মাগনা বিদেশ যাওয়ার সহজ উপায়…

জিতুকে ধন্যবাদ। বেচারী শীতের দুপুরে লেপের আরাম বাদ দিয়ে অনেকটা সময় কানে ফোন রেখে আমাকে ব্লগ লেখার কৌশল শিখিয়েছে। ভালো টিচাররা এমনই হয় :thumbup:
(এটা ওর স্কুলের বিজ্ঞাপন, প্রচারণা কমিশন হিসেবে আমার রেফারেন্সে ২ জন ফুল ফ্রীইইইইই)

এবার ব্লগ শুরু করি…
আস্ট্রেলীয় সরকার পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কিছু বৃত্তি দিয়ে আসছে বেশ অনেক বছর ধরে। বাংলাদেশের জন্য প্রযোজ্য ৪টি হলোঃ
1. AusAID – ADS (Australian development scholarship)
2. AusAiD – ALA (Australian leadership award)
3. AusAID – CHT (Chittagong hill tracts)
4. AusAID – Endeavour Award

প্রথম
প্রথমটা দিয়েই শুরু করলাম, মার্চের মাঝামাঝি পত্রিকায় এটার জন্য বিজ্ঞাপন দেয়া হয়। শর্তগুলো খুবই সহজঃ
ক। আই এল্ টি এস এ কমপক্ষে ৬ থাকতে হবে
খ। সরকারী, আধা-সরকারী, স্বায়ত্ত্বশাসিত (বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ছাড়া) কোনো প্রতিষ্ঠান অথবা আইসিডিডিআরবি-তে কমপক্ষে ২ বছর ধরে চাকুরী করতে হবে।
গ। ৪০ এর নিচে যে কেউ এপ্লাই করতে পারবে
বেশ কিছু ডিসিপ্লিন-এ এই বৃত্তি গুলো দেয়া হয়। মূল লক্ষ্য থাকে মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল এর যে কোনো একটি উদ্দেশ্য পূরণ। কিছু ডেভেলপমেন্ট থিম (sustainable economic growth; inclusive social development; gender & development; environmental sustainability; good governance; regional cooperation; private sector development; and capacity building) দেয়া থাকে যার অধীনে সোশিও-একোনমিক সেক্টরগুলো এরকমঃ Sectors as described by the ADB, World Bank, UN and other agency reference such as Agriculture; Natural Resources; Energy; Industry & Trade; Transport; Communications (ICT); Education; Health; Nutrition; Social Protection; Water Supply; Sanitation; Waste Management; Law, Economic Management; and Public Policy.

এইটুকু দেখে সবার কাছেই জটিল মনে হতে পারে, আসল ব্যপার হলো যার যেই সাবজ়েক্ট ইচ্ছা সেটাতেই এপ্লাই করা যায়, শুধু প্রমাণ করতে হবে যে এটা দেশের জন্য খুব জরুরী, অস্ট্রেলিয়ানরা মানুষ ভালো, মোটামুটি কিছু একটা লিখে দিলেই বিশ্বাস করবে। মাস্টার্স এর জন্য ২ বছর আর পিএইচডি প্রোগ্রাম-এ ৪ বছর পর্যন্ত এই বৃত্তি দেয়া হয়।

এরপর হলো কিছুটা কঠিন কাজ, এপ্রিল/মে এর কোনো এক সময়সীমার মধ্যে সমস্ত কাগজপত্র জমা দিতে হবে, লিস্ট অনেক লম্বা তাই এখানে দিলামনা। জুন-এর শুরুতে ইন্টারভিউ, সাথে একটা রিটেন এক্সামিনেশন, কঠিন কিছু না, শুধু ইংরেজীতে অনেকক্ষণ চাপাবাজি করতে হয় 😕
এরপর ইউনিভার্সিটি প্লেসমেন্ট, যার যেখানে ইচ্ছা, মিনিমাম এন্ট্রি রিক্যোয়ারমেন্ট থাকলেই হয়ে যাবে (যেহেতু ফান্ডেড স্টুডেন্ট তাই কেউ সাধারণত রিফিউজ করেনা)
এবছর বাংলাদেশ থেকে ৩১ জন এই বৃত্তি পেয়ে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছে। সুযোগ সুবিধা খারাপ না –
১. ভিসা প্রসেসিং ফি
২. হেলথ চেকআপ আর স্টুডেন্ট ইন্স্যুরেন্স কভারেজ ফি
৩. বছরে একবার করে যাওয়া আসার ভাড়া
৪. পৌছানোর পর এস্টাব্লিশমেন্ট এলাওয়েন্স (৫০০০ ডলার)
৫. থাকা খাওয়ার জন্য মাসে ২০০০ ডলার (খবর নিয়ে দেখা গেসে মাস্ফ্যু ছাড়া যে কারো এর অর্ধেকে হয়ে যাবে)
৬. ফুল ট্যুশন ফি
৭. বাচ্চা-র পড়াশুনা
স্টুডেন্ট নিজে সপ্তাহে ২০ ঘন্টা আর তার স্পাউস ৪০ ঘন্টা কাজ করতে পারে। ফিরে আসার পর দুই বছর বাংলাদেশে কাজ করতে হবে এটাই হচ্ছে শর্ত।

দ্বিতীয়ঃ
এবার শুরু করি লিডারশীপ এওয়ার্ড এর কথা। প্রসেস মোটামুটি আগেরটার মতই, শুধু এখানে যে কেউ এপ্লাই করতে পারবে। এইখানে টাকাপয়সা বেশি দেয়, প্রেস্টিজটাও একটু বেশি। এ বছর বাংলাদেশ থেকে যাচ্ছে মোট ১৪ জন (যার মধ্যে ৯ জন পিএইচডি করবে)।
ইউনিভার্সিটি প্লেসমেন্ট আগে থেকে নিয়ে তারপর স্কলারশীপ এর জন্য সব কাগজ পত্র জমা দিতে হয় জুন মাসের শেষের দিকে। বেশি আইএলটিএস স্কোর থাকলে প্লেসমেন্ট সহজ হয়। এখানে
ভালো রেফারেন্স খুবই কাজে লাগে, বিশেষ করে পুরোনো কোনো স্কলার যদি রেফার করে। ইন্টারভিউ আগেরটার চেয়ে একটু কঠিন।

তৃতীয়ঃ
শুধু মাত্র পার্বত্য চট্টগ্রাম এ যারা আদিবাসী তাদের জন্য এটা প্রযোজ্য। এবছর ২০ জন যাচ্ছে। এই স্কলারশীপ-এ এইচএসসি শেষ করেই যাওয়া যায়।

চতুর্থঃ
শর্টটার্ম কোনো প্রোগ্রাম এ কেউ যদি এনলিস্টেড হতে পারে তাহলে এই বৃত্তির জন্য এপ্লাই করা যায় (আমি নিজে এর চেয়ে বেশী কিছু জানিনা)

এবার আসি মূল কথায়ঃ
আমার এই ব্লগ লেখার আসল উদ্দেশ্য হচ্ছে এই ব্লগ-এর যে কেউ এই বৃত্তি গুলো পেতে পারে। হয়তো অনেকেই এই ব্যাপারগুলো জেনে থাকবে, আবার অনেকের কাছেই হয়তো অজানা। যারা আরো বেশি তথ্য জানেন, তাদের কে আরো কিছু তথ্যাবলী জানানোর অনুরোধ করছি।

এ বছর বেশ কয়েকজন এক্স-ক্যাডেট যাচ্ছে। ছেলে-মেয়ে অনুপাত সমান। যেহেতু মেয়ে এপ্লিক্যান্ট এর সংখ্যা কম কাজেই সম্ভাবনা বেশী।

আগামীবার অনেকগুলো ক্যাডেট (ব্লগার এবং নন-ব্লগার) যাবে এটাই আশা করছি।

৩,৪১৩ বার দেখা হয়েছে

৩০ টি মন্তব্য : “মাগনা বিদেশ যাওয়ার সহজ উপায়…”

  1. জিহাদ (৯৯-০৫)

    আজকে সিসিবি তে ঢোকার পর থেকেই একের পর এক মিরাকল দেখতেসি। প্রথমে কাইয়ুম ভাইয়ের পোস্ট, তারপর রেশাদ ভাইয়ের। যাই চোখে মুখে পানি দিয়ে আসি। মনে হয় বেশি ঘুম লাগসে 🙁


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  2. টিটো রহমান (৯৪-০০)

    😮 😮 😮 😮 😮
    :-B :-B :-B :-B :-B
    আজকে সিসিবি তে ঢোকার পর থেকেই একের পর এক মিরাকল দেখতেসি। প্রথমে কাইয়ুম ভাইয়ের পোস্ট, তারপর রেশাদ ভাইয়ের। যাই চোখে মুখে পানি দিয়ে আসি। মনে হয় বেশি ঘুম লাগসে :grr:


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
  3. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
    যারা আরো বেশি তথ্য জানেন, তাদের কে আরো কিছু তথ্যাবলী জানানোর অনুরোধ করছি।

    - অস্ট্রেলিয়ার বিষয়ে কিছু জানি না। তবে সামাজিক বিজ্ঞানের ছাত্রদের জন্য আমেরিকায়/কানাডায় আসার বিষয়ে একবার লিখার ইচ্ছা আছে।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  4. রবিন (৯৪-০০/ককক)

    আজকে সিসিবি তে ঢোকার পর থেকেই একের পর এক মিরাকল দেখতেসি। প্রথমে কাইয়ুম ভাইয়ের পোস্ট, তারপর রেশাদ ভাইয়ের। যাই চোখে মুখে পানি দিয়ে আসি। মনে হয় বেশি ঘুম লাগসে :grr:

    জবাব দিন
  5. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    আজকে সিসিবি তে ঢোকার পর থেকেই একের পর এক মিরাকল দেখতেসি। প্রথমে কাইয়ুম ভাইয়ের পোস্ট, তারপর রেশাদ ভাইয়ের। যাই চোখে মুখে পানি দিয়ে আসি। মনে হয় বেশি ঘুম লাগসে :grr: :grr:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  6. রাব্বী (৯২-৯৮)

    মাগনায় সহজে মঙ্গল গ্রহে যাবার কোন উপায় জানা আছে কারো? যাইতে মঞ্চায়! যাপোই যাপো।

    অফটপিক: নেদারল্যান্ডস ফেলোশিপ প্রোগামও একই ধরনের। ফুলব্রাইটের তথ্য ইউসিসে পাওয়া যায়। কমনওয়েলথ বেশ ভাল, কিন্তু ঢাকা থেকে অনেককেই খানিকটা তদবিরে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হতে দেখেছি। ইউজিসি থেকে একটা প্রাথমিক নির্বাচন হয়, তারপর ব্রিটিশ কাউন্সিল (পুরো প্রক্রিয়া জানিনা)। ব্রিটিশ কাউন্সিল থেকে শ্যেভেনিং স্কলারশীপও ভাল। আর অন্যান্য দেশের গ্রাজুয়েট এবং আন্ডার গ্রাজুয়েট পর্যায়ের স্কলারশিপের তথ্য এখানে চোখ রাখলে জানা যাবে। ... দিলাম সবতিরে দেশ থেকে ভাগাইয়া।

    আম্রিকা এবং কানাডার বিষয়ে মাহমুদ ভাই বিস্তারিত লিখবেন বলেছেন। তবে শর্ত আছে সবাই তার আগে সমাজবিজ্ঞানে পড়াশুনা শুরু করে দিতে হবে। আগ্রহীরা তখন জানতে পারবে/পারবেন 😀

    রেশাদ ভাই খুবই দরকারী পোষ্ট। কয়টা বছর আগে দিলে আরেকটু ভালো হতো।


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
  7. আব্দুল্লাহ্‌ আল ইমরান (৯৩-৯৯)

    খুব কামের ব্লগ।লিংক দিলে বাধিত থাকিব।এত পুরান লোক হইয়া এইটা প্রথম ব্লগ ভাবছেন কেউ খেয়াল করবেনা 😛 ।পুলাপাইন ত বিদেশ যাওয়ার মুলা পাইয়া অন্ধ হইতেই পারে(আমিও মুলা খাওয়ার ধান্ধা করব কিনা ভাবছি)।
    দিহান ভাই কিন্তু ঠিকই ধরে ফেলছেন :khekz:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।