কো পলো, ইবনে বতুতা কিংবা হিউয়েন সাং হইবেন নাকি?

    জবাব দিন
  12. হাসান (১৯৯৬-২০০২)
    অ টঃ পোলাটা ভালো লেখে, দেখতে হবেনা কোন কলেজ আর কোন হাউজ-এর

    রেশাদ ভাই কিছুদিন ধরেই আপনাকে ব্লগে দেখতেসি কিন্তু জানতাম না আপনিও রাবীন্দ্রিক :hug: আপনাকে ফেসবুকে আ্যড করছি, accept কইরেন 🙂

    সিসিবিতে রাবীন্দ্রিকদের দৃপ্ত পদচারণা দেখে ব্যাপক লাগতেছে।

    😀 😀 😀

    লেখা কঠিন হইছে :clap:

    জবাব দিন
  13. রকিব (০১-০৭)

    কাইয়ুম ভাই, সেমিস্টার শেষ হইয়া বছরই শেষ হইয়া গেলো। আপনিও কি আমির খানের মতো বছরে এক্টার বেশি করবো না টাইপ সিদ্ধান্ত নিছেন!!!
    একটা, খালি একটা, :just: একটা ব্লগ পোষ্ট করেন সিসিবিতে। আপনার পিলিজ লাগেএএএএএএএএএ। ;;) ;;) ;;)


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।