রাজাকারনামা- ৩ (যুদ্ধাপরাধের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা)

এই লেখাটি একটি অনুবাদ মাত্র। এটি একটি পাকিস্তানি নাগরিকের ব্লগ হতে প্রাপ্ত।

১৩ই মে বাংলাদেশ সরকার পাকিস্তান সরকারকে ১৯৭১ সালের গনহত্যার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা দাবি করে,পাকিস্তান সরকার এই দাবীকে নাকচ করে দেয়। এর জবাবে পাকিস্তান জানায় বাংলাদেশের উচিত অতীতকে ভুলে যাওয়া এবং পাকিস্তান কে ভুলে যেতে দেওয়া। এমন নয় যে এবারই প্রথম বাংলাদেশ সরকার পাকিস্তানকে সাধারণ ক্ষমা পার্থনার দাবি করল প্রত্যুত্তর ধৃষ্ট পাকিস্তান যৌক্তিক দাবীকে নাকচ করে দিল।

১৯৭১এর মার্চের ২৫ হতে ১৯৭১ এর ১৬ই ডিসেম্বর পর্যন্ত পাকিস্তান সেনাবাহিনী নিজ দেশের জনগণের উপর বর্বর আক্রমণ ও গনহত্যা করেছে তা ইতিহাসে বিরল। উদ্দেশ্য ছিল ভোটের রায়ের বাস্তবায়নের দাবীকে স্তব্ধ করে দেওয়া। এই আক্রমণের সময় সেনারা অগণিত ধর্ষণ লুট, বাঙ্গালী এবং উপজাতি মানুষদের হত্যা করেছে।
প্রায় ৪০ বছর হয়ে আসলেও ১৯৭১ সালে আমাদের সেনাবাহিনী বাংলাদেশের কত মানুষকে হত্যা করেছে বাংলাদেশ তা নিরূপণ করতে পারেনি। কেননা এখনও সেখানে গণকবর আবিষ্কৃত হচ্ছে। গণকবরের হাড় দেখেই বোঝা যায় নির্যাতনের মাত্রা কত পাশবিক ছিল। আর এই নির্যাতনের ঘটনা আমাদের সেনাবাহিনী অবিরত অস্বীকার করে আসছে।

পাকিস্তান সরকার ১৯৭১ সালের ঘটনা তদন্তের জন্য একটি মাত্র কমিশন গঠন করে যা হামিদুর রহমান কমিশন নামে পরিচিত। এই তদন্ত রিপোর্ট তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলি ভুট্টো এবং পরবর্তী সরকার কর্তৃক প্রচার নিরুদ্ধ করা হয়। অবশেষে ২০০০ সালে এর সংশোধিত এবং আংশিক অংশ জনসমক্ষে প্রকাশ করা হয়।

বাংলাদেশের পক্ষ হতে ক্ষমা প্রার্থনা করার দাবি করলে এর প্রতিত্তুরে পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রানালয় বলেছে, “ভুলে যাও এবং আমাদের ভুলে যেতে দাও”। পাকিস্তান সরকার কখন ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়ে নমনীয় হবে বলে মনে হয়না। এছাড়া পাকিস্তান সুধী সমাজের কোনো অংশকে যুদ্ধাপরাধ এবং নিরীহ মানুষদের হত্যা করার জন্য সরকারকে ক্ষমা প্রার্থনার জন্য চাপ দিতেও দেখা যায়না।

পাকিস্তানিদের ব্যবহার অযৌক্তিক, পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ধর্ষণ, গণহত্যা, লুণ্ঠন অযৌক্তিক। আরও অযৌক্তিক মনে করি পাকিস্তানি সরকারের ৩৮ বছর ধরে হামিদুর রহমান রিপোর্ট কে গোপন করে রাখার প্রচেস্টাকে। পাকিস্তান সরকারের ১৯৭১ বর্বরোচিত হত্যা কে পাকিস্তানি জনগণের কল্যাণের নামে জায়েজ করার প্রচেষ্টারত ধিক্কার জানাচ্ছি।

আজ আবার আমরা আমাদের জনগণের উপর আরেকটি সেনা আক্রমণের দ্বারপ্রান্ত পৌঁছে গেছি। এবং এই আক্রমণ শেষে আমাদের অভিজ্ঞতা হবে ১৯৭১ এর মতোই। আমরা আরেকটি মানবিক বিপর্যয় দেখব। আমরা দাবি করি পাকিস্তান সরকার ১৯৭১ এর ঘটনাকে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করুক। হামিদুর রহমান কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী দোষী ব্যক্তিদের যথাযথ শাস্তি প্রধান করবে। এবং বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সামাজিক অবকাঠামো পুনরুদ্ধারে ক্ষতিপূরণ করবে। একমাত্র এভাবেই আমরা আমাদের ঘৃণ্য অতীতকে ভুলে যেতে পারব এবং বাংলাদেশের জনগণের সাথে নতুন করে ভাতৃত্ববন্ধন সৃষ্টি করতে পারব।
clip_image001ছবিটি তার লেখাতেই তিনি ব্যবহার করেছিলেন।

৩,১৬১ বার দেখা হয়েছে

২৮ টি মন্তব্য : “রাজাকারনামা- ৩ (যুদ্ধাপরাধের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা)”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    এই যে লিঙ্কঃ

    //progpak.wordpress.com/2009/05/22/healing-the-wounds-of-the-past/#comment-90

    এইখানে আবার কিছু পাকিস্তানি এইটারে নিয়া টিটকারি দেওয়ার চেষ্টা করছে সেইখানে এই অধম আবার তাদের সাইজ ও দিছে... :shy:

    জবাব দিন
  2. এহসান (৮৯-৯৫)

    ভালো লাগলো। দুর্দান্ত একটা পোস্ট অনুবাদ করার জন্য ধন্যবাদ। :clap:
    জীবনে ১ম বারের মত মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন পাকিস্তানি নাগরিকের খবর পেলাম। প্রথম আলোর আইরীন ফাইরীনরে আমি বিশ্বাস করি না। বিদেশ আইসা অন্ততঃ একটা জিনিস জানা হইসে। পাকিস্তানিদের চিনসি, মুক্তিযুদ্ধের যৌক্তিকতা বুঝসি।

    জবাব দিন
  3. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    ভাইয়া,এই পাকিস্তানি ভদ্রলোকের লেখাটা শেয়ার না করে পারলাম নাঃ

    Arif Ishaq

    Pakistan should not simply apologize for what it did in Bangladesh.
    If Pakistan had any morality, it would go down on its kness, cover its head with ashes and BEG the forgiveness of the people of Bangladesh!
    I’m glad for the people of Bangladesh that they managed to get rid of us!
    I was a kid when this happened, but I remember very well, and no one is going to tell me I got it wrong because I was a kid then, that our society, at the time, considered the people of Bangladesh as inferior beings, all the more so because they were black!

    আসলে আমরা অনেকেই যেমনটা ভাবি, সব পাকিস্তানি আসলে খারাপ না।যে ভাষায় এই ভদ্রলোক আত্মসমালোচনা করেছেন সেটা করতে যথেষ্ট পরিমাণ বিবেকের প্রয়োজন হয়।আশা করি আমাদের রাজাকারের বাচ্চা জারজগুলো এই ভিনদেশীদের কাছ থেকে কিছু শিখবে x-( x-(

    জবাব দিন
  4. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    প্রচণ্ড গুরুত্বপূর্ণ অনুবাদ। মাসুদ ভাইকে অনেক ধন্যবাদ।
    A rational patriot কে দেয়া মাসরুফ ভাইয়ের জবাবটাও অসাধারণ।
    পাকিস্তানে এই চিন্তাধারায় বিশ্বাসী একটা গোষ্ঠী তৈরী না হলে পাকিস্তান সরকার কখনই ক্ষমা চাবে না।
    আর আমার তো মনে হয়, ক্ষমা চাওয়াটা মোটেও যথেষ্ট না। একাত্তরের জেনারেলগুলা এখন মরার পথে। মরার আগেই এদের বিচার করা উচিত। পাকিস্তান সহযোগিতা না করলে তো এই বিচারও করা সম্ভব না।

    জবাব দিন
  5. মাসুদুর রহমান (৯৬-০২)

    কোন খবরের প্রেক্ষিতে এই পাকিস্তানি ব্যক্তিটি ব্লগ লিখেছেন সেই খবর বা বাংলাদেশের ক্ষমা প্রার্থনার দাবীটি খুজে পাওয়া গেছে। এটাও শেয়ার করার ইচ্ছা আছে।

    জবাব দিন
  6. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    ধন্যবাদ মাসুদ, এই চমৎকার লেখাটি শেয়ার করার জন্য। আর মাস্ফ্যু তোমাকেও কৃতজ্ঞতা মূল ব্লগটির খোঁজ দেয়ার জন্য। :hatsoff: উভয়ের জন্য।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  7. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    মাসুদ, অসাধারন একটা কাজ করছিস... :hatsoff: :hatsoff: :hatsoff:
    তোর লেখার সাবজেক্টগুলোর প্রশংসা করতেই হয়... দোয়া করি তোর টাইপিং আরো গতিময় হয়ে উঠুক, আরো বেশি বেশি লেখা চাই তোর কাছ থেকে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।