আমার ক্যাডেট কলেজ

কলেজ থেকে আসার সময় আমার খুব গর্ব হচ্ছিল যে আমি ৬ বছর কলেজে থাকতে পারলাম। একদম ক্রেষ্ট নিয়ে বের হতে পারলাম। B-) কলেজ থেকে আসার পর যখন বাসায় আসলাম তখন প্রথম দিন ভাবলাম যাহ কি মজা আর ভেকেশান থেকে কলেজে যাবার কথা চিন্তা করতে হবেনা।
কিন্তু এই অনুভুতিটা বেশিক্ষণ থাকতে পারলোনা ওইদিন রাতেই ঘুমাতে গিয়ে দেখি ঘুম আর আসেনা যখন ভাবতে লাগলাম আমি আর কমন রুমে গিয়ে আয়েশ করে বসে টিভি দেখতে পারবোনা আমাকে দেখে আর জুনিয়ররা চেয়ার থেকে উঠে জায়গা করে দিবেনা রিমোটটা আমাদের ক্লাসের কারো হাতে তুলে দিবেনা, আমি আর সকালে ঘুম থেকে উঠে তাড়াহুড়া করবোনা পিটিতে নামার জন্য, পিটি থেকে আসার সময় গল্প করতে পারবোনা, আর কখনো এতগুলা ক্লাসমেট এর সাথে দোড়াবোনা, পিটির পর এসে তাওয়াল কাধে নিয়ে সিগেরেট খেতে যাবোনা, ডাইনিং হলে সবার পরে গিয়ে ভাব নিয়ে টেবিল লিডার এর চেয়ারে বসবোনা, মিল শেষ হলে ভাব নিয়ে আগে চলে আসবোনা অথবা ভাব নিয়ে বসে থাকবোনা সবাই উঠে গেলে ক্লাস টুয়েলভ আর কখনো একসাথে লাষ্ট এ উঠবেনা।
ভাবতে ভাবতে ঘুমালাম কিন্তু ঘুম থেকে ইয়ঠে বুঝলাম আমি কি যেন খুজছি সেটা আর কিছুনা আমার কলেজের সকাল, একাডেমি ব্লগ, লুকিয়ে ছাদে উঠা, সিগেরেট খাওয়া, কলেজ মস্ক, ডাইনিং হল, এতগুলা বাস্কেট বল, ফুটবল, ভলিবল গ্রাউন্ড।হায়রে আর কি কখনো লাইটস অফের পর সবাই মিলে করিডরে বসে গান গাইবে?? সবাই মিলে জোকস করবে?? কত কিছু একসাথে জীবন থেকে চলে যাবে, আর এই ক্লাসমেটগুলা???? ওরা কি আর কখনো আমার সাথে রুম ক্রীকেট খেলবে করিডর ক্রীকেট খেলবে??? ওরা কি আর আমাকে গেমস এর আগে পিটির আগে ঘুম হেকে উঠাই দিয়ে বলবে নাজমুল উঠ আর মাত্র ৫ মিনিট আছে?? আর কি ওরা আমার জন্য ভিডিও সো এর সময় জায়গা রাখবে??
নাহ আর কখনো সম্ভব না সেটা আমি জানি। হয়তোবা গেট টু গেদার করবো হয়তোবা কলেজের রি ইউনিয়ন এ যাবো কিন্তু সত্য কথা বলতে কি আগের ফ্লেভারটা আর কখনো পাবোনা।
গতবার বি এম এ থেকে পোলাপান আসার পর দুই দিন পর পর টি এস সিতে গেট টু গেদার। তখন বুঝলাম সবার কলেজের প্রতি কি টান সবার ক্লাস মেইট এর প্রতি কি টান। মারুফ বললো “”এখন যদি ওকে কেউ বলে কলেজে গিয়ে টানা একমাস ইডি খাবে কিন্তু ও আবার কলেজ লাইফ শুরু করতে পারবে”” দেখলাম সবাই বললো “”হ আমিও রাজি””। আবার কয়েকজন বললো আমারে টানা দুই মাস বললেও আমি রাজি কিন্তু এইসব রাজি টাজি দিয়ে কি আর কাজ হবে কেউ আর কখনো আমাদের কলেজে ফিরে যেতে বলবেনা।
তার জন্যই ক্যাডেটরা কলেজের ফ্লেভারটা ফিরে পাবার জন্য বিভিন্ন ধরণের জিনিস তুলে আনে যেমন সবচাইতে বড় প্রমাণ আমাদের ব্লগ। এখানে কেউ তো লাভের আসায় ব্লগ খুলেনাই এই ব্লগ থেকে কোনো আয় ও হয়না বরং বছরে বছরে টাকা দিতে হয় ব্লগের জন্য সেই টাকাটাও ভাইয়ারা নিজেরা দেয় হয়তোবা একদিন আমাদের মতো জুনিয়ররাও সুযোগ পাবো কিছুটা হেল্প করার। তারপর ধরতে পারি ক্যাডেট কলেজ ক্লাবের কথা এখানে অবশ্য হাল্কা টাকা পয়সার ব্যাপার আছে কিন্তু ক্যাডেট নামটা তো সাথে আছে, তারপর আসে প্রত্যেকটা কলেজের এক্সক্যাডেট এসোসিয়েশনের নাম। এখানে ভাইয়ারা কত সময় দেয় কোনো লাভের আশা ছাড়া। লাভ নেই এই কথাটা ভুল বললাম। হয়তোবা আর্থিক লাভ নাই কিন্তু মানসিক লাভের ব্যাপারটা বাদ দেয়া যায়না। তারা তো ওই কলেজের কথাটা চিন্তা করেই এখানে আছে। চিন্তা করে কিভাবে কলেজে যাওয়া যায় সবাইকে নিয়ে, টাকার সমস্যা না থাকলে হয়তোবা প্রতি বছর একটা করে রি-ইউনিয়ন দিয়ে দিত। কি আর করা সবাই ৪ বছর ওয়েট করে কলেজে যাবার জন্য।
২০০৬ এর রি-ইউনিয়নে আমার সাথে এক ভাইয়ার দেখা হলো উনি সরাসরি অষ্ট্রেলিয়া থেকে এসেছেন। দেশে বলতে গেলে কেউ থাকেনা বাবা মা মারা গেছেন, ভাই বোন সবাই দেশের বাইরে কিন্তু উনি ওখান থেকে আসলেন শুধু রি ইউনিয়ন করার জন্য হয়তোবা কিছুদিন পর পর ই চিন্তা করেন আবার কবে যাবো। সামনের বছর মার্চ মাসে আমাদের কলেজে রি-ইউনিয়ন হয়তোবা থাকতে পারবোনা যেখানেই থাকি মনটা কলেজেই পড়ে থাকবে, খুব মিস করবো কলেজটাকে এখন যেমন করি।
ক্যাডেট কলেজ আমাকে ওনেক কিছু দিয়েছে ক্যাডেট কলেজের ধার শোধ করা আমার পক্ষে কখনো সম্ভবনা। আজিবন খালি ক্যাডেট কলেজ কে ভালোবেসে যাবো, ক্লাসমেটদের মিস করবো, ওদের দেখলে খুব ভালো লাগবে ওদের কল পেলে খুব ভালো লাগবে, কারো সাথে দেখা হলে যখন শুনবো উনি একজন এক্সক্যাডেট তখন খুব ভালো লাগবে এই জিনিসটাও কম না অনেক গর্ব করার মতো আজীবন ক্যাডেট কলেজ টিকে থাক আজীবন ক্যাডেটদের এই ভাই ভাই সম্পর্কটা টিকে থাকুক।

৪,৪২৮ বার দেখা হয়েছে

৭৩ টি মন্তব্য : “আমার ক্যাডেট কলেজ”

  1. ফাহাদ (২০০২-২০০৮)

    নাযমুল দোস্ত কি লিখলি এটা? 🙁 আমার ত চোখে পানি চলে আইসে। :(( আর কখনো EXAM এর আগের দিন খেলা দেখার জন্য রাত ২ টায় TV রুমের তালা ভাঙ্গা হবে না । :no: ১২-১৩ জন মিলে ১ সিগারেট আর খাওয়া হবে না। :no: মাঝরাতে বৃষ্টিতে ভিজে আর কাঠাল পারা হবে না। :no: অনেক দিন পর আবারও চোখ ভিজিয়ে দিলি রে... :(( :(( :(( এই ৬ টা বছর আমার জীবনের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। :boss: :salute:

    জবাব দিন
  2. হাসনাইন (৯৯-০৫)
    ডাইনিং হলে সবার পরে গিয়ে ভাব নিয়ে টেবিল লিডার এর চেয়ারে বসবোনা, মিল শেষ হলে ভাব নিয়ে আগে চলে আসবোনা অথবা ভাব নিয়ে বসে থাকবোনা সবাই উঠে গেলে ক্লাস টুয়েলভ আর কখনো একসাথে লাষ্ট এ উঠবেনা। ভাবতে ভাবতে ঘুমালাম কিন্তু ঘুম থেকে ইয়ঠে বুঝলাম আমি কি...

    এত ভাব-আভাবি কর কেন মিয়া ? 😀
    সেই দিনগুলা... :dreamy:

    জবাব দিন
  3. মো. তারিক মাহমুদ (২০০১-০৭)

    নাজমুলের বাচ্চা, তোরে ইফতার পার্টিতে মাইর দিমু কইর্রা, কিন্তু ভুলে গেছিলাম ... ... ১১ তারিখ দিমু ... ... রেডি হ ... ....

    তোর কলেজ নিয়ে লেখাগুলো জোস হয় ... ... +++++

    জবাব দিন
  4. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    আহ কত কিছু মনে পড়ে গেল...
    লেখা ভাল হয়েছে :thumbup:


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  5. আশহাব (২০০২-০৮)

    দোস্ত 😐 কি লেখা দিসোস... :boss: :boss: :boss:
    নতুন করে কিসূই বললাম না, কারণ তুই সবসময়ই আমার গুরু B-)
    আমার কেন জানি মনে হয়, ক্যাডেট কলেজ়ে না পরলে মনে হয় জীবনেও সিগারেট শেয়ার করে খাওয়া শিখতাম না, হয়তোবা খাইতেই জানতাম না :))
    ক্যাডেট কলেজ আমাকে অনেক কিছু দিয়েছে ক্যাডেট কলেজের ধার শোধ করা আমার পক্ষে কখনো সম্ভবনা। :hatsoff: :hatsoff: :hatsoff:

    জবাব দিন
  6. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    ভালো হইছে নাজমুল।

    তবে লেখাটা প্যারা প্যারা করে দাও। পুরাটা এক প্যারা হইয়া গেছে।


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  7. রকিব (০১-০৭)

    নাজমুল মিয়া, কি লিখলি এইটা, বহুত পুরানা প্যাচাল মনে ফাল দিয়ে উঠতেছে তো।
    আহা আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম। 😕 😕


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  8. রাহাত (২০০০-২০০৬)

    নাজমুল, তোর লেখাটার প্রশংসা করার মতো ভাষা আমার জানা নাই। অসাধারণ :thumbup: :thumbup: :thumbup:
    আসলেই কলেজ থেকে আমরা যা পেয়েছি, তার সাথে অন্য কোন কিছুর তুলনা হয় না। আমার সারাজীবনের গর্ব আমার কলেজ.....সব ক্যাডেট কলেজ এবং অবশ্যই এই বিশাল ক্যাডেট পরিবার। :salute:

    জবাব দিন
    • নাজমুল (০২-০৮)

      বোধহয় না ভাইয়া 🙁
      তবে ইফতার পার্টিতে থাকবো আপনি কি আসবেন ??
      কালকে রানা ভাই আর জিয়া ভাই আমারে দেখা করতে বলসে 🙁 পানিশ্মেন্ট দিবো মনে হয় :(( গতবার রানা ভাই এর বাসায় ছিলাম উনি বার নাইট থেকে আইসা আমারে লাত্থি দিসে অনেকগুলা 🙁 আমি হিন্দিতে কথা বলতে পারিনা দেইখা :))

      জবাব দিন
  9. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    নাজমুল এত সুন্দর করে কেমনে লিখলি?
    দিলিতো মনটা খারাপ কইরা :(( :(( :(( :((
    এজন্য তোর ব্যান চাই :grr: :grr: :grr:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।