ফ্যান্টাসী লীগ- সিসিবি ম্যানেজারদের আমলনামা ০৫

আজকে আমি অফিসে একটু বেশি দৌড়ের উপর ছিলাম। কারন আর কিছু না, আজকে ছিলো আমার একটা সফটওয়্যার এর ডেমো দেখানোর ডেট। যেহেতু ক্যাডেট তাই গত সপ্তাহ দেখে যখন যখন বস ডেইলি বলতো কি অবস্তা, তখনি উত্তর থাকতো হয়ে যাবে। কিন্তু কালকে যখন দেখি তেমকন কিছুই হয় নাই তখন তো মাথা খারাপ। কারন আজকের মাঝে রেডি করে সবার সামনে প্রেসেন্ট করতে হবে। তাই কালকে আর আজকে পাগলের মতো আমার সাথী কোডিং আর ডাটাবেস।
এরই মাঝে তানভীর এর নক অফিসের ম্যাসেঞ্জারে। কি ব্যাপার? অনুরোধ, এই সপ্তাহের সিসিবি ম্যানেজারদের আমলনামা দেয়ার জন্য। একটু পর কামস এর ফোন একি অনুরোধ নিয়ে। কথা দিলাম ঠিক আছে রাতে বাসায় এসে দিবো। তাই লিখতে বসা।
মাঝখানের এক সপ্তাহ গ্যাপ দিয়ে এই সপ্তাহে আবার আরেকটি জমজমাট খেলার সপ্তাহ গেলো। খেলার কথায় আর গেলাম না। সবাই আশা করি দেখেছে। বিশেষ করে ম্যানেজাররা।
যথারীতি আমাদের কামরুল ১ম পজিশনে।(৯৪ পাথরায়)। যদিও ১ম দিনের খেলা শেষে গেমস প্রিফেক্ট এহসান ভাই উঠেছিলেন ১মে। কিন্তু ২য় দিনের খেলা শেষে উনি আছেন ২য় তে, তাও মাত্র এক পয়েন্ট পেছনে। ৩য় তে আছেন আমাদের ভাবী। উনিও ভাইকে ফলো করে মাত্র এক পয়েন্ট পেছনে।
৪র্থ পজিশন ধরে রেখেছে আমাদের রুমকির বাবা, তানভীর এবং ৫ম আবারো হাসনাত (ওয়াও আবারো ৯৪)।নাম্বার ৬ এ উঠে এসেছে হাসান । তারপর আগের চেয়ে একটু নেমে গিয়ে কিংকং আছে ৭ম এ।
এবারে দেখাই সপ্তাহ শেষে আমাদের লীগে কার কি অবস্থানঃ
Fantasy Premier
৮ম এ আছে আহসান আকাশ। যদিও ১ম দিনের খেলা শেষে ও ছিলো ৯ম এ।আর ৮ নাম্বারে ছিলো আমাদের মোস্তফা। কিন্তু ২য় দিন শেষে ওরা পজিশন অদল বদল করে নিয়েছে।
১০ম পজিশনে উঠে এসেছে উলুম্বুস কামরুলতপু। (তুই লং আপ হয়ে থাক, ১ম দিনে ছিলি আমার পরে ১২ তে)। ১১ তে আছি আমি। ধীরে চলো নীতিতে প্রতি সপ্তাহে একটু একটু করে উঠার চেষ্টায় আছি।
১২তম তে আছে নতুন জামাই যে ১ম সপ্তাহে ছিলো ১ম। ১৩, ১৪ আর ১৫ তে আছে টীম deadlydevils,champions আর nandonik (স্বপ্নচারী ভাই)।
অধঃপতনের লিষ্টে আরো আছে ফয়েজ ভাই (১৯ তম), কাইয়ূম ভাই (২১তম), জিহাদ (২৫তম)।
তবে আমাদের সবার প্রিয় তাইফুর ভাই কিন্তু তার পজিশন ধরে রেখেছেন (২৭ তম)
সবশেষে একটা কথা না বলে পারলাম না, মুরুব্বীদের কথায় সায় জানিয়ে বলতেই হচ্ছে- ‘৯৪ ব্যাচ পাথরায়। এ সপ্তাহ শেষে সিসিবির ফ্যান্টাসী লীগের তালিকায় প্রথম ১০ জনের ৪ জনই যে ‘৯৪ ব্যাচের।(আমি ১১ তে আছি)

সামনের সপ্তাহে আবার কথা হবে, সেইম টাইম , সেইম চ্যানেল।
ততক্ষণ পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। বাই বাই। (মিউজিক স্টার্ট )

২,০৯৩ বার দেখা হয়েছে

৩৫ টি মন্তব্য : “ফ্যান্টাসী লীগ- সিসিবি ম্যানেজারদের আমলনামা ০৫”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ১ম দিন শেষে যে পয়েন্ট পাইছিলাম পরে কালকে কারেকশন করে ৩ কমায়া দিছে... x-(


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    টরেস নিয়া ধরা খাইসি ...... দেখি আরো দুই সপ্তাহ রাখবো ......
    আদাবায়োরকে বাদ দিয়া এই টরেসরে নিসিলাম। আর এই সপ্তাহে আদাবায়োর পুরা হিট। ডিফেন্সে ভালো ধরা খাইসি ...... যাই হোক আশা করি অক্টোবর আসতে আসতে খেলা ঠিক করে ফেলবো ......

    জবাব দিন
  3. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    ধুর! কোন কম্পিটিশন নাই। প্রতি সপ্তাহে ফার্স্ট হইতে হইতে আমি তো দিহান ভাই হইয়া গেলাম। 😛


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  4. যারে বাদ দেই সেই ভালো করে, আর যারে নেই সেই ডিম পাড়ে ... আমি খেলুম না ...

    ল্যম্পার্ড, আরশাভিন দুইজনরেই বাদ দেয়ার পর ভালো খেলসে ...

    এই সপ্তায় ডেফোরে বাদ দিয়ে টরেসরে নিলাম যে ডেফোর খেলা ম্যান ইউর সাথে, আর টরেসের খেলা দুর্বল টীমের সাথে; কিন্তু গোল দিল সেই ডেফো, টরেস না ...

    রুনিকে দুই সপ্তা ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরায় দিলাম বড় টিমের সাথে খেলা বলে, ব্যাটা দুই দিনই গোল দিয়ে বসে আছে ...

    জবাব দিন
    • কামরুল হাসান (৯৪-০০)

      টরেসরে কিছুদিন বসাইয়া রাখেন।
      শালার ফর্মে আসতে আরো কিছুদিন সময় লাগবে।


      ---------------------------------------------------------------------------
      বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
      ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

      জবাব দিন
      • সেটাই দেখতেসি ... অন্য কাউরে আনতে হবে ...

        আসলে যেসব টিম এক স্ট্রাইকার খেলায় তাদের গোল দেয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে এই চিন্তা করে টরেসকে নেয়া, আর খেলাও দুর্বল দলের সাথে, কিন্তু চার গোলের একটাও যে টরেসের হবে না এইটা একটা কথা হইলো ...

        জবাব দিন
        • কামরুল হাসান (৯৪-০০)

          রুনি, আদেবায়র, বেন্ট , দ্রগবা এই চারজনের তিনজনরে পালা কইরা খেলামু ঠিক করছি।
          দু/এক টাকাও বাঁচবে, সেটা দিয়া লিভারপুলের একটা মিডফিল্ডার নিমু। কায়েট প্রথম পছন্দ। প্রতি ম্যাচে পয়েন্ট দিতেছে। গোল নইলে এসিস্ট পায়। আর ডিফেন্সে জনসন আগে থেইকাই আছে। ইদানিং ওরে দেখি ডিফেন্স ফালাইয়া টরেসের পাশে দৌড়াইতেছে। এরা দুইজন মিল্লা টরেসের চেয়ে কম পয়েন্ট দিবে না মনে হয়।

          আমি গত সপ্তাহে ওয়াইল্ড কার্ড মারছিলাম। যেগুলিরে বাদ দিছি তারা এই সপ্তাহে ধুমাইয়া পয়েন্ট দিছে (ল্যাম্পার্ড, টার্নার, ফিগুয়েরা)। আর যাদের নিছি তারা ০ দিয়া ভরাইয়া দিছে। এইজন্যে আপাতত ৩ সপ্তাহে যাতে বদলাইতে না হয় এমন একটা টিম করছি। তিন সপ্তাহ পরে একলগে চারজন বদলামু। যাতে আবার ওয়াইল্ড কার্ড মারার মত হয় আর কি! 😀


          ---------------------------------------------------------------------------
          বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
          ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

          জবাব দিন
          • আমি যদি এই সপ্তায় কোন চেঞ্জ না করি সেটা কি ক্যারি ফরোয়ার্ড হয় নাকি? জানতাম না তো 😀

            কায়েট কে নিতে চাই, কিন্তু ব্যাটার দাম অনেক ... জনসনের ব্যাপারটা ভাবসিলাম ঝড়েবক, কিন্তু ও যেমনে পয়েন্ট পাচ্ছে তাতে ওরে টিমে রাখাটা ভালো হবে মনে হচ্ছে ... কিন্তু সেই একই সমস্যা, কারে বেচবো 😕

            জবাব দিন
            • কামরুল হাসান (৯৪-০০)

              ক্যারি ফরোয়ার্ড হয়। হাসনাত পর পর দুই সপ্তাহে না বদলাইয়া আছে। বেশি পিছায় নায় দেখলেনই তো। ওর ওয়াইল্ড কার্ডও রইয়া গেছে। শেষের দিকে ইচ্ছা মতো টিম বানাইতে পারবে।

              আমরা শুরুতেই কার্ড মাইরা ভুল করছি। এখন তাই ভরসা হচ্ছে একটু পিছাইয়া হইলেও এক টিম পরপর ২/৩ সপ্তাহে খেলা। পরে ফর্ম দেইখা কয়েকজন বদলানো।

              ল্যাম্পার্ডরে ছাইড়া দিয়া বিশাল ভুল করছি। ওরে আবার কিনতে হইতে পারে, ততোদিনে হয়তো ওর দাম .৫ বেড়ে যাবে।

              আফসুস।


              ---------------------------------------------------------------------------
              বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
              ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

              জবাব দিন
              • কামরুল হাসান (৯৪-০০)

                হায় হায়!
                কিংকং আমারে মাফ কইরা দিয়েন। আপনারে ভুল তথ্য দিছি। আমি জানতাম সব ট্রান্সফার ক্যারি ফরোয়ার্ড হয়। কমেন্ট করার পর আবার নিয়ম পড়তে গিয়া দেখি , ' If you don't use your free transfer then you'll be able to make an additional free transfer the following gameweek. These saved transfers don't accumulate and can only be used the following gameweek. If you have two free transfers in a gameweek and only use one, the other will be lost. ' একটার বেশি ক্যারি ফরোয়ার্ড হয়না। তারমানে একসাথে দুইটার বেশি ফ্রি ট্রান্সফার করতে পারুম না।

                আমি তো ধরা খাইলামই , আপনারেও ধরা খাওয়াইতে নিছিলাম ভাই 😛 । তবে হাসনাতের কথা চিন্তা কইরা দুঃখ কইমা গেছে। বেচারা দুই সপ্তাহে না বদলাইয়া লাভ করতে পারলো না তেমন। :))

                যাক, চুপচাপ বইসা থাইকা আর কি হবে! চ্যাম্পিয়ন্স লীগের খেলার পর ইনজুরি লিস্ট দেইখা প্লেয়ার বদলাইয়া ফেলি 🙁

                মাফ কইরা দিয়েন ভাই।


                ---------------------------------------------------------------------------
                বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
                ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

                জবাব দিন
  5. হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    রিবিন ভি, এই সপ্তাহে যে আমার স্কোর সর্বোচ্চ এটা কইলেন না? :gulli2: আমার টিমের বেনায়ুন হ্যাট্ট্রিক করছে :-B বাদ দিব বাদ দিব ভেবেও শেষমেষ ওরে বদলাই নাই B-) তবে টরেস মনে হয় সবাইরেই ধরা খাওয়াইছে 😡

    জবাব দিন
  6. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    আমি বুঝি না সব আমলনামা লেখকের লেখাই আমার পজিশনের ইমিডিয়েট আগ পর্যন্ত সিরিয়াল আলোচনা হয় তারপরে সিরিয়াল ব্রেক হইয়া যায়....
    যা হোক আমার টিম পারফরম্যান্স দিয়ে এর জবাব দিবে ........ 😀 😀 😀
    (রিবিন ভিই ইমি কিন্তু ১৩। ইপনিরে ধিরে ফিলবো।)

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।