জঞ্জাল থেকে কুড়ানো…

বাসার বুকশেলফের নিচের তাকটায় পুরাতন জিনিসপত্রের জঞ্জাল বেড়ে যাওয়ায় পরিষ্কার করার অভিযানে নেমেছিল বউ। আমি ভাদাইম্মা মানুষ, আমারে দিয়ে ওইসব হয় না। তবে পেছনে দাঁড়িয়ে থেকে দেখছিলাম কি করা হচ্ছে। অনেকদিন আগের একটা স্ক্র্যাপবুক পেলাম, আর একটা ত্রৈমাসিক কলেজ ম্যাগাজিন। সাদা-কালোতে ছাপা। খুলে একটু স্মৃতিকাতর হয়ে গেলাম। সেই স্মৃতিকাতরতায় আপনাদের সামিল করতে আমার নিবেদন-

এখানে-ওখানে
-ক্যাডেট ওমর/১৮৩৫

(কবিতাটা আমার লেখা না, তবে ক্লাসমেটের লেখা। অনুমতি নেয়া সমীচীন ছিল, কিন্তু আমি জানি ও রাগ করবে না। হয়তো ওর কাছে কবিতাটা সংগ্রহে নেই, বহুদিন আগের হারিয়ে যাওয়া একটা কবিতা পেয়ে খুব খুশি হবে নিশ্চয়ই।)

এখানে সব অচেনা
মানুষ, চেনা-অচেনার
ধাঁধা।

ওখানে আবার চির-
চেনা সব আষ্টে পৃষ্টে
বাঁধা।

এখানে নিয়ম-অনিয়ম
যত ভীষণ কাঁকড়-
বিছে।

ওখানে শুধুই স্নেহ-
কাতরতা; বাস্তবতাই
মিছে।

বেঁচে থাকো
-ক্যাডেট তৌফিক/১৮৫৯

(এই কবিতা লিখেই জীবনে প্রথম আর শেষবারের মত কিছু বৈষয়িক লাভ হয়েছিল। কবিতা পড়ে মুগ্ধ হয়ে সাব্বির (৯৮-০৪) সামুচা খাইয়েছিল আমাকে। ধন্যবাদ সাব্বির, আজো আমার ঘটনাটা মনে আছে।)

কখনো দেখেছো কি
আঁধার কালো পথের পরে’
কুয়াশা আর জোছনার মাতামাতি?
স্বপ্নালু চোখে ক্রন্দসী সুখের
কষ্টভুক হাসি?
দেখোনি! বন্ধু, তবে বলব আমি,
এখনো যে বেঁচে থাকাটাই শেখোনি!
কখনো শুনেছো কি-
টিনের চালে অবিরাম
শ্রাবণে বৃষ্টির রিমঝিম গান?
ছোট নদীর ছোট ঢেউয়ে
আদুরে বৈঠার অনায়াস ছলাৎ?
শোননি! বন্ধু, তবে বলব আমি,
এখনো যে বেঁচে থাকাটাই শেখোনি!
কখনো নিয়েছ কি-
পায়ের নিচে সবুজ ঘাসে
শিশির ভেজা নরম আদর?
স্বেদাক্ত মুখে মায়ের
স্মিগ্ধ আঁচলের স্নেহস্পর্শ?
নাওনি! বন্ধু, তবে বলব আমি,
এখনো যে বেঁচে থাকাটাই শেখোনি!
কখনো জেনেছো কি-
আষাঢ়ে বৃষ্টির প্রথম বর্ষণে
একসাথে ভেজার আনন্দ কতখানি?
তারাজ্বলা রাতে মাঠের ধারে
সম্মিলিত সংগীতে বেসুরো সুখ?
জানোনি! বন্ধু, তবে বলব আমি,
এখনো যে বেঁচে থাকাটাই শেখোনি!
কখনো বলেছো কি-
হৃদয় নিংড়ানো সেই
ধ্রুবসত্যটি- “ভালোবাসি?”
বলোনি! বন্ধু, তবে বলব আমি,
এখনো যে বেঁচে থাকাটাই শেখোনি!

এবার আর কবিতা না। কম্পিউটার প্রিন্ট করা একটা পাতা। হুবুহু তুলে দিলাম। ছেলেমানুষি করার দিনগুলো কত দূরে ফেলে এসেছি!

Chicago Bulls
(Senior Basketball Team, S.H.)

1) Rifat – Magic Jhonson
2) Taufiq – Glen Rice
3) Iftekhar (TC) – Shaquille O’Neal
4) Al- Razi – Tim Duncan
5) Firoz – Jason Kidd
6) Mashrur – A.C. Green
7) Hasan – Ron Harpar
8) Adnan – Jhon Shalley
9) Shamsuzzaman – Derek Fisher
10) Nurullah – Travis Knight

Coach: Rezwan
Physio: Amin
Manager: Prince
Motto: Just Wanna Destroy
Theme Song- Hum Bhi Hai Josh Me.

১,৭০৯ বার দেখা হয়েছে

২৭ টি মন্তব্য : “জঞ্জাল থেকে কুড়ানো…”

  1. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    নষ্টালজিক হয়ে গেলাম রে কিন্তু আজকের দিনে এইটা হওয়া যাবে না কিছুতেই কালকে থিসিস সাবমিশন একটু রেস্ট খাইতে আসছিলাম। এখন কি হবেরে।
    কিছুদিন আগে আমার ছোটভাইর কাছে কলেজের একটা ইডি লিস্ট দেখছিলাম সেটা দেখেও কত কিছু মনে পড়ে গেছিল। আহা...
    ওহহো আমার একটা কথা, আমি বেঁচে থাকাই শিখিনিরে কারণ অনেক গুলা যোগ্যতার অভাব দেখলাম।

    জবাব দিন
  2. রহমান (৯২-৯৮)

    তোমার পোষ্টের নামটা অপূর্ণ কেন? নামটা হবেঃ জঞ্জাল থেকে কুড়ানো... কিছু মানিক-রতন
    (যেখানে দেখিবে ছাই, উড়াইয়া দেখ তাই... ছড়া থেকে উদ্ভুদ্ধ হয়ে B-) )
    নষ্টালজিক লেখা, ভাল লাগল 🙂

    জবাব দিন
  3. রকিব (০১-০৭)

    ওরে খাইছে; আপনি কবিতাও দেখি ভালো লেখেন। নাহ কানাডা দেখি বাংলাদেশের সকল জ্ঞানী গুণীজনে ভরে উঠতেছে। ভাইয়া, আসলেই ভালো হইছে। কাছে থাকলে এখন আমি আপনারে টিম হর্টন থেকে দুইটা ব্যাগল আর লার্জ কফি খাওয়াইতাম। :boss:


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।