জোকোস ফ্রম ক্যাডেটস ট্রল

০১

কোনো এক কলেজে বজলার নামক এক স্টাফ ছিল…………
তো একদিন প্যারাডে এক ক্যাডেট রে ধরছে…… কজ তার বেল্ট ঢিলা…
……
……
……
বজলারঃ আপনার বেল্ট ঢিলা কেন?????
ক্যাডেটঃ স্টাফ, আমার বেল্ট এর রানার নাই …তাই টাইট হয় না……
বজলারঃ বেল্ট এর রানার না থাকলে কি টাইট করা যায় না?????? আপনে ৫ টা পুশ আপ দেন……….

বিস্তারিত»

গণবিদ্রোহঃ এখন থেকে অণুব্লগ হবে (তারপরেও বেশখানিকটা লিখে ফেললাম)

প্রারম্ভিকাঃ এই সরকার ক্ষমতায় আসার আগে বলেছিল, “আমরা ক্ষমতায় গেলে সিসিবিতে অণুব্লগের জন্য নতুন শাখা খোলা হবে। অণুব্লগকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া হবে, সহজ শর্তে ঋণ দেয়া হবে।” কিন্তু তার কোনটাই এরা পূরণ করে নাই। দিনের পর দিন মন্ত্রনালয়ের দারে দারে ঘুরেছি। আভাসে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছে টেকাটুকা ছাড়া গতি নাই। আমি আবহমান গ্রাম-বাঙলার দুস্থ ছাত্র। অর্ধাহারে থাকি। মিশুক ট্যাক্সি চালিয়ে চিকিৎসার টাকা জোগার করতে হয় নাই তবে ভোজনালয় ও প্রাক্ষলন রক্ষনাবেক্ষণ করে দুই-চারটি ডলার কামাই করি।

বিস্তারিত»

একটি সারপ্রাইজ বার্থডে পার্টি এবং…

কাল তারিফের জন্মদিন, একটা স্পেশাল দিন। আর কারো জন্য না হলেও তারিফের জন্য অবশ্যই। তাই এই উপলক্ষ্যে প্রীতি তারিফকে একটা সারপ্রাইজ দেবে বলে ঠিক করেছে। গার্লফ্রেণ্ড হিসেবে এটা তার দায়িত্ব বলেই ধরে নিয়েছে সে।

তারিফ তার কলেজের বন্ধুদের খুব মিস করে। প্রীতির পরিকল্পনা হলো, তারিফের সেই বন্ধুগুলোকে একসাথে ডেকে নিয়ে একটা সারপ্রাইজ বার্থডে পার্টি দেবে। পরিকল্পনামত তারিফের কলেজের বন্ধু নুর-এর সাথে যোগাযোগ করলো প্রীতি।

বিস্তারিত»

ছেলে-ধরা

হয়তো আগেও সমস্যাটা ছিল সুপ্ত অবস্থায়, কিন্তু জিনাত বেগম এখন তা গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করছেন। বিশেষ করে আগের দিন শাকিলার বাসা থেকে ফিরে আসার পর থেকে। ফলাফল গতরাতের পুরোটাই কাটলো নির্ঘুম অবস্থায়। পরদিন সকালে উঠলো মাইগ্রেনের ব্যথা। অনিদ্রা আর মাইগ্রেন – একেবারে কান আর মাথা। একটা টানলে আরেকটা সুরসুর করে এগিয়ে আসে। সেই সাথে শুরু হবে আরও কিছু যন্ত্রণাদায়ক উপসর্গ। যেমন, খাবারের অরুচি, বমি বমি ভাব।

বিস্তারিত»

French Revolution এক ধরণের গ্যাস?!

তখন দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়ি। প্রাক নির্বাচনী পরীক্ষা চলছিল। পরদিন ছিল ইংরেজি পরীক্ষা। আর ইংরেজি পরীক্ষার ক্ষেত্রে যা হয়, আমরা ইংরেজি না পড়ে রসায়ন পড়ছিলাম। কারণ ইংরেজির পরদিন ছিল রসায়ন পরীক্ষা। এ কাজটা আমরা পুরো ক্যাডেট life ই করে গেছি। ইংরেজি পরীক্ষার আগের দিন তার পরের পড়া পড়তাম। এ নিয়ে লতিফা ম্যাডামের প্রচুর কথা শুনতে হয়েছে। যদিও তিনি ছিলেন বাংলার শিক্ষিকা।তো আমরা যারা বিজ্ঞান বিভাগে ছিলাম তারা রসায়ন আর মানবিক বিভাগে যারা ছিল তারা ইতিহাস পড়ছিল।

বিস্তারিত»

অতসীর ফুটবল খেলা দেখা

ছোটবেলা থেকেই ফুটবল খেলাটা আমার খুবই প্রিয় ছিলো। সেই ক্লাস ৫ এ ফুটবল খেলতে গিয়ে পায়ের গোড়ালি মচকিয়েছিলাম; তারপর মা পিটাবে, ঐ ভয়ে সারাদিন বাসায় যাইনি। তাতে অবশ্য লাভ হয়নি, সন্ধ্যাবেলা যখন ঠিকই পা ফুলে ঢোল হয়ে গিয়েছিলো আর শরীর কাঁপিয়ে জ্বর এসেছিলো, তখন মা’র বসকিছু বুঝতে বিশেষ বেগ পেতে হয়নি। ক্যাডেট কলেজে যাওয়ার পর খেলাধুলার জন্য অনেক সুযোগ পেলাম, কিন্তু সেই ক্লাস ১০এ পা ভাঙ্গার পর ফুটবলটা আর আগের মত খেলা হয়ে উঠেনি।

বিস্তারিত»

দি নিউ মমিন্সিঙ্গা সার্কাসঃ ওয়ার্ল্ড কাপ এপিসোড (কিঞ্চিৎ ভাল্গার)

সরগরমে কাবাব বানায় যে ছেলেটা সে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে দিয়ে ব্যস্ত হয়ে কাবাব বানাচ্ছে। সন্ধ্যায় ভালই ট্য্রাফিক থাকে। তার ঠিক সামনেই পার্কিং লটে একটা সাদা রঙের মিনি পিক আপ ভ্যান। আশেপাশে প্রচুর নাগরিক ব্যস্ততা। হঠাৎ কথা নাই বার্তা নাই একটা লোক, বয়স ত্রিশের কাছাকাছি, একটা স্যান্ডো গেঞ্জি আর পুরনো জিন্স পরনে, পিক আপে উঠে গেল। মোচ-দাড়িওয়ালা লোকটাকে চে’র অনুচর বলে ভুল হয়। সে মুষ্টিবদ্ধ দুই হাত উপরে তুলে হুট করে তারস্বর শ্লোগান শুরু করল
“ব্রা আ আ আ আ আ জিল,

বিস্তারিত»

জীবন মানে জি বাংলাঃ রিমান্ডাগ্রহ

প্রথম আলোতে একটা খবর পড়ে দুই জায়গাতে ধাক্কা খেলাম! শেখ হাসিনা নাকি জিয়া হত্যা মামলায় খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়াকে রিমান্ডে নিতে আগ্রহী। ব্যাক্তিগতভাবে খালেদা জিয়া বা তারেক জিয়ার প্রতি আমার দৃষ্টিভঙ্গি আর দশটা রাজনীতিবীদের প্রতি যেমন, ঠিক তেমনই, কিন্তু সেটা এখানে বিবেচ্য বিষয় না। যেখানে যেখানে ধাক্কা খেলাম, তা হলো, প্রথমত, প্রধানমন্ত্রীর পদানসীন একজন ব্যাক্তি আইনের আওতায় আনার চাইতে রিমান্ডে নেয়ার প্রতি বেশী আগ্রহী,

বিস্তারিত»

অতসীর সতীন

//www.cadetcollegeblog.com/raihan1303/34732 (এ সিরিজের প্রথম গল্প)

//www.cadetcollegeblog.com/raihan1303/36719 (এ সিরিজের দ্বিতীয় গল্প)

 

অতসী এখন অনেক বড় হয়েছে। সে এখন একটা মেডিকেল কলেজের ছাত্রী……সারাদিন বিজি থাকে। যখন তাকে ফোন দেই, “আমি তো পড়ছি, পরে কথা বলি?” বা “ক্লাসে এখন……পরে ফোন দেই?” টাইপ কথা শুনতে হয় আমার। আমি এইদিকে আমার স্টুডেন্ট নিয়ে বিজি, সন্ধ্যাবেলা আমার নিজেরই ক্লাস ৯ এর বাচ্চাগুলোকে সময় দেয়া লাগে।

বিস্তারিত»

এভারেস্ট জয় করে ফেরা এক্স ক্যাডেট দের নিয়ে একটি ছবিব্লগ

হুজুগ শুরু হতে আমাদের সুনির্দিষ্ট কোন কারন লাগেনা। একটু মজা লুটার সুযোগ পেলে কেইবা সেই সুযোগ মিস করতে চায় ? এভারেস্ট এর চূড়ায় আরোহণ নিয়ে অতি সাম্প্রতিক কালে সৃস্ট বিতর্ক কে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে  প্রাক্তন এক্স ক্যাডেট রা বেশ সাজ সাজ রবের সাথেই ফেসবুকে ছবি আপলোডের মাধ্যমে রেকর্ড সংখ্যক বারের মতন এভারেস্ট আরোহন করে ফেললেন। প্রথমেই পাসপোর্ট সাইজের ছবি সহ এভারেস্টের চূড়ায় উঠে দুই হাত উচু করে হেড়ে গলায় হুঙ্কার ছাড়েন এমসিসি ১৯৯৯ ইনটেকের তুহিন ভাই..

বিস্তারিত»

“সুন্দরবনে ব্যাঘ্র-বন্ধন”

সুন্দরবন থেকে জানা গেছে আজ সকাল বেলা সুন্দরবন প্রেসক্লাবের সামনে টাব (TAB—Tiger’s Association of Bangladesh) এর উদ্যোগে এক ব্যাঘ্র-বন্ধনের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়ারদের টাইগার নামে ডাকার এই প্রতিবাদ আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান টাবের সভাপতি।

টাবের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, ” বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই উপর্যূপরি হারের পরেও তাদের টাইগার ডাকায় বাঘ সমাজের ভাবমূর্তি খুবই বাজে ভাবে নষ্ট হচ্ছে। আগে যেখানে বাঘ দেখলেই সবাই সম্মান করত,

বিস্তারিত»

পাঁচ মিনিট সেনাবাহিনীর গল্প

একগাদা বন্ধুবান্ধব, সিনিয়র ভাই আর জুনিয়র ছেলেপেলে এখন আর্মি অফিসার। জুনিয়র গুলো সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট, ফ্রেন্ডরা লেফটেন্যান্ট, বড়ভাইয়েরা প্রায় সবাই ক্যাপ্টেন। তাদের সাথে বিগত পাঁচ বছরের চলাফেরা, কথাবার্তা, অবজারভেশন এবং অ্যানালাইসিস করে কিছু সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি। ভুল হতে পারে, তবে এগুলো একান্তই আমার ব্যক্তিগত মতামত~

এক# শতকরা ৯০% জুনিয়র আর্মি অফিসারের ল্যাপটপের হার্ডডিস্কে সবচেয়ে বড় ফোল্ডারটি তামিল ম্যুভির। হাতে দুই ঘণ্টার অবসর পেলে তারা হয় নতুন তামিল ম্যুভি দেখে,

বিস্তারিত»

লুকিয়ে প্রেম করার ১০ টি উপায়

পৃথিবীতে প্রেম-ভালবাসা পবিত্র একটি জিনিস।পৃথিবীর অধিকাংশ সাহিত্য এই বিষয়টি নিয়ে লেখা,এবং আমাদের পাঠ্যপুস্তকেও অনেক পাঠ্য অধ্যায় আছে যা ভালবাসা সম্পর্কিত।কিন্ত বাঁধ সাধেন আমাদের বাবা মা,যারা নিজেরাও একই জিনিস পড়ে পাস করে এসেছেন!ওনারা বোঝেন না যে এত কষ্ট করে বাংলার জন্য কোচিং করার চেয়ে প্রেম করলে নিজের মধ্যে সাহিত্য বোধ গড়ে উঠবে।আরেকটি মজার ব্যাপার হল যে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার অসাড়তার অনেক বড় একটি উদাহরণ এটি,কিন্ত কেউ এটি কখনোই উল্লেখ করে না!কিছু হলেই আমাদের বলেন যে আজকালকার ছেলেমেয়ে কোন সাহিত্য পড়ে না,রবীন্দ্রনাথ বা শরৎচন্দ্র কারা তা জানে পর্যন্ত না।অথচ যদি আমরা বিলাসী বা হৈমন্তী গল্পের মত কিছু করি,তারাও আমাদের সেই বিলাসীর  গ্রাম বাসীর মতই রক্ষা করেন,বা হৈমন্তীর মত,কিছু হলেই সব দোষ শুধু আমাদের প্রেমিক-প্রেমিকার দেবেন!

বিস্তারিত»

আমার ক্যাডেট লাইফ- পর্ব ১

ঠিক তারিখ টা মনে নাই। ১৯৯৮ সালের জুন মাসে শুরুর দিকের ঘটনা মনে হয়। আমার প্রয়াত মেজ মামা আমাদের উল্লাপাড়ার বাসায় আসল। জিজ্ঞেস করল কি খবর ক্যাডেটে চান্স পাইসি কিনা? আমি বললাম রেজাল্ট দেয় নাই।মামা বলল দিসে তো, আমি পেপারে দেখলাম, তাও অনেক দিন আগে। মামা বাইরে গেল, সেই পেপার সংগ্রহ করে আনল। আমার তো #### শুকাইয়া কাঠবাদাম। কি হয়। কোথাও ভর্তিও হই নাই তখন পর্যন্ত।

বিস্তারিত»

পাঙ্গা

ক্লাস সেভেনে কলেজে যাবার পর দিন সার্জেন্ট লিয়াকত স্টাফের সাথে সবাই কলেজ পরিদর্শনে বের হলাম। খুব স্বাভাবিকভাবেই সবার সম্মিলিত কথাবার্তায় জোরে শব্দ হচ্ছিল। লিয়াকত স্টাফ হঠাত চেঁচিয়ে উঠলেন, “এইপ! ক্যাডেট কোন কথা বলবে না… একখনি পাঙ্গা শুরু হইয়া যাবে”। পাঙ্গা নামক হাস্যকর নতুন শব্দটির কোন অর্থ কেউ বুঝতে পারল না। একজন আরেকজনের মুখ চাওয়া চাওয়ি করতে লাগলাম। তবে এটা বুঝলাম, নিশ্চয়ই সেটা ভাল কিছু হবে না।

বিস্তারিত»