এক সংগ্রামী ছেলের চিঠি

মা,
আমি জানি, তুমি আমার এ চিঠি পড়ে মন খারাপ করবে। সেই যে আমি বাড়ি থেকে চলে এসেছিলাম,তারপরে তো আর বেশিদিনের জন্য তোমার কোলে মাথা রেখে ঘুমুতে পারিনি। কথা দিচ্ছি মা, এইবার একেবারে আমি আমার সব কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরব।

তুমি  কি এখনো আমার পথ চেয়ে বাড়ির উঠোনে বসে রও ? এখনো কি তুমি আমি রাতে ফিরতে পারি ভেবে মোটা কাঁথায় বিছানা করে রাখ ? নাকি তুমি আমার ওপর অভিমান করেছ । লক্ষ্মী মা আমার, তোমার জন্য উপহার আনব বলেইত আমি এখনো আসতে পারিনি। সেই যে ৫২ তে বাড়ি থেকে তোমার চোঁখ ফাঁকি দিয়ে আন্দোলনে গিয়েছিলাম,এখনো তো সেই আন্দোলন চলছে। আমরা তো সেদিন তোমার ভাষাকে রক্ষা করতে যাই নি, আমরা গিয়েছিলাম আরো বড় উপহার আনতে। সেই উপহার এর জন্যেই তো আমার আসতে এতো দেরি হচ্ছে ।

ওরা আমাদের মুখের ভাষা কেড়ে নিতে চেয়েছিল, কিন্তু তাতো আমরা করতে দেইনি।

ওরা আমাদের দাবি মেনে নিতে চায় নি, তাইতো মা আমি ৬৬ তে আবার বাড়ি থেকে পালিয়েছিলাম।
আর যখন মা ওরা আমার সোনার দেশটা পুড়িয়ে দিতে চাইল, তখন আমি দেশকে বাঁচানোর জন্য যুদ্ধে গিয়েছিলাম।
নয় মাস পর যখন রক্ত স্রোতের উপর হেঁটে বাড়ি ফিরলাম , তখন ভেবেছিলাম এই বুঝি তোমার ছেলে আর কক্ষনো তোমার কোল ছেড়ে যাবে না।
কিন্তু তাতো আর হয় নি মা।

যে স্বপ্ন নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলাম তাতো আর বাস্তবে থাকে নি। যেই হায়েনারা আমাদের কাছ থেকে যে কথা বলার অধিকার ছিনিয়ে নিয়েছিল, এই মুক্ত মাটিতেও তা শুরু হল,তাইতো আমাকে আবার ঘর ছাড়তে হল। ৯০ এর আন্দোলনে আবার আমার এই পবিত্র দেশের মাটিতে রক্ত ঝরল   ,   সেইবার যখন এই মাটিতে গণতন্ত্রের বিজয় এনেছিলাম ,তখন ভেবেছিলাম এটাই শেষ।
কিন্তু মা তাওতো হয়নি , এখনো তো সেই হায়েনাদের ভুত আমাদের মাটি দাবড়ে বেড়ায় ,এখনো তারা আমাদের আঙ্গুল তুলে হুমকি দেখায়,ওরা আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের গায়ে হাত তোলে, তাও তো ওদের বিচার হয় না !! বল মা তাহলে আমি তোমার জন্য এই উপহার দিব ?আমি  তো তোমাকে সেই হায়েনা মুক্ত দেশ দিব মা , তাইতো আমি এখনো বাড়ি ফিরতে পারিনি  ,  তুমি আমার অপেক্ষায় থেক…………..

ইতি
তোমার খোকা

১,০২৮ বার দেখা হয়েছে

১৩ টি মন্তব্য : “এক সংগ্রামী ছেলের চিঠি”

  1. তাইফুর (৯২-৯৮)

    ঝাপসা চোখে মা তাকায়, উঠোনে উঠোনে
    যেখানে খোকার শব
    শকুনেরা ব্যবচ্ছেদ করে

    (সুন্দর চিঠি ... সুন্দর লেখা ...)


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  2. রাব্বী (৯২-৯৮)

    জুনায়েদ ভাল লেখা হয়েছে। লিখতে থাকো, লেখা আরো ভাল হবে।

    প্যারাগুলোতে একটা করে লাইন স্পেস দিও আর অপ্রয়োজনীয় ডটডটগুলো ফেলে দিও তাহলে পাঠক পড়ে আরাম পাবে। 🙂


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
  3. মুহিব (৯৬-০২)

    লিখাটা খুব ভালো হইছে।

    খোকাকে কয়েকটা প্রশ্ন করতে চাই।

    খোকা তুমি কি বাড়ী ফিরতে পারবে সব কিছু থিক করে? নাকি তুমি হতাশ হয়ে মায়ের কোলে চলে আসবে? এই দেশ কি থিক করা সম্ভব? এই দেশের প্রকৃত শত্রু কারা এটা কি বের করতে পেরেছে খোকা? কার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে খোকা?

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।