একজন হাবিব এর আত্মকাহিনী

হাবিব আমার মামাতো ভাই। সমবয়সি হওয়ার কারণে ও আমার সাথেই এইচ.এস.সি পরীক্ষা দেয়| কলেজ থেকে বের হয়ে যখন ফার্মগেটে কোচিং করতে আসি, তখন হাবিব ও আসে আমার সাথে| তখন থেকেই ওর আমাদের ব্যাচের ক্যাডেটদের সাথে পরিচয়| আমাকে কয়েকদিন আগে বললো, ও একটা ব্লগ লিখতে চায়| আমি বললাম আচ্ছা লিখিস, আমি পোষ্ট করে দিব। নিচের লেখাটা ওর লিখা……….।।

লেখাটা শুরু করব কিভাবে বুঝে উঠছিলাম না, তবু ও লিখছি……………

১) শুরুতেই বলে নিচ্ছি আমি কোনও ক্যাডেট কলেজে এ পরিনি। এটা কে আমি নিয়তির এক নির্মম পরিহাস বলব। কারণ আমার শত ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও আমার বাবা মা আমাকে ক্যাডেট কলেজ এ পরীক্ষা দিতে দেয় নি। কারণ তাদের ধারনা ছিল, যদি আমার ফুফাত ভাই ক্যাডেট কলেজে থেকে ভাল রেজাল্ট করে, তাহলে আমি বাইরে থেকে আরো ভাল রেজাল্ট করব। প্রতিযোগীতায়, আমার ইচ্ছার বিরদ্ধে আমার বাবা মা আমাকে নামিয়ে দিল।

২) এইচ.এস.সি পরীক্ষা শেষ, চারিদিকে সবাই ভর্তি যুদ্ধে বিক্ষিপ্ত। তখন দেখলাম অনেকগুলো ছেলে একসাথে ফার্মগেটে দাড়িয়ে সিগারেট খাচ্ছে, আমার ফুফাত ভাইও তাদেরই একজন| আমি সেখানে যাওয়াতে, আমার ভাই তাদের সাথে আমার পরিচয় করিয়ে দিল। সেইদিন থেকে তাদের সাথে আমার পরিচয়। জ়ানলাম এরা সবাই ক্যাডেট।

৩) ক্যাডেটদের সাথে আমার এতই ঘনিষ্ঠতা যে, নতুন কেউ এসে প্রথমে বলতে পারবে না যে আমি ক্যাডেট না। ১০ ক্যাডেট কলেজের প্রায় সকল ক্যাডেট আমাকে এক নামে চিনে ”সিভিল হাবিব” (যদিও এইটা আমার টিজ নাম)।

৪) আমি এই জীবনে ক্যাডেট কলেজে তো আর পরতে পারব না। তাই আমার সারাজীবন ক্যাডেট কলেজে না পড়ার দুঃখ থেকেই যাবে। যদিও আমার এইচ.এস.সি ব্যাচের ক্যাডেটরা আমাকে তাদেরই একজন মনে করে। তবুও আমি তো আর কখনো, তাদের জীবনের শ্রেষ্ঠ সেই ৬ বছরে আর যেতে পারব না।

আসলে ক্যাডেটদের প্রতি আমার যে পরিমাণ ভালবাসা এবং শ্রদ্ধা তা আমি লিখে শেষ করতে পারব না। তবুও আমি আমার অভিব্যক্তিকে প্রকাশের জন্য যতটুকু সম্ভব লিখার চেষ্টা করলাম।আসলে অনেক কিছুই লিখার ছিল, কিন্তু সব কথাগুলো গুছিয়ে লিখতে পারছি না। আমার কোন প্রকার ভূলত্রুটি হলে আপনারা ছোট ভাই হিসেবে ক্ষমা করবেন|

১,৯৯৯ বার দেখা হয়েছে

৩৩ টি মন্তব্য : “একজন হাবিব এর আত্মকাহিনী”

  1. জিহাদ (৯৯-০৫)

    প্রথমত, লেখাটা কার সেইটা বুঝলাম না।
    দ্বিতীয়ত, এত বেশি বানান ভুল নিয়ে কোন ব্লগ পড়তে ইচ্ছে করেনা। তুমি অনেক পুরনো ব্লগার এখন। অন্তত তোমার কাছ থেকে এত ভুল আশা করিনা। আশা করি সচেতন হবে। ভাষার প্রতি ভালোবাসা বিশ্বাস করি তোমার অবশ্যই আছে। সেই দৃষ্টিকোণ থেকেও তোমার বানানের ব্যাপারে সচেতন হওয়া উচিত।
    তৃতীয়ত, লেখাটার বিষয়বস্তুও কেন যেন আমার ভালো লাগলোনা।

    ভালো থেকো।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ব্যাপার কি? নাজমুলের একাউন্ট কি হ্যাক হইলো নাকি!!!


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    লেখাটা পড়লাম। বুঝি নাই। মানে লেখা বুঝি নাই তা না লেখাটার ডিসক্লেইমার নাই। ডিসক্লেইমার না থাকলেও সমস্যা না যদি পোস্ট ট্যাগ থাকতো। সেখানেও কিছু পেলাম না। প্রথমে ভেবেছিলাম জাবীরের লেখা গল্পটার মত কিছু সেটাও এক্ষেত্রে প্রযোজ্য হলো না। নাজমুল ভাই একটু ক্লিয়ার করতে পারো কি?

    জবাব দিন
  4. আশহাব (২০০২-০৮)

    ব্লগে অ্যাকটিভ না থাকলে যা হয় আর কি x-( নাজমুল তাড়াতাড়ি এডিট কর, বানান সবই ভূল 😡 শুরুতে হ য ব র ল অবস্থা, ঐটাও ঠিক কর 🙁
    অনটপিক : হাবিবের লেখা তো তাই দারুন মজা পাইসি :khekz: :khekz:


    "Never think that you’re not supposed to be there. Cause you wouldn’t be there if you wasn’t supposed to be there."
    - A Concerto Is a Conversation

    জবাব দিন
  5. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    নাজমুল, ফ্রন্ট্রোল দিতে দিতে হাবিবের কাছে গিয়া থ্যাংকু বইলা আয়... x-(
    আর লঙ্গাপ হয়ে পোষ্ট এডিট করে বানান ঠিক কর... 😡


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  6. ফাহাদ (২০০২-২০০৮)

    অরিইই !!! সিভিল হাবিব নাকি ?? :khekz: :khekz: নাজমুল সিভিল হাবিব রে বলবা আমরাও তারে অনেক ভালবাসি 😀 😀 😀 আর আমার পক্ষ থেকে তারে ১ টা :salute: আর নাজমুল তোমারেও ১ টা :salute:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।