প্রলাপঃ১১ শূন্যতা ও নির্ভার

তুমি নেই তাই আমি ভালো আছি
আরো কাছাকাছি তুলো মেঘেদের ঘেষাঘেষি গা
ঘাম মেখে নেওয়া ফিরিয়ে দিতে কেউ নেই আর
তুমি নেই তাই করি চিৎকার
ভীষণ খুশিতে তিনফুট লাফ,বৃষ্টির দলে এলোমেলো নাচ
শহরের সব সাদা মেয়েদের চেয়ে চেয়ে দেখি ইচ্ছেমতন
সুযোগ পেলেই রিক্সা আরোহী বড় আপুদের চোখ টিপে দেই
বুক টিপে দেই লোকাল বাসের ব্যস্ত সুযোগে
যা ইচ্ছে তাই লিখতে পারি-বিবেচনাহীন অর্থছাড়া
শ্রাবণের শেষ বাদল ধারায়
ভিজি না এখন;ঘরের ভেতরে কাঁথামুড়ি দিয়ে
প্রবল অলস,ল্যাপটপ খুলে সাদা রমণীর অঙ্ক দেখি
শিল্পের কলঙ্ক দেখি

তুমি নেই তাই রাত হলে কোন ব্যস্ততা নেই
সুযোগ পেলেই
নেটে চ্যাটে বসি খুব সুইট সুইট ছোট আপিদের
সুযোগ পেলেই
খাতা খুলে গুনি দুই তিন তিন-চার দুই এক
তুমি নেই তাই জুতোর ভেতরে জেগেছে পেরেক
দুপুর রোদের এলোমেলো হেটে,কাগজ অফিস
প্রেসের দোকান,সম্পাদকের রাগী ফ্যন্টাসি-মরে গেছে সব।

তুমি নেই তাই তোমার বুকের তীর্থে আমার
মুখ রাখবার অধিকারহীন সময় আমাকে স্বস্তি দিয়েছে

তুমি নেই তাই কোন দায় নেই
দায় এড়াবার কোন বাহানা,বাজে অজুহাত
একা জেগে থাকা বিচ্ছিরি রাত
হঠাৎ হাওয়ায় উড়ে গেছে দূর কর্পুর হয়ে।

তুমি নেই তাই অনেক প্রিয় নিকোটিন চুমু
ইচ্ছে মতন ঠোঁট রাখে ঠোঁটে
লাল লিপস্টিক,লাল ল্যাম্পপোস্ট
ভীষণ সোহাগে মাঝরাত প্রেম একা জেগে উঠে
খুঁজে বের করে খুচরো কয়েন,ব্যবসায়ী লোভ
খুঁজে বের করে সস্তা বোতল,একলা মাতাল
খিস্তি-খেউর,অশ্লীল হাসি
আর কারা যেন মুঠো করে ভাঙে কাঁচের চুড়ি;-স্বপ্নবদল,
গাঢ় তৃষ্ণায় গলায় ঢালে প্রিয় ফেলিডল!

৬৭৬ বার দেখা হয়েছে

১টি মন্তব্য “প্রলাপঃ১১ শূন্যতা ও নির্ভার”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।