সাকিব ভাইয়ের জন্য সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা (সাকিব ভাইয়ের শারীরিক অবস্থার আপডেট)

(সাকিব ভাইয়ের শারীরিক অবস্থার আপডেট):

দ্বিতীয় দফায় কেমো নেবার সময় সাকিব ভাই কিছুটা তাড়াতাড়ি হাসপাতাল ছেড়ে যান খরচ বাঁচাতে। কিন্তু এই সিদ্ধান্তটি সঠিক ছিল না। উনার ব্লাড কাউন্ট লেভেল অনেক নিচে ছিল। ফলশ্রুতিতে হাসপাতাল ছেড়ে যাবার পর সাকিব ভাইয়ের ইনফেকশন হয়। সে কারণে ৩১শে জানুয়ারি আবার ভর্তি হতে হয়েছে হাসপাতালে। এখন ইনফেকশন নিয়ন্ত্রনে এসেছে। কিন্তু ব্লাড কাউন্ট এখনো অনেক নিচে। সেজন্য আরো কিছুদিন হাসপাতালে থাকতে হবে। অতিরিক্ত যে কদিন হাসপাতালে থাকতে হয়েছে তাতে টাকা পয়সা প্রায় সব শেষ। এ কারণে পরবর্তী দফা কেমো নেবার মতো অর্থ এখন সাকিব ভাইয়ের হাতে নেই।

সাকিব ভাইকে বিশেষভাবে সাহায্য করা প্রয়োজন এই মুহূর্তে চিকিৎসা চালিয়ে নেবার জন্য। যারা এই কমেন্টটি দেখছি, সম্ভব হলে যদি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি দেখতে যাই বা সরাসরি সাকিব ভাইয়ের জন্য আর্থিক সহযোগিতায় এগিয়ে আসি তাহলে সাকিব ভাই তার চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারবে।

আর মাত্র দুদিন বাকি, তাই নিজে এবং অন্যকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যাবার জন্য উৎসাহিত করার মাধ্যমেও এই মুহূর্তে সাহায্যের হাতটি বাড়িয়ে দিতে পারি। সকলের সাহায্য প্রয়োজন বিশেষভাবে।

—————————————————————————————————–

রাব্বী ভাইয়ের আপডেট থেকেই আপনারা সবাই জেনেছিলেন সাকিব ভাইয়ের বর্তমান শারীরিক অবস্থা। সর্বশেষ ২৯ জানুয়ারি প্রাপ্ত আপডেট হল: পর পর দু’ধাপে কেমোথেরাপি নেবার পর সাকিব ভাইয়ের স্বাস্থ্যগত অবস্থার অনেকটা উন্নতি সাধন হয়েছে। সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকবৃন্দ জানিয়েছেন সর্বশেষ কেমোথেরাপির পর তাঁর রক্তে আর তেমন লিউকেমিয়া আক্রান্ত কোষ খুঁজে পাওয়া যায়নি। খুব শীঘ্রই (আনুমানিক ২-৪ সপ্তাহ পর), দ্বিতীয় পর্যায়ের চিকিৎসা শুরু হবে ‘সাইটোজেনেটিক’ রিপোর্টের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে – বোন ম্যারো ট্রান্সপ্লান্ট অথবা কনসোলিডেটেড কেমোথেরাপি। পরিপূর্ণ রোগমুক্তির জন্য সাকিব ভাইকে আরো তিন ধাপে HIDAC (high-dose ara-C) কনসলিডেশন কেমোথেরাপি গ্রহণ করতে হবে বলেই তারা অভিহিত করেছেন। যার প্রতিটির তিন/চার সপ্তাহ করে সময় লাগবে। একই সাথে কেমোথেরাপির পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া গুলো প্রশমনের জন্য তাকে নিয়মিত চেক-আপ করিয়ে যেতে হবে।

আপনাদের অনেকের হয়তো মনে আছে, সাকিব ভাইয়ের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনের জন্য প্রয়োজন ছিল প্রায় ৯০ লক্ষ টাকা। সর্বশেষ প্রাপ্ত (জানুয়ারি ৯, ২০১১) হিসেব অনুযায়ী, এপর্যন্ত ফান্ড সংগ্রহ (সাকিব ভাইয়ের অফিস লোন+ আত্মীয়, বন্ধুবান্ধব এবং শুভাকাঙ্ক্ষী + আরো কিছু প্রতিশ্রুতি) হয়েছে ৫৬ লক্ষ টাকা। এ টাকা থেকেই সাকিব ভাইয়ের চিকিৎসার প্রথম ভাগ চলছে। অর্থাৎ, এখনো ঘাটতি রয়েছে প্রায় ৩৪ লক্ষ টাকা। সম্পূর্ণ চিকিৎসা সম্পন্ন করতে এই অর্থ সঙ্কুলান অতীব জরুরি হয়ে পড়েছে।

ক্যাডেট কলেজ সমূহের সূত্র থেকেও একটি বড় অর্থ সাহায্য এসেছে। এর মধ্যেই কথাবার্তা চলছিল ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান+ব্যান্ড শো’র আয়োজন করার। অবশেষে এ আয়োজনের বাস্তবায়ন সম্ভব হতে যাচ্ছে।

আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১১, ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে এক সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছে। চ্যানেল আই’য়ের “খুদে গানরাজ”-খ্যাত শিশুশিল্পী পড়শী, সাগর খান এবং নিঝুর পাশাপাশি আরো থাকবেন কমেডিয়ান নাভিদ মাহবুব, ইয়ামিন খান এবং সুখন। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় শুরু হয়ে এ’আয়োজন চলবে প্রায় চার ঘণ্টা। টিকেট পাওয়া যাচ্ছে ক্যাডেট কলেজ ক্লাবের ক্যাডেট কলেজ ক্লাব লিমিটেডের ফ্রন্ট ডেস্কে। কিংবা চাইলে আপনারা পাবনা ক্যাডেট কলেজের এক্স-ক্যাডেট ইমরান ভাই (১৭ ইনটেক) এবং মহসিন ভাই (১৯ ইনটেক) এর কাছ থেকেও সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

ইমরান ভাই- ০১৭৩০ ৪৪৩৬৫৫
মহসিন ভাই- ০১৭১১ ৫০২৬৮৪

এক নজরে পুরো আয়োজন:

গানঃ পড়শী, সাগর খান, নিঝু (খুদে গানরাজ)
কমেডিঃ নাভিদ মাহবুব, ইয়ামিন খান এবং সুখন
সময়ঃ ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ (সন্ধ্যা ৬:৩০- ৯:৩০)
স্থানঃ ক্যাডেট কলেজ ক্লাব লিমিটেড, হাউস-২০, রোড-৪৭, গুলশান, ঢাকা-১২১২।
টিকেট-মূল্যঃ ৫০০ টাকা
আসন সংখ্যাঃ ১০০০

এবিসি রেডিও, বৈশাখী টিভি, চ্যানেল-আই-সহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকের পাতাতেও এই সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার প্রচারণা দেখতে পাওয়া যাবে।

যারা ঢাকা কিংবা পার্শ্ববর্তী এলাকায় আছেন, তাদের প্রতি উপস্থিত থাকবার জন্য অনুরোধ রইলো। নানা কাজের ভীড়েও একটূ সময় বের করে চলুন না সাকিব ভাইয়ের প্সাহে গিয়ে দাঁড়াই। জন লেননের একটা কথা ছিলঃ যে স্বপ্ন একা দেখা হয়, তা কেবল স্বপ্নই; কিন্তু সবাই মিলে যে স্বপ্নের সূচনা তা বাস্তবেই রূপ নেয়। সাকিব ভাইয়ের সুস্থ্যতার যে স্বপ্নটা জেগে উঠেছিল; সকলের সামষ্টিক প্রচেষ্টাতেই তা কেবল বাস্তবে রূপ নিতে পারে।

কারো কোন পরামর্শ থাকলে সাদরে জানাবেন। আমরা বিশ্বাস করি সকলের ভালবাসায় সাকিব ভাই আবার আগের জীবন ফিরে পাবেন। সুস্থ্য – স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাবেন।

————————————————————————————————————

ভুলবেন না; সময় এখনো ফুরিয়ে যায়নি। সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় যারা অংশগ্রহণ করতে পারছেন না, তারা চাইলে এগিয়ে আসতে পারেন সরাসরি আর্থিক সহায়তা দানের মাধ্যমে।

সাকিব ভাই-এর জন্য ফেইজবুকে ডোনেশন সংগ্রহের জন্য পাবলিসিটির পেইজ এখানে

সাকিব ভাই এর জন্য অনুদান সহায়তা দেবার ব্যাংক তথ্য:

১. পে-প্যাল লিংক: এখানে সাহায্য করুন

২. মাসরুর সাকিব, একাউন্ট নম্বর: 1501101954335001, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, গুলশান শাখা, ঢাকা।

৩. পাবনা ক্যাডেট কলেজ পঞ্চদশ ব্যাচের পক্ষ থেকে সাকিব ভাইয়ের জন্য যৌথ হিসাব একাউন্ট: একাউন্ট নম্বর: 0002-0310273664, সুইফট কোড ফর ট্রাস্ট ব্যাংক – TTBLBDDH002, দ্যা ট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেড, প্রিন্সিপাল শাখা, ব্রডওয়ে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, ঢাকা-১২০৬।

১,০০৫ বার দেখা হয়েছে

১৪ টি মন্তব্য : “সাকিব ভাইয়ের জন্য সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা (সাকিব ভাইয়ের শারীরিক অবস্থার আপডেট)”

    • সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

      সাকিবের পাশে আমাদের নিজেদের দাঁড়ানোটাই শেষ কথা নয়, আসুন অন্যদেরও সঙ্গী করি। বন্ধু, স্বজনদের কাছেও আমাদের হাত পাততে দ্বিধা থাকার কথা নয়।

      আমি নিশ্চিত সাকিবের দ্বিতীয় জন্মের উৎসব করবো আমরা।


      "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

      জবাব দিন
  1. রাব্বী (৯২-৯৮)

    সাকিবের সর্বশেষ আপডেটঃ

    দ্বিতীয় দফায় কেমো নেবার সময় সাকিব কিছুটা তাড়াতাড়ি হাসপাতাল ছেড়ে যায় খরচ বাঁচাতে। কিন্তু এই সিদ্ধান্তটি সঠিক ছিল না। ওর ব্লাড কাউন্ট লেভেল অনেক নিচে ছিল। এবং হাসপাতাল ছেড়ে যাবার পর সাকিবের ইনফেকশন হয়। সেকারণে ৩১শে জানুয়ারি আবার ভর্তি হয় হাসপাতালে। এখন ইনফেকশন নিয়ন্ত্রনে এসেছে। কিন্তু ব্লাড কাউন্ট এখনো অনেক নিচে। সেজন্য আরো কিছুদিন হাসপাতালে থাকতে হবে। অতিরিক্ত যে কদিন হাসপাতালে থাকতে হয়েছে তাতে টাকাপয়সা প্রায় সব শেষ। একারণে পরবর্তী দফা কেমো নেবার মতো অর্থ এখন সাকিবের হাতে নেই।

    সাকিবকে বিশেষভাবে সাহায্য করা প্রয়োজন এই মুহূর্তে চিকিৎসা চালিয়ে নেবার জন্য। যারা এই কমেন্টটি দেখছি, সম্ভব হলে যদি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি দেখতে যাই বা সরাসরি সাকিবের জন্য আর্থিক সহযোগিতায় এগিয়ে আসি তাহলে সাকিব তার চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারবে।

    আর মাত্র দুদিন বাকি, তাই নিজে এবং অন্যকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যাবার জন্য উৎসাহিত করার মাধ্যমেও এই মুহূর্তে সাহায্যের হাতটি বাড়িয়ে দিতে পারি। সকলের সাহায্য প্রয়োজন বিশেষভাবে।


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
  2. সাবিহা জিতু (১৯৯৩-১৯৯৯)

    একমাত্র আরিফ আমীন ছাড়া কারো সাথে দেখা হল না। খুবই হতাশ হয়েছি। আর আরেকটা ব্যাপার, যারা এই অনুষ্ঠানটি অর্গানাইজ করেছেন তাদের কাছে একটি বিষয় পৌছাতে পারলে ভালো লাগতো, সেটি হচ্ছে এমন ধরনের অনুষ্ঠান অর্গানাইজ করার আগে সেটির অডিয়েন্স সম্পর্কে ভাবা প্রয়োজন। যথাযগ্য সম্মানের সাথে বলছি আমি বা আমার মত অনেকেই যারা ছেলে মেয়ে বা পারেন্টস নিয়ে উপস্থিত ছিল তারা কম বেশী সবাই খুব বিব্রত বোধ করেছি তিন জন কমেডিয়ানের হাই ভোলটেজ জোকস শুনে।


    You cannot hangout with negative people and expect a positive life.

    জবাব দিন
    • রাব্বী (৯২-৯৮)

      জিতু, অনুষ্ঠান বিষয়ে তোমার কথা শুনে আমিও বিব্রত। এবং দুঃখিত। কথাগুলো অর্গানাইজারদের কাছে পৌছাবে এটুকু নিশ্চিত করতে পারি।

      তারপরও, ধন্যবাদ যাবার জন্য।


      আমার বন্ধুয়া বিহনে

      জবাব দিন
    • হিল্লোল (৯২-৯৮)

      জিতু , অর্গানাইজারদের একজন হিসাবে ব্যাপারটি আমার কাছেই আসে , অনেক ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য। আমার মনে হ্য় কিছু কিছু ব্যাপার ঠিক ছিলনা । আবার মজার ব্যাপার হল বেশিরভাগই কমেডিয়ানদের পারফরমেন্স এ খুবই আনন্দিত হয়েছে । আমরা অবশ্যই নেক্সটে ব্যাপারগুল খেয়াল করব। শুনে খুশি হবে, আমাদের উদ্দেশ্য সফল , আশানরুপ টিকেট বিক্রির পাশাপাশি সবাইকে জানান ও হয়েছে।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।