শাহী ডায়লগস ফ্রম দ্য গেরাম মোক্তারপুর-১

[প্রাককথাঃ
যারা জানেন না,তাদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি যে,আরসিসি বাংলাদেশের সীমানা ঘেষে রাজশাহী শহর থেকে ২৬ কি.মি. দূরে প্রত্যন্ত গ্রামে অবস্থিত।গ্রামটার নাম মোক্তারপুর।ক্যাডেট কলেজটাকে সবাই চিনেন।তাই গ্রামটাকে পরিচিত করার জন্য আমি টপিকে গ্রামের নাম দিলাম।আরেকটা কথা আমাদের অরকা’র অর্থায়নে এই গ্রামে ”অরকাপল্লী” স্থাপিত হয়েছে,যেখানে দুঃস্থ অনেকেই ঠাঁই পেয়েছে।এই সুযোগে জানিয়ে রাখলাম।।……..
অত্যন্ত পরিতাপের সহিৎ অবলোকন করিলাম যে, ডায়লগস ফ্রম জেসিসি,এমজিসিসি,এসসিসি,সিসিসি এমনকি পিসিসি পাবলিশ হইয়া গেলেও শাহী ক্যাডেট কলেজের ডজার ক্যাডুগুলা ব্লগে প্রবল প্রতাপের সহিৎ ডজ মারিতেছে।আমি এতকাল অপেক্ষা করিতেছিলাম,কোন দায়িত্ববান শাহী ক্যাডেট কলেজের অসংখ্য বাণীচিরন্তনী প্রকাশ করিবেন।কিন্তু আমার আর তর সহিতেছে না।তাই স্মৃতির গলি ঘুপচিতে পলান্টিস খেলতে থাকা ডায়লগগুলো ধরিয়া আনিয়া সিসিবি পরিবারে পেশ করিলাম।আর দেরি করিলে হয়ত,অন্য কেউ কহিয়া দিবেন,এর থেকে ক্রেডিটটা আগে আমিই লইয়া ফেলি,মাঠ ফাঁকা মনে হইতেছে………

……শুধু মজা করার জন্যই লেখা,স্যার-ম্যাডামদের প্রতি পূর্ণাঙ্গ শ্রদ্ধা রাখিয়া শুরু করিতেছি। সকলের ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টি প্রার্থনা করিতেছি। অনুরোধ থাকল স্যারদের চিনলে আরো কিছু শেয়ার করার জন্য………]

*****************************
ঘটনা একঃ

জেসিসি থেকে আমাদের কলেজে ট্রান্সফার হয়ে আসলেন ইংরেজির এক ম্যাডাম। সৌন্দর্য, কোমলতা এবং সুন্দর বাচনভংগি দিয়ে তিনি আমাদের অনেকের সিঙ্গেল হৃদয়ে স্থানপ্রাপ্তা হয়েছিলেন।

আমরা তখন টুয়েলভে।ম্যাডাম ”ইংলিশ ফর টুডে” বই থেকে রিডিং পড়াচ্ছিলেন।এটা বি ফর্ম এর ছেলেপেলের কাছ থেকে শোনা।তো,যথারীতি শোনার চেয়ে দেখাতেই মনোযোগ বেশি যাচ্ছিল সবার।ম্যাডাম মাঝে মাঝেই এটা সেটা জিজ্ঞেস করেন,ঠিকঠাক জবাব পান না।তো একসময় ম্যাডাম বিরক্ত হয়ে বললেন, ”উফফ! শিট,বয়েজ !পে অ্যাটেনশন, হোয়াই আর ইউ ফাকিং ইন দি ক্লাস??!!!!” বলেই উনি পড়ানো শুরু করলেন।ছেলেপেলে কিছুক্ষণ হতভম্ব হয়ে থাকল।তারপর একজন পিছন থেকে লজ্জিত ভঙ্গিতে বলল, ”ইয়ে ম্যাডাম,কি বললেন এইটা?” ম্যাডাম বললেন,”ক্যান,কি বললাম?” মনে করার চেষ্টা করলেন এবং মুহূর্তের মধ্যে ফর্সা গাল টকটকে লাল হয়ে গেল।ইতস্তত স্বরে বললেন,”ইয়ে……আমি ওইটা বলিনি, ফাকি দেয়া বুঝাইছি……নাউ প্লিজ পে অ্যাটেনশন…”…………

ঘটনা দুইঃ

সিসিআর থেকে বদলি হয়ে এসেছিলেন আরেক ইংরেজির স্যার।
একদিন ক্লাসে স্যারকে খুব টায়ার্ড দেখাচ্ছিল।সামনের ডেস্কে বসা একজন জিজ্ঞেস করল, ”স্যার,রাতে কি ঘুম হয়নাই ভালো?” স্যার বললেন , ”ধুর আর বইলো না।তোমাদের ও. হ. স্যার নতুন বিয়ে করছে।সারাটারাত মাথার উপর আওয়াজ হয়।শান্তিতে ঘুমাইতে পারি না।”(উল্লেখ্য,ইংরেজি স্যার এর স্ত্রী কলেজে থাকতেন না তখন,পরে এসছিলেন।)

ঘটনা তিনঃ

ক্লাস এইট-নাইনে কোন এক স্যারের ফেয়ারওয়েল ডিনার হবে।স্যাররা ঢুকার আগে আমরা গিয়ে পছন্দমত (!) স্যারদের বেছে নিয়ে টেবিলের সামনে দাঁড়িয়ে গেলাম।একাদশ শ্রেণীর এক ভাই প্ল্যানমাফিক স্যারের স্যুপের কাপে জামালগোটা মিশিয়ে দিলেন।তো ওই টেবিলে আসলেন বাংলার এক স্যার।আমাদের দুই বন্ধু আতিক আর তাহফীম স্যারের পাশেই বসা।খাওয়া শুরু হল।আল্লাহর কি কাম……৫ মিনিটও যায়নি, স্যার তাহফীমকে বললেন ,”বাবা তাহফীম,স্যুপটা তুমিই খাও।”স্যার যতই অনুরোধ করেন,তাহফীম ততই মাথা নাড়ে।অবশেষে স্যারের কথা রাখতে গিয়ে তাহফীম স্যুপটা খেল।
পরবর্তী ঘটনা দুঃখজনক।ওই রাত্রে তাহফীমকে রুম আর টয়লেটের মধ্যবর্তী দুরত্ব যে কতবার অতিক্রম করতে হয়েছে তা উপরওয়ালাই ভালো জানবেন।

ঘটনা চারঃ

ক) একাদশ শ্রেণীতে আমরা।ইন্টার হাউস সুইমিং কম্পিটিশন হবে।আমাদের জেপি দুইজনকে হাউস মাস্টার পল্টু স্যার কমন রুমে ডাকলেন।জেপিরা গিয়ে দেখলো, একটা বেঞ্চের উপর একটা ক্লাস সেভেনের ক্যাডেট উপুড় হয়ে শুয়ে অনবরত হাত-পা ছুড়াছুড়ি করছে। হতভম্ব আমাদের জেপিদ্বয় স্যারকে জিজ্ঞেস করল, ”স্যার?কি করছে ও?পানিশমেন্ট দ্যান ক্যান?” স্যার দিলেন তার অমর বাণী, ”সুইমিং প্র্যাকটিস করাচ্ছি,জানো তো ,সাঁতারের ৮০% ডাঙ্গায় আর ২০% পানিতে !!!!!!”

খ) অ্যাথলেটিক্স এর আগে ক্যাডেট বাছাই হবে।যথারীতি স্যার জেপিদ্বয়কে ডাকলেন।ডেকে বললেন, ”সেই ছেলেরাই অ্যাথলেটিক্সে ভালো যারা ফিজিক্স এ ভালো।যাও,ক্যাডেট খুঁজতে থাক।”

গ)স্যার ভূগোলের টিচার।নিজের বিষয় নিয়ে এত আস্থা-গর্ব তার।বলেন ,”বিজ্ঞানের শুরু হইছে ভূগোল থেকে” ,’‘Geography is the mother of science” আমরা জিজ্ঞেস করলাম, ”কিভাবে স্যার?” স্যার বললেন, ”অ্যারিস্টটল এর প্রথম আবিষ্কার কি?” আমরা বললাম, ”সূর্য পৃথিবীর চারপাশে ঘুরে।” তো স্যার বললেন, ”তো চাঁদ-সূর্য কি ভূগোলের অন্তর্গত না?তোমরা তো পৃথিবীতেই আছ।তাই যা পড়বা,সব ভূগোলের সাথে রিলেটেড


ঘ) গার্ডেনিং কম্পিটিশনের সময় এক হাউস বেয়ারাকে স্যার চরম খাটাচ্ছেন।একদিন আমরা কয়জন হাউস অফিসের বাইরে তার সাথে কথা বলছিলাম।স্যার বেল দিলেন।মহাবিরক্ত বৃদ্ধ ভাই যাওয়ার আগে বলে গেলেন, ”ব্যাটা ভুরিয়াল খবিশের বাচ্চা,খুন্তি দিয়া গাছ না কুপাইয়া অর ভুড়ি খুচাইতে ইচ্ছা কুইরতিছে।”

ঙ)ইন্টার হাউস হকি কম্পিটিশনের আগের রাতে স্যার প্রিফেক্ট দের ডাকলেন।বললেন, ”ক্যামনে খেলবা,প্ল্যান করছ কিছু?আমি একটা প্ল্যান করছি,এইদিক দেখ।” এই বলে সে কাগজ কলম নিয়ে জিগ-জ্যাগ ১১টা পয়েন্ট আঁকলেন।বললেন, ”শুনো,এইটা গোলকিপার।এ এরে পাস দিবে,এ এরে দিবে,এ স্ট্রাইকার কে দিবে।স্ট্রাইকার গোল দিবে।আমরা ম্যাচ জিতে যাব।” একজন বলল, ”স্যার অন্য হাউসের ছেলেরা কি দাঁড়ায়ে দাঁড়ায়ে দেখবে?” স্যার বললেন ,’‘ভেরি গুড পয়েন্ট।এইটা তো ভাবিনাই,আচ্ছা কি করা যায় বলত?”

ঘটনা পাঁচঃ

ইংলিশ ভার্সন চালু হল।রাতারাতি স্যারদের মুখে ইংরেজির খই ফুটতে শুরু করল।যে যা পারে তাই নিয়ে প্রবল পরাক্রমে ইংলিশ ঝাড়তে থাকল।আমাদের পৌরনীতির শিক্ষক একদিন এসে ব্যাপক ভাবের সাথে বললেন, ”ফর্ম লীডার,বার্ন দা লাইট (লাইট জ্বালাও)। সার্কেল দা ফ্যান (ফ্যান চালাও)”
আরেক ফর্মে গিয়ে বললেন, ” ভেরি হট টুডে!!পুটিং খাকী,ফিলিং কম্ফর্ট?”

**************************************

অনেক ডায়লগ বাকি। সব তো স্যার-ম্যাডামদের কথা লিখলাম। ক্যাডেটদের বাণী বাকিই আছে।এই পোস্টের ফলাফল দেখে পরবর্তী পোস্ট নির্ধারিত হবে………]

৫,০৭০ বার দেখা হয়েছে

৭৪ টি মন্তব্য : “শাহী ডায়লগস ফ্রম দ্য গেরাম মোক্তারপুর-১”

  1. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    আহারে ...... ইকবাল স্যার আমাদের হাউস মাস্টার ছিলেন। জটিল লোক :boss: :boss: :boss: । টুয়েল্ভে থাকার সময় কিভাবে জানি আমরা রুমে সিগারেট খাবার পরে বা রুম টেস্ট ম্যাচের সবচেয়ে উত্তেজনাকর সময়ে আমাদের রুম ইন্সপেকশন করতে আসতেন ...

    জবাব দিন
  2. শাহেদ_৯৭-০৩

    ৩ নংটা মজার হয়া সত্তেও পছন্দ হয় নাই...স্যারের কাপে থুথু দেয়া একটু বেশি খাইষ্টামি হয়ে গেল না...

    হাজার হোক...শাহী ক্যডেট না...এইরকম কাজ তো মানায় না... 🙁

    জবাব দিন
  3. আশহাব (২০০২-০৮)

    পিন্টুদা আপনে তো পুরাই রকায় দিলেন 😉 :boss: সবগুলাই চরম কিন্তু ৩নং এ থুথু না দিলে আরো ভালো লাগতো :grr: :khekz: আমাদের কলেজ থেকে যে ফড়িং (আরিফুর রহমান) গেসিলো আপনাদের কলেজে, অইটারে নিয়া কিছু আশা করসিলাম লিখবেন 😀


    "Never think that you’re not supposed to be there. Cause you wouldn’t be there if you wasn’t supposed to be there."
    - A Concerto Is a Conversation

    জবাব দিন
    • আছিব (২০০০-২০০৬)

      ভাই......ওয়েট কর.........আমরা স্যারকে হেলিকপ্টার কইতাম,চপার......। :grr:

      আহাহ হার (আসাদ স্যার) রে নিয়েও লিখমু......... =))
      ৩নং এ আসলে ভাই এর মাতলামীর দোষ,নাদিমের দোষ নাই 🙁

      জবাব দিন
      • কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

        আছিব, আশহাব এবং অন্যরা, এখানে যারা কয়েকজন স্যার এবং তাদের বিভিন্ন নিক বা টিজ নেইম নিয়ে কমেন্ট করছো, পুরো ব্যাপারটিতে তোমাদের আরো একটু সতর্ক হতে বলছি। ক্যাডেটদের জন্য স্যারদের সাথে সময় কাটানোর ঘটনাগুলো ইউনিক এবং বিভিন্নভাবে আকর্ষনীয় সন্দেহ নেই, তবে তাদের নাম ধরে বিভিন্ন উপনামে ডাকা এবং এইটা অইটা এভাবে সম্বোধন করার জায়গা সিসিবি অন্তঃত নয় বলেই আমি মনে করি। ঘটনাগুলো নিঃসন্দেহে মজার এবং আনন্দদায়ী সন্দেহ নেই, কিন্তু কয়েকবছর আগে পাশ করে আসা তোমাদের কাছ থেকে আরেকটু সম্মান বোধহয় উনারা আশা করতেই পারেন। ক্যাডেট কলেজ স্মৃতিচারণে স্যারেরা চলে আসবেনই, তবে সেটি কিভাবে পরিবেশন করতে হবে সেটি বুঝতে চাইলে কামরুলের ব্লগ দেখতে পারো। ওর পুরো একটি সিরিজই ছিলো "কোথায় পাবো তাদের" শিরোনামে এরকম কাহিনী নিয়ে।


        সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

        জবাব দিন
        • আছিব (২০০০-২০০৬)

          ভাই,আমি নিজেও ইতস্তত ছিলাম,ঠিক হবে কিনা, কন্ট্রোল করতে পারিনি দেখে লজ্জিত বোধ করছি।মাফ করবেন প্লিজ

          কলেজের বাইরে এসে এখন মনে হয়,তারা আসলে লোক ভালো ছিলেন,সবই সিস্টেমের দোষ।

          জবাব দিন
          • বন্য (৯৯-০৫)

            মনে হওয়া বা সিস্টেমের দোষ বলে কিছু না...তারা ভাল বা খারাপ যাই হোক,তোমার শিক্ষক হিসেবেই তাদের সম্মান করা উচিৎ....আর না করলে এটলিষ্ট এইভাবে পাবলিক প্লেসে তাদের অপমান করতে পার না।তুমি ভাল করেই জান অনেক স্যার,তাদের ছেলে মেয়েসহ এখন প্রচুর মানুষ সিসিবি পড়ে।

            আর একটা কথা,এক হাউজ বেয়ারার নাম দেখলাম নামধাম সব শুদ্ধ দিয়ে দিস...স্যারেরা নাইলে বড়জোড় মাইন্ড করবে..কিন্তু হাউজ বেয়ারা যদি এখনও কর্মরত অবস্থায় থাকে তাহলে তুমি নিশ্চয়ই চাইবে না তোমার লিখার কারণে উনি কোন সমস্যায় পড়ুক।
            মজাদার ঘটনাগুলো অবশ্যই লিখবে...কিন্তু সেগুলো যেন কারও জন্য মজার,কারও জন্য বিব্রতকর না হয় সেদিকে খেয়াল রাখলে মনে হয় ভাল হবে।

            জবাব দিন
            • আছিব (২০০০-২০০৬)

              আল্লাহ ভাই,বিশ্বাস করেন,স্যারদের অপমান করার মোটিভ আমার কখনই ছিল না,ভুল বুঝবেন না প্লিজ।

              পরবর্তী সময়ে আর স্যারদের নাম সরাসরি উল্লেখই করা যাবে না মনে হয়।
              স্যারও রিটায়ার্ড করেছেন,ইমরান ভাই এর কিছু হবে আমার মনেই হয় না।তারপরও আর নাম আনব না,প্রমিজ।

              জবাব দিন
            • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

              আর না করলে এটলিষ্ট এইভাবে পাবলিক প্লেসে তাদের অপমান করতে পার না স্যারদের নামগুলো সরাসরি না দিয়ে আকারে ইঙ্গিতে দিলে ভাল হত সন্দেহ নেই,তবে এই পোস্ট পুরোটা পড়ে আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে অন্ততঃ মনে হয়নি যে তাঁদের পাবলিক প্লেসে অপমান করার উদ্দেশ্যে এই ঘটনাগুলো লেখা হয়েছে।আর শিক্ষকদের প্রতি সম্মান-অসম্মানের ব্যাপারটা ভেতর থেকে আসে,এটিও সম্ভবত ক্যাডেট মাত্রই অবগত।আমি দুঃখিত,বন্যের মন্তব্যটি আমার কাছে পুরোপুরি প্রাসঙ্গিক বলে মনে হয়নি-বিশেষ করে কোট করা অংশটুকু।আমি নিজেও প্রচুর ভুল করি,কিন্তু এই ভুল যদি আমার কোন বড়ভাই আমি যা করিনি সেই দোষে আমাকে দুষ্ট করে তারপর সেই প্রেক্ষিতে তিরষ্কার করেন তাহলে ভুল থেকে শেখার বদলে সম্ভবত উষ্মাই বৃদ্ধি পাবে।যা হোক,এটি আমার একান্তই ব্যক্তিগত মতামত।

              জবাব দিন
              • বন্য (৯৯-০৫)

                অপমান করার উদ্দেশ্য থাকা আর অপমান করা এক না...আছিব যে নিতান্তই মজার ঘটনাগুলো সবার সাথে শেয়ার করতে চেয়েছে সেটা আপনার মত আমিও জানি,কিন্তু সরাসরি নাম দেওয়ায় উল্লেখিত স্যারেরা বিব্রত হবেন অবশ্যই,ক্ষেত্রবিশেষে অপমানিতও হতে পারেন।এইটা আপনার কাছে প্রাসঙ্গিক মনে না হইলে কি আর করা।
                আর আছিব আমি কি বলতে চেয়েছি আশা করি তুমি বুঝতে পেরেছ তাই উষ্মা-টুষ্মা মনে রেখনা।

                জবাব দিন
                • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

                  মনে হচ্ছে এই টাইপ পোস্ট সিসিবিতে এই প্রথম আসল- আর স্যারদের অপমান কইরা এক্কেরে ফাটায়া ফেলা হইছে এই পোস্টে 😀

                  যাকগে,নামগুলা আকারে ইঙ্গিতে দিলে অনেকের জন্য বিব্রতকর পরিস্থিতি এড়ানো যাইতো এইটা যেহেতু সবাই মানি-তাই নতুন কিছুই বলার নাই।

                  এইটা আপনার কাছে প্রাসঙ্গিক মনে না হইলে কি আর করা

                  কিছু করবা সেইটা আশাও করিনাই-আগে থেইকাই বইলা রাখছি ব্যক্তিগত মতামত 🙂

                  জবাব দিন
                  • বন্য (৯৯-০৫)

                    পোষ্টের চেয়ে এখানে কমেন্টের গতিপ্রকৃতি দেখেই কথাগুলো বলসি আমি।এই টাইপ পোষ্ট সিসিবিতে প্রথম আসে নাই বলেইতো আছিবের আরেকটু সতর্ক হওয়া উচিত ছিল,সেটাই মনে করিয়ে দিতে চেয়েছিলাম,ফাটায়া অপমান করার কথাটা কি উদ্দেশ্যে বললেন ধরতে পারলাম না।
                    ব্যাক্তিগত মতামত এইটা তো বলে দেওয়ার কিছু নাই,আপনার কমেন্টের দায়-দায়িত্ব যে আপনারই সেটা মন্তব্যটির উপরে আপনার নাম দেখেই বুঝা যায়। 🙂

                    জবাব দিন
                    • বন্য (৯৯-০৫)
                      শিক্ষকদের প্রতি সম্মান-অসম্মানের ব্যাপারটা ভেতর থেকে আসে

                      আরেকটা কথা,এই ব্যাপারেও আমি আপনার মতালম্বী নই।কোন শিক্ষকের ব্যাপারে আমার শ্রদ্ধা না আসলেও আমি পারতপক্ষে তাদের সম্মানহানীকর কিছু করি না।আমার কাছে আমার যেকোন শিক্ষক যত ভালই হোক,আর যত খারাপই হোক..তাদের স্থান অনেক উঁচুতে।

                    • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

                      ব্যক্তিগত মতামত নিয়া সেই থোড় বড়ি খাড়া-খাড়া বড়ি থোড়, ওইদিকে আর গেলাম না।

                      ফাটায়া অপমান করার কথাটা কেন বললাম সেইটা একটু "ধরায়" দেই।"এইভাবে পাবলিক প্লেসে অপমান করতে পারনা" বইলা ঝাড়িটা যেই স্টাইলে দিছো(এখন বলতে পার "আমি আবার ঝাড়ি দিলাম কখন" :-/ ) তাতে এই পোস্টে লেখক দ্বারা ইচ্ছাকৃত স্যারদের ফাটায়া অপমান করা হইছে বইলা মনে না হওয়ার কারণ খুব সামান্যই(ওপস! তোমার কাছে মনে নাও হইতে পারে)। আর এইখানেই আমার দ্বিমতটা-লেখক নাম এডিট না করে ভুল করছে নিঃসন্দেহে,কিন্তু এই "শিক্ষকদের পাবলিক প্লেসে অপমান করার অপরাধে" ঝাড়ির(?!) যোগ্য তাকে আমার মনে হয়নাই।এই কারনেই ওই কথা বলছিলাম-ভুলে যদি তোমাকে আঘাত করে ফেলি কিছু মনে নিও না ভাই।আমার মত তোমার সাথে মিলতে নাও পারে,আর ভিন্নমতই সহাবস্থানের সৌন্দর্য।

                      শিক্ষকের ব্যাপারে তোমার মতামত নিয়াও নতুন কিছুই বলার নাই-এইভাবে ভাবতে পার দেখে খুব ভাল লাগল কারণ আমি এখনও কিছু কিছু শিক্ষকের আচরণ ক্ষমা করার মত মহত্ব অর্জন করতে পারিনাই।আরো কিছু সময় পার হলে হয়ত শিখব(এইখানে কথাগুলা ঠিক প্রাসঙ্গিক না কারণ এই ব্লগের কোন শিক্ষকের সাথে আমার পরিচয় নাই)

                      লেখা এডিট করা,অর্থাৎ তর্ক বিতর্কের সারকথা যেইটা-সেই্টা নিয়া কোন দ্বিমত নাই।কাজেই আর কথা না বাড়াই।আমার মনে হয় পিন্টুও এর পর থেকে এই বিষয়টা মাথায় রাখবে।

                      ভাল থাইকো আর ধানমন্ডির দিকে আসলে একটা কল দিয়া আমার বাসায় ঢুঁ মাইরা যাইও।

                    • আছিব (২০০০-২০০৬)

                      পিন্টু খালি মাথায় না, পুরা বডিতে এই কথা মাইখ্যা নিয়া ঘুরব এরপর থেইক্যা।শিশু ব্লগাররে যেমনে (******** সম্পাদিত ) ঝাড়ল,তাতে শৈশবেই অটিস্টিক ব্লগার হয়ে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা ছিল।আল্লাহর দোয়ায় বাঁইচা আছি।রাখে আল্লাহ মারে কে?

                      আর আমি নাম উল্লেখ না করলেও অনেকে কমেন্টেই স্যারের নাম উল্লেখ করে আরও কাহিনী বলতে পারত বা শুনতে চাইত।আসলে,সবার দোষ না ধরে একজনকে ধরাটা অনেক সহজ।অযথা কঠিন কাজ কে করে?
                      যাই হোক,আমার দোষ স্বীকার করার মত সাহস আমার আছে।
                      আমি বারবার ক্ষমা চাচ্ছি,চাঁছাছোলা সত্য কথা দ্বিধাহীনভাবে লিখেছি বলে অনেকের কাছে তা অন্যায় হয়ে গেছে।এরপর থেকে আর লিখব না,আগেও বলেছি,আবারো বললাম।

                      মাসরূফ ভাইকে ধন্যবাদ,ব্যাপারটাকে হালকা ভাবে নেওয়ার জন্য।সবাই যদি হালকাভাবে নিত!!আমি তো শুধু মজাই করতে চেয়েছি,অপমান-মানহানি এইসব নেতিবাচক শব্দ আমাকে চরমভাবে মর্মাহত করেছে।

                      ব্লগের শেষ লাইনেও এমনকি প্রাক্কথার শেষেও আমি বলেছিলাম ,''শুধু মজা করার জন্যই লেখা,স্যার-ম্যাডামদের প্রতি পূর্ণাঙ্গ শ্রদ্ধা রাখিয়া শুরু করিতেছি। সকলের ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টি প্রার্থনা করিতেছি। অনুরোধ থাকল স্যারদের চিনলে আরো কিছু শেয়ার করার জন্য''
                      আর ''এই পোস্টের ফলাফল দেখে পরবর্তী পোস্ট নির্ধারিত হবে''
                      .........ফলাফলটা যে ভালো হয়নি তা এই শিশু ব্লগার বুঝেছে।
                      সকলকে সাধারণ সালাম :salute:
                      ফ্রন্ট রোল ঃ :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll: :frontroll:

                    • কামরুল হাসান (৯৪-০০)

                      'বুড়া ব্লগারগুলা ' বলতে কাদেরকে বোঝাচ্ছো?
                      তোমার এই মন্তব্যটা আপত্তিকর মনে হচ্ছে আমার কাছে।


                      ---------------------------------------------------------------------------
                      বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
                      ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

                    • বন্য (৯৯-০৫)

                      ধন্যবাদ আছিব তোমার মন্তব্যটির জন্য।মাত্রই তোমাকে ধন্যবাদ দিতে যাচ্ছিলাম সবার কথাগুলো পজিটিভলি চিন্তা করার জন্য,কিন্তু এখন বুঝতে পারছি সেটা কত বড় ভুল হত।
                      অপমান,মানহানী এই কথাগুলো তোমাকে মর্মাহত করেছে বললে...আর তুমি যে লাগাতার ভাবে স্যারদের নামউল্লেখপূর্বক টিজ নাম বলতে শুরু করেছিলে তাতে কি ওই স্যাররা মর্মাহত হতেন না?নাকি তুমি শুধু নিজের মর্ম আহত হলেই ডিফেন্স নাও,অন্য কারওটা তোমার দেখার বিষয় নয়।

                      চাঁছাছোলা সত্য কথা বলার সৎসাহস আছে,আর যে ছয়-ছয়টি বছর তোমার শিক্ষক ছিল তাকে সামান্য শ্রদ্ধাটুকু করার মত বোধ তোমার নেই?খুব ভাল লাগল।

                      ধর কোন স্যারের এই ব্লগটি খুব ভাল লাগল বলে তিনি অন্য কাউকে রেকমেন্ড করলেন পড়ে দেখতে।এখন যদি ওই ব্যাক্তি পড়ে এসে স্যারকেই বলে আজকে তো আপনার এইএই নামগুলো শুনলাম ব্লগে,স্যারের কেমন লাগবে বলতো?আমার মনে হয় ক্যাডেট কলেজ ব্লগ শুধু ক্যাডেটদের জন্যই না,ক্যাডেট কলেজ সম্পর্কিত সবার জন্যই।

                      অনেক কথা বলে ফেললাম,তোমার মত জিনিসগুলোকে হালকা করে দেখতে পারিনা বলেই হয়তা।এই ব্লগ আমার যতটুকু,তোমারও ঠিক ততটুকুই।আমার আপত্তি তোমার খারাপ লেগেছে..তুমি সেটা বলেছ।ভবিষ্যতে আর আপত্তি জানাব না,নিশ্চিন্তে লিখে যেতে পার।অটিস্টিক হওয়ার কোন দরকার নেই।
                      ভাল থেক।

                    • ব্লগ এডজুট্যান্ট

                      আছিব
                      আপত্তিকর মনে হওয়ায় আপনার মন্তব্যের কিছু অংশ মুছে দেয়া হল।

                      ভাষা ব্যবহারে আরো সংযত হওয়ার জন্যে আপনাকে অনুরোধ করছি। আশা করি ভবিষ্যতে কাউকে সম্বোধন করার সময় চুড়ান্ত সতর্কতা অবলম্বন করবেন।
                      লেখার বিষয় উপস্থাপনার ক্ষেত্রেও।

                      ধন্যবাদ।

  4. ফখরুল (১৯৯৭-২০০৩)

    শরীফুজ্জামান স্যারের পিসিসিতে নিক নাম ছিল ব্যাং মিয়া ওরফে ফ্রগ। স্যার কি রাজশাহীতেও তার ওই বিদঘুটে ইংরেজীর প্র্যাকটিস করে গেছেন?

    স্যারের কি প্রোমোশন হইছে?

    জবাব দিন
  5. কি খবিশ রে ভাই,স্যুপের মধ্যে থুথু!!!! 😕
    পুরাই :pira: ইংরেজি শুইনা :khekz: :khekz:
    নেক্সট পর্ব তাড়াতাড়ি দে,নাইলে :duel:
    অবশ্য আগে ভাল করে পরীক্ষা দে।ওই তুই কোন ডিপার্টমেন্ট?

    জবাব দিন
    • আছিব (২০০০-২০০৬)

      😮 😮 😮
      তুই এখনও জানস না আমি কুন ডিপার্টমেন্ট?? x-( ~x(
      খুদা রে খুদা,লজ্জাবতী গাছ একটা বৃক্ষ হইলে আমি উহাতেই ঝুলিয়া স্বহরণ করতাম :chup: :bash:
      আমি সিভিল'০৬......স্টু......প্রোফাইলটাও তো দেখতে পারতি না জিগাইয়া :duel:
      পরীক্ষার জন্য দোয়া করলি দেখে ভালো লাগল।আর কইস না এক্টাতে কোপাই তো আরেক্টায় কোপ খাই......বড়ই বিদ্যাজনিত বাঁশের উপর আছি :bash:

      জবাব দিন
      • ইয়ে মানে দোস্ত দুঃখ করিস না,তোরে ফাঁস দেওয়ার জন্য আমি মানিপ্লেন্ট এনে দিব।
        আমি প্রোফাইলের কথা ভুলে গেছি 😛
        ব্যাপার না তোর নিজ মুখে শুনলাম,মনে থাকবে B-)

        জবাব দিন
  6. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    ছি পিন্টু,শাহী ক্যাডেট হইয়াও তোরা ক্লাসের মধ্যে াকিং করতি?? 😮 😮 😮 হাজার হউক,আমি তো শাহী ক্যাডেট পরিবারের মধ্যেই পড়ি,এইসব বেশরিয়তি কাজ কইরা আমার ইজ্জত তো ডুবাই দিলি...কি আছ-ছীব,কিলাসের মইধ্যে কি াকিং কইরতিছ্যাআআআআআও??(কপিরাইট ইলিয়াছ স্যার)

    জবাব দিন
  7. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    লেখার পর মন্তব্যেও সবাই মিলে যেভাবে স্যারদের নিয়ে অসম্মানজনক কথা বলছো তাতে লজ্জাই লাগছে।
    জানোনা হয়তো, বেশ ক'জন স্যার নিয়মিত সিসিবি পড়েন। লেখা পড়ে প্রশংসা করে ফোন করেছেন এমন স্যারও আছেন। অন্যদের কথা জানিনা, আমি এমন ফোন অনেকবার পেয়েছি।

    অসম্মান করে হয়তো তোমার উদ্দেশ্য ছিল না , এটা আমি জানি। কিন্তু উপস্থাপনা সেরকমই হচ্ছে।

    তোমার সঙ্গে আমার আর কাইয়ুম ভাইয়ের দেখা হয়েছিল মনে আছে? ২৫ ফেব্রুয়ারি বিডিআর-এর সামনে। বলেছিলাম, সিসিবিতে কি লিখছো সেটা নিজে একবার মনযোগ দিয়ে পড়ে দেইখো।
    জানি পছন্দ হয়নি কথাটা। তবুও চেষ্টা করে দেখ, যদি পার।


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  8. সামি হক (৯০-৯৬)

    আছিব তোমার এডিট করার আগের ব্লগ আমি পড়ি নাই কিন্তু এডিট যদি করেই থাকো তাহলে হাউস বেয়ার ইমরান ভাইয়ের কথা কিভাবে লিখলা আমার মাথায় আসলো না। যাইহোক আশাকরি সামনে তুমি আরো সর্তক হবা লেখার ব্যাপারে।

    জবাব দিন
    • আছিব (২০০০-২০০৬)

      ভাই, একটু অসতর্ক এবং আহাম্মকি করার জন্য আমি খুবই অনুশোচিত।
      ঘটনা তিন আমাদের হাউসের ছেলেপেলে যা জানত,তাই লিখেছিলাম।এখন শুনলাম আসল ঘটনা।সেইটাই দিয়ে দিলাম।

      একইসাথে স্মৃতিবিভ্রাট এবং অসতর্কতার জন্য সকলের নিকট আমি ক্ষমাপ্রার্থী। কিছু অংশ এডিট করে দিলাম।এর থেকে বেশি করব না।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।