ফেব্রুয়ারী চলে গেল

জীবন বদলে যাচ্ছে ধীরে ধীরে।

মাঝে মাঝেই পুরোনো লোকের সংগে, বন্ধুদের সংগে দেখা হয়ে যায়। পুরনো আনন্দে মেতে উঠি। এইতো কিছুদিন আগে আজাদ আর রকিবুল এলো চিটাগাং, রকিবুল আবার আহ্লাদী ভাবে আবদার করে ফেললো, “দোস্ত লইট্টা মাছ খাব” আর আমিও পুরোনো স্বরে বলে ফেললাম, “হালার পুত, পাছায় লাত্থি মাইরা সিদ্ধ কইরা ওই গোস্ত তোরে রাইন্ধা খাওয়ামু। লইট্টা খাইতে চায়?“ রাতে আড্ডা, কে বলবে আমরা পয়ত্রিশ পেরুনো মানুষ। কলেজ প্রিফেক্ট সালেহ ভাইকে আজাদের পিটানোর প্ল্যান সৈয়দপুর বাস স্টান্ডে, আর সালেহ ভাই সেটা টের পেয়ে স্টাফের পাশে বসে পুরো সময় পার করানোর স্মৃতি মনে করে অনেকদিন পরে হো হো করে হাসলাম।

যাবার সময় বন্ধুরা বলে গেল, “তুই বদলাসনি এক্টুও”।

“তুই একদম আগের মতই আছিস”, “কিরে তুই দেখি অবিকল সেই” “স্যার আপনি আর বদলালেন না”, “দোস্ত, তুমি দেখি সেইম সেইম” ।

কিন্তু এগুলো সত্য নয়। আমি বদলে গিয়েছি।

আগে যখন রিক্সায় বসতাম, খুব হালকা ভাবে বসতাম, যাতে একটু কিছু হলেই লাফিয়ে নামতে পারি। এখন রিকসায় বসে শক্ত করে হুড ধরি। আগে লাফিয়ে নামতাম, এখন রিক্সা থামার পরে আগে ভাড়া বের করি, এরপরে রিক্সা থেকে নামি।

আমাকে মোটর সাইকেলের পিছনে বসিয়ে এক ভাইয়া একবার খুব জোরে চালানো শুরু করলেন। ফাকা রাস্তায় ১১৮ পর্যন্ত উঠানোর পরে আর উঠে না। আমি নাকি খুব হালকা, মোটর সাইকেল খুব বেশি লাফাচ্ছে, এই তত্ত্ব হাজির করলেন। এখন মোটর সাইকেলে উঠতে ভয় পাই। গাড়ির ড্রাইভারকে আস্তে চালাতে বলি, আগে যেখানে কিছুই বলতাম না, কারন ড্রাইভার আমার চেয়ে ভালো জানে কিভাবে গাড়ি চালাতে হয়, এটাই বিশ্বাস করতাম।

আমি কি ভয় পাচ্ছি? মরে যেতে?

হ্যাঁ আমি ভয় পাচ্ছি, আমি মরে যেতে ভয় পাচ্ছি।

IMG_1546

IMG_1077

IMG_1470

IMG_1213

আমার মেয়ে, যার জন্য আমার মরতে ইচ্ছে করেনা।

ফেব্রুয়ারী মাসটা পেরিয়ে গেল। দম বন্ধ করা মাস একটা।

ফেব্রুয়ারী আবার ফিরে আসুক, খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসুক। এটা আমার স্বজন হারানো মাস, যত কষ্টই হোক, আমি চাই আমাদের সারাবছর ফেব্রুয়ারী হয়ে যাক।

১,৭৮৭ বার দেখা হয়েছে

২৭ টি মন্তব্য : “ফেব্রুয়ারী চলে গেল”

  1. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    বেছে বেছে ঠিক সন্ধ্যার সময় কিভাবে মন খারাপ লেখাগুলো দেন আপনি ????

    ফেব্রুয়ারী আবার ফিরে আসুক, খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসুক। এটা আমার স্বজন হারানো মাস, যত কষ্টই হোক, আমি চাই আমাদের সারাবছর ফেব্রুয়ারী হয়ে যাক।

    কথাগুলো ছুয়ে গেলো ফয়েজ ভাই ...

    জবাব দিন
  2. আদনান (১৯৯৯-২০০৫)

    আমিন ভাই আমিও আপনার সাথে সহমত।

    "ফেব্রুয়ারী আবার ফিরে আসুক, খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসুক।এটা আমার স্বজন হারানো মাস, যত কষ্টই হোক, আমি চাই আমাদের সারাবছর ফেব্রুয়ারী হয়ে যাক।" ---- ফয়েজ ভাই মনটা খুবি খারাপ হইয়া গেল।

    জবাব দিন
  3. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    ভাই, কেমন আছেন?
    আমি তো ছোটবেলা থেকেই শক্ত কইরা রিক্সার হুড ধইরা বসি...মোটরসাইকেলটা আমার কাছে সারাজীবনই এমন একটা বাহন যাতে নায়করা চড়ে...হাইওয়েতে উইঠা ৬০-৭০ এ গাড়ি চালানোর জন্য হর্ন খাওয়ার অভিজ্ঞতাও আছে 😕 ...
    আমার কি হবে :bash: ?


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  4. আছিব (২০০০-২০০৬)

    ভাই,ভাতিজির জন্য শুভকামনা রইল।
    ইনশাল্লাহ ও ও একসময় বাবার মতই বস হবে।
    আমরাও আস্তে আস্তে রিফ্লেক্সে স্লো হয়ে যাচ্ছি।বুঝি কিন্তু মানতে চাই না,সবারই সেইম কেস মনে হয়।

    জবাব দিন
  5. আহসান আকাশ (৯৬-০২)
    ফেব্রুয়ারী আবার ফিরে আসুক, খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসুক।এটা আমার স্বজন হারানো মাস, যত কষ্টই হোক, আমি চাই আমাদের সারাবছর ফেব্রুয়ারী হয়ে যাক।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  6. আনোয়ার (০০-০৬)
    কিন্তু এগুলো সত্য নয়। আমি বদলে গিয়েছি।

    হ ভাই আমরা সকলেই বদলায় যাইতেছি, :dreamy:
    ধীরে ধীরে গ্যাদারিং এ পোলাপানের সংখ্যা কমছে, ক'দিন পর হয়তো দেখা যাবে গ্যাদারিং ই হইতাছে না। 🙁 পোলাপান আগে গ্যাদারিং এ বইসা স্যারদেরকে টিজ করতো , দুষ্টামি ফাজলামি করতো এখন তারা বলাবলি করে " আমাদের একটা ফাণ্ড করা দরকার, কতো কাজেই তো লাগতে পারে"
    ব্লা ব্লা ব্লা.....................।
    হাহ......... কলেজের সেইদিন গুলোতেই অনেক ভালো ছিলাম। বাইরের জীবনের মতো রঙ্গিন ক্যানভাসে আঁকা না হলেও সাদা আর কালোর কম্বিনেশনে ভালোই ছিলাম...... :dreamy:

    আপনার পিচ্চি অনেক বড় হবে শুভকামনা রইলো। 🙂

    জবাব দিন
  7. আহমদ (৮৮-৯৪)

    ফয়েজ ভাই,
    সবাই শুরুতে হাসাহাসি করলেও আমি করতে পারি নাই। ইদানিং এমনটা হচ্ছে। হাসতে গেলেই মনে হয় কোথাও কোন সমস্যা লুকিয়ে নেই তো। তবে আপনার লেখায় কোন সমস্যা নেই। সমস্যা আমার/আমাদের মনে ... জন্মেনোর পর থেকেই তিল তিল করে জমে ওঠা হাজারো সমস্যা ... হাজারো চিন্তা-দূঃশ্চিন্তা ... তারপরেও সবকিছু মিলিয়েই এই বেশ ভাল আছি।

    আসল কথাটা তো বলা হল না ... কথাটা হল ... আপনার লেখেটা মন ছুয়ে গেল। সোনামনির জন্য অনেক অনেক অনেক আদর ... আপনারা ভাল থাকুন সবসময় ... এট দোয়া করা ছাড়া এই মুহূর্তে এসলেই কিছু বলার মত পাচ্ছি ন। লেখাটা আসলেই মনে দাগ কেটে দিল।


    চ্যারিটি বিগিনস এট হোম

    জবাব দিন
  8. ভাইয়া,মামণিটা এত্তো কিউট
    কি নাম??
    খুব মন খারাপ হওয়ার মত একটা লেখা,তারপরও ওর ছবি দেখে মন খারাপ হলো না।
    যদি ৫০ বছরের জীবন হ্য়,এর প্রায় অর্ধেকের মত সময় শেষ করে ফেলেছি।আর যদি আরও কম বেঁচে থাকি......... 🙁
    অনেক ভয় পাই আমি মৃত্যুকে

    জবাব দিন
  9. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    ফয়েজ ভাই,

    আপনে খুব খ্রাপ, খুব.........সকালে এই পোষ্ট পড়ে মন খারাপ হল, না জানি সারাদিনটা কেমন কাটে।

    ভাতিজী ত পুরাই বাপের মতো হইছে, মা'শাল্লা।

    অফ টপিকঃ আপনার শর্ত মোতাবেক চিটাগাং ট্রিপের বন্দোবস্ত চলছে 😉


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  10. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    যারা এসেছেন এবং পড়েছেন তাদের অজস্র ধন্যবাদ।

    যারা মন্তব্য করেছেন তাদেরকে (অজস্র+একটা বোনাস) ধন্যবাদ।

    যারা জিহানের চেহারা তার বাপের মত বলেছেন, তাদের একটা খাওয়া পাওনা রইল।

    যারা বউ সহ বা বউ ছাড়া চিটাগাং আসার ধান্দা করছেন, হতে পারে হানি-মুন, হতে পারে নট-মুন, আওয়াজ দিতে ভুলবেন না কিন্তু। বান্দা হাজির হয়ে যাবে সময় মত।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।