শুভ জন্মদিন মিঃ হান্টসভিল

এই তো বেশ কিছুদিন আগের কথা, সম্ভবত ২০০৯ এর অক্টোবরের কিঞ্চিত জেঁকে বসা শীতের এক দুপুর। জমে থাকা তুষার মাড়িয়ে কম্পিউটার ল্যাবে এসে বসেছি সবে মাত্র। বই পত্র খুলে মহা সমারোহে প্রস্তুতি নিতে গিয়েই মনে হলো, এই যা পড়াশুনার আগে ওয়ার্ম আপই তো করা হলো না। ঝটপট খোমাখাতার কপাট খুলতেই দেখি একখানা দু’বাক্যের মেসেজ এসে জমা রয়েছে। নামটা পরিচিত হলেও খোমাখাতার ফটুক অ্যালবামের ছবিগুলো ঘেঁটে স্মৃতির জোড়াতালি দেয়া পকেটে তেমন কোন সাড়া পেলাম না। লেখা ছিলঃ “রকিব, সিসিবিতে তোমার লেখা পড়তাম। ভাল লাগতো।”

খানিকটা সঙ্কোচ আর খানিকটা খুশীর চালে (নিজের অখাদ্য লেখাগুলোর প্রশংসা শুনতে কার না ভালো লাগে) দুলে প্রত্যুত্তরে ধন্যবাদ জানালাম, সাথে চিনে না উঠতে পারায় ক্ষমাসূচক কিছু কথাবার্তা। জানা গেলো, তিনি সিসিবির চল্লিশোর্ধ কাইয়ুম ভাইয়ের ব্যাচের, যদিও অন্য কলেজ থেকে। টুকটাক কথা বলতে গিয়ে একটু একটু করে সঙ্কোচটা কেটে গেল। প্রায় প্রতিবেশীই বলা চলে তাকে, অটোয়ার অধিবাসী। ক’দিন পরি আচমকা ফোন পেয়ে বেশ অবাকই হয়ে গিয়েছিলাম।

এরপর বহুদিন, বহুকাল পেরুলো। মঈন ভাইয়ের গুতো খেয়ে তাহাকে জানালাম অটোয়া আসি, একখান ক্যাডেট গেট-টুগেদার করেন। ঢাকাবাসী সিসিবিয়ানদের চার-পাঁচ জনের ঐ ছোট গেট টুগেদার ( 😛 ) দেখতে দেখতে পেটে মরিচা ধরে গিয়েছে। বেশ সানন্দেই প্রস্তাব লুফে নিয়ে অটোয়াবাসী ক্যাডেটদের অনেককে স্বল্পসময়ের নোটিশেই তিনি জড়ো করে ফেললেন। আর এসুযোগে উনার দর্শন লাভ করে আমিও কৃতার্থ হলাম। চললো আড্ডা, জমলো আসর; আর নাদান চাওয়ালা বুঝিল, প্রায় চল্লিশোর্ধ এই ভদ্রলোকের রসের (পাঠক এই রস হোল রসবোধ নিঃসৃত, অন্য কিছু ভাববার অবকাশ নেই) অভাব নেই মোটেও। আরো কিছু গুণের কথা বলবো নাকী? বলেই ফেলি।

ফটুক তোলায় বিশেষ পারদর্শী তিনি। যদিও প্রকৃতিতে এতকিছু থাকতে ঘুরেফিরে খালি বালিকাদের ছবি তোলাতেই উনার সবিশেষ মনোযোগ। এসম্পর্কে আবার আমাকে প্রায় ঘন্টাখানিকের এক ঝাড়া লেকচারও শুনতে হয়েছে(বেশি কিছু না বলাই ভালো)। হান্টসভিল নামক এক শহরের প্রতি তার বিশেষ আকর্ষণ আছে। দুষ্ট লোকে অনেক কথাই বলে, তবে আমি কিন্তু বলছি না যে উনার প্রেয়সী ওথায় থাকেন। আরে ভুরু কুচকাচ্ছেন কেন!!! আচ্ছা এইখানে ঢুঁ দিয়ে নিজেই বিচার করুন

লেখার হাত সবিশেষ চমৎকার, যদিও তা স্বীকার করতে উনি নারাজ। বিনয়ী হইলে যা হয় আর কী! স্মৃতিচারণ বলুন আর ব্লগর ব্লগর, কিংবা গল্পোচ্ছলে কিছু সিরিয়াস গতানুগতিক ধারাপাতের আলোচনা- সব খানেই বেশ দৃপ্ত পদচারণা। আর গান গাইতে বিয়াপক পছন্দ করেন, যদিও শুনতে তেমন কোন কাউকে আগ্রহী হতে দেখি নাই। :no:

চাপার রেট বেশি হয়ে যাচ্ছে মনে হয়। এবার একটা দুটো সত্য কথাও বলি। পরিচয়ের পরিধি দু’বছরও বোধহয় পার হয়নি; কিন্তু সম্পর্কের গাঢ়ত্বটা সময়ের পরিমাপে মাপা যায়নি; অন্তত উনার বেলায় পারিনি। মাথা গুবলেট হলেই উনাকে ফোন দিয়ে জ্বালাতন চলে, সময়ে অসময়ে খোমাখাতায় গুতোগুতি তো বাদই দিলাম। পুরোটাই উনি মুখ বুজে সহ্য করে নেন। যখন আমার সাথে কথা বলেন, কখনোই বুঝতে পারি না, এই মানুষটা আমার থেকে ৯ বছর আগে কলেজ ছেড়েছেন, জ্ঞান-গরিমায় যার উচ্চতা আমার থেকে চতুর্গুণ তো বটেই। দারুণ একটা সংবেদনশীল মন আছে, যদিও মুখ ফুটে তা বলতে গররাজি। ওহ হ্যাঁ, কাউন্সিলিং এর কাজেও উনি দারুণ অভিজ্ঞ ( :shy: )। সত্যি বলছি, এই লুকটারে আমি (বোধহয় যারা চেনেন, তারা সবাইই) বিয়াপক ভালু পাই।

ওহ হ্যাঁ এই চল্লিশোর্ধ এই মাঝ বয়সী ভদ্রলোক আজ একচল্লিশে পা দিয়েছেন। যদিও কয়েকবার গুতাগুতি কইরাও কেক-কুক খাওয়ার দাওয়াত আদায় করতে পারি নাi। কিঞ্চিত কিপটাও বলতে পারেন। 😛

শুভ জন্মদিন মিঃ হান্টসভিল থুক্কু রাব্বী ভাই

দোয়া করি হান্টসভিলে অন্তত একটা বাংলাদেশি ফুটবল টিম খুলবেন (ফয়েজ ভাইয়ের বিখ্যাত দোয়ার বদৌলতে)।

কেক্কুক কী গিয়ে খাবো নাকী এসে খাওয়াবেন?

৩,৮৮২ বার দেখা হয়েছে

৪৮ টি মন্তব্য : “শুভ জন্মদিন মিঃ হান্টসভিল”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    হায় হায় লাভ-বী ভাইয়ের জম্মোদিন আজকে????
    পূতপবিত্র( 😉 ) পিসিসির প্রাক্তন ক্যাডেট লাভ-বী ভাইকে আমার এবং আমার সহকর্মী আশিষের(পিসিসি) পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা :boss:

    জবাব দিন
    • রাব্বী (৯২-৯৮)

      কথা সত্য, এই দিনে সুবহে সাদিকের মোলায়েম আলো দক্ষিন বাংলার চোখে চোখ রাখার ঠিক আগ মূহুর্তে জন্মেছিলেন এই গরীব কিন্তু মেধাবী নয় এমন বিদেশী ছাত্র।

      ডিআইজি মাস্ফ্যু এবং তার সহকর্মী আশিষকে শুভেচ্ছা ব্যাক।


      আমার বন্ধুয়া বিহনে

      জবাব দিন
  2. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    শুভ জন্মদিন রাব্বী। ফেসবুক থেকে জেনে ব্লগে লগ-ইন করলাম তোমাকে আর তপুকে শুভেচ্ছা জানাতে। ভালো থেকো। জীবনটার শেষ বিন্দুটুকু শুষে নিও, উপভোগ করো।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  3. জিহাদ (৯৯-০৫)

    রাব্বী ভাই এর সাথে আমার "তারে আমি চোখে দেখিনি, তার কন্ঠ শুনেছি" টাইপের সম্পর্ক। কিন্তু মানুষটারে আমিও ব্যাপক ভালা পাই। বেশ ভালো রকমের ব্যাপক আর কি 😀
    হ্যাপি বাড্ডে রাব্বি ভাই। ছোট জীবনে আপনার মত বড় মাপের গুণীর সাথে পরিচয় থাকাটা অবশ্যই রাশির গুণ। 😀


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  4. ওয়াহিদা নূর আফজা (৮৫-৯১)

    শুভ জন্মদিন রাব্বী।

    চাওয়ালা, বয়স কম হইছে বলে চল্লিশোর্ধ ব্যক্তিবর্গের বয়স নিয়া হাসি তামাসা করবা?


    “Happiness is when what you think, what you say, and what you do are in harmony.”
    ― Mahatma Gandhi

    জবাব দিন
    • রাব্বী (৯২-৯৮)

      ধন্যবাদ শান্তা আপা।

      সমাজে আপনার মতো সংবেদনশীল মানুষের সমর্থন খুব প্রয়োজন। 'এনডেনজারড' সংখ্যালঘু আইবুড়ো ছেলেদের নিয়ে যেভাবে সামাজিক নিপীড়ন, বক্রোক্তি এবং আড়েঢ্যাড়ে টিপ্পনী করা শুরু হয়েছে, তাতে উচ্চ আদালত তাদের অধিকার সংরক্ষনে যদি স্বপ্রণোদিত হয়ে এগিয়ে না আসে, আপনি নিশ্চিত থাকেন যে এরা ধীরে ধীরে হারিয়ে যাবে সবার অলক্ষ্যে।

      বিউটি লাইজ ইন ডাইভারসিটি


      আমার বন্ধুয়া বিহনে

      জবাব দিন
  5. মেলিতা

    বহুদিন পর লগইন করলাম। রাব্বী ভাই শুভ জন্মদিন।জানুয়ারী ফেব্রুয়ারীতে সব কুল লোকজনের জন্ম দেখা যায়। পরের বার অটোয়া গেলে আমাদের কে কেক খাওয়াইতে হবে।
    রকিব দাদা, জানানোর জন্য ধন্যবাদ। বড় হও। সুখে থাকো। B-)

    জবাব দিন
  6. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    দেরি কইরা ফেললাম দোস্ত!
    তারপরেও লেইট দ্যান নেভার বেটার 😛

    শুভ জন্মদিন দোস্ত। ভালো আছিস এইটুকু জানলেই ভালো লাগবে।
    তোর লেখার ভক্ত। ফটগ্রাফিরও। চিন্তা চেতনারও, এইটা নিশ্চয়ই আর কওয়া লাগবেনা 🙂


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
    • রাব্বী (৯২-৯৮)

      দেরি করলেও কোন সমিস্যা নাই দোস্ত, এইটা তো আর ট্রেন মিস করার রিক্স থাকবে।

      ভাল থাকা, সুখে থাকা - এসব মিথের পিছে দৌড়ানোর সময় নাই। এর থেকে অনেক ইজি কাজে বিজি থাকতে হয়। তবে, ঠিক আছি। আর কি সব কয়ে লজ্জা দিলি - এইটা ঠিক না, ঠিক না!

      নিরন্তর ধন্যবাদ।


      আমার বন্ধুয়া বিহনে

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।