“মানুষ মূলত একা”

অনেকদিন এপাড়ায় আসা হয় না।
ইচ্ছে যে হয় না, তা নয় কিন্তু পুরনো লিখা এগোয় না, আর তারিখ বদলে যে নতুন লিখা ঢুকাতে হয়, সেটা আবার ভাল লাগে না।
তাছাড়া লিখতে না এলে পড়াও হয় না। সময়টা অন্য কোনোখানে খেয়ে ফেলে যে, তাই।
এরমধ্যে বিভিন্ন সময় যে ভাবনাগুলো এসেছিল, তা ভাগ ভাগ করে ফেবুতে দিয়েছি স্ট্যাটাসাকারে।
সেটাও মন্দ না। কেউ না কেউ তো পড়ছেন।
আর পরে একসময় কম্পাইল করে এখানেো তুলে দেয়া যায়।
মন্দ কি???

আজ লিখতে আসা, গতকাল দেখা এই “লাভ-কোট” নিয়ে নিজের কিছু অনুভুতি জানানোর জন্য।
LoveQuote

এটা দেখার পর, প্রথমেই মনে পড়লো জীবনানন্দ দাশের বোধ কবিতার এই পংক্তিগুলো:
“আমি সব দেবতারে ছেড়ে
আমার প্রাণের কাছে চ’লে আসি ,
বলি আমি এই হৃদয়েরে :
সে কেন জলের মতো ঘুরে ঘুরে একা কথা কয় !”

এরপর মনে পড়লো কবি-বন্ধু আবুল হাসনাৎ মিল্টনের উপন্যাস “মানুষ মূলত একা”-র কথা।
খুজতে গিয়ে, এই নামে একখানা কবিতা পেলাম যা “জন্মভূমি” ছদ্মনামে লিখেছেন কেউ একজন।

“গোধুলী লগ্ন আস্তগামী সূর্য ;এভাবেই বছর চলে যায়,
চলে যায় জীবন শুধু থেকে যায় অসমাপ্ত ভালবাসা
তোমার আমার জীবনের অংক আসলেই অসমাপ্ত
অবশেষে মানুষ একদিন আবিষ্কার করে
পৃথিবীতে মানুষ মূলত একা…”

অনেক ভূমিকা হলো, এবার মূল বক্তব্যে আসি।
আর সাথে ঝেড়ে কাশি।

হতে পারে, প্রতিটা মানুষের জন্যই একজন ট্রু সৌলমেট কোথাও না কোথাও আছে।
কিন্তু একজীবনে তাঁকে যে খুজে পাওয়াই যাবে, এমন কোনো কথা নাই।
আবার এমনও হতে পারে যে তাঁকে যখন খুজে পাওয়া গেল, দেখা গেল, সেটা বড়ই ভুল একটা সময়ে, ভুল একটা পরিস্থিতিতে, যখন দুজনেরই হাত পা এমনভাবে বাধা যে কিচ্ছু করার কোনো উপায় নাই।
সামনে এগুনোর কোনো পথ নাই।
হতে পারে একজন পুরুষের সেই “স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা”-টি তখন অন্যের ঘরনী অথবা সংসারের সমাজের চাপে পিষ্ট হয়ে নুব্জ হয়ে সংগ্রাম করে চলেছে অস্তিত্ত রক্ষায়।
আবার
একজন নারীর সেই “প্রিন্স চার্মিং” কর্তব্যের চাপে, পেশার উৎকর্ষতায়, ইমেজ হারানোর সংশয়ে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও এগুতে পারছেন না তাঁর যা করতে ইচ্ছা হয় তা করার জন্য…

এই যখন বেশির ভাগ মানুষের অবস্থা, কেন তবে এই অপেক্ষা সেই নির্দিষ্ট প্রিন্স চার্মিং-এর অথবা স্বপ্নে দেখা রাজকন্যার?
বরং যা যা আছে চারিপাশে, যারা যারা আছেন নাগালে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে, তাদের নিয়েই কেন নয় নিজের মত জীবন সাজিয়ে নেয়া?
প্রানভরে উপভোগ করা এই একমাত্র জীবনটার প্রতিটা মুহুর্ত সাধ্যমত?

আর কে জানে তা করতে করতেই হয়তো এমন কেউ এসে পড়বে সামনে, যে হয়তো প্রিন্স চার্মিং নয়, নয় সেই স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা – কিন্তু মনে হবে, এরসাথে জীবন কাটানোটাও কোনো অংশে কম হৃদয়গ্রাহী নয়।

আবার তা যদি নাও হয়, তাতেও ক্ষতি কি?
এই যে নিজেকে ভালবেসে নিজেকে ট্রিট দিয়ে সুন্দর সময় গুলো একা একা কাটানো, সেটাও তো দিনের শেষে সুখের পাল্লা ভারী করবে।
নাইবা হলো তা শ্রেষ্ঠতম উপায়ে, কিন্তু শ্রেয়তর যে – সেটা কিন্তু নিঃসন্দেহেই………

২,৮৭৭ বার দেখা হয়েছে

৪ টি মন্তব্য : ““মানুষ মূলত একা””

  1. আপনার কবিতা গুল পড়ে কখন জে আপ্নার এত ভক্ত হয়েগেলাম বুঝতেই পারিনি,
    কিছুদিন আগেই তা বুঝতে পারলাম কারন অনেক দিন ধরে কিছু লিখছেন্না এখানে, আমি দিনে ৫বার করে এই ব্লগ টায় আসি এবং এসেই নতুন আসা লিখা গুলয় চোখ বুলাই জে কে লিখল, কি আজব আপ্নার নাম টা দেখা জায়না দেখেই আবার ফিরেজাই অন্যন লিখাগুল আর পড়তে মন চায়না!!!

    আর কে জানে তা করতে করতেই হয়তো
    এমন কেউ এসে পড়বে সামনে, যে হয়তো
    প্রিন্স চার্মিং নয়, নয় সেই স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা
    – কিন্তু মনে হবে, এরসাথে জীবন
    কাটানোটাও কোনো অংশে কম হৃদয়গ্রাহী
    নয়।
    আবার তা যদি নাও হয়, তাতেও ক্ষতি কি?
    এই যে নিজেকে ভালবেসে নিজেকে ট্রিট
    দিয়ে সুন্দর সময় গুলো একা একা কাটানো,
    সেটাও তো দিনের শেষে সুখের পাল্লা
    ভারী করবে।
    নাইবা হলো তা শ্রেষ্ঠতম উপায়ে, কিন্তু
    শ্রেয়তর যে – সেটা কিন্তু নিঃসন্দেহেই……… আর এর কারন গুল মনে হয় আপনার লিখা কথা গুল কি ভাবেজে একেবারে মনের কথা গুল ওঠে আসে আপনার লিখায় ভেবে অবাক হই।
    আপনার সুন্দর সুন্দর কবিতার অপেক্ষায় রইলাম 🙂

    জবাব দিন
    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      এত সুন্দর সুন্দর কথা লিখবার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
      কবিতার ঢং-এ যা যা লিখি, ঐগুলা যে কতটা কবিতা হয়, তা নিয়ে বরাবরই সংশয়ে থাকি।
      তাই যখন কারো কাছে কবিতার প্রশংসাসুলভ কোনো মন্তব্য পাই, আসলেই আপ্লুত না হয়ে কোনো উপায় থাকে না।
      আবারো ধন্যবাদ এবং শুভকামন!!!


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন
  2. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    বরং যা যা আছে চারিপাশে, যারা যারা আছেন নাগালে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে, তাদের নিয়েই কেন নয় নিজের মত জীবন সাজিয়ে নেয়া? - তাই তো! সেটাই তো মনে হয় ঠিক ধারণা।
    তবে শিরোনামটা নিঃসন্দেহে সত্য।

    জবাব দিন
    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ, খায়রুল আহসান ভাই......
      আমার মতামতকে সায় জানানোর জন্য জানাচ্ছি কৃতজ্ঞতা।
      আশা করছি অচিরেই আরও একটিভ হতে পারবো।
      আপনাকে সবসময় সাথে পেয়ে আসলেই বিগলিত!!!


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।