নপুংসকের আত্মকথন

বিশেষ কারণে ( :gulli: ) এই লেখাটি উত্সর্গ করা হলো IUTর তুহিনকে (আমাদের অতি পরিচিত কুচ্ছিত হাঁসের ছানা)।

কেমন আছো মেয়ে?
খামের গায়ে ঠিকানা দেখে চিনতে পারোনি নিশ্চয়?
আমি এখন অনেক উঠেছি,
ঢের বেড়েছি বিত্তভবে।

তোমার কী খবর?
বড় ছেলেটা ইস্কুলে যেতে শুরু করলো কি?
আর মেয়েটা?
আমার কোলে উঠেই যার কান্না থেমে গেছিল?
সকলেই ভালো থাকুক
এই আমার প্রার্থনা।
সকলকে নিয়ে তুমি সুখে থাকো
এই আমার কামনা।

তুমিতো নীড়ের খোঁজে ছুটে চলা বিহঙ্গ,
মিলন-প্রত্যাশায় বহতা নদী,
সঞ্চয়-লক্ষ্যে ক্ষুদ্র পতঙ্গ,
নদীর কূলে ডানামেলা প্রজাপতি।
আমি তোমায় এসব সুখ দিতে পারিনি,
ঠিক তাই তুমি ত্যাগ করেছিলে আমায়।

সত্যি হে নারী
অক্ষম পুরুষের ব্যর্থ প্রচেষ্টার
শিকার হতে, আসোনি তুমি।
দুর্বল পুরুষ তোমার
ভরা যৌবনে ঢেউ তুলে পরে
হারিয়ে দেবে অপূর্ণতায়,
এ-কেমন নিষ্ঠুর খেলা, তোমার সাথে।
ঠিক তাই তুমি ত্যাগ করেছিলে আমায়।

অবশ্য তুমি ঠিকই করেছিলে,
দুর্বলের আধিপত্য কেবা মানতে চায়!
নপুংসকের ‘ভালবাসাও’
চায়না এ-সমাজ;
অঙ্গ যবে বিকল, তখন
আত্মাটার আর কী আছে দাম!

০৪.০৪.২০০৬
কোয়েটা।

১,১৫৪ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “নপুংসকের আত্মকথন”

  1. শাহেদ_৯৭-০৩

    তোর "কেমন দেখলাম বাংলাদেশ" লেখাটা পড়েছি...তুই এরপর কবে জাবি দেশে??? আগামি বছর?? আমার কিন্তু প্লান আছে আগামি বছর মে-জুন এর দিকে...ইনশাল্লাহ...আর BTW...লেখাটা বেশ ভাল হইসে...

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।