বাছারা, সুখে থাক আজীবন

বহু দিন পরে অদ্য সকাল দশ ঘটিকার দিকে সচলে বেড়াইতে গিয়াছিলাম। আগে এই বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত ছিল আমার, যদিও নানা কারনে সম্পর্ক টিকিয়া রাখিতে পারি নাই। তবে আমার আত্নীয় স্বজনের মধ্যে অনেকেই উক্ত বাসায় নিয়মিত যাতায়াত করে বিধায় আমিও মাঝে মাঝে একটু উকি মারিতে যাই। তাহাদের তরকারিতে মাঝে মাঝেই ঝালের পরিমান বেশি হইলেও খাইতে মন্দ লাগে না। যাই হোক, খাইতে খাইতে তাহাদের দুই নম্বর আইটেমে গিয়া আমার পিত্তিটা একেবারেই জ্বলিয়া উঠিল। সিসিবি নিয়া অতিরিক্ত মাতামাতি করাতে এই এক রোগ হইয়াছে আমার। আমার নিজের লোক ওই খানে তরকারী পরিবেশন করিলে রাগে মাথা চিরিত চিরিত করিয়া উঠে।

একটু খুলিয়াই বলি।

ওইখানে গিয়া দেখি কনফু বলিয়া আমার এক প্রিয় পাচক এক অতি অখাদ্য পরিবেশন করিয়া বসিয়া আছেন। তাহাকে বরাবর শক্ত খাবার পরিবেশন করিতে দেখিয়াছি। এইবার দেখি নরম খাবার পরিবেশন মত্ত হইয়াছে। “ব্যাটা বেকুব ক্যাহাকা” বলিতে বলিতে খাবার চাখিতে লাগিলাম। গাঞ্জা খাইয়া লিখিয়াছে এইটা বুঝিতে বেশি সময় লাগিল না। প্রতিদিন একই তোয়ালেতে মুখ মুছিতে আমার আপত্তি নাই, কিন্তু প্রতিদিন একই জামা গায়ে দিয়া চলিতে আমার বিরাট আপত্তি, বেকুব দেখি তাহাই করিতেছে আর সবাইকে বুক চিতিয়া চিতিয়া তাহার জানান দিতেছে। ব্যাটা জানিতাম বিদেশ বিভুইয়ে কালাতিপাত করিতেছে, ওইখানে তাহার জানালায় চড়ুই পাখি ডাকাডাকি করে দেখিয়া আমার বুঝিতে আর বাকি রহিলনা যে ভীমরতি পাকাপাকি ভাবে ধরিয়াছে তাহাকে। বড়ই আফসুস হইতে লাগিল। দিন কয়েক আগেই কামরুলের সামনে তাহাকে ভীষন বকিয়াছি দেখিয়া আমার মায়াই হইতে লাগিল, বকুনি খাইয়া কি যেন মিন মিন করিয়া বলিয়াছিল, কামরুলের চেচানিতে তাহা ভাল মত ঠাহর করিতে পারি নাই। এক্ষনে তাহার জন্য বড়ই আফসুস হইতে লাগিল। আহা, মাথাটা মনে হয় পুরাই গিয়াছে, বড় ভাল ছেলে ছিল।

যাইহোক নীচে নামিতে লাগিলাম। এক্ষনে আমার রাগ গলিয়া পানি তো হইয়াছে, আমি তাহা এখন বরফ করিতে হয় কিনা উহাই চিন্তা করিতেছিলাম। মাথায় দিতে হইতে পারে। নীচে নামিতে নামিতে একটা গানও পাইলাম। “পাগল হইলেও গানটা ছাড়িতে পারে নাই” মায়া বাড়িতে লাগিল। খাদ্য খারাপ হয় নাই। চলে। এইবার খাদ্য সংক্রান্ত মন্তব্য তালিকা পড়িতে লাগিলাম। আর পড়িতে পড়িতে এমন অবস্থা হইল যে, কনফুর জন্য যে বরফ রেডি করিয়াছিলাম তাহা নিজের মাথায় ঢালিতে লাগিলাম। আহারে, তাহার বিবাহ হইয়া গিয়াছে, কনফু তাহাকে দুই বছর আগে বিবাহ করিয়া সুখে বগল বাজাইতেছে আর আমি কিনা তাহাকে দিবার নিমিত্তে প্রতিদিন প্রেম পত্র লিখিতেছি। আহা…… এই কে আছিস, আমার মাথায় পানি ঢালিতে থাক।
তাহার সহিত আমার প্রেম এখনও চার মাসও হয় নাই। সচলে তাহার লিখা পড়িয়া তাহার নিজের বাড়িতে মাঝে মাঝে উকি মারিতাম। উকি মারিতে মারিতে কখন যে তাহার প্রেমে হাবুডুবু খাইয়াছি বুঝিতেও পারিনাই। প্রেম পত্র গুলি বুকের মধ্যে বুক বুক করিয়া উথলিয়া উথলিয়া উঠিতেছিল। বলি বলি করিয়াও বলিতে পারি নাই। আহারে আমি এ কিসের মধ্যে নিজেকে জড়াইয়াছি। ওরে কে আছিস, আমার মাথায় পানি ঢাল।

অবশেষে মনকে কিছু বুঝাইয়া নিজেকে শান্ত করিলাম। আর বুক ভরিয়া তাহাদের আশীর্বাদ করিলাম। “বাছারা সুখে থাক আজীবন”।

২,৮৫৩ বার দেখা হয়েছে

৪০ টি মন্তব্য : “বাছারা, সুখে থাক আজীবন”

  1. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    বস সিরাম হইছে পুরা সিরাম :)) :))


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  2. টিটো রহমান (৯৪-০০)

    তিথির লেখা সবসময়েই আমার ভাল লাগে, অন্য অনেকের চেয়েই। লেখার ক্ষেত্রে আমি একটা বিষয় সবসময় বিচার করি কে কত টেস্টি করে লিখতে পারছে। তিথি পারে

    তারেক এবং তিথিকে শুভেচ্ছা :guitar: :guitar:


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
    • ফয়েজ (৮৭-৯৩)

      তিথির লেখা আসাধারনের উপরে যদি কিছু থাকে তাহলে তাই। ও আমাদের ক্যাডেট ফ্যামিলিতে চলে এসেছে দেখে আমি যে কি আনন্দ পেয়েছি বলে বুঝাতে পারব না।

      দুই জনের গল্প পড়ে আমার গল্প লিখতে ইচ্ছে করে না। আর একজনের খেরোখাতা পড়ে আমার খেরোখাতা লিখতে ইচ্ছে করেনা। কি আসাধারন ভাবে তিথি লেখে তার দিন লিপি।

      আশা করি তিথি এখানেও লিখবে। আশা করাটাকি খুব ভুল হবে?


      পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

      জবাব দিন
  3. মান্নান (১৯৯৩-১৯৯৯)

    সময়ের অভাবে সচলে যাতায়াত কমে গেছে ইদানিং। যেটুকু সময় পাই এখন তা চলে যায় সিসিবির পেছনে। তবে আপনার লেখা পড়ে মনে হচ্ছে সচলে অনেক কিছু মিস করছি। কি করবো, কাজে ফাঁকি দিয়ে হলেও সচলে ঢুঁ মারতে হবে।

    জবাব দিন
  4. ফয়েজ ভাই, লেখার এই ইশটাইল পড়ে হেবি মজা পাইলাম... 😀
    খবরটা শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। :clap:

    তারেক ভাই, তিথি ভাবি- অনেক অনেক শুভ কামনা এবং অভিনন্দন। :thumbup:

    জবাব দিন
  5. তারেক-তিথি
    সুখে থাক আজীবন। :clap: :clap:

    অফটপিকঃ
    তারেকের উপর আমি গোস্যা করছি। 🙁 ওর একটা সুন্দরী খালাতো শ্যালিকা আছে এই লোভ দেখাইয়া আমারে অনেকদিন ধইরা ঘুরাইতেছে। 😡 😡

    জবাব দিন
  6. জিহাদ (৯৯-০৫)

    প্রথমে ডরাই গেসিলাম। পরে কাহিনী বুঝে ঠান্ডা হৈলাম।

    তারেক ভাই, তিথি আপু - অনেক অনেক শুভ+ইচ্ছা

    ফয়েজ ভাই, এরকম একটা পোস্টের জন্য অভিনন্দন!


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  7. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)

    তারেক আর তিথির বিবাহ উপলক্ষ্যে একটা পোস্ট লিখসিলাম দুই বছর আগে...দ্বিতীয় বিবাহবার্ষিকীতে আবারো রি-উৎসর্গ করলাম...

    (পোস্টটা বাসি হইলেও শুভেচ্ছাটা কিন্তু টাটকা 😡 )

    প্রিয় গান : উৎসর্গ-কনফু ও তার কঙ্কাবতীকে


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  8. তৌফিক (৯৬-০২)

    নিঘাত তিথি আপা তাইলে আমাদের ভাবী। 😮 😮 😮

    জানতাম না।

    তারেক ভাই আর তিথি ভাবীকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা। :party:

    আর একটা আবদার আছে, ভাবী আমাদেরকে কেন বঞ্চিত করবেন? এখানেও তাঁকে লেখা দিতে হবে। B-)

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।