অবশ অনুভূতির দেয়াল

অবশ অনুভূতির দেয়াল

নাহিয়ানঃ দোস্ত তোকে কখনো কোন মেয়ে I love you বলেছে ?

রিশানঃ না । এ যাবৎ তো কেউ বলল না ।

নাহিয়ানঃ মনে হয় তোকে কেউ কোনদিন বলবেও না।

রিশানঃ জানি বলবে না । না বললেই ভাল । উটকো ঝামেলা । আর যার বলার দরকার সে-ই বললো না । যাক , তোকে নূর বলেছে কোনদিন ?

নাহিয়ানঃ বলেনি । কিন্তু কিছু কিছু ব্যাপার বুঝে নিতে হয় ।

রিশানঃ আমি ভাই এত কিছু বুঝি না । বুঝতেও চাইনা । গীটারের tabs আর Fifa 10 এর tactics বুঝলেই আমি খুশি ।

নাহিয়ানঃ তুই তো Ben10 কার্টুনও বুঝিস , তাই না ? তুই একটা গাধা ।

রিশানঃ ছিলাম না । গত ১ বছর ধরে গাধা হয়ে গেছি । জানি না, কিন্তু ব্যাপারটা ঘোলাটে ।

নাহিয়ানঃ হাসতে পারলামনা । খারাপ লাগে তোর জন্য । মজাও লাগে ।

রিশানঃ দার্শনিক Albert Camus এর একটা theory আছে ওনার The Myth of Sisyphus এ – Absurdity of Life . পড়িস । তখন আর আমার জন্য খারাপ লাগবে না ।

নাহিয়ানঃ হুমায়ুন আজাদ স্যার-এর বই পড়া কমিয়ে দে । না হলে পাগল হয়ে যাবি ।

রিশানঃ পারব না । যেমন পারবনা Artcell-এর গান শোনা কিংবা গাওয়া বা বাজানো ছেড়ে দিতে । কেন তুই পারবি নাকি ?

নাহিয়ানঃ না । তবে ক্ষেত্র বিশেষে !!! – যেমন সে যদি বলে তাহলে ছেড়ে দিতে পারি ।

রিশানঃ ধ্যাৎ । কি যে বলিস । Artcell-কেও ? আমি কখনোই পারতাম না । তুই কিভাবে ?

নাহিয়ানঃ It’s complicated .

রিশানঃ হা………..হা…………….হা…….Facebook Relationship Status……….তুই অনেক Lucky . সবার ভাগ্য তোর মতো না ।

নাহিয়ানঃ হতে পারে । কিন্তু তুই ?………….I am sorry .

রিশানঃ Sorry feel করার মতো কিছু নেই । আমি যেমন আছি তেমনি থাকব । হতে পারে আমি তোর চেয়েও Lucky……………………………

আরও বেশ কিছুক্ষণ এলোমেলো আলাপ চলতে থাকে তাদের ।…………

……………… কিন্তু রিশান এর বেশি মনে করতে পারে না । একা একা রাস্তা ধরে হাঁটছে রিশান । আর মনে করার চেষ্টা করছে ১৫ বছর আগের কথোপকথন । সেই তখন যখন তাদের বয়স মাত্র ১৭ বছর । গতকালই জেনেভা থেকে দেশে ফিরেছে রিশান । একটু আগেই নাহিয়ানের বাসায় দাওয়াত ছিল । নাহিয়ান এখনো আগের মতোই গোছানো । স্ত্রী নূর আর ছোট মেয়ে নাফিসাকে নিয়ে সুন্দর পরিবার । নাফিসা – ঐ ছোট্ট মেয়েতা তো পুরো বাড়িটাই আলো করে রাখে । রিশানের ভালো লাগে । আর সেই মেয়েটাও ভালো আছে । সংসার নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে হয়তো বা । থাক । ভালোই থাক । তাছাড়া রিশানের তো সবই আছে । WHO-এর চাকরি , সহকর্মীরা , দেশে বাবা-মা , ভাই , বন্ধুরা , নাহিয়ান আর তার স্ত্রী নূর ও ছোট্ট নাফিসা । আরও আছে Artcell-আর নতুন এ্যালবাম অথবা Fifa 25 অথবা Les Paul-এর গীটার । পৃথিবীটা খারাপ না তো , বরং সুন্দরই । একা থেকেও রিশান একা নয় । তাই একা একা হাঁটতে ভালোই লাগে তার । রিশানের মনে হয় যেন সে নাহিয়ানের চেও Lucky…কিন্তু নাহিয়ান জানে সবই মিথ্যা । রিশানের ভেতরটা ফাঁকা । হয়তো বিশাল একটা শূন্যতা আছে রিশানের মাঝে । গাঢ় অন্ধকারে ভরা শূন্যতা । হয়তো রিশানের অনুভূতির দেয়াল অবশ হয়ে গেছে । অবশ অনুভূতির দেয়াল ।……………………।

৩,৫১০ বার দেখা হয়েছে

২৩ টি মন্তব্য : “অবশ অনুভূতির দেয়াল”

  1. মুনতাসির (২০০৫-২০১১)

    ধন্যবাদ সবাইকে । 😀 😀 😀 :goragori: :goragori: ধন্যবাদ সব ভাইয়াদের কে তাদের উৎসাহের জন্য । :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: এই কাহিনীটি আমার নিজের এক বন্ধুর সাথে আমার কথোপকথনের উপরে ভিত্তি করে লেখা । কাহিনিটা সত্য । কিন্তু ভবিষ্যতটা আমার কল্পনা । যদিও আমি জানি ব্যাপারটা এরকমই হবে । :(( :(( :(( :((


    Moontasir Hossain
    Rangpur Cadet College (2005-11)

    জবাব দিন
  2. মামুন (০০-০৬)

    শাব্বাশ ব্যাটা........জটিল কাহিনি লিখছস। :boss: :boss: :boss: ভবিশ্যত জানি না কিন্তু ক্যামনে জানি তোগো বর্তমান টাইম এর চিন্তা-ভাবনা আর কথোপকথনের সাথে ৫ বছর আগের আমাগো চিন্তা-ভাবনা আর কথোপকথনের মিল পাইতেছি :dreamy: :dreamy:
    বয়সটাই মনে হয় এমন........
    :hatsoff: :hatsoff: :thumbup: :thumbup:

    জবাব দিন
  3. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    পিচ্চিরা দেখি অনেক ভাবের হয়? ব্যাপারখানা কি? অনেকগুলা কবিতার পর একটা ভবিষ্যত ভাবনা। ভাল ছিল। তবে কত কিছু কত ভাবে চেঞ্জ হয়ে যাবে , মাস্ফু ভাল বলতে পারবে 😉

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।