“সুন্দরবনে ব্যাঘ্র-বন্ধন”

সুন্দরবন থেকে জানা গেছে আজ সকাল বেলা সুন্দরবন প্রেসক্লাবের সামনে টাব (TAB—Tiger’s Association of Bangladesh) এর উদ্যোগে এক ব্যাঘ্র-বন্ধনের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়ারদের টাইগার নামে ডাকার এই প্রতিবাদ আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান টাবের সভাপতি।

টাবের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, ” বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই উপর্যূপরি হারের পরেও তাদের টাইগার ডাকায় বাঘ সমাজের ভাবমূর্তি খুবই বাজে ভাবে নষ্ট হচ্ছে। আগে যেখানে বাঘ দেখলেই সবাই সম্মান করত, ভয় পেত এখন সেটি প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এখন আফগানিস্তানের শেয়াল, হংকং এর বেড়াল, হল্যান্ডের আলু পর্যন্ত তাদের নিয়ে হাসাহাসি করে।” তিনি আরও বলেন, ” এ নিয়ে মানহানীর মামলা করতে গেলেও সুন্দরবন থানায় কোনো মামলা নেয়া হয় নি। উল্টো তাকে ১৮ঘাঁ নগদে ফেরত দেয়ার হুমকি দিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।” বিষয়টি বুঝতে না পারলে উনি আবার বলেন, ” ওসি আমাকে বলে বাঘে ছুলে ১৮ঘাঁ, আর পুলিশ ছুলে নাকি ৩৬ঘাঁ, তো বাকি ১৮টা ঘাঁ আমাকে সংগে সংগে ফেরত দেয়া হবে বলে থ্রেট দিল?!?! আগে আমাদের দেখলেই যেখানে ভয়ে বাঘ আসছে, বাঘ আসছে বলতে বলতে জায়গায় কাপড় নষ্ট করে দিত লোকে, সেখানে এখন আমাদের সাথেই ফাইজলামী করে। পুলিশ আমার কাছে ঘুষ চায়, বলে আসছেন যখন চা-পানির খরচ তো আর দিবেন না তাইলে লেজটা দিয়ে একটু কানটা চুলকাইয়া দেন। এ সব কিছুর জন্য এই খারাপ খেলা ক্রিকেট দলকে টাইগার ডাকাই একমাত্র দায়ী। ওদের নিজেরদের তো কোনো আত্মসন্মান নাই, আমাদের নাম ব্যবহার করে আমাদেরও ডুবাচ্ছে ওরা।” তাই অনতিবিলম্বে আগামী ম্যাচের আগেই, ওদের টাইগার না ডেকে গণ্ডার বা অন্য যেকোনো কিছু ডাকার দাবী জানান টাব সভাপতি।

৯১৭ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : ““সুন্দরবনে ব্যাঘ্র-বন্ধন””

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।