একটি অপ্রাসঙ্গিক কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলতে চাই

আমি এই ব্লগ-এ একজন নবাগত…কারণ আমি খুব বেশীদিন হলো এখানে আসিনি।
কিন্তু এর মাঝেই আমার মনে হয়েছে…এখানে কিছু SPECIFIC REGULATION FORMULATE করার প্রয়োজনীয়তা শুরু হয়ে গিয়েছে।
স্পেসিফিক কোন ব্যক্তিকে নিয়ে আমি কিছু বলবো না… তবে, আমার দৃঢ় বিশ্বাস…সিসিবি-র সবাই তাদেরকে বুঝবেন।
১। আমার কেন জানিনা মনে হয়েছে…সিসিবি-তে কিছু ক্যাডেট বহির্ভূত মেম্বার-এর আগমন হয়েছে। এটাকে ফিল্টার/ব্লক করার সময় এসেছে।
*** কিছু কিছু কমেন্ট/লেখা so called www.somewhereinblog.com এর কারো লেখা বলে মনে হয়…যে কমেন্ট/লেখা (আমার ব্যক্তিগত মত) আমাদের ক্লাস সেভেন-এর কোন ক্যাডেটও কখনো লিখার কথা নয়।
২। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা…, মেম্বার না হয়েও এই ব্লগে কমেন্ট করার যে সার্বজনীন সুযোগ আমাদের এই ব্লগে রয়েছে…, সেটা বন্ধ করার সময় এসেছে বলে আমার বিশ্বাস।
*** এই “জাতীয় দূর্যোগে” সবচেয়ে সফলভাবে যে ব্লগ আপডেট থেকেছে…সেটা হলো সিসিবি। এই কারণে সারাদেশের প্রায় সকলকেই আমি এই ব্লগ দেখতে বলেছি। আমার কেন জানিনা মনে হয়, এই ব্লগ-এর সার্বজনীন গ্রহনযোগ্যতা, এর সঠিক তথ্য উপস্থাপনে সফলতা এবং নিরপেক্ষতা (আমার মত গুটিকয়েক অতিমাত্রায় আবেগপ্রবণ মেম্বার ছাড়া) দেখে অন্যদের মনে কোন ঈর্ষা/হিংসা/জিঘাংসা আসলে…আমি তাদের দোষ দেব না।
৩। আমাদের সিসিবি-র সকল মেম্বারদের প্রোফাইলে ছবিসহ তাদের বর্তমান পেশা, অবস্থান, সম্ভব হলে ঠিকানা রাখারও ব্যবস্থা করতে হবে।
*** বিস্তারিতপরে লেখার আশা রাখি।
৪। “দেশের জন্যে কি করেছি”…বিষয়ক আমার লেখাটা…সম্ভব হলে WITHDRAW করার রিকয়েস্ট করছি। কারণ, গত কয়েকদিনে-ই বুঝতে পেরেছি…”আমরা…ক্যাডেট-রা…”-ই হৃদয়ের ভিতর থেকে দেশ-কে feel করি…, কাঁদি।
দেশের জন্যে আমরা কম করি নাই আসলে।
*** “আমরা” বলতে আমি সকল ক্যাডেট এবং তাঁদের পরিবার…এবং সংশ্লিস্টদের বুঝিয়েছি।
৫। আমাদের এই “স্বাধীনতা যুদ্ধে” শহীদদের (IRRESPECTIVE OF CADET/NON-CADET) স্মৃতিবিজরিত একটি সাইট চাই।
*** কাডেটদের জন্যে আলাদা একটা হতে পারে।
আসলে, কি লিখতে কি লিখছি…বুঝতে পারছি না।কাউকে হার্ট করলে……… স্যরি।
**********আসল কথাটা-ই ভুলে গিয়েছিলাম…
“ওই দেশদরদী, বঞ্চিত, সত্যবাদী, অধিকার আদায়ে শহীদ হতে চাওয়া” ********** বাচ্চাদের ধরিয়ে জন্যে সকল মিডিয়া (টিভি/রেডিও/পত্রিকা/ব্লগ)-তে প্রচার শুরু করার ব্যবস্থা করতে হবে। সংশ্লিস্টরা কি কাইন্ডলি ব্যাপারটা দেখবেন!

৩,৬০৬ বার দেখা হয়েছে

৬১ টি মন্তব্য : “একটি অপ্রাসঙ্গিক কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলতে চাই”

  1. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    আপনার কথা একটাও হার্ট করার মতো না।

    সিসিবি-তে কিছু ক্যাডেট বহির্ভূত মেম্বার-এর আগমন হয়েছে। এটাকে ফিল্টার/ব্লক করার সময় এসেছে।

    - পুরো একমত। এইজন্য আমি এটা চাইছিনা যে, নন-ক্যাডেটদের অপছন্দ করি। কিন্তু এই কারনে যে, আমাদের চালচলন, কথাবার্তা তাদের থেকে বেশ আলাদা। কাজেই, সিসিবি সবার জন্য খোলা থাকলে অহেতুক কিছু অবাঞ্ছিত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

    কাজেই, এডু+মডু'রা বিষয়টা সিরিয়াসলি নিলে খুশী হবো।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  2. কি লিখতে কি লিখছি…বুঝতে পারছি না।কাউকে হার্ট করলে……… স্যরি।

    আমিও ভালমত বুঝিনাই কিছু........ ৫ নং পয়েন্ট টার মানে বুঝেছি ও আশা করি সবার আগ্রহ পেলে এইরকম একটা সাইট এই সাইট থেকেই জন্ম নিবে....... আমিও যতটুকুন পারি সাহা্য্য করব.......

    বাকিগুলোর মাঝে বলব মেম্বার না হয়ে কমেন্ট করার সুযোগ তুলে নেয়াটা ঠিক হবেনা বলেই আমি বলব..... কারন আমি পিসিতে কুকি অনেক সময়ই অফ রাখি.... তখন আমি কিভাবে লগইন করবো তাহলে ??? যেমন এই মুহুর্তেও অফ... মডারেশনের জন্যে কমেন্ট জমা দিব..... আর এসব কমেন্ট তো মডারেটেড হয়ে আসে..... খারাপ কিছু অবশ্যই পারমিটেড হবেনা......

    জবাব দিন
    • আরেকটা কথা লিখতে ভুলে গেছি..........

      হার্ট করার কথা লিখেছিলেন কেন /??? আপনি কোনদিনই আমাদের হার্ট করবেন না ভাইয়া...... এই বিশ্বাসটুকু আমাদের আছে.... তাই যদি হার্ট করার কথা লিখেন তাহলে আমাদের এই বিশ্বাসে আঘাত আসবে...... বাকি আপনার উপর.......

      জবাব দিন
  3. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)
    আমার কেন জানিনা মনে হয়েছে…সিসিবি-তে কিছু ক্যাডেট বহির্ভূত মেম্বার-এর আগমন হয়েছে। এটাকে ফিল্টার/ব্লক করার সময় এসেছে।

    ব্যক্তিগতভাবে এটার সাথে একমত নই।
    সিসিবি-তে এমনিতে নন-ক্যাডেট কেউ অ্যাকাউন্ট তৈরী করতে পারে না। তার মানে সমস্যাটা শুধু মন্তব্য নিয়ে।

    প্রথমত: আমি মনে করি ব্লগে মন্তব্য অবশ্যই উন্মুক্ত রাখা উচিত। কারণ এখানে আমরা শুধু ক্যাডেট কলেজের বিষয় নিয়ে আলোচনা করি না। এখানে সবকিছু নিয়েই কথাবার্তা হয়। তাই একটা সাধারণ নিয়ম করলে ভাল হবে না বলে মনে করি। অনেক নন-ক্যাডেটও আমাদের ক্যাডেট কলেজ-বহির্ভূত বিষয়ে আলোচনা করতে পারে।
    আর ক্যাডেট কলেজ নিয়েও অন্যরা আলোচনা করলে আমি সমস্যা দেখি না। কারণ আমি মনে করি না, এক্স-ক্যাডেটদের সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়অ উচিত। আমরা এই সমাজেরই অংশ, এর সাথে আমাদের মিথস্ক্রিয়া হওয়া উচিত বলে মনে করি।

    এখন পিলখানা হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষাপটে অনেক বিব্রতকর ও কষ্টদায়ক মন্তব্য হয়ত এসে পড়েছে। কিন্তু এটাকে উপলক্ষ্য করে একটা সামগ্রিক সিদ্ধান্ত নেয়া একেবারেই অনুচিত হবে। পরে হয়ত এজন্য আমরা নিজেরাই পস্তাবো।

    এখন সর্বোচ্চ যেটা করা যেতে পারে সেটা হচ্ছে, মডারেশনে আসা মন্তব্যগুলো পড়ে ভালভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া যে, সেটা প্রকাশ করা ঠিক হবে কি-না। প্রতিটি মন্তব্য এভাবে সেন্সর করাটাই যথেষ্ট। মডারেটররা আসা করি এই দিকটা খেয়াল করবেন।

    জবাব দিন
  4. জিহাদ (৯৯-০৫)

    ভাইয়া , আপনার মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি; আমি ব্যক্তিগতভাবে কমেন্ট পুরোপুরি বন্ধ করে দেবার সাথে একমত না। তবে কমেন্ট ফিল্টারিং অলরেডি হচ্ছে। আগে যেখানে একটা এপ্রুভড কমেন্ট থাকলে বাকিগুলা মডারেট হতোনা কিন্তু এখন সেটা হচ্ছে।

    সি সি বি প্রথম দিকে অনেকটা খেলাচ্ছলে তৈরী হলেও বর্তমানে এটাকে ঠিক আর ছেলেমানুষী ব্লগ বলা যায়না। তাছাড়া প্রথম দিক থেকেই সিসিবি গঠণের অন্যতম একটা উদ্দেশ্য ছিল ক্যাডেট কলেজ গুলো সম্পর্কে মানুষের মনে যেসব অহেতুক নেগেটিভ চিন্তা বা ধ্যান ধারণা আছে সেগুলো দূর করে একটা পজিটিভ দৃষ্টিভঙ্গি গড়ে তুলতে সাহায্য করা। আর এর জন্য সবার কাছ থেকেই ফিডব্যাকটা জরুরী। তাছাড়া নিজেদের মত মজা করার পাশাপাশি অনেক জনগুরুত্বপূর্ণ এবং সিরিয়াস বিষয়েও আলোচনা হচ্ছে। সমালোচনা আসতেই পারে। এবং সেটা মেনে নিতেও আপত্তি নেই যদি সেটা গঠণমূলক হয়। কাজেই মডারেটররা কমেন্ট মডারেশনের ক্ষেত্রে যদি একটু সচেতন হন তাহলেই যথেষ্ট।

    সবদিক চিন্তা করেই বাইরের সবার সাথে কমিউনিকেট করার নূন্যতম একটা মাধ্যম খোলা থাকা উচিত বলে মনে করি। না হলে ব্যাপারটা অনেকটা জন বিচ্ছিন্ন হয়ে "একঘরে" হয়ে থাকার মতই হবে; যে অভিযোগে ক্যাডেটরা কমবেশি সবাই নানা সময়ে অন্যদের কাছ থেকে অভিযুক্ত হয়। আর এই ভুলটা ভাঙ্গার জন্য হলেও কমেন্ট এলাউ করাটা জরুরী বলে মনে করি।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  5. আন্দালিব (৯৬-০২)

    আপনারা আমাকে যে যা-ই বলেন, আমি উপরে লেখা সবগুলো কথার বাস্তবায়ন চাই।

    আমি ঠিক করেছি গতকালের পরে যে আমি সাম-ইনে আর কোনও লেখা কোনদিন দিব না। সাইফ ভাইয়ের লেখাটি দিয়েছিলাম, ওনার অনুরোধে সেটা সরিয়েছি। কর্ণেল সালাম আঙ্কেলকে নিয়ে লেখাটাই আমার ওখানে শেষ লেখা। এটা ওদেরকে আমি বলি নাই, আপনাদের বলি। গত তিনদিন ধরে আমি কী প্রচণ্ড কষ্টে আছি সেটা আমি জানি। টিভি দেখে, সিসিবি থেকে ফেসবুকে ছবি আর পোস্ট পড়ে আমি কাঁদতে কাঁদতে ঘুমাইছি, রাতে ঘুম বার বার ভেঙে গেছে, আজকে ভোর ৬টা থেকেই আমি জেগে আছি!

    সিসিবি-তে ভিন্নমত/অপরমত সবই আছে, ছিল, থাকবে (কয়েকদিন আগের কয়েকটি পোস্ট মনে করতে পারি)। তবে যারা এই মৃত শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নয়, তাদের পরিবারের প্রতি সহনশীল নয় তারা বোধের দিক থেকে এই দেশের অস্তিত্বের শত্রু বলে আমি বিশ্বাস করি।

    কিছু জিনিস ধর্মের মত বিনাশর্তে মানতে হয়। সেখানে প্রশ্ন তোলা মানে তার আদতে তাকে আমি গোত্রচ্যুত, দেশচ্যুত করে দিব। এই দেশের জন্যে যাঁরা জীবন দেয়, যারা নীরবে আত্মত্যাগ করে কোনকিছুর তোয়াক্কা না করে, তাঁদের শ্রদ্ধা জানানোর যোগ্যতাও ওদের নাই। প্রশ্ন তোলা তো দূরের কথা!!

    আমি একজন ব্লগার হিসেবে এই সিসিবি'র একটা অংশ। এবং আমি এখানে যতটা হোমলি ফিল করি সেটা আর কোথাও করবো না। এই সিসিবি'র কোন খানে যদি আমার কোন দাবি জন্মে থাকে তাহলে সেই অধিকার থেকে আমি এই শর্তগুলোর বাস্তবায়ন চাই।

    [বিঃদ্রঃ এগুলো মোটেই আবেগিক হঠকারী সিদ্ধান্ত বা দাবি নয়। আমি যে কথাগুলো বলছি সেগুলো একটি স্থির বিশ্বাস এবং যৌক্তিক অবস্থান থেকে। আপনাদের কারও ব্যাখ্যা দরকার হলে আমাকে জিজ্ঞেস করেন, আমি সানন্দে উত্তর দিব।]

    জবাব দিন
    • আলম (৯৭--০৩)

      আন্দালিব ভাই, আপনার বক্তব্যতে সামুতে না-যাওয়ার কারণ স্পষ্ট হয়েছে, অনেকটা same কারণে আমি অন্য কোনো ব্লগে যাইই না।
      কিন্তু প্রশ্ন হলো, সেজন্য আমরা তাদেরকে কেন আসতে দিবনা এখানে? আমাদের ব্লগের যুক্তি ও পরিচ্ছন্নতা দেখে যদি ওরা কিছু শিখে, তাতেতো সবারই লাভ।

      জবাব দিন
  6. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)
    সমালোচনা আসতেই পারে। এবং সেটা মেনে নিতেও আপত্তি নেই যদি সেটা গঠণমূলক হয়। কাজেই মডারেটররা কমেন্ট মডারেশনের ক্ষেত্রে যদি একটু সচেতন হন তাহলেই যথেষ্ট।

    এমনটি হলে আমার মতে সমস্যা থাকার কথা না...
    আরেকটা কথা, মাথায় আগুন ধরিয়ে দেবার মতন কমেন্ট যেন না আসে- এই দিকে লক্ষ্য রাখার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  7. সামীউর (৯৭-০৩)

    মন্তুব্য প্রকাশ করা যে কারও গণতান্ত্রিক অধিকার, তবে সেটা ব্লগে প্রকাশ করা বা না করা মডারেটরদের উপর। আশা করি ব্যাপারটা বুঝতে পারছেন সবাই, আর প্রোফাইল হাল নাগাদের ব্যাপারটা করা যেতে পারে, অথবা সব এক্স ক্যাডেট এসোসিয়েসনেরই মেম্বার ডাটাবেস আছে, ওটার সাথে লিংক দেয়া যেতে পারে। (যেমন আমার সম্বন্ধে তথ্য আছে www.sylhetcadetcollege.org এর ব্যাচ প্রোফাইল ২২তম ব্যাচ -শাহজালাল হাউসের মধ্যে। এভাবে প্রায় সবারই হোম কলেজের এসোসিয়েসন সাইটে আছে।) তাই আলাদা মেম্বার ডাটাবেস না বানিয়ে হোম কলেজের সাইটের সাথে লিঙ্ক-আপ করা যেতে পারে। টেকিরা আশা করি ব্যাপারটা দেখবেন।

    জবাব দিন
  8. জিহাদ (৯৯-০৫)

    ওহ আরেকটা কথা। এটা যেহেতু বাংলা ব্লগ কাজেই আমি যে কোন ধরণের ইংরেজী কমেন্ট এলাউ করার বিপক্ষে যদি সেটা খুব বেশি প্রয়োজনীয় না হয়। আশা করি মডারেটররা ব্যাপারটা ভেবে দেখবেন।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  9. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    আমি মানছি যে অন্যদের সাথে আমাদের যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে সিসিবি'তে নন-ক্যাডেটদের মন্তব্য সহায়ক হবে। কিন্তু কতটা? আর তারা কারা??? আমার চেনা হয়ে গেছে।

    তার থেকে বরং সাধারণ মানুষের কাছে আমাদেরকে তুলে ধরার অন্য উপায়গুলো ভেবে দেখার পক্ষে আমি।

    সিসিবি'তে আমার ব্লগে ওরা ব্যান। আমি নিজ দায়িত্বে এটা নিশ্চিত করবো। এটা আমার মাথা-গরম সিদ্ধান্ত নয়, ঠান্ডা-মাথার সিদ্ধান্ত।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  10. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)
    সমালোচনা আসতেই পারে। এবং সেটা মেনে নিতেও আপত্তি নেই যদি সেটা গঠণমূলক হয়। কাজেই মডারেটররা কমেন্ট মডারেশনের ক্ষেত্রে যদি একটু সচেতন হন তাহলেই যথেষ্ট।

    একমত।
    সিসিবিতে গেস্ট হিসাবেও লেখার সুযোগ মোটামুটি নেই। কিন্তু এখন যেহেতু এটি একটি পূর্ণাঙ্গ ব্লগ, এবং ক্যাডেট কলেজের বাইরের বিভিন্ন বিষয়ের লেখা, মত কিংবা নির্ভরযোগ্য তথ্যের জন্য অনেকেই সিসিবিতে আসেন তাই তাদের কমেন্ট আসতে দেয়া যায়। আর যদি সেটা মডারেটেড হয় তবে মনে হয় পরিবেশ বিনষ্টকারী মন্তব্য আসার সম্ভাবনা কমে যাবে। যাহোক, শেষ মেশতো এটা মডারেটরদের ব্যাপার, আমি আমার মতামতটুকু জানিয়ে গেলাম


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  11. শামস (১৯৯৬-২০০২)

    এ কয়দিনে আমার আশেপাশের অগণিত "দ্বিমুখী চরিত্রের বুদ্ধিজীবি ভাবসম্পন্ন বোধহীন ভন্ড মূর্খ" মানুষদের মানসিকতা দেখে যে রকম কষ্ট পেয়েছি- সেটা বলার কোন ভাষা আমার নেই। সাইফুদ্দিন ভাইয়ের যেই লেখাটা সামুতে দেবার পর সেটার কমেন্ট পরে এবং অন্যান্য ব্লগ/ফেসবুকে মানুষদের মতামত দেখে মানুয় হিসেবে মানুষ সম্পর্কে আমার ধারণা বদলে গেছে।

    সিসিবিকে আমরা সবাই অনেক ভালবাসি এবং ফিল করি, তবুও জুলহাস ভাইয়ের অনুভূতির প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি- নন-ক্যাডটদের মন্তব্য যেহেতু মডারেশন হয় তাই সেটা রয়ে যাক। আর বাকীগুলোর সাথে একমত।

    আমরা ক্যাডেটরা সবার থেকে আলাদা ঠিক কিন্তু অসামাজিক প্রাণী নই- যেই গালিটা সবসময় শুনতে হয়।

    জবাব দিন
  12. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    গত কয়েকদিন টানা পিসির সামনে বসে আছি। অনেক কিছু দেখতেসি অনেক কিছু শুনতেসি। তবে এই পোস্টের মতামতের সাথে একমত হতে পারলাম না। এই মতের পক্ষে থাকা বড় ভাইদের প্রতি সম্মান রেখে বলছি, গত কয়েকদিনের ঘটনায় সিসিবি শুধু আমাদে হয়ে থাকেনি বরং এর ট্রাফিক দেখে বুঝা যায় সাধারণ অনেকেই নিরপেক্ষ আপডেট পেতে এখানে এসেছে।
    আমার অনেক বন্ধু (নন ক্যাডেট) এখানে এসেছে এখানকার সুশৃঙ্খলিত মার্জিত আলোচনা দেখেছে। অনেক ব্যাক্তিগত ভাবে ফোন করে আমাকে সিসিবির গ্রহণযোগ্যতার কথা বলেছে। আমি গর্ব বোধ করেছি। অনেক ভালো লেগেছে।
    এখন যে ব্যাপারটা সমস্যা তার আগে আন্দালিবের ব্যাপারটা বলি, গত কয়েকদিন সামু ব্লগে আমাকেও অনেক খারাপ সময়ের মধ্যে যেতে হয়েছে কারণ আমি প্রকাশ করেছি আমি ক্যাডেট। অনেক বাজে কুরুচিপূর্ণ কমেন্ট সেখানে এসেছে। আমি কী করব বুঝে উঠতে পারিনি। আবার সেখানে অনেক ননক্যাডেট অনেক ভালো কথা বলেছে। সো ভালো খারাপ মিলিয়ে আছে সবখানে এই কথাটা ছাড়আ আন্দালিবরে বলার আর কিছু নাই।
    কমেন্ট ফিল্টার করার আমি বিরুদ্ধে। কারণ আমার বন্ধু যারা এখানে এসেছে অনেক ক্ষেত্রে তারা এখানকার কিছু কমেন্ট বুঝতে পারেনি। কিংবা ভুল বুঝেছে। কিন্তু এখানকার আভাওয়া দেখে তারা মন্তব্য করতে সাহস পায়নি। আমাকে ফোন করার পর আমি তআদের কাছে ব্যাপারগুলো ব্যাখ্যা করেছি। কিন্তু এমনটি কাম্য নয়। আমাদের কমি্উনিটিতে নন ক্যাডেটদেরকে আমাদের সবসময় উচিত ওয়েলকাম জানানো। আমাদের সম্পর্কে ওদের ধারণা জানা , ওদেরকে জানা সব মিলিয়ে পারস্পরিক মিথস্ক্রিয়া। সেটা কে যদি না রা যায় তাহলে বোধ করি ক্যাডেট কলেজে ব্লগ বলে কিছু থাকার দরকার নাই। কেননা প্রত্যেক কলেজের প্রত্যেক ব্যাচের ক্যাডেটদেট অনেক গ্রুপ কমিউনিটি আছে। ব্লগের কাজ যদি সেই রকম হয় তবে এর দরকার আমি আপাতত বোধ করছি না।
    পুরোটুকুই আমার ব্যক্তিগত মত। কেউ আঘাত পেলে আমি দুঃখিত। সিসিবির প্রতি আমার অধিকারের দাবিতে এর মেম্বারদের প্রতি অধিকারের দাবিতে কথাগুলো বললাম।
    সবাইকে ধন্যবাদ।

    জবাব দিন
    • মুহাম্মদ (৯৯-০৫)
      আমাদের সম্পর্কে ওদের ধারণা জানা , ওদেরকে জানা সব মিলিয়ে পারস্পরিক মিথস্ক্রিয়া। সেটা কে যদি না রা যায় তাহলে বোধ করি ক্যাডেট কলেজে ব্লগ বলে কিছু থাকার দরকার নাই। কেননা প্রত্যেক কলেজের প্রত্যেক ব্যাচের ক্যাডেটদেট অনেক গ্রুপ কমিউনিটি আছে। ব্লগের কাজ যদি সেই রকম হয় তবে এর দরকার আমি আপাতত বোধ করছি না।

      :thumbup: :thumbup: :thumbup:

      জবাব দিন
  13. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)
    মডারেশনে আসা মন্তব্যগুলো পড়ে ভালভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া যে, সেটা প্রকাশ করা ঠিক হবে কি-না। প্রতিটি মন্তব্য এভাবে সেন্সর করাটাই যথেষ্ট।

    এটাই যথেষ্ট মনে করছি।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  14. আমি একজন সাধারণ ছাত্র। ক্যাডেট বা সামরিক বাহিনীর সাথে কোন সম্পর্কই নেই।
    তবুও একটা লিংক থেকে সাম্প্রতিক নির্মম ঘটনার প্রথম দিনে এই ব্লগে আসি এবং সম্পর্কিত পোষ্ট গুলো বারবার পড়ে পড়ে ঘটনার পরম্পরা জানতে চেষ্টা করেছি।
    বিদেশে থাকার কারণে টিভি দেখতে পারিনি, কিন্তু বিভিন্ন ভিডিও লিংক, ব্লগ আর ওয়েবসাইট দেখে প্রথম দিন থেকেই আতংকিত ছিলাম, আবেগপ্রবণ আমাদের, সাধারণের মতামতকে মিডিয়া কিভাবে দেশের স্বার্থের বিরুদ্ধে নিয়ে যাচ্ছে, তা দেখে।
    শুধু দেশকে ভালোবাসার কারণে গত কয়েকদিনে বারবার চোখে পানি এসেছে, বারবার হতাশ হয়েছি, অক্ষম আক্রোশে চুপ করে থেকেছি সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের এমন নির্বুদ্ধিতা দেখে। বারবার মনে হয়েছে, এই জাতি সিরাজউদ্দৌলা, মোহনলাল, মীর মর্দান, তিতুমীর, রজব আলীর উত্তরাধিকারী না। আমরা মীর জাফর আর উঁমিচাদের রক্ত বয়ে চলছি আমাদের শিরায় শিরায়। বিষাক্ত মানসিকতার এমন অদ্ভুত বহিপ্রকাশ দেখে পড়ালেখা শেষে দেশে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা আমার টলে গিয়েছে, ইতিবাচক চিন্তা সব চলে গেছে।
    পুরো দেশের সাধারণ মানুষ অল্পশিক্ষিত, আবেগপ্রবণ। কিন্তু সামাজিক কাঠামোর মাথা রাজনীতিবিদরা আর বুদ্ধিজীবিরা যখন পঁচে যায়, তখন আর কিছুই করার থাকেনা।
    দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের লাশ যখন নর্দমায় ভেসে বেড়ায়, দেশপ্রেমের স্বপ্ন দেখার দু:সাহসের অপরাধে যে চোখকে বেয়নেট দিয়ে ঠুকরানো হয়, দেশরক্ষার শপথ নেয়ার অপরাধে জাতির যোগ্য সন্তানদেরকে নিরস্ত্র অবস্থায় গণহত্যার শিকার হতে হয়, সেই দেশের পরিচয় আমি জন্মগত ভাবে বয়ে চলছি বলে লজ্জিত হই।
    আপনাদের ব্লগে নন-ক্যাডেট ষ্টুডেন্ট দের সদস্য না করাটাই স্বাভাবিক, কিন্তু মন্তব্য মডারেশনের পর প্রকাশ করা হলে আপনাদের কমিউনিটির জন্য লাভ ছাড়া কোন ক্ষতি নেই। বরং যে সব সমস্যা দেখা যাচ্ছে, তার সমাধানের জন্য সদস্য হওয়ার সময় ক্যাডেট পরিচয়ের আরোও নিশ্চিত ভেরিফিকেশনের উপায় বের করতে পারেন।
    আল্লাহ আমাদের দেশ আর স্বাধীনতাকে করুন। কিন্তু তিনি তো কোন জাতিকে সাহায্য করেন না, যতক্ষণ সেই জাতি সাহায্যের উপযুক্ত না হয়।

    জবাব দিন
  15. আলম (৯৭--০৩)

    বহিরাগতদের moderated মন্তব্য প্রকাশ করতে এতোটা সমস্যা নেই বলেই মনে হয়। তবে তারা যদি এখানে এসে আমাদের চিন্তা-ভাবনাগুলো জানতে পারে, তাতে সবারই লাভ। ফারুক সাহেবের মন্তব্যই তার প্রমাণ।

    জুলহাস ভাইকে অনেক ধন্যবাদ, বিষয়গুলো নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করাতে।

    জবাব দিন
  16. হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    আমার মনে হয় ব্লগে নন-ক্যাডেট দের কমেন্ট করতে না দিলে সিসিবির গ্রহণযোগ্যতা অনেক কমে যাবে । আর এই ব্লগ জনমত গঠনে নন-ক্যাডেট দের মধ্যে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে বলে আমি মনে করি। তাই আমি কমেন্ট ফিল্টারিং এর পক্ষে।

    জবাব দিন
  17. রায়হান রশিদ (৮৬ - ৯০)

    @ জুলহাস

    কারণ, গত কয়েকদিনে-ই বুঝতে পেরেছি…”আমরা…ক্যাডেট-রা…”-ই হৃদয়ের ভিতর থেকে দেশ-কে feel করি…, কাঁদি। দেশের জন্যে আমরা কম করি নাই আসলে।

    দুঃখিত জুলহাস, তোমার মন্তব্যকে সমর্থন করতে পারলাম না।
    এ ধরণের মন্তব্য সব ক্যাডেটদের মানসিকতাকে প্রতিফলন করে বলে মানতে রাজী নই। দেশ নিয়ে ভাবা আর দেশের জন্য কাঁদা ক্যাডেটদের exclusive prerogative না, exclusive domain ও না। দুঃখজনক এই মন্তব্যটিতে সারা দেশের জনগণের প্রতি শ্রদ্ধার অভাব ফুটে উঠেছে। দেশের সমস্ত গণতান্ত্রিক গণমূখী আন্দোলনে সাধারণ জনতার অবদান আর তাদের প্রতিদিনকার sacrifice এবং struggle সম্বন্ধে কোন ধারণা না থাকলেই এধরণের একপেশে মন্তব্য করা সম্ভব। মন্তব্যটি জনবিচ্ছিন্ন এবং উন্নাসিক, যাতে ক্যাডেটদেরও উপকার হয়না, দেশেরও উপকার হয়না।
    আর দেশের জন্য 'আসলে কম করি নাই' মানে? দেশের জন্য অনেক করলেও কি যথেষ্ট করা হয়? জীবন দিলেও কি যথেষ্ট দেয়া হয়? এটা কি বলার মত কিছু?
    জানি আমরা সবাই এই মুহুর্তে আবেগাক্রান্ত। কিন্তু কোন আবেগী পরিস্থিতিই এমন মতামতকে excuse করেনা। তোমার এই "আমরা ক্যাডেটরা" তে আমি অন্তত থাকতে রাজী নই, কারণ, এই ব্লগে আমিও একজন সদস্য।

    জবাব দিন
    • এই জিনিসটা-ই বুঝাতে পারিনা রে ভাই...ভীষণ ভালো লাগ্লো মন্তব্য টা...আমি ইদানিং সিসিবি পড়ছি...কমেন্ট-ও করছি...কোনো টপিক খুব আপত্তিকর না হলে মন্তব্য করা হয়ে ওঠে না...তাই, আমার কমেন্ট-গুলোর প্রতি ক্ষিপ্ত হচ্ছে অনেকেই...তা-ও বুঝতে পারছি...তাদের উদ্দেশ্যে একটা কথা বলি...গত সারাটা রাত আমি বালিশে মুখ চেপে কেঁদেছি...বিদেশ-বিভূঁইয়ে থাকি...কী জানি, পাশের রুমে কান্নার শব্দ যায় কীনা...!!!

      জবাব দিন
    • আদনান (১৯৯৪-২০০০)

      রায়হান ভাই বেয়াদবি নিয়েন না । জুলহাস ভাই এর কমেন্ট টা পলিটিক্যালি কারেক্ট না, কিন্তু উনারা যে মানসিক চাপের মাঝে আছেন আমার মনে হয় এটাকে আজ excuse করা যায় । বাঙ্গাল ভাই এর সব কমেন্ট পড়া হয়নি, সুতরাং কোন মন্তব্য করব না ।

      গত সারাটা রাত আমি বালিশে মুখ চেপে কেঁদেছি

      :hatsoff:

      জবাব দিন
  18. ওবায়দুল্লাহ (১৯৮৮-১৯৯৪)
    মডারেশনে আসা মন্তব্যগুলো পড়ে ভালভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া যে, সেটা প্রকাশ করা ঠিক হবে কি-না।
    সদস্য হওয়ার সময় ক্যাডেট পরিচয়ের আরোও নিশ্চিত ভেরিফিকেশনের উপায় বের করতে পারেন।

    জুলহাস দোস্ত,
    :salute:


    সৈয়দ সাফী

    জবাব দিন
    • ওবায়দুল্লাহ (১৯৮৮-১৯৯৪)

      @রায়হান ভাই,
      ধন্যবাদ আপনাকে। জুলহাসের মানসিক অবস্থার কথাটা বিবেচনা করবেন আর ভুল বুঝবেন না প্লীজ। আমরা সবাই দেশকে ভালবাসি। প্রতিটি মানুষই পারে দেশটিতে আবার শান্তি ফিরিয়ে আনতে। সে কামনাই করি।

      @ফারুক সাহেব,
      অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।


      সৈয়দ সাফী

      জবাব দিন
  19. সাইফ (৯৪-০০)

    ফারুক সাহেব,অসংখ্য ধন্যবাদ।আপনার মত মানুষের সংখ্যাই বেশি।আমরা ত আছি।যারা বিদেশে বসে দেশকে নিয়ে ,সাধআরন মানুষের আবেগ কে প্রমোদিনির মত বিদেশের কাছে বিক্রি করে তারা খুব কম।কিন্তু অনেক সক্রিয়।আপনি আমি আমরা ত আর এখন বসে নেই।আমরা ত পারি তাদের মুখে কুলুপ এটে দিতে।আমরা পারব ইনশাল্লাহ।

    জবাব দিন
  20. সাজ্জাদ (১৯৯২-১৯৯৮)

    সবার প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, এই ব্লগটাকে শুধু ক্যাডেট রাই লিখতে পারবে এটা কোনভাবেই supportable না। আমি নিজেই ক্যাডেট হয়ে এটা support করতে পারলাম না। কেউ কারও opinion এর against এ গেলেই তার comment allow করা যাবে না এটা কেমন কথা। আমাদের অন্যের মতামত কে গুরুত্ত দেয়া উচিত। আমরা ক্যাডেট বলে সমাজের আলাদা কোনো গোস্টী না। হয়তো সবাই এখন emotinal. আশা করি সবাই এটা কাটিয়ে ঊঠে ব্যাপারটা consider করবে।

    জবাব দিন
    • জিহাদ (৯৯-০৫)
      কেউ কারও opinion এর against এ গেলেই তার comment allow করা যাবে না এটা কেমন কথা

      ভাইয়া আপনি মনে হয় ভুল বুঝেছেন। এমন কথা কোথাও বলা হয়নি। ব্যক্তি আক্রমণ কিংবা অফেন্সিভ ল্যাংগুয়েজ না থাকলে কমেন্ট না এলাউ করার কোন কারণই নেই।

      আর লেখার জন্য নন ক্যাডেট কাউকে অধিকার প্রদান করার কথাটা বুঝলাম না। তাহলে আর ক্যাডেট কলেজ ব্লগ নাম রাখার দরকার কি?


      সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

      জবাব দিন
    • মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

      সাজ্জাদ ভাই, এই ব্লগটা ক্যাডেটদের জন্য বলেই কিন্তু এর নাম "ক্যাডেট কলেজ ব্লগ"।
      যে ব্লগে সবাই রেজিস্ট্রেশন করেই লিখতে পারে তাকে "ব্লগ কম্যুনিটি" না বলে "ব্লগ হোস্টিং সার্ভিস" বলা যায়।
      সিসিবি কোন ব্লগ হোস্টিং সার্ভিস না। এটা ব্লগিং কম্যুনিটি। এখানে কম্যুনিটি বলতে ক্যাডেট কম্যুনিটির কথা বলা হচ্ছে।
      লেখক সীমিত (শুধু ক্যাডেটরা), পাঠক অসীম- এটাই এখানকার থিম। (বিশেষ বিবেচনায় যে ব্যতিক্রম করা যায় সেটা রেড বুকে বলা আছে)।

      যেকোন ম্যাগাজিন বা প্রকাশনীর থিমও কিন্তু এরকম। ক্যাডেট কলেজের বার্ষিকী বা এক্স-ক্যাডেট এসোসিয়েশনগুলোর সাময়িকীতে কিন্তু ক্যাডেট বা এক্স-ক্যাডেট বা ক্যাডেট কলেজ সম্পর্কিত ছাড়া অন্য কেউ লিখতে পারে না। কিন্তু পড়তে পারে সবাই (অন্তত যাদের কাছে পৌঁছিয়েছে তাদের সবাই)।

      আর মন্তব্যের ব্যাপারে বলতে হয়, কারও বিপক্ষে গেলেই মন্তব্য ফিল্টার করা হয় এমন না, মন্তব্যে হস্টাইল, আপত্তিকর বা ব্যক্তি আক্রমণমূলক কিছু আসলেই কেবল ফিল্টার করা হয়। বিভিন্ন সময় এমনটাই দেখে আসছি।

      জবাব দিন
  21. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)
    কেউ কারও opinion এর against এ গেলেই তার comment allow করা যাবে না এটা কেমন কথা।

    -এটা মনে হয় বোঝার ভুল।

    আমাদের মধ্যে কিছু বিষয়ে অলিখিত সমঝোতা আছে যা অন্যদের মাঝে ইম্পোজ করা যাবে না। শুধু সিনিয়রিটি'র কথাই ধরো। এরকম আরো। আশা করি সব বলে দিতে হবে না।

    -এসবের জন্যই "ক্যাডেট কলেজ ব্লগ"কে সবার জন্য ওপেন করা ঠিক হবে না। বিষয়টা অন্য ব্লগগুলোর অবস্থা দেখে বোঝা উচিত।

    গণতন্ত্র মানে যে স্বেচ্ছাচার না, সেটা মাথায় রেখেই এই ব্লগটা চালাতে হবে।কারন, এটা আমাদের বাড়ী।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
    • আলম (৯৭--০৩)

      মাহমুদ ভাইয়ের সিদ্ধান্তের সাথে যদিও আমি একমত না, তবে ওনার উথথাপিত যুক্তিটা খুবই প্রাসঙ্গিক। তাই ফাইনাল ডিসিশনের সময় এই বক্তব্যটাকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করার জন্য মডুদের অনুরোধ করছি।

      জবাব দিন
  22. রাশেদ (৯৯-০৫)

    জুলাহাস ভাই আপনার পোষ্টের মতামতের সাথে একমত হতে পারলাম না বলে দুঃখিত। আমাদের ক্যাডেটদের সম্পরকে বাইরে নানা আজগুবি কথা প্রচলিত আছে। সেই সব আজগুবি কথার ভাল একটা জবাব হতে পারে এই ব্লগ। তাই এই ব্লগের মূল থীম হওয়া উচিত লেখক সীমিত(ক্যাডেটস) কিন্তু পাঠক অসীম। আর আমরা সমাজের বাইরের কোন অংশ না তাই আমার মনে হয় ক্যাডেট ছাড়া বাকিদের মডারেশন সাপেক্ষে মন্তব্য করার সুযোগ থাকা উচিত।
    ভাল থাকবেন জুলহাস ভাই।


    মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

    জবাব দিন
    • আদনান (১৯৯৭-২০০৩)

      কমেন্ট করা তো পার্মিটেড... সেখানে তো কোন সমস্যা দেখতেসিনা। জাস্ট একটু কেয়ারফুল হয়ে বাজে ভাষা ব্যবহার বা আক্রমণাত্নক APPROACH কে ডিসকারেজ করা হচ্ছে। সেগুলি পাওয়া গেলে ফিল্টারিং হবে। সাথে এটাও চাইছি যে ফিল্টার মানে বাদ নয়, সংশোধন -- মূল বক্তব্যটি যেন পৌছানো হয়।

      কিন্তু সবাইকে (নন-ক্যাডেটস)ব্লগ লেখার স্বাধীনতা দেবার আমি বিপক্ষে। সেটা হলে এই ব্লগের নামকরণের সার্থকতা থাকেনা; এটা অন্যান্য ব্লগের মতই হয়ে যায়।

      লেখক সীমিত(ক্যাডেটস) কিন্তু পাঠক অসীম
      জবাব দিন
  23. তারেক  (১৯৯৮-২০০৪)

    "জাস্ট একটু কেয়ারফুল হয়ে বাজে ভাষা ব্যবহার বা আক্রমণাত্নক APPROACH কে ডিসকারেজ করা হচ্ছে"

    আমার মনে হয় কার বাজ়ে ভাষা বা আক্রমনাত্মক কথা যা অন্য এর মনে আঘাত দিতে পারে, তাদের BAN করা যেতে পারে...কিন্তু আমি নন ক্যাদেট দের এলাউ না করার বিপক্ষে...।।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।