কে বলে দুষ্ট আমি

আমাদের কলেজে একজন হিট ম্যাডাম ছিলেন।
বাংলার সেই ম্যাডাম যিনি পরীক্ষার সময় সেলফ স্টাডি দিয়ে আমার পাশের ডেস্কে বসে ঘুমাচ্ছিলেন। তার সেই ঘুমের ভঙ্গি পুরো ক্লাসের সবার ঘুম হারাম করে দিলো। আমাদের পরীক্ষার বারোটা বাজলো।
আমাদের বন্ধু জিনিয়াস জিন্নাত ম্যাডামকে যেখানেই দেখতো সেখানেই কেমন যেন অস্থির হয়ে যেতো। ম্যাডাম হাউসে আসছে শুনলেই জিন্নাত ওর লং টাওয়েল কে গলায় ঝুলিয়ে শর্ট টাওয়েল কোমরে বেঁধে, বাথ রুমের সামনে গিয়ে জোর গলায় চিতকার করত –মিরাবাঈ..।।মিরা বাইই ,ঝাকা নাকা ঝাকা নাকা দেহ দুলা না ।। হাউস অফিস কয়েক গজের মধ্যেই ছিল,তাই ম্যাডাম কেন কারো পক্ষেই ওই গগণ বিদারী আর্তনাদ শুনে বসে থাকা সম্ভব না। ম্যাডাম হাউসবেয়ারাকে কয়েকবার পাঠিয়ে ওর চিল্লানো থামাতে ব্যর্থ হয়ে শেষমেষ নিজেই আসলেন।
এই ছেলে এইভাবে পাগলের মত চিৎকার করছ কেন, বেয়াদব?
ম্যাডাম আমি কি করব আমার খালি শীত শীত লাগে, তাই চিৎকার করে গা গরম করছি।
এরকম অসভ্যের মত এত ছোট টাওয়েল পেচিয়ে আবার বলে.. আমার শীত লাগে, বেয়াদব
ম্যাডাম,এখন আপনাকে দেইখ্যা আমার শীত চলে গেছে, এখন একটু গরম লাগছে ।

এরপর আর কোনদিন ভুলেও জিন্নাতের মিরাবাঈ গান থামাতে আসেন নি ।
আরেকদিন ক্লাসে ম্যাডাম শকুন্তলা পড়াচ্ছেন। শকুন্তলা সখি অনুসয়ে আর প্রিয়ংবদাকে সাথে লইয়া আলবালে জল সেচন করিতে লাগিল। ক্লাসের সবাই গুনগুন করছিল আর হাসছিল আলবালে জল সেচন শুনে। সবাইকে অবাক করে জিনিয়াস দাঁড়িয়ে বলে.,
ম্যাডাম এই আলবাল টা আবার কারবাল,কিসের বাল ? বুঝলাম না।
পুরা ক্লাস তখন হো হো করছে।
ম্যাডামও হেসে দিয়ে লজ্জায় লাল হয়ে পরক্ষনেই ধমকের সাথে জিন্নাতকে বসিয়ে দিয়ে আলবালের অর্থ ব্যাখ্যা করে দিলেন।
আমাদের ক্লাসে অনেকদিন আলবাল কার বাল ? স্লোগানটা জনপ্রিয় ছিলো। বিদ্যূত চলে গেলেই পোলাপাইন একসাথে দিতো।

২,৪০৪ বার দেখা হয়েছে

২৩ টি মন্তব্য : “কে বলে দুষ্ট আমি”

  1. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)
    ম্যাডাম এই আল বাল টা আবার কার বাল,কিসের বাল..।।।..।…।।…বুঝলাম না।।

    আমার মাথায় একটা ডাউট আসছে....
    বান্দর বেশি বান্দর নাকি ক্যাডেট....???
    :khekz: :khekz: =)) =)) :frontroll: :frontroll:


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  2. তাইফুর (৯২-৯৮)
    আলবালে জল সেচন

    সাইফ, আমি আর নিজেকে ধরে রাখতে পারবো বলে মনে হয় না। আমার অনেক গল্প সেন্সর করতে না পাইরা চাইপা ধইরা বইসা ছিলাম। বুদ বুদ গুলা পেটে এখন গ্যাষ্ট্রিকের পেইন হইয়া ...


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  3. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)
    ম্যাডাম আমি কি করব আমার খালি শীত শীত লাগে, তাই চিৎকার করে গা গরম করছি।
    এরকম অসভ্যের মত এত ছোট টাওয়েল পেচিয়ে আবার বলে.. আমার শীত লাগে, বেয়াদব
    ম্যাডাম,এখন আপনাকে দেইখ্যা আমার শীত চলে গেছে, এখন একটু গরম লাগছে ।

    জটিল জটিল :goragori: :goragori:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  4. হাসান (১৯৯৬-২০০২)
    সাইফ, আমি আর নিজেকে ধরে রাখতে পারবো বলে মনে হয় না। আমার অনেক গল্প সেন্সর করতে না পাইরা চাইপা ধইরা বইসা ছিলাম। বুদ বুদ গুলা পেটে এখন গ্যাষ্ট্রিকের পেইন হইয়া

    ইয়ে মানে.....তাইফুর ভাই, শুরু করে দেন না, আমরা আমরা ই তো :grr:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।