দি নিউ মমিন্সিঙ্গা সার্কাসঃ ওয়ার্ল্ড কাপ এপিসোড (কিঞ্চিৎ ভাল্গার)

সরগরমে কাবাব বানায় যে ছেলেটা সে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে দিয়ে ব্যস্ত হয়ে কাবাব বানাচ্ছে। সন্ধ্যায় ভালই ট্য্রাফিক থাকে। তার ঠিক সামনেই পার্কিং লটে একটা সাদা রঙের মিনি পিক আপ ভ্যান। আশেপাশে প্রচুর নাগরিক ব্যস্ততা। হঠাৎ কথা নাই বার্তা নাই একটা লোক, বয়স ত্রিশের কাছাকাছি, একটা স্যান্ডো গেঞ্জি আর পুরনো জিন্স পরনে, পিক আপে উঠে গেল। মোচ-দাড়িওয়ালা লোকটাকে চে’র অনুচর বলে ভুল হয়। সে মুষ্টিবদ্ধ দুই হাত উপরে তুলে হুট করে তারস্বর শ্লোগান শুরু করল
“ব্রা আ আ আ আ আ জিল, ব্রা আ আ আ আ আ জিল! ”
পাগল!
হঠাৎ বিচিত্রতায় সান্ধ্যকালীন নাগরিক জীবনে কয়েক মুহূর্তের স্থবিরতা নেমে এল। আশেপাশে যেই যাচ্ছে লোকটা তার মুখের কাছে ঝুঁকে এসে দুই হাত তুলে, দুলে দুলে চেঁচাচ্ছে। অবর্ণনীয় এক তৃপ্তির হাসি তার চোখে মুখে।(আমি নিশ্চিত, পাব্লিকরে বিরক্ত কইরা আমি যখন খুব মজা পাই,তখন আমার মুখে ঠিক এই হাসিটাই থাকে)। কাবাব বানানো ছেলেটা খুব বিরক্ত।
মজা শেষ হয়ে গেলে পিক আপওয়ালা একটা লাঠি নিয়ে হাজির। তখনো শ্লোগান চলছে! পিকাপওয়ালার আসল এলার্জি কোথায় তা তাদের কথাবার্তায় বুঝা গেল
-যতই ব্রাজিল ব্রাজিল করস, ব্রাজিল কাপ নিবার পারত না ইবার!
-ব্রা আ আ আ আ জিল, ব্রা আ আ আ আ জিল।
-আবার ব্রাজিল! চুত্মারানির পুত, ক আর্জেন্টিনা। নাইলে দিলাম পাছাত দুইডা। (উদ্যত লাঠি)
-ব্রা আ আ আ জিল, ব্রা আ আ আ আ জিল।(স্বর উচ্চতর গ্রামে)
-নডির পুত, নাম কইলাম।
-ব্রা আ আ আ জিল,ব্রা আ আ আ জিল। (অ্যাক্রব্যাটিক স্ট্যাইলে তিড়িং বিড়িং করে লাঠির আঘাত এড়ানো)
– মাঙ্গির পুতাইনরে আজকা খাইছি। তর পুঙ্গিত যদি আজকা লাডি না ডুহাইছি….!
-ব্রা আ আ জিল, ব্রা আ আ জিল।

পিকাপের উপরে পিকাপওয়ালা ব্রাজিল-ওয়ালাকে ধাওয়া করছে।
– তর ব্রাজিলের মায়রে ….! তর ব্রাজিলে কুনু প্লেয়ার আছে?
-ব্রা আ আ জিল, ব্রা আ আ…জিল!
-এহা নেইমারে কুন বাল্ডা ছিড়ব তা আমাগো জানা আছে না?
-ব্রা আ আ..
-তগর মেসি আছে? আগুয়ারা (!) আছে? মেরাডুনার জামাই বেডা, মেরাডুনা ইস্পিশাল কুচিং দিছে হেই বেডারে। আর তুই আইছস ব্রাজিল লইয়া?
-ব্রা আ আ আ জিল, ব্রা আ আ আ জিল।
-হালার পুত এহনো ব্রাজিল!?!….

আমার চা-সিগারেট শেষ। আমি সামনে পা বাড়াই। ডান পায়ের নিচে, ডানে-বায়ে দুটো অভ্যস্ত ঘষা খেয়ে নিভে যায় ফিল্টারের শেষ স্ফুলিঙ্গ!
শেষ পর্যন্ত পাগলটা ব্রাজিল ছেড়ে আর্জেন্টাইন হল কি না দেখা হল না, পিক আপ থেকে তাকে নামানো গেল কি না, নাকি লাঠির ঘা খেল তাও জানা হল না।
তবে মামার স্টাইল খুব ভাল্লাগছে। এইবার বোদ্ধারা আসেন। কে কত তর্ক করতে পারেন দেখি! কে কত বুঝ দিতে পারেন দেখি! আমি ব্রাজিল সাপোর্টার, ব্রা আ আ জিল, ব্রা আ আ জিল…..

৯৪২ বার দেখা হয়েছে

৬ টি মন্তব্য : “দি নিউ মমিন্সিঙ্গা সার্কাসঃ ওয়ার্ল্ড কাপ এপিসোড (কিঞ্চিৎ ভাল্গার)”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।