কবিতা মানবী

যদি প্রেমাষ্পদ হয়েই থেকে যেতে,
আজ তুমি হতে পারতে স্ত্রী,
কবিতা না।
অথবা হতে পারতে
আমাদের সন্তানের মা,
কিন্তু কবিতা না।
কিংবা হতে প্রেমিকা, প্রেয়সী,
অথবা আত্মার আত্মীয়,
কিন্তু কখনোই কবিতা না।

তুমি যখন প্রেমাষ্পদ হিসাবে
আর থাকতে চাইলে না,
চাইলে আমাকে ছেড়ে অন্য কোনো
ঠাই খুজে নিতে,
তুমি জানতেও পারলে না,
সেই থেকে আমার কাছে তুমি
এক জীবন্ত কবিতায়
রূপান্তরিত হলে।

জানই তো, ভালবাসার সম্পর্কগুলো
কখনো হারায় না।
রুপান্তরিত হয় অন্যকিছুতে।
তুমি নাহয় আমার জন্য
হেসেখেলে, চলেফিরে বেড়ানো
জলজ্যান্ত একখানা কবিতা-মানবী
হয়ে রইলে, বাকিটা জীবন!!!

২,৬৬৮ বার দেখা হয়েছে

১২ টি মন্তব্য : “কবিতা মানবী”

    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      একটা সময় কোনোকিছু না পেলে, কষ্ট হতো।
      আজকাল মনেহয়, কোনো কিছু চেয়ে সেটা পেয়ে গেলে আসলে তা শেষ হয়ে যায়।
      বরং না পাওয়াটাই ভাবায়, কেন তা পেলাম না......


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন
      • লুৎফুল (৭৮-৮৪)

        "একবার পাইবার পর নিতান্ত মাটির মনে হয় তার সোনার মোহর"
        তাইলে তো আর অইন্য রকম হইবার পারে না...
        যেই মেডালের লাইগা সাত বছর মাথার ঘাম পা দিয়া গড়াইয়া নামতে নামতে পুকুর হইয়া যাইতো এক এক দিন। সেই মেডালের গায়ে ধূলা জমে। বাক্সে কাতর ঠাঁই হয়। সময়ে তা কোথায় গেলো হয়তো হদিসটুকুনও আর থাকে না।
        সব কিছু হুবহু না হইলেও পেরায় একই রকম ...

        জবাব দিন
        • পারভেজ (৭৮-৮৪)

          বাহ্‌, দারুনতো ব্যাপারটা.........

          বিকর্ষনে যেমন চুম্বকত্বের প্রমান, তেমনই বিচ্ছেদেই সম্পর্কের (প্রেম, বন্ধুত্ব ইত্যাদি অর্থে) প্রমান।
          যে বিচ্ছেদ, বিচ্ছিন্নতা কাঁদায় আবার হাসায়, ফিরি ফিরে মনে করিয়ে দেয় - "সে নাই", সেটাই প্রমান করে, তার থাকাটা কতটা জরুরী ছিল.........

          তাই সেটাই কারো কারো জন্য ফুটে ওঠে কবিতার রূপ নিয়ে। অন্যদের জন্য অন্য কোনো রূপে তা নিশ্চয়ই ফুটে ওঠে। কখনো বোঝা যায়, কখনো যায় না - এই যা পার্থক্য.........


          Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

          জবাব দিন
  1. মাহবুব (৭৮-৮৪)

    "একবার পাইবার পর নিতান্ত মাটির মনে হয় তার সোনার মোহর" :boss:
    এইটাই হইল জিবনের আসল পানা দেনার হিসাব নিকাশ।
    কি পাইলাম না সেইটা নিয়া যদি আপসুস না থাকে তাইলে তুমি ছবর কারী সন্যাসী পারা,
    যদি থাকে তাইলে কবি

    জবাব দিন
    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      "কি পাইলাম না সেইটা নিয়া যদি আপসুস না থাকে তাইলে তুমি ছবর কারী সন্যাসী পারা,
      যদি থাকে তাইলে কবি..."
      এইটা কিন্তু দুর্দান্ত বলেছো, মাহবুব।
      এই কবিতাটা লিখতে দীর্ঘ সময় ভেবেছি। চারপাচ রকম ভাবে ট্রাই করার পর শেষ পর্যন্ত এই অবস্থায় এলো।
      তোমার আর বাবুর কমেন্টগুলো পড়ে বুঝতে পারছি, পন্ডশ্রম হয়নি তাহলে... 🙂 🙂 🙂


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন
  2. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    চমৎকার কবিতা, আর সেই সাথে লুৎফুল আর মাহবুবের মন্তব্যগুলোও চমৎকার!
    প্রেমিকা মানবী রূপান্তরিত হলো জীবন্ত কবিতা মানবীতে, ধারণাটাই বেশ অভিনব।
    শেষ স্তবকটা বেশ ভারাক্রান্ত করে।
    সুন্দর কবিতা।

    জবাব দিন
    • পারভেজ (৭৮-৮৪)

      অনেক ধন্যবাদ খায়রুল ভাই, ভাবনার খোরাক জাগানিয়া এমন এক মন্তব্য রাখার জন্য।

      আমি অনেককেই দেখেছি, দুর্দমনিয় ভালবাসার সম্পর্কটাকে এক লহমায় ছুড়ে ফেলে দিয়ে হেসেখেলে ঘুরে ফিরে বেড়াতে।
      দেখে মনে হয়েছে, হয় ঐ দুর্দমনিয় মনে হওয়া ভালবাসার সম্পর্কটা আসলেই গভীর কোনো কিছু ছিল না, আর না হয়তো দুমড়ে-মুচড়ে ছুড়ে ফেলা মানুষটা এক মহামানব না মানবী (সুপারম্যান বা সুপারগার্ল)!!!

      আবার এটা দেখেও সময় সময় অবাক হয়েছি, যে প্রকাশ্যে তারা সেই "শক্ত"-ভাব মানে সুপারম্যান বা সুপারগার্ল সুলভ কঠোরতা ধরে রাখতে পারছেন না।
      সচেতনভাবে এভয়েড করতে গিয়ে মনে করিয়ে দিচ্ছেন ক্যামেলিয়া কবিতার সেই পংকতিটি,
      "আমাকে যে চিনেছে, তা বুঝলেম, আমাকে লক্ষ করে না বলেই......"
      কখনো বা সুযোগ বুঝে 'তাকে' শুনিয়ে শুনিয়ে অন্যদেরকে বলা, "এই দুনিয়ায় কত কিছুতেই তো কত মানুষ মরে, আরও দুই-একটা নির্দিষ্ট মানুষ মরলে কি এমন ক্ষতি হতো? আমার যে অন্তত কি শান্তি হতো তাতে, বলার না..."।

      একটা মজার গল্প শুনলাম কিছুদিন আগে।
      এক প্রাক্তন প্রেমিক-যুগল প্রেম ভেঙ্গে যাওয়ার বেশ কিছুদিন পর বসেছিল এক আলাপচারিতায়। মূলত এক ধরনের প্রশ্নোত্তোর পর্বে।
      এক পর্যায়ে একজন অন্যজনকে জিজ্ঞাসা করলেন, "আমায় কি মিস করো কখনো? বিশেষ করে দুজনের পরিচিত কোনো পরিবেশে, একাকি থাকার মুহুর্তগুলোতে?"
      যাকে স্বেচ্ছায় ডাম্প করে বেরিয়ে আসা, তাঁর এমন বেয়াড়া প্রশ্নের উত্তর কি হতে পারে, "প্রশ্নই ওঠে না মিস করার! তুমি কোথাকার কে, যে তোমাকে মিস করতে হবে..." - বলা ছাড়া??
      অথচ না, উনি তা বললেন না।
      উনি বললেন, "এই প্রশ্নটার উত্তর দিতে চাচ্ছি না........."

      মানব মন বড়ই অদ্ভুত। আমি জানি এই উত্তরটার অনেক ব্যাখ্যাই হয়। তবে এটাও ঠিক যে, বেশিরভাগ ব্যাখ্যাই এটা বর্ননা করবে যে একটা সম্পর্ক কখনো পুরোপুরি উবে যায় না। কোথাও না কোথাও সে তার ছাপ রেখেই যায়। এবং সম্ভবতঃ চীরটা কালের জন্যই.........


      Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।