আচার ০১৪: পরবাসীর স্বগতোক্তি

কাঁপতে কাঁপতে বাইরে এসে দাড়াঁই। ভালো লাগে না। এই সাদা বরফ, মেঘলা আকাশ, ছুরির মতো ধারালো বাতাস- এসবের কোন কিছুই আমার নয়। তবু পরিযায়ী পাখির মতো অস্থায়ী নীড় বাঁধার চেষ্টা। ঘেন্না হয়। বিপন্ন বিস্ময়কে অবহেলে ছুটছি অর্থ আর কীর্তির পেছনে। নিজেকে মাঝে মাঝে গদাম করে লাথি দিতে ইচ্ছে হয়, পারি না।

ক্রমশই বেশি করে আসা শীতে কেমন নেশা ধরে, ভুলে যাই। তবু নিজস্ব আকাশ, বাতাস আর মাটি সত্ত্বার ভেতর দীপ জ্বেলে বসে বসে আক্ষেপে কাঁদে, হায়রে জীবন এতো ছোট ক্যানে? এ ভুবনে!!!

৯১৮ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “আচার ০১৪: পরবাসীর স্বগতোক্তি”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    তুমিও কি কবিতার লাইন ভেংগে গদ্য আকারে দিছ???
    সেরকমই লাগল...

    অবহেলে ছুটছি অর্থ আর কীর্তির পেছনে

    ছুটছি আমরা সবাই...
    সবসময়...
    কিছু না কিছুর পিছে...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  2. রকিব (০১-০৭)

    তৌফিক ভাই, এই কয়দিন তো ওয়েদার অ্যালার্ট এর উপরে চলতেছে 🙁 🙁 ,

    এই সাদা বরফ, মেঘলা আকাশ, ছুরির মতো ধারালো বাতাস- এসবের কোন কিছুই আমার নয়

    সাদা বরফের দিকে তাকিয়ে থেকে মাঝে মাঝে একি অনুভূতি হয় :no: :no:


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  3. তাইফুর (৯২-৯৮)
    নিজেকে মাঝে মাঝে গদাম করে লাথি দিতে ইচ্ছে হয়, পারি না

    বিদেশে থাকলে এই এক সমস্যা ... বিপদে পরলে কেউ আগায়া আসে না। নিজের সব কাজ নিজেকেই ...
    দেশে থাকলে এই কাম তোর নিজে করতে হইত না। যে কাউকে আসতে কইরা দিতে বললেও গদাম ...


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।