আত্মকথন

খুবই সাধারণ একটা ক্যাডেট ছিলাম আমি।
এমন কিছু করে আসতে পারিনি,
যাতে কলেজ আমাকে মনে রাখবে সারাজীবন।
ছিলাম না সময় কাপানো কোন এথলেট,
যাদের কীর্তিতে আজও কলেজ মুখর।
কিংবা কোন দুর্দান্ত স্টেজ পারফর্মার,
রিহার্সালের সময় এখনো যাদের নাম আসে।
এমন কোন ভালো ছাত্র ছিলাম না,
যাদের গল্প আজীবন করে বেড়ায় স্যারেরা।
প্রিফেক্টও ছিলাম না আমি,
তাই অনার বোর্ডেও নাম থাকার প্রশ্ন নেই।
কিন্তু আমি শুনেছি সেই বিশাল গর্জন,
যখন আমরা ছয়জন মাত্র দৌড়ের ট্রাকে,
আর বাকি সবার চোখে মুখে সে কি উদগ্রীব প্রার্থনা।
সেই মুহুর্তটা স্মরণ করি,
যখন আমি স্টেজে একদম একা,
আর তিনশো জোড়া চোখ শুধুই আমার দিকে।
শুনেছি প্রাইজ নেয়ার সময় মুহুর্মুহু করতালির ধ্বনি,
হাউজের প্রতি ছিল আমার ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অবদান।
ঐটুকুই আমি স্মরণ করি,
ঐটুকুই আমার অণুপ্রেরণা,ঐটুকুই আমার শক্তি।

১,৩২৯ বার দেখা হয়েছে

১০ টি মন্তব্য : “আত্মকথন”

    • কামরুলতপু (৯৬-০২)

      ঠিক বলেছ।
      রায়হানকে ডেকে এনে দেখানো লাগবে কেউ কেউ আমাকে রায়হানের ভাই হিসেবে চিনে। বেচারার বড় দুঃখ সবাই নাকি ওকে কামরুলের ভাই বলে ডাকে নাম ও ভুলে যায়।
      তোমার এই কমেন্ট দেখলে খুশি হবে।
      রায়হান ও আগে লেখত সিসিবিতে এখন শুধু পাঠক হয়ে গেছে।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।