‘শাব্দিক’ – একটা অসাধারণ বাংলা লেখার সফটওয়ার

ভাল কোন সফটওয়ার্ এর খোঁজ পেলে মানুষকে জানানোর একটা বদঅভ্যাস আমার আছে। আমি কম্পিউটার geek বা freak কোন পর্যায়েই পরি না। কিন্তু ইন্টারনেট থেকে নামিয়ে বা সফটওয়ার্ সিডি কিনে ট্রাই করা আমার একটা বিশেষ বাজে হবি। আর এই অভিজ্ঞতা থেকেই এটা লেখা। অনেকের কাছে রদ্দি জিনিস হতে পারে।

এই জীবনে বাংলা টাইপ না করতে পারায় অনেক সময় অসুবিধায় পড়েছি। মাঝে মাঝে মনে হয়েছে অফিসের ক্লার্কদের কাছে একটা কোর্স করি। মুনীর অপটিমা লে-আউট এ টাইপ করার যে ঝামেলা, তাতে দু-একবার এরকম উদ্যোগ নিয়েও হতাশ হয়ে হাল ছেড়ে দিয়েছি।
3

কম্পিউটারে বাংলা লেখার চেষ্টার হাতেখড়ি হয়েছিল ‘বর্ণ’ নামের একটা ডস বেইসড সফটওয়ার্ দিয়ে – আমার জানা মতে তখনকার (১৯৯৪-৯৫) কম্পিউটারে একমাত্র বাংলা লেখার সবেধন নীলমণি। এরপর ‘লেখনী’, ‘প্রবর্তন’ ‘বিজয়’ ‘একুশে’ সবগুলোতেই কিছুটা চেষ্টা করেছি। কিন্তু খুব একটা লাভ হয়নি। ব্যাক টু স্কয়ার ওয়ান।

অফিস ক্লার্কদের অনেক বাংলা সফটওয়ার্ সম্পর্কিত সমস্যার ট্রাবলসুট করেছি বিস্তর। কিন্তু বাংলা টাইপিং রপ্ত করতে পারিনি। তাই প্রথম যখন ফোনেটিক এর স্বাদ পেলাম তা ছিল আমার জন্য অত্যন্ত আনন্দের। দুঃখের বিষয় ঐ সফটওয়ার্ টার নাম মনে করতে পারছি না। এরপর ট্রাই করলাম ‘অভ্র’ – অসাধারণ।

কিন্তু গত বছর সফট-এক্সপোতে কেনা ‘শাব্দিক’ মোটামুটি আমার জীবনে একটা পরিবর্তন এনে দিয়েছে। শাব্দিক এর কল্যাণে আমি এখন প্রায় ইংরেজির মতই বাংলা টাইপ করতে পারছি। এক কথায় – অসাধারণের বস।

আমি জানিনা, হয়তো এখন অনেক সফটওয়ার্ এ আছে, শাব্দিক এর সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয় হল এর word prompting ফিচার। নিজের নামটা লিখতে যেয়ে যখন দেখি মাত্র ‘ius’ লিখতেই ‘ইউসুফ’ হয়ে যায়, তখন এটা আকর্ষণ করবেই। এছাড়াও এক এক করে বর্ণ ও যুক্তাক্ষর টাইপ করতে পারা, ডিকশনারিতে নতুন শব্দ যোগ করতে পারা ইত্যাদি শাব্দিককে সত্যিকার অর্থে একটা পরিপূর্ণ এবং functional বাংলা লেখার সফটওয়্যার এ পরিণত করেছে।
2

ডাউনলোড এইখানে

(লেখক কোনভাবেই ‘শাব্দিক’ এর সাথে বাণিজ্যিকভাবে যুক্ত নন। তিনি ‘শাব্দিক’কে promote করার জন্য একটা পয়সাও পাবেন না। )

২,৪২৫ বার দেখা হয়েছে

১৭ টি মন্তব্য : “‘শাব্দিক’ – একটা অসাধারণ বাংলা লেখার সফটওয়ার”

  1. তৌফিক (৯৬-০২)

    ২০ বার পঠিত আর একটা মন্তব্যও পড়লো না!!!

    সিসিবিতে মন্তব্যকের এতো অভাব পড়ছে!!! 😡 😡 😡

    যাহোক, আমি লগইন করলাম মন্তব্যের জন্য।

    ইউসুফ ভাইকে অসংখ্য শুভেচ্ছা এবং স্বাগতম।

    রকিব কই গেলো?? ইউসুফ ভাইরে এক কাপ চা, দুধ চিনি বেশি দিয়া দে। 🙂

    জবাব দিন
  2. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    অভ্রতে এত ইউজ্‌ড টু হয়ে গেছি যে... B-)
    অবশ্য ডাউনলোড করেছি... 😀
    পরে সময় করে দুটো তুলনা করব... :-B

    ইউসুফ ভাই, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। :salute:


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  3. আন্দালিব (৯৬-০২)

    আপনার মত দশা আমারও, কোনভাবেই বাংলা টাইপ করতে পারতাম না। শেষে ফোনেটিক-এ টাইপ করে দেখলাম দারুণ জিনিশ। এরপরে পেলাম অভ্র। মোটামুটি অভ্র আর ফোনেটিক দিয়েই টাইপ করি। শাব্দিক দিয়ে ট্রাই করে দেখব। ধন্যবাদ ইউসুফ ভাই!

    জবাব দিন
  4. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    ধন্যবাদ বস।

    ঠিক জানিনা, ব্যবহার করব কিনা। হয়ত নামিয়ে রাখব সুবিধাজনক সময়ে, অভ্রতে কাজ চলে যাচ্ছে মোটামুটি।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  5. রহমান (৯২-৯৮)

    ইউসুফ ভাই, ডাউনলোড করে ফেললাম, কিন্তু এখনো ইন্সটল করিনি। পরে সময় করে করব। ডাউনলোডের এই লিংকটা দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।

    কিন্তু আমার মনে হয় 'অভ্র' এর চেয়ে সহজ এবং স্বল্পতম সময়ে টাইপিং শেখা অন্য কোন সফট্‌ওয়্যার দিয়ে সম্ভব হবেনা। কারন আমরা মোবাইলে যেভাবে ইংরেজী অক্ষর দিয়ে বাংলায় এস এম এস লিখি অভ্রতে ঠিক একই ভাবে লিখতে হয়, যার কারনে আলাদা করে টাইপিং শিখতে হয় না।

    আপনি কি অভ্র ব্যবহার করে দেখেছেন?

    জবাব দিন
    • তাই প্রথম যখন ফোনেটিক এর স্বাদ পেলাম তা ছিল আমার জন্য অত্যন্ত আনন্দের। দুঃখের বিষয় ঐ সফটওয়ার্ টার নাম মনে করতে পারছি না। এরপর ট্রাই করলাম ‘অভ্র’ – অসাধারণ।
      কিন্তু গত বছর সফট-এক্সপোতে কেনা ‘শাব্দিক’ মোটামুটি আমার জীবনে একটা পরিবর্তন এনে দিয়েছে। শাব্দিক এর কল্যাণে আমি এখন প্রায় ইংরেজির মতই বাংলা টাইপ করতে পারছি। এক কথায় - অসাধারণের বস।

      কি বুঝলা?

      জবাব দিন
  6. রকিব (০১-০৭)

    আজকে খানিকক্ষণ শাব্দিক দিয়ে লিখছি।
    ব্যাপক মজা এইটা দিয়ে লিখতে।
    অল ক্রেডিটস গো টু ইউসুফ ভাই। :boss: :boss:


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  7. আমি অনেকদিন থেকে শাব্দিক ব্যবহার করছি। যেদিন থেকে অভ্রের সাথে বিজয় দ্বন্দ্ব শুরু করলো সেদিন থেকে নিরপেক্ষ একটি সফট খুঁজছিলাম। পেয়েও গেলাম। শাব্দিক। বিশেষ করে এর ইউনিজয় লে-আউটে 'এ' কার অক্ষরের আগে ও পরে- দু'টো ব্যবস্থাই থাকায় আমি এর প্রতি আকৃষ্ট হই। এখন অভ্রের নতুন ভার্সনে ইউনিজয় লে-আউটই নেই। আমি যেহেতু ইউনিজয় বা ইউনিবিজয় লে-আউটে অভ্যস্ত তাই অভ্রের পুরনো ভার্সন থেকে লে-আউট কপি করে নতুন ভার্সনে পেষ্ট করে কাজ চালিযে যাচ্ছি। যাই হোক, শাব্দিকের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ফিচার 'ওয়ার্ড প্রম্পটিং' এখনও ব্যবহার করতে পারিনি। মূলতঃ আপনার পোষ্ট থেকেই বিষয়টি জানলাম। ইন্টারনেট থেকে শাব্দিকের ফ্রি ভার্সন নামিয়ে ব্যবহার করি বলেই আপনার পোষ্টের এক জায়গায় এসে মনে প্রশ্ন জাগলো যে,
    সফট এক্সপো থেকে কেনা শাব্দিক এর দাম কতো ছিল? সফটওয্যারটি এখন কোথায় কিনতে পাবো? ফ্রি ভার্সনে ওয়ার্ড প্রম্পটিং ফিচারের সুবিধা পাওয়া যাবে, আপনি যেমনটি পাচ্ছেন?

    জবাব দিন
  8. শাবিদক ব্যবহার করে স্বাচ্দন্দ্যে ইমেইল করতে পারছি । বিভিন্ন ব্লগে বাংলা লিখছি অনায়াসে । শাব্দিক কে ধন্যবাদ ।
    –মোঃ মকবুল হোসেন খান
    সি,এ–টু–ডি,সি
    রাজবাড়ী ।
    ০১৭১৫০১৬২৩২

    জবাব দিন
  9. মোঃ মকবুল হোসেন খান

    অভ্র চাইতে শাব্দিক ব্যবহার করা যায় অনেক স্বাচ্ছন্দে ।
    মোঃ মকবুল হোসেন খান
    খানবাড়ী
    স্টেশন রোড
    রাজবাড়ী ।
    ০১৭১৫০১৬২৩২

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।