এগারশ সাতাশ

তারপর চাঁদ এসে ডুব দেয় টুপ করে,
হয়ত তোমার মনের মাঝে কিংবা আসলে ঠোটে,
তুমি বুঝতে পারনা
আর চাঁদটা দুম করে সূর্য হয়ে যায়,
আর হাসনাহেনা ঝিমাতে ঝিমাতে গোলাপের কাছে হেরে যায়
যদিও তুমি গোলাপ দুচোখে দেখতে পারনা
আধখাওয়া বরইটা দুহাতে পাওয়ার জন্য কোমরের ঘুঙ্গুরটা বাজতে থাকে একঘেয়ে সুরে
আর মেয়েটার নুপুরটা কেটে কেটে যায় বাতাস
যদিও মেয়েটা ভালোবেসেছিল
আর গ্রামের সবুজ চিরুনি করা ধানগাছগুলো
তুমি অবাক হয়ে চেয়ে থাকবে দেখবে তাতে কোন পাপ নেই
কোন পাপই নেই

পাঁচ মিনিটের নোটিসে কালকে দুম করে চলে এসেছি দিনাজপুর। বড়াপুর পোস্টিং হলো, আব্বু ওকে নিয়ে আসবে, বাসাটাসা সবকিছু রেডী করে দিয়ে চলে যাবে আবার, এইরকম ঠিক ছিল।
দুটার সময় বাস, একটার সময় আব্বুর একটা ফোন আসলো এবং দেখা গেলো পরের দিন একটা জরুরী মিটিং পড়েছে, আব্বু আসতে পারবে না। টিকিট ক্যান্সেল করা হল, কিন্তু আপুর জয়েনিং তো পিছানো যাবে না, ও একাই আসবে বলল, কোন সমস্যা নাই। আবার রিনিউ… এইসব হাবিজাবি করতে করতে দেড়টা বেজে গেল, তারপর গাড়ি নিয়ে মাইকেল শুমাখারের মতন দৌড়াতে দৌড়াতে গাবতলী গিয়ে দেখা গেলো আমরাই সবার আগে চলে আসছি।
বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা গেল বড়াপুর শ্বশুরও অফিস থেকে চলে আসছে ওকে সিঅফ করার জন্য। আঙ্কেল সব শুনে টুনে ভাইয়াকে (আমার দুলাভাই) বিশাল একটা ধমক দিল, সে যাচ্ছে না কেন। ভাইয়া বেচারাও মাত্র দুইদিন আগে চাকরীতে জয়েন করসে, সে কেমনে যায়। আমি বাসা থেকে বেরইসিলাম আপুকে নামায় দিয়ে বুয়েট যাব বলে, এত ঝামেলা দেখে আমি বাসে উঠে বড়াপুর সাথে দিনাজপুর চলে আসলাম।

জামাকাপড় নিয়ে আমার কোন ছুৎমার্গ নাই, সমস্যাটা হল টুথব্রাশ আনি নাই।

যাই হোক, বড়াপু সকাল বেলা বেরোয় গেছে, যাওয়ার সময় ঝাড়ি দিয়ে গেসে খবরদার কম্পু টম্পু কিছু ধরবা না, পড়াশুনা করবা বসে বসে। ও বের হওয়ার পরই লেপুটাকে ঠিকঠাক করলাম, সিসিবিতে এসে আইকম্পলেক্স নামালাম, সোলাইমানি লিপি নামালাম, অভ্র নামালাম, তারপর অভ্র নামার ঠিক নয় মিনিট আগে নেটটাকে কুটুশ করে কেটে দিলাম, তারপর আবার পুরাটা নামালাম, শুধুমাত্র এই ব্লগটা লিখার জন্য, কারণ এইটা সিসিবির এগারশ সাতাশ নম্বর ব্লগ, আর আমি ক্যাডেট সামিয়া, ক্যডেট নম্বর ১১২৭, তাবৎ জাহানের সবচেয়ে মূল্যবান নম্বর আমার কাছে এগারশ সাতাশ।

৮,৯২২ বার দেখা হয়েছে

৮৯ টি মন্তব্য : “এগারশ সাতাশ”

  1. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)
    ও বের হওয়ার পরই লেপুটাকে ঠিকঠাক করলাম, সিসিবিতে এসে আইকম্পলেক্স নামালাম, সোলাইমানি লিপি নামালাম, অভ্র নামালাম, তারপর অভ্র নামার ঠিক নয় মিনিট আগে নেটটাকে কুটুশ করে কেটে দিলাম, তারপর আবার পুরাটা নামালাম, শুধুমাত্র এই ব্লগটা লিখার জন্য

    :thumbup: :thumbup:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  2. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    তুমি চিন্তা ভাবনা না করে যেগুলো লেখ সেগুলা পুরা A+ লেখা।

    তয় সব শালীদের দুলাভাই ডাকতে শরম ক্যান লাগে এইটা বিরাট রহস্য। আরে "ভাইয়া" "ভাইয়া" এইটা কোন ডাক হইল।

    প্রথম প্রথম কয়েকলাইন পরে ভাবছিলাম গরু বান্ধা কাহিনী লিখছ।

    চিটাগাং গেছ যখন কিছু জায়গা ঘুরতে পার। কান্তজীর মন্দির দেখে আসতে পার। এক বেলার মামলা, আর খাবার সংগে নিও।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  3. রেজওয়ান (৯৯-০৫)
    চিটাগাং

    😮

    😮 😮

    কান্তজীর মন্দির

    😮 😮
    দিনাজপুর আবার চিটাগাং কেম্নে হইল 😮 😮
    যাই হোক......ভাল লাগল...এখন দেখমু দাওয়াত কবে দিস...রংপুর-দিনাজপুর...বেশী দূর না কিন্তু

    জবাব দিন
  4. তাইফুর (৯২-৯৮)
    তারপর গাড়ি নিয়ে মাইকেল শুমাখারের মতন দৌড়াতে দৌড়াতে গাবতলী গিয়ে

    গাড়ি থাকা স্বত্বেও বিখ্যাত দৌড়বিদ শুমাখারের মতন দৌড়াতে দৌড়াতে গাবতলী যাওয়ার কারনে সামিয়া'র ব্যাঞ্চাই।

    সমস্যাটা হল টুথব্রাশ আনি নাই।

    দাত না মাইজা ব্লগ লেখার কারনে সামিয়া'র ব্যাঞ্চাই।

    কারণ এইটা সিসিবির এগারশ সাতাশ নম্বর ব্লগ, আর আমি ক্যাডেট সামিয়া, ক্যডেট নম্বর ১১২৭, তাবৎ জাহানের সবচেয়ে মূল্যবান নম্বর আমার কাছে এগারশ সাতাশ।

    এই আবেগটুকু'র জন্য ব্যাঞ্চাওয়া রি-কন্সিডার করা যায়।

    (কবিতা'টা নিয়া শয়তানি করার লোভ সাম্লাইতে বহুত কষ্ট হইল ... বহুত কষ্ট)


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  5. তানভীর (৯৪-০০)

    সামিয়া, তুমি কবিতা লিখছ দেইখ্যা একটু অবাক হইলাম। ভালো লিখছ!
    কবিতার পরের কথাগুলা পড়ে খুব মজা পাইলাম।
    আমার ক্যাডেট নাম্বারটাও আমার সবচেয়ে প্রিয় নাম্বার।

    যাও, তোমারে পাঁচতারা দিয়া দিলাম।

    জবাব দিন
  6. জিহাদ (৯৯-০৫)

    স্যাম মিয়া দেখি ব্লগ লিখসে। আমি স্বপ্ন দেখতেসি নাকি স্বপ্ন আমারে দেখতেসে। :dreamy:

    কবিতা ভাল্লাগসে। মাঝের টুকুও । আর শেষেরটুকুও।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  7. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)
    কারণ এইটা সিসিবির এগারশ সাতাশ নম্বর ব্লগ, আর আমি ক্যাডেট সামিয়া, ক্যডেট নম্বর ১১২৭........

    আর আমার ক্যাডেট কলেজ ভর্তি পরীক্ষার ইনডেক্স নম্বর হইল ১১২৭ 😀 😛 😀 😛 ।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  8. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    কবিতাটা অদ্ভুত সুন্দর...
    বাতাস কেটে কেটে যাওয়া নূপুরের ছবি দেখা যাচ্ছে যেন...

    যদিও অপ্রাসঙ্গিক- ধানক্ষেত, একঘেয়ে সুর আর মেয়েটার নুপূর
    মিলে ইন্টারে পড়া solitary reaper এর কথা মনে করায়ে দিলো...

    অফটপিকঃ ব্রাশটা কিনা নিতে ভুইলো না... 😛


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  9. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    আমার ব্যাচমেট শেষপর্যন্ত লেখা দিছে। ~x( :guitar: :guitar: :guitar: তাও আবার গদ্য-পদ্য একসাথে?? :-B

    ইয়ে আমি ভাবতেআছিলাম সামিয়ার কবিতাটার দৃশ্যকল্প, উপমা আর জাদু-বাস্তবতা নিয়ে একটা তুলনামূলক থিসিস লিখবো কিনা! কিন্তু দেখলাম তাইফুর প্রস্তুতি নিতাছে.................
    যাইগা। ;)) ;)) ;))


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  10. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    অনেকদিন পরে লেখা দিলা আপু? পরীক্ষা কেমন হচ্ছে? ইশশ আমিও আমার টা মিস করলাম ১০৪৭। ওকে ১৫৪৩৭ নম্বর লেখার অপেক্ষায় আছি আমার ভর্তি পরীক্ষার ইনডেক্স নম্বর।

    জবাব দিন
  11. আলম (৯৭--০৩)
    আমি বাসা থেকে বেরইসিলাম আপুকে নামায় দিয়ে বুয়েট যাব বলে, এত ঝামেলা দেখে আমি বাসে উঠে বড়াপুর সাথে দিনাজপুর চলে আসলাম।

    জামাকাপড় নিয়ে আমার কোন ছুৎমার্গ নাই, সমস্যাটা হল টুথব্রাশ আনি নাই।

    এই অবস্থা আর কতদিন চলবে ভাই? 😀

    জবাব দিন
  12. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    ছুডু ভইন গ্যাছে কই আল্লাহ মালুম... সামীরে জিগাইতে হইব 😛
    কিন্তু এইডা কি 😮 😮 আমিতো মাথামুন্ডু কুস্তাই বুঝলাম্নায় ~x(
    তৌফিকের পোস্টের মতন কেইস নাকি?


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।