বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৪: ম্যাচ ডে ৭ (আপডেটেড)

খুব অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বকাপ ২০১৪ এর সপ্তম দিনের পর্ব। প্রথম ম্যাচঃ অস্ট্রেলিয়া বনাম নেদারল্যান্ড।

অস্ট্রেলিয়া বনাম নেদারল্যান্ড

প্রথম ম্যাচে গতবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে ৫ গোলে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে অবস্থান নেদারল্যান্ডের। গেম অফ থর্নসের ভাষায় বললে বলতে হয়- “Dutch always pay their debts.” বিশ্বকাপ শুরুর আগে কিছুটা দুর্বল ভাবা হচ্ছিল ডাচ রক্ষণভাগকে- কিন্তু প্রথম ম্যাচেই সে ধারণা ভুল বলে প্রমাণ করেছে বেশ নিরেটভাবেই জানমাত, ভ্লার, ব্লাইন্ডরা। রোবেন, পার্সি, স্নাইডারদের নিয়ে গড়া এই পরাশক্তির জন্য অপেক্ষাকৃত সহজ প্রতিপক্ষই বলতে হয় অস্ট্রেলিয়াকে। সকারুসদের দলে আশা ভরসা ৩৪ বছর বয়সী অধিনায়ক টিম কাহিল। দুর্ভাগ্যই বলতে হবে, গত ম্যাচে ইনজুরীতে পড়েছে তাদের ফুলব্যাক খেলোয়াড় ইভান ফ্রানজিক, যার পাস থেকেই চিলির বিপক্ষে একমাত্র গোলটি দিয়েছিলেন কাহিল। আজকের ম্যাচে তাই ফ্রানজিকের জায়গায় মাঠে নামবেন ২৪ বছর বয়সী ম্যাকগাওয়ান।
অপরদিকের নেদারল্যান্ডের দল প্রায় অপরিবর্তিতই থাকবে বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে, তবে সম্ভবত ৪-৪-২ ফর্মেশনে বদলে নেবেন দলের ফর্মেশন। কাউন্টার অ্যাটাকিং-এর বদলে নিজেরাই এবার দায়িত্ব তুলে নেবে আক্রমণে যাবার।

সম্ভাব্য লাইনআপঃ
অস্ট্রেলিয়াঃ (৪-১-৩-২) রায়ান, ম্যাকগাওয়ান, ডেভিডসন, স্পিরানোভিক, উইকিনসন, ওর, মিলিগান, জেডাইনাক, ব্রেসিয়ানো, টিম কাহিল, লেকি।
কোচঃ লুইস ভ্যান গাল।

নেদারল্যান্ডঃ (৪-৪-২) ক্লিসেন, জানমাত, ভ্লার, ডি ভ্রিজ, মার্টিন্স ইন্ডি, ব্লাইন্ড, ডি গুজম্যান, স্নাইডার, ডি জং, ভ্যান পার্সি, রোবেন।
কোচঃ আঞ্জে পোস্টেকগলু (কিংবা কাছাকাছি উচ্চারণ!)

রেফারীঃ জামাল হেইমৌদি (আলজেরিয়া)
যদিও আজকের ম্যাচে পুরনো পরিসংখ্যান খুব একটা কাজে দেবে না; তারপরও জেনে রাখা যেতে পারে- এই দু’দলের মধ্যে দেখা হয়েছে এখন পর্যন্ত ৩ বার; যার একবার অসিরা জয় ছিনিয়ে নিয়েছে- বাকী দু’বারই ড্র।

_____________________________________________________________________________

দ্বিতীয় ম্যাচঃ চিলি বনাম স্পেন

স্পেন বনাম চিলি

সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী অনুভূতি নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছে চিলি এবং স্পেন। এক দল সদ্য বিজয়ের আনন্দে আজ পরাক্রমশালী শত্রুর বিরুদ্ধে প্রত্যয়ী; অপর দলের কাছে যেন আজকের ম্যাচ অনেকটা ছাই ভস্ম থেকে ফিনিক্স পাখির জেগে ওঠার মতোই জরুরি। বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে হারের স্বাদটা স্পেনের কাছে নতুন কিছু নয়- গত বিশ্বকাপের শুরুটাও ছিল এক গোলে হেরে পরাজয়ের মধ্য দিয়েই- তবে এবারের গল্পটা একটু হলেও ভিন্ন। কনফেডারেশন কাপের শেষ থেকে সময়টা খুব ভালো যাচ্ছে না ডেল বস্কের দলের। জনপ্রিয় টিকিটাকার ঠেকিয়ে দেবার তাল লয় যেন প্রতিপক্ষ দলগুলো বেশ ভালোই রপ্ত করে নিয়েছে। তাই খেলার সিংহভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখলেও প্রতিপক্ষের জালে বল জড়াতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে স্পেনিয়ার্ডদের।

এতকিছুর পরেও স্পেনকে হিসাবের বাইরে রাখছেন না এখনই ফুটবল বিশেষজ্ঞরা। ডেল বস্ক কিছুটা আক্রমণের ধারায় পরিবর্তন আনার ইঙ্গিতও দিয়েছেন। ধারণা করা যায়, আজকের দলে কিছু পরিবর্তনের। ফুলব্যাক আলবার ম্যাচ ফিটনেস এখনো পরিষ্কার নয়। সম্ভবত মধ্যমাঠের পরিচালক জাভিকেও জায়গা ছেড়ে দিতে হতে পারে। তবে গত কয়েক ম্যাচের পারফরমেন্স এর বিচারে পিকে’র বদলে হয়তো আজ মাঠে দেখা যেতে পারে জাভি মার্টিনেজকে। ডিফেন্সিফ মিডফিল্ডার এই খেলোয়াড় ডিফেন্ডার হিসাবেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন ইতিমধ্যেই। তবে শোনা যাচ্ছে, অভিজ্ঞ ক্যাসিয়াসের উপরই আস্থা রাখবেন ডেল বস্ক। টিকি টাকাকে আরো সতেজ আর কার্যকরী করতে স্পেনের উচিৎ গতি আর আক্রমণাত্মক উপস্থাপনার। পেড্রোকে তাই বেঞ্চে রাখাটা হয়তো শুভ নাও হতে পারে।

অপরদিকে, চিলিও বদ্ধ পরিকর পরবর্তী রাউন্ডের টিকিট নিশ্চিত করতে। তাই জানপ্রাণ বাজি রেখেই মাঠে নামছেন আজ সানচেজ, ভিদাল, ভারগাসরা। গত ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় সানচেজ বেশ ভালোই পরিচিত বার্সেলোনায় খেলা স্প্যানিশ সতীর্থদের। হয়তো কোচের সাথে সে বিষয়ে বেশ হোমওয়ার্কও সেরে নিয়েছেন। স্পেনের জন্য আজকের ম্যাচ তাই অনেকটা ফাইনালের কাছাকাছি- কারণ আজ হেরে গেলে বিশ্বকাপের এখানেই হয়তো ইতি ঘটতে পারে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। অপরদিকে, চিলির হিসাবে স্পেনকে আজ রুখতে না পারলে পরের ম্যাচ প্রায় দুঃসাধ্যই বলা চলে কমলা জার্সিদের বিরুদ্ধে। তাই তারা আজ নামবেন কাউন্টার অ্যাটাকের গদ্য মাথায় রেখে গতিময় ফুটবল খেলতেই।

সম্ভাব্য লাইন আপঃ
স্পেনঃ (৪-৩-২-১): ক্যাসিয়াস, জুয়ানফ্রান, রামোস, মার্টিনেজ, আলবা, আলোনসো, বুসকেট, মাটা/ক্যাজোরোলা, জাভি, ইনিয়েস্তা, কস্তা/ফ্যাব্রিগেস।
কোচঃ ভিনসেন্ট ডেল বস্ক।

চিলিঃ (৪-১-৩-২) ব্রাভো, ইসলা, জারা, মেডেল, মেনা, ডায়াজ, আরাঙ্গুয়েজ, ভ্যাল্ডিভিয়া, ভিডাল, সানচেজ, ভারগাস।
কোচঃ জর্জ স্যাম্পাওলি

রেফারিঃ মার্ক গেইগার (মার্কিন যুক্তরাষ্ট)

____________________________________________________________________________

রেফারিঃ মার্ক গেইগার (মার্কিন যুক্তরাষ্ট)

তৃতীয় ম্যাচঃ ক্রোয়েশিয়া বনাম ক্যামেরুন
দিনের শেষ খেলাটা জমে উঠবে আফ্রিকার অদম্য সিংহ ক্যামেরুন বনাম ডেভিড সুকারের দেশ ক্রোয়েশিয়ার মধ্যে। দু’দলই যার যার প্রথম ম্যাচে হারের স্বাদ পেয়েছে। দ্বিতীয় রাউন্ডের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে তাই দু’দলই আজ মরিয়া হয়ে খেলবে। তবে গতম্যাচেই পায়ের চোটের কারণে ক্যামেরুনের স্যামুয়েল ইতোর এ ম্যাচে অনুপস্থিতি নিশ্চিত; সম্ভবত বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচটা খেলা হয়ে গেছে ইতোর।
অপরদিকে, ক্রোট মধ্যমাঠের কান্ডারী মড্রিচের ফিটনেস নিয়ে এখনো সংশয় কাটেনি। সবুজ সংকেত না পেলে তার বদলে কোভাচিককেই দেখা যাবে মাঝমাঠ সামলাতে। তাদের জন্য সুসংবাদ হলো স্টার স্ট্রাইকার মানযুদিকের প্রত্যাবর্তন যিনি প্রথম ম্যাচ বেঞ্চ থেকেই দেখেছেন বাছাই পর্বের সাসপেনশনের জন্য। ব্রাজিলের বিপক্ষে দলের প্রবীণ এবং অভিজ্ঞ খেলোয়াড় ওলিচ বেশ সক্রিয় ছিলেন। আজ হয়তো খেলার গতিধারা বদলে দিতে তার ভূমিকা হবে বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

বলে রাখা ভালো, প্রথমবারের মতো ক্রোয়েশিয়া কোন আফ্রিকান দলের বিরুদ্ধে খেলতে নামছে বিশ্বকাপের মতো আসরে।

সম্ভাব্য লাইন আপঃ
ক্যামেরুনঃ (৪-৪-২) ইতাঞ্জে, আসোউ-একত্যো, কোউলু, চেদজু, বেদিমো, এমবিয়া, অ্যালেক্স সং, মাকৌন, মৌকাঞ্জো, আবৌকের, চৌপ-মতিং
কোচঃ

ক্রোয়েশিয়াঃ (৪-৫-১) প্লেটিকোসা, স্রনা, করলুকা, লোভার্ন, ভ্রাসালিজকো, ওলিচ, রাকটিক, মড্রিচ, ব্রোযভিচ, পেরিসিক, মানযুদিক।

রেফারীঃ পেড্রো প্রোয়েঙ্কা (পর্তুগাল)

১,৮৭৭ বার দেখা হয়েছে

৩২ টি মন্তব্য : “বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৪: ম্যাচ ডে ৭ (আপডেটেড)”

  1. রায়হান (১৯৯৮-২০০৪)

    দেখা যাক নেদারল্যান্ড আজকে অস্ট্রেলিয়াকে নিয়া কি করে
    ছিনিমিনি খেলে নাকি সাধারন ক্ষমা করে 😛


    একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার,সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    নেদারল্যান্ডসকে নিয়ে আজকে একমাত্র ভয় হলো ওভার কনফিডেন্স, স্পেনকে ওভাবে উড়িয়ে দিয়ে আজকে অস্ট্রেলিয়াকে পাত্তা না দিলে ভুল করবে, তবে ভ্যান গালের মত কোচ সেটা হতে দেবার কথা না। গত ম্যাচের মত দরকার নেই, আজকে ওদের একটা সলিড পারফরমেন্স দেখলেই খুশী।

    অস্ট্রেলিয়া দুইটা চেঞ্জ এনেছে স্কোয়াডে... ইঞ্জুরড ফ্রানজিকের জায়গায় ম্যাকগাওয়ান এর পাশাপাশি মিলিগানের জায়গায় ম্যাকাই। দুজনই মোটামোটি একই ধরনের মিডফিল্ডার ই মনে হয় না কোন ট্যাকটিকাল চেঞ্জ হবে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    অস্ট্রেলিয়া বেশ গোছানো খেলছে, নেদারল্যান্ডের কষ্ট হবে ওদের ব্রেক করতে


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  4. রকিব (০১-০৭)

    ইতালি-ইংল্যান্ডের পর আজকের খেলাটা দেখে সেইরকম লাগতেছে। দুই দলের কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলতেছে না।
    সত্য বলতে, প্রথম ৩৫ মিনিট দেখে অস্ট্রেলিয়াকেই মনে হচ্ছে বেটার খেলতেছে, চমৎকার প্রেসিং করতেছে। ইন্টারসেপশন দুর্দান্ত। এই খেলা কই ছিল চিলির সাথে? খালি ফিনিশিংটা যদি ঠিক থাকতো।
    ডাচরা তাদের ক্যাপাসিটি অনুযায়ী খেলতে পারতেছে না।


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  5. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    নেদারল্যান্ড ফরমেশন চেঞ্জ করছে, ইঞ্জুরড লেফটব্যাকের বদলে ফরোয়ার্ড নামাইছে, ৫-৩-২ থেকে ৪-৩-৩


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  6. রকিব (০১-০৭)

    কমলারা দেখায়ে দিয়েছে- কেমন প্রেশারে পড়লে খেলতে হয়, গোল বের করতে হয়।
    তবে আজকে ডিফেন্সিভ এরর ভালোই চোখে পড়ছে। জার্মান-ডাচ ম্যাচ হলে জমবে সিরাম!


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  7. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    আজকে চাচ্ছিলাম যাতে নেদারল্যান্ড একটু প্রেশারে পড়ে, মাটিতে নামা দরকার ছিল... কিন্তু এত প্রেশার চাই নাই 🙁 তবে প্রেশারে পড়ে কাম ব্যাক করতে দেখে ভাল লাগছে আর অনভিজ্ঞ ডিফেন্স ভালই ভোগাবে সামনে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  8. রায়েদ (২০০২-২০০৮)

    এই গ্রুপের আজকে একটা ম্যাচ আছে আর এর পরে দুইটা। আজ স্পেন হেরে গেলে সব মজা নষ্ট। তবে যেইটা এক্সপেক্টেড রেজাল্ট মানে স্পেন জিতলে গ্রুপের বাকি দুই ম্যাচ কিন্তু মজাই মজা।

    চিলির সাথে কিন্তু পার্সি খেলতে পারবে না। চিলি-নেদারল্যান্ড ম্যাচ তখন জম্পেশ হবে।

    জবাব দিন
  9. রকিব (০১-০৭)

    যা ভাবছিলাম, তার দুইটা মিলছে- জাভি আর পিকে বাদ- মার্টিনেজ আর পেড্রো ইন। ওয়াইজ ডিসিশান ডেল বস্ক।


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  10. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    পয়েন্ট পাইসেন ৩ জন। সবাই রেংকিং এর বাইরে। তাই খেলার পরেও টপ স্কোরাররা যেমন ছিলে! :awesome: :awesome: :awesome: :awesome:


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।