আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে……

গত দুইদিন ধরে লস এনজেলসে বৃষ্টি হল, সেই সাথে হাড় কাঁপিয়ে ঠান্ডা (অবশ্য এখানকার মাত্রায়)। সাত তলায় আমার ছোট্ট রুমের জানালা দিয়ে চোখে পড়ে সামান্য দূরের ‘শান্তা-মনিকা’ পাহাড়, কুমারীর সযত্ন আঁচড়ে তোলা চুলের শিঁথীর মত তার গা ঘেষে এঁকেবেকে উঠে যাওয়া পাহাড়ি রাস্তা। বৃষ্টি নামলে আবছা কুয়াশামত কিছু একটা দৃষ্টিসীমায় এসে প্রতিদিনকার চেনা দৃশ্যটাকেই খানিকটা অচেনা করে দেয়। গতকালও এমন হয়েছিল, আমার চেনা দৃশ্যটা অন্যরকম হয়ে দেখা দিয়েছিল।

সিসিবি’র কল্যাণে জানতাম যে গতকাল দেশে ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ ছিল। কিন্তু নানা কারনে ব্যাস্ত থাকায় সারাদিন আমার বিশেষ কিছু মনে হয়নি। সন্ধ্যায় টেবিলে বসে ল্যাপটপ অন করে ইউটিউবে গেলাম। কি মনে করে নিয়াজ মোহাম্মদ চৌধূরির গান চালিয়ে দিলাম। বেজে উঠল ‘আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে, মনে পড়ল তোমায়’। বাইরে বৃষ্টি। দূরের শান্তা-মনিকা পাহাড় আর তার উপরের আঁকাবাকা রাস্তাটা ঝাপসা ঝাপসা লাগল। মন চলে গেল আরো দূরে, প্রশান্ত-ভারত মহাসাগর পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে। লাল ইটের সাড়িতে বাঁধানো ধানমন্ডি লেকের পাড়। উপর থেকে টুপটাপ ঝরে পড়া গাছের দু’একটা শুকনো পাতা। কল্পনার সেই ছবিটাও যেন খানিকটা ঝাপসা।

বাইরের জানালায় দৃষ্টি ঝাপসা, ভেতরের জানালায়ও। বাইরে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি, ঝড় ছিল আমার মনেও………

আজ এই বৃষ্টির কান্না

২,৬৭৯ বার দেখা হয়েছে

৪১ টি মন্তব্য : “আজ এই বৃষ্টির কান্না দেখে……”

  1. তানভীর (৯৪-০০)
    কুমারীর সযত্ন আঁচড়ে তোলা চুলের শিঁথীর মত তার গা ঘেষে এঁকেবেকে উঠে যাওয়া পাহাড়ি রাস্তা।

    অসাধারণ মাহমুদ ভাই। :hatsoff:

    কেমন মন বিষন্ন করে দেয়া লেখা।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।