শিক্ষকের ডায়রিঃ পর্ব-৮ (যস্মিন দেশে যদাচার)

২৪ জুলাই ২০২২

আমার বর্তমান কর্মজীবনের নানান অভিজ্ঞতা নিয়ে প্রায়ই লেখা হয় “শিক্ষকের ডায়রি” সিরিজটাতে। আমার আজকের এই লেখাটা আমার পূর্বের কর্মজীবন এবং কর্মস্থল বিষয়ক কিছু অভিজ্ঞতা নিয়ে।

আমার কর্মজীবনের শুরুটা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় থেকেই। আড়াই বছর নিজের ডিপার্টমেন্টেই বিভাগীয় প্রধানের অফিসিয়ালি এ্যাপয়েন্টেড খণ্ডকালীন সহকারী হিসেবে কাজ করেছি। দারুন অভিজ্ঞতা। শিক্ষকদের বকা খেতে খেতে কাজ শেখা। আমার এযাবৎ কর্মজীবনের সবচেয়ে ভাল সময় ছিল সেটা।

বিস্তারিত»

বিক্ষিপ্ত চিন্তামালাঃ পর্ব-২ (বিবেচনাধীন বিষয়ে তথ্যের গোপনীয়তা)

২২শে জুলাই ২০২২

যে কোন সংবেদনশীল (সেন্সিটিভ) বিবেচনাধীন বিষয়ে তথ্যের প্রাতিষ্ঠানিক গোপনীয়তা, গনমাধ্যমের প্রচারনা এবং আমজনতার মুখে মুখে তার রটনা নিয়ে ভাবছিলাম। কিছু সমসাময়িক প্রিন্ট/নিউজ/সোশ্যাল মিডিয়া কেন্দ্রিক বিষয়কে আধার করেই চিন্তাগুলো বিক্ষিপ্তভাবে মাথায় ঘুরছিল।

এমন বিষয়ে/বিষয়গুলোতে আমার একান্ত চিন্তা/ভাবনা হলো, যে কোন প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বিবেচনাধীন বিষয় সম্পর্কিত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষার্থে সর্বোচ্চ সতর্কতা নেয়া অত্যাবশ্যক। এমনকি প্রয়োজনের স্বার্থে গনমাধ্যমের প্রকাশ্য প্রশ্নের জবাবে কিংবা পাব্লিক কোয়েশ্চেন-এর বিপরীতে “নো কমেন্টস”

বিস্তারিত»

ও যে কেড়ে আমায় নিয়ে যায় রে ….

তখন ১৯৯৪ সাল। দাপ্তরিক কাজে রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন জেলায় জেলায় যেতে হয়েছিল। পাবনায় যখন গেলাম, তখন করণীয় কাজটুকু সেরে ফেলার পর হাতে কিছুটা সময় রয়ে গেল। পাবনার ডাঃ ইসহাক একজন স্বনামধন্য চিকিৎসক ছিলেন, তার নামে একটি সড়কেরও নামকরণ করা হয়েছে। তার ছেলের সাথে আমার বন্ধুত্ব হয়েছিল, তিনিও এলাকায় বেশ প্রভাবশালী ছিলেন। তাকে বললাম, পাবনা মানসিক হাসপাতালটি একবার দেখে যেতে চাই। মানসিক রোগীদের ব্যাপারে আমি আজীবন কৌতুহলী।

বিস্তারিত»

মেলবোর্নের দিনলিপিঃ সৌজন্য, সহযোগিতা, সুআচরণ এবং সম্মান

উপরে যে কয়েকটি গুণাবলীর কথা উল্লেখ করলাম, তার মধ্যে প্রথম তিনটি যাদের মধ্যে আছে, শেষেরটিও তাদের মধ্যে অবশ্যই পাওয়া যাবে। অর্থাৎ যিনি অপরের প্রতি সৌজন্য, সহযোগিতা এবং সুআচরণ প্রদর্শন করে থাকেন, তিনি অপরকে অবশ্যই সম্মানও করে থাকেন, এবং এ কারণে নিজেকেও অপরের নিকট সম্মানীয় করে তোলেন। অস্ট্রেলিয়ায় এটা আমার তৃতীয় সফর। প্রতিবারে আমি এখানকার পথে ঘাটে, ট্রামে বাসে ট্রেনে, শপিং মলে, রেস্তোরাঁয় এখানকার মানুষের মাঝে এই গুণগুলোর পরিচয় পেয়েছি।

বিস্তারিত»

লাবকের কড়চা-১। আন্তর্জাতিক সপ্তাহ

সেই যে এক শীতের রাতে, উত্তুরে বাতাসে কেঁপে ঝেপে এসে হাজির হয়েছিলাম টেক্সাস কড়াই হাতার একেবারে মধ্যিখানে এই ছোট্ট শহরে, তারপর নানা চমকের ভেতর দিয়ে কোথায় যে কেটে গেছে মাস দুয়েক, বুঝতেই পারিনি। এদেশে সপ্তাহে মাত্র দু’দিন– উইক ডে এবং উইক এন্ড। তাই দিন যায় উল্কার বেগে। এমনি সময়ে এল আন্তর্জাতিক সপ্তাহ– দেশি-বিদেশি ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে বেশ জাঁকালো আয়োজন। খেলাধূলো, নাচগান, ফ্যাশন শো- এরকম নানা ব্যাপার।

বিস্তারিত»

কাশবনে প্রলাপ

কাশবনে প্রলাপ

মৌসুমী বাতাসে এবার বাষ্পটা কম
তবু কাশবন হয়েছে ঘন সবুজ
তোমারই অপেক্ষায় রোদে পুড়েপুড়ে
আকাশে মেঘের দল হারিয়েছে কালি
শামুকখোল আঁচড় কাটে নীল ক্যানভাসে
ময়ূরকণ্ঠী নীল শাড়ীতে ভেজা তোমায়
দেখার অপেক্ষায় শুকিয়েছে কদমফুল
পেঁজা তুলো মেঘের  সাথে কাশবনে এসো
যখন মানুষ বা হরিণ ভালুকের পাশে
নির্ভয়ে থাকবে যাযাবর আকাশে।
ততদিন না হয় কলকাকলির নৌবিহার
চটপটি ফুচকা আর উচ্ছল সেলফিবাজি
দেখে দেখে কাটিয়ে দেবো সময়।

বিস্তারিত»

ভারী জীবনের ভারবাহী কিছু মানুষের কথা…..

দিনটি ছিল শনিবার, ১১ জুন ২০২২। ড্যান্ডিনং স্টেশনে নেমে আমরা অন্য লাইনের একটি ট্রেন ধরার জন্য প্ল্যাটফর্ম বদল করতে যাচ্ছিলাম। স্টেশনটি সে সময়ে মোটামুটি জনশূন্য ছিল বলা যায়। কিছুদূর এগোতেই দেখি, প্ল্যাটফর্মের মেঝেতে কে যেন শুয়ে আছে। তার পাশে একজন হাটু গেঁড়ে বসে তার মাথায়, গালে পরম মমতায় হাত বুলাচ্ছে। দু’জন ইউনিফর্মধারী স্টেশন সিকিউরিটি স্টাফ উদ্বিগ্ন চেহারায় শায়িত ব্যক্তির দিকে তাকিয়ে আছে এবং মৃদু পায়চারি করছে।

বিস্তারিত»

ইচ্ছে নামের দৈত্যটাকে

ইচ্ছা নামের দৈত্যটাকে ……!!!!!!!!

ইচ্ছে হলেই পেতে হবে এই কথাটা কে বলেছে?
শ্রাবন মাসেই বৃষ্টি হবে এটাই বলো কে মেনেছে?
হৃদয় যদি পাখী হতো আমি তবে হতাম-টা কি?
মগজ যদি এতই ব্যস্ত কিসের এত জানাজানি?
তাই ইচ্ছা নামের দৈত্যটাকে সামলে রেখে চলো,
নতুবা কিন্তু সাজানো বাগান হতে পারে এলোমেলো।।

ইচ্ছে হলেই করতে হবে এমন কাজ কয়টা আছে?

বিস্তারিত»

গ্রহান্তরী ভালবাসা

গ্রহান্তরী ভালবাসা
—————
শিল্পী: রেশাদ
কথাঃ বাপ্পী খান
সুর-সংগীতঃ মাহফুজ আনাম জেমস
অ্যালবামঃ গ্রহান্তরী ভালবাসা (১৯৯১-৯২)
লেভেল: সারগাম
————————————
কোন এক রাতে
আমার স্বপ্নের উঠোনে
হঠাৎ আগমনে এক নভোচারীনি,
গ্রহান্তরী ভালবাসা।
অহঃরহঃ মেলামেশা
বৃষ্টির মত মাঝেমাঝে
জীবনের কাছে কিছু পাওয়া।
গ্রহান্তরী ভালবাসা।

কোমল আলিংগনে জড়িয়ে আমাকে
উড়িয়ে নিয়ে গেল এক স্বপ্নের দেশে।।

বিস্তারিত»

শিক্ষকের ডায়রিঃ পর্ব-৭

আমি সচরাচর আমার এক্সিস্টিং কোন ছাত্র/ছাত্রীর কাছ থেকে কোন প্রকারের গিফট/টোকেন রিসিভ করি না। তবে কালেক্টিভলি ছাত্র/ছাত্রীরা যদি ডিপার্টমেন্টের সব শিক্ষকের জন্য (বিশেষ করে তাদের বিদায় অনুষ্ঠানে) স্মৃতিস্মারক হিসেবে কোন কিছু দেয়, তখন তো সেটা নিতেই হয়। অবশ্য এর বাইরেও কখনো কখনো নিতে হয়েছে; যেমন, কেউ হয়তো বিদেশ সফর থেকে ফিরেছে, এবং ডিপার্টমেন্টের সকল শিক্ষকের জন্য কিছু টোকেন নিয়ে এসেছে; আমার কাছে তখন মনে হয়েছে সেটা ফিরিয়ে দেয়া অসামাজিক এবং অসম্মানজনক।

বিস্তারিত»

বুক রিভিউ – একজন ক্যাকাসু

বইঃ একজন ক্যাকাসু

লেখকঃ যোবায়েদ আহসান

প্রকাশঃ ২০২২

বিভাগঃ রম্য উপন্যাস

ব্যাক্তিগত রেটিংঃ৯/১০

এক্সাম আগের দিন হুট করে “আউট নলেজ” বই পড়ার অভ্যাস ছোটবেলা থেকেই। এই অভ্যাস রেসাল্টের অনুকুল না, তাই ছাড়ব ছাড়ব করছি বেশকিছু দিন থেকেই। দীর্ঘদিন পর কাল এক্সাম , তাই অনেকদিন পর অভ্যাসটা মাথা চাড়া দিয়ে উঠল। অনেক চেস্টা করলাম ইগনোর করতে,

বিস্তারিত»

চারটি লিমেরিক ও অন্যান্য

তানকা লিমেরিক

ফেসবুকের ময়দান
অন্তর্জালের বন্দীগণ
কপি পেস্ট করে
অবিরত প্রয়াসে
ছায়াবাজিতে মহান

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

 

লিমেরিক

 

গমের শীষে শিশির কণা
ফাগুন প্রাতের মুক্তোদানা
রোঁয়া ফুলায়
রোদ পোহায়
গ্রিলে বসা চড়ুইছানা

 

ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২২

 

লিমেরিক

এক যে ছিল সেনাপতি সঙ্গলিপ্সা দুষ্ট
প্রথম পৃষ্ঠায় না ছাপালে হত মহা রুষ্ট
রেখেছ যে বাঙালি করে
কবিতা বিতান সাধনারে
হায় গুরুদেব,

বিস্তারিত»

ক্ষণিকের দেখা, এ মায়াময় ভুবনে – ৪

আগের পর্বটি পড়তে পারবেন এখানেঃ ক্ষণিকের দেখা, মায়াময় এ ভুবনে – ৩

এ পর্বে আমি যে দুটো ‘ক্ষণিকের দেখা’ স্মৃতি রোমন্থন করবো, তার প্রথমটি একটি দৃশ্যের, আর পরেরটি একটি (মানুষের) মুখের। অবশ্য প্রথমটি শুধুমাত্র একটি দৃশ্যের হলেও, তার পেছনে ছিল একটি অদেখা, কল্পিত মুখও।

সে বহুদিন আগের কথা। আমার বয়স তখন পঁচিশ-ত্রিশের মাঝামাঝি, আমি সেনাবাহিনীর একজন তরুণ অফিসার। ডিসেম্বর-জানুয়ারী মাসে সেনাবাহিনীর বাৎসরিক শীতকালীন যৌথ প্রশিক্ষণ অনুশীলন হয়ে থাকে।

বিস্তারিত»

নতুন নায়ক

নতুন নায়ক

নতুন প্রশ্নের জবাব কি নতুন হতে হবে?

পুরাতন প্রেমের ভালবাসা কি সুখের হবে?

নাকি ছলনার আচ্ছাদনে হারাবে সব।

প্রেমের কবিতা নতুন করে সাজাতে হবে।

নাকি যোগ বিয়োগের পালা হবে মেলা।

হিয়ার অট্টহাসি হাসবে নতুন ভিলেন।

অপারগতায় থিতু হবে নতুন নায়ক।

প্রেক্ষাপটে মত পাল্টাবে নতুন নায়িকা।

আমি হলফ করে কিছুই বলতে পারি না।

বিস্তারিত»

আমার জীবনে নারীঃ পর্ব-৩

A TRIBUTE TO A MOTHER

মাতৃতুল্য অতি ঘনিষ্টজন গতরাতে ইহলোকের মায়া ত্যাগ করেছেন, তিনি আমার সুখ-দুঃখের সাথী এমনই এক বন্ধুর মা। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাইহি রাজিউন।

আমার এই বন্ধুটির সাথে আমার পরিচয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় থেকে, ১৯৯৫ সাল থেকে, একই ডিপার্টমেন্টের সহপাঠী হিসেবে। আমাদের দুজনের এলাকা ভিন্ন এবং পরবর্তীতে বেশ ভিন্ন কর্মজীবনে থাকা স্বত্ত্বেও সুখে-দুঃখে অনেক স্মৃতিতেই আমরা একে অপরের সাথে জড়িয়ে আছি।

বিস্তারিত»