আমার পড়া যত বই!!!!!!!!!!!

লিস্টটা কম্পলিটেড না,আরো অনেক বইয়ের নাম লেখা বাকি!!

আর পড়াও বাকি অনেক বই। যতগুলো লিখতে পারলাম দিলাম…………

হুমায়ুন আহমেদ
1. মৃন্ময়ীর মন ভালো নেই
2. অনিল বাগচির একদিন
3. জোছনা ও জননীর গল্প
4. সেদিন চৈত্র মাস
5. নীল মানুষ
6. দ্বিতীয় মানব
7. হিমুর দ্বিতীয় প্রহর
8. হিমু মামা
9. হিমু ও কয়েকটি ঝিঁঝিঁ পোকা
10. চৈত্রের দ্বিতীয় দিবস
11. হিমুর হাতে পাঁচটি নীলপদ্ম
12. কুটুমিয়া
13. কুহুরাণী
14. বাঘবন্দী মিসির আলী
15. ময়ূরাক্ষী
16. দরজার ওপাশে
17. পারাপার
18. বৃষ্টিবিলাস
19. বোতলভূত
20. পিপলী বেগম
21. ভয়ঙ্কর ভূতুরে
22. একীকান্ড!
23. হলুদ হিমু কালো র‌্যাব
24. লিলুয়া বাতাস
25. আমি ও কয়েকটি প্রজাপতি
26. তেতুল বনে জোছনা
27. উড়ালপঙ্খি
28. ওমেগা পয়েন্ট
29. ফিহা সমীকরণ
30. নিউটনের ভুলসূত্র
31. ইরিনা
32. শূণ্য
33. তারা তিনজন
34. ভয়
35. এবং হিমু……
36. রুপার পালঙ্ক
37. মীরার গ্রামের বাড়ি
38. হরতন ইশকাপন
39. শুভ্র
40. এই শুভ্র,এই!
41. সৌরভ
42. আমিই মিসির আলী
43. দিনের শেষে
44. পেন্সিলে আঁকা পরী
45. আগুনের পরশমণি
46. পোকা
47. বৃহন্নলা
48. আঙ্গুল কাটা জগলু
49. দারুচিনি দ্বীপ
50. রুমালী
51. তুমি আমায় ডেকেছিলে ছুটি নিমন্ত্রনে
52. নি
53. ইমা
54. মিসির আলীর অমীমাংসিত রহস্য
55. আজ আমি কোথাও যাব না
56. সকল কাঁটা ধন্য করে
57. সে আসে ধীরে
58. তিথির নীল তোয়ালে
59. যখন গিয়েছে ডুবে পঞ্চমীর চাঁদ
60. কুহক
61. চলে যায় বসন্তের দিন
62. ছবি বানানোর গল্প
63. সূর্যের দিন
64. নিষাদ
65. হিমুর রূপালী রাত্রি
66. দেবী
67. দি এক্সরসিস্ট
68. শ্যামল ছায়া
69. বোকাভূ
70. লীলাবতী
71. পাখি আমার একলা পাখি
72. তোমাকে
73. আমার আছে জল
74. একজন মায়াবতী
75. সে ও নর্তকী
76. আকাশ জোড়া মেঘ
77. আয়না
78. এইসব দিনরাত্রি
79. বিপদ
80. কে কথা কয়
81. জল জোছনা
82. তন্দ্রা বিলাস
83. মেঘ বলেছে যাব যাব
84. নন্দিত নরকে
85. শঙ্খনীল কারাগার
86. অচিনপুর
87. নির্বাসন
88. অন্যভুবন
89. অয়োময়
90. ছেলেটা
91. কহেন কবি কালিদাস
92. ফেরা
93. জীবনকৃষ্ণ মেমোরিয়াল হাই স্কুল
94. তোমাদের জন্য ভালোবাসা
95. সাজঘর
96. কেউ কোথাও নেই
97. যদিও সন্ধ্যা
98. দেখা-না দেখা
99. বৃষ্টি ও মেঘমালা
100. অনীষ
101. জনম জনম
102. কিছু শৈশব
103. আজ হিমুর বিয়ে
104. গৌরিপুর জংশন
105. রজনী
106. কৃষ্ণপক্ষ
107. নিশীথিনী
108. মিসির আলীর চশমা
109. হিমু রিমান্ডে
110. মহাপুরুষ
111. নুহাশ ও আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপ
112. হিমু
113. কিছুক্ষণ
114. মৃন্ময়ী
115. ইস্টিশন
116. আমি ও আমরা
117. পরীর মেয়ে মেঘবতী
118. নীলহাতি
119. তোমাদের জন্য রূপকথা
120. মজার ভূত
121. মন্দ্রসপ্তক
122. নবনী
123. কবি

মুহম্মদ জাফর ইকবাল

124. কপোট্রনিক সুখদুঃখ
125. ট্রাইটন একটি গ্রহের নাম
126. টুকুনজিল
127. বিজ্ঞানী সফদর আলীর মহা মহা আবিষ্কার
128. ক্রুগো
129. যারা বায়োবট
130. মহাকাশে মহাত্রাস
131. ফোবিয়ানের যাত্রী
132. ফিনিক্স
133. ত্রাতুলের জগৎ
134. ক্রোমিয়াম অরণ্য
135. অবনীল
136. ইরন
137. টুকি ও ঝা এর (প্রায়)দুঃসাহসিক অভিযান
138. প্রজেক্ট নেবুলা
139. বেজী
140. সুহানের স্বপ্ন
141. রুহান রুহান
142. পৃ
143. নয় নয় শুণ্য তিন
144. ত্রিনিত্রি রাশিমালা
145. জলজ
146. রবোনগরী
147. মেতসিস
148. নিঃসঙ্গ গ্রহচারী
149. একজন অতিমানবী
150. নায়ীরা
151. শাহনাজ ও ক্যাপ্টেন ডাবলু
152. সায়েরা সায়েন্টিস্ট
153. দিপু নাম্বার টু
154. হাত কাটা রবিন
155. বুবুনের বাবা
156. নিতু ও তার বন্ধুরা
157. কাজলের দিনরাত্রি
158. আমার বন্ধু রাশেদ
159. আকাশ বাড়িয়ে দাও
160. বিবর্ণ তুষার
161. রাজু ও আগুনালির ভূত
162. বক্কুল্লাপ্পু
163. বাচ্চা ভয়ঙ্কর কাচ্চা ভয়ঙ্কর
164. স্কুলের নাম পথচারী
165. পিশাচিনী
166. জারুল চৌধুরীর মানিকজোড়
167. টি-রেক্সের সন্ধানে
168. ওমিক্রনিক রূপান্তর
169. অনুরন গোলক
170. সিস্টেম এডিফাস
171. শান্তা পরিবার
172. লিটু বৃত্তান্ত
173. ক্রসফায়ার ও অন্যান্য
174. প্রিয় গগণ ও অন্যান্য
175. কাবিল কোহকাফী
176. সবুজ ভেলভেট
177. আধডজন স্কুল
178. গল্প সমগ্র-১
179. ক্যাম্প
180. দুষ্টু ছেলের দল
181. মোহাব্বত আলীর একদিন
182. নুরুল ও তার নোটবই
183. দেখা আলোর না দেখা রূপ
184. আমি তপু
185. বিজ্ঞানী অনীক লুম্বা
186. সাধাসিধে কথা
187. তিন্নি ও বন্যা
188. মেকু কাহিনী
189. আমড়া ও ক্র্যাব নেবুলা
190. দস্যি ক’জন
191. দুঃস্বপ্নের দ্বিতীয় প্রহর
192. কাঁচসমুদ্র
193. প্রেত
194. জলমানব
195. ছায়ালীন
196. আমেরিকা
197. বৃষ্টির ঠিকানা
198. নিশিকণ্যা
199. অন্ধকারের গ্রহ
200. ও

সুমন্ত আসলাম
201. বাউন্ডুলে-১
202. বাউন্ডুলে-২
203. বাউন্ডুলে-৩
204. বাউন্ডুলে-৪
205. বাউন্ডুলে-৫
206. তুমি রবে নীরবে
207. কেবলই
208. স্বপ্নবেড়ি
209. অথচ আজ বসন্ত
210. মিঃ 420
211.

আনিসুল হক

212. দুঃস্বপ্নের যাত্রী
213. বোকা গোয়েন্দা
214. ৫১ বর্তী
215. গাধা
216. অশ্বডিম্ব
217. মেষ রে মেষ,তুই আছিস বেশ
218. সেই গাধা,সেই পানি
219. স্বপ্নের মানুষ
220. গোধূলী
221. আলো অন্ধকারে যাই
222. ছাগলতন্ত্র
223. কৌতুকের ছলে বলে যাই
224. বারোটা বাজার আগে
225.
226.
227.

সেলিনা হোসেন
228. লারা
229. হাঙ্গর নদীর গ্রেনেড
230. পুর্ণ ছবির মগ্নতা

শাহরিয়ার কবির
231. বার্চবনে ঝড়
232. একাত্তরের যীশু
233. নুলিয়াছড়ির সোনার পাহাড়
234. কার্পেথিয়ানের কালো গোলাপ
235. বলকান থেকে বাল্টিকঃক্রান্তিকালের মানুষ

সত্যজিৎ রায়
236. যত কান্ড কাঠমুন্ডুতে
237. দার্জিলিং জমজমাট
238. নয়ন রহস্য
239. প্রফেসর শঙ্কুর ডায়েরী
240. সোনার কেল্লা
241. কৈলাসে কেলেঙ্কারী
242. গোরস্তানে সাবধান
243. শঙ্কু একাই একশ
244. মোল্লা নাসিরুদ্দিনের গল্প
245. ব্রাজিলের কালোবাঘ
246. রয়েল বেঙ্গল রহস্য
247. ছিন্নমস্তার অভিশাপ
248. ভূস্বর্গ ভয়ংকর
249. গোসাইপুর সরগরম
250. রবার্টসনের রুবি
251. এবার কান্ড কেদারনাথে
252. গ্যাংটকে গন্ডগোল
253. বাদশাহী আংটি
254. পুনশ্চ প্রফেসর শঙ্কু
255. হত্যাপুরী
256. জবর বারো
257. ফেলুদা প্লাস ফেলুদা
258. পাহাড়ে ফেলুদা
259. জয় বাবা কেদারনাথ
260. তারিণী খুড়োর কীর্তিকলাপ
261. প্রফেসর শঙ্কু
262. প্রফেসর শঙ্কুর কান্ডকারখানা
263. ফেলুদা এন্ড কোং
264. মহাসঙ্কটে শঙ্কু
বিভুতিভূষণ বন্দোপাধ্যায়
265. আরণ্যক
266. পথের পাঁচালী
267. মেঘমল্লার
সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
268. সেই সময়
269. সেই সময়-২য় খন্ড
270. সরল সত্য
271. একা ও কয়েকজন
272. পূর্ব পশ্চিম
273. পূর্ব পশ্চিম-২
274. একাকিনী
275. ফিরে আসা
276. সপ্তকণ্যা
277. স্বপ্ন লজ্জাহীন
278. সুখ-অসুখ
279. অচেনা মানুষ
280. কালো রাস্তা সাদা বাড়ি
281. বসন্ত দিনের ডাক
282. পায়ের তলার মাটি
283. জল জঙ্গলের কাব্য
284. এক জীবনে
285. রক্ত
286. অর্ধেক জীবন
287. কৈশোর
288. নদীর পাড়ে খেলা
289. সোনালী দুঃখ
290. হঠাৎ দেখা

তিন গোয়েন্দা
ইমদাদুল হক মিলন
291. পলাশ ফুলের নোলক
292. পরাধীনতা
293. বনমানুষ
294. ভূতের নাম রমাকান্তকামার
লুৎফর রহমান
কাজী নজরুল ইসলাম
আহসান হাবীব
295. ৯৯৯টা জোকস ১টা ফাও
296. ১০০১টা জোকস ১টা মিসিং
297. ফোর টুয়েন্টি ফোর আওয়ার জোকস
সমরেশ বসু
298. বিভাস
299. একটি অস্পষ্ট স্বর
300. নাটের গুরু
সমরেশ মজুমদার
301. মেয়েরা যেমন হয়
302. দৌড়
303. উত্তরাধিকার
304. কালবেলা
305. কালপুরুষ
306. বুনো হাঁসের পালক
307. জালবন্দী
308. শেষের খুব কাছে
309. বন্দীনিবাস
310. আট কুঠুরী নয় দরজা
311. মধ্যরাতের রাখাল
312. হীরে বসানো সোনার ফুল
313. সাতকাহন
314. সাতকাহন-২য় খন্ড
315.

মোস্তফা মামুন
316. ক্যাডেট নাম্বার-৫৯৫
317. কলেজ ক্যাপ্টেন
হুমায়ূন আজাদ
318. ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইল
319. বুক পকেটে জোনাকী পোকা
320. নারী
321. লাল নীল দীপাবলি
322. একটি খুনের স্বপ্ন
শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
323. মানবজমিন
324. দূরবীন
325. পার্থিব
326. তীরন্দাজ
327. সাদা বেড়াল কালো বেড়াল
বুদ্ধদেব বসু
328. সুখের কাছে
329. রাত ভ’র বৃষ্টি
330. তিথিডোর
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস
331. চিলেকোঠার সেপাই
332. সংস্কৃতির ভাঙ্গা সেতু
আব্দুল্লাহ আবু সাইয়্যিদ
333. রস্ট্রাম থেকে
334. বন্ধ দরোজায় ধাক্কা

জহির রায়হান
335. কয়েকটি মৃত্যু
336. আর কত দিন
337. তৃষ্ণা
338. শেষ বিকেলের মেয়ে
339. বরফগলা নদী
340. হাজার বছর ধরে
341.
সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়
342. লোটা কম্বল-১
343. লোটা কম্বল-২
344. দুটি দরজা
Issac Asimv
345. Foundation
346. Foundation and Earth
World Classic
Dan Brown
347. Angels & Demons
348. The Da Vinci Code
349. Digital Fortress
350. Deception Point

J.K. Rowling
351. Harry Potter and Philosophers Stone
352. Harry Potter and Chamber of Secrets
353. Harry Potter and Prisoner of Azkaban
354. Harry Potter and Goblet of Fire
355. Harry Potter and Order of Phoenix
356. Harry Potter and Half Blood Prince
357. Harry Potter and

358. যমুনাবতী-আল মাহমুদ
359. দুরন্ত অভিযান-সঙ্কর্ষণ রায়
360. হিমছড়ির ভয়ঙ্কর-আলী ইমাম
361. বেতাল পঞ্চবিংশতি-ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর
362. জায় জঙ্গল-শামসুদ্দিন আবুল কালাম
363. নভেরা-হাসনাত আবুল হাই
364. ইডিপাস-সফোক্লিস(অনূদিত)
365. ওথেলো-শেক্সপিয়র(কবীর চৌধুরী,মুনীর চৌধুরী অনূদিত)
366. ক্লাস সেভেন ১৯৭৮-শাকুর মজিদ
367. শ্রদ্ধেয় রাজধানী-হানিফ সঙ্কেত
368. কৃষ্ণকান্তের উইল-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
369. কপালকুণ্ডলা- বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
370. ত্রিপদী-শওকত আলী
371. ঈশ্বরের বাগান-অতীন বন্দোপাধ্যায়
372. বাঙ্গালীর ইতিকথা-আখতার ফারুক
373. আয়না- আবুল মনসুর আহমেদ
374. আমার দেখা রাজনীতির ৫০ বছর-আবুল মনসুর আহমেদ
375. মুক্তচিন্তা-রতনতনু ঘোষ
376. উতল হাওয়া-তসলিমা নাসরিন
377. পঞ্চতন্ত্র-সৈয়দ মুজতবা আলী
378. চাঁদের অমবস্যা-সৈয়দ ওয়ালীঊল্লাহ
379. একাত্তরের দিনগুলি-জাহানারা ইমাম
380. ক্যান্সারের সাথে বসবাস- জাহানারা ইমাম
381. অনুর পাঠশাল-মাহমুদুল হক
382. আমাদের জাতিসত্তার বিকাশধারা-মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান(খাস রাজাকার)
383. জন্তুর ভেতর মানুষ-মমতাজ উদ্দিন আহমেদ
384. জেল হত্যাকান্ড-অধ্যাপক আবু সাইয়্যিদ
385. মুক্তিযুদ্ধের অপ্রকাশিত কথা-আতিকুর রহমান
386. উত্তাল মার্চ-১৯৭১-আহমেদ ফারুক হাসান
387. পুর্ব বাঙলার ভাষা আন্দোলন ও তৎকালীন রাজনীতি-১ম খন্ড-বদরুদ্দিন উমর
388. পায়রাবন্দের শেকড় সংবাদ-মোনাজাতউদ্দিন
389. কাছের মানুষ-সুচিত্রা ভট্টাচার্য
390. নীল ঘূর্ণি- সুচিত্রা ভট্টাচার্য
391. গাভী বৃত্তান্ত-আহমেদ ছফা
392. পুষ্প,বৃক্ষ এবং বিহংগ পুরাণ- আহমেদ ছফা
393. মুক্তিযুদ্ধের আগে ও পরে-পান্না কায়সার
394. নীরা-ইসমত চুগতাই
395. আগামী দিনের গল্প-মঈনুল আহসান সাবের
396. আঘাত-আব্দুস শাকুর
397. লেবুমামার সপ্তকান্ড-
398. ঐ দেখা যায় বাংলাদেশ- মঈনুল আহসান সাবের
399. গোধূলিয়া-নিমাই ভট্টাচার্য
400. মেমসাহেব- নিমাই ভট্টাচার্য
401. স্পিরিট অব ইসলাম-সৈয়দ আমির আলী
402. কায়সার ও কিসরা-নসীম হিজাজী

৬,২০৬ বার দেখা হয়েছে

৪৩ টি মন্তব্য : “আমার পড়া যত বই!!!!!!!!!!!”

  1. আহ্সান (৮৮-৯৪)

    বুঝছি...। বয়সটা ই এমন...। কলেজে থাকতে আমি হিসাব রাখছি ডাইরীতে লেইখা...আর আজ কাল কার কম্পিউটার যুগের পোলাপান লিখতাছে ব্লগে...তফাত শুধু এইটুকু...।। কিন্তু ঘটনা এক...আসলে ক্যাডেট তো...।।

    জবাব দিন
  2. রায়হান আবীর (৯৯-০৫)

    বাহ!! অনেক বই পড়ছ তো তুমি...এখানে অনেক আছে যেইগুলা তোমার সমান বয়স থাকলে আমি হজম করতে পারতাম না।

    তুমি মনে হয় শহীদুল জহির এর গল্প পড়োনাই। অবশ্যই পড়ে নিও।

    সুনীলের প্রথম আলোও দেখি লিস্টে নাই। দুই দিনের দুনিয়া। এইটাও তাড়াতাড়ি শেষ কইরা লাউ।

    জবাব দিন
  3. I am sorry to say that I am alarmed with your list of books. Why do you have read all of Humayun Ahmed's books? Just read 4 or 5 good ones or may be 10 books at most. The rest are all junk. So is true with a lot of other books in your list, Imdadul Haque Milon, Zafar Iqbal - they wrote 4 or 5 good books. The rest of the books - they write just to earn money.

    Have you read all the Bengali literature classics? Don't see them in your list. May be you should have a writing career, otherwise all's a waste. Don't see that you are interested in any non-fiction books where you can really learn something.

    I think you should start developing a good writing skill, that's the best use of your time. I am lot older than you, and I have seen many cadets and other friends not go anywhere with random junk reading all thoughout their life. If it's just for pleasure, read good books or do/learn other creative things that you enjoy. There are so many good books in the world (literally millions), and our time is so limited, I am very very sorry to see this list that you have read so far. It's good that you are reading - but please read something worthwhile - please. 100 books by Humayun ahmed - what a terrible waste. Shahriar, please start reading good books in English now if you are done reading all Bengali classics. Your list only lists contemporary writers, why not other great Bengali writers of the past? Please read some history, science, arts, travel books, may be learn programming. I have passed your age many years ago, seen many people. So please think what I wrote.

    It's very good that you enjoy reading. But silly enjoyment is not the purpose of reading books - you can do other silly things to pass boring time. I hope you did not mind - keep up your reading but there's only so much you can read - so read selectively. And do creative work - creative writing is a good place. May be you have some ideas/thoughts totally unique that other's do not have, start the habit of writing - you will be a great writer then.

    জবাব দিন
    • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

      সোহেল ভাই,

      আপনার অনেক কিছুর সাথেই সহমত।বিশেষ করে আমাদের সময় এত কম অথচ কত অসাধারণ বই রয়েছে পড়ার মত- এ কথাটির সাথে।আর হুমায়ুন আহমেদের বেশির ভাগ বই যে আবর্জনার চেয়ে খুব বেশি কিছু নয়(সব বই বলছিনা,কিন্তু আমার কাছে বেশির ভাগ বই এ তাই মনে হয়েছে-সস্তা জোক আর একই রকম চরিত্র,ঘটনার পুনরাবৃত্তি)সেটার সাথেও আমি একমত।তবে এত অল্প বয়েসি একটা ছেলে অনেক সাদামাটা বইয়ের সাথে সাথে এতগুলো ভাল বইও যে পড়েছে-এটি আমার কাছে খুবই আশাব্যঞ্জক একটি ব্যাপার বলে মনে হয়েছে।ওর বয়েসি ছেলেগুলো যখন এমএসএন,ফেসবু্‌ক,র‌্যাপ সং আর ডিভিডি মুভি দেখে পুরো সময় কাটায়,সেখানে ওর এই বইয়ের লিস্ট আমার কাছে প্রশংসনীয় বলেই মনে হয়েছে।

      তার পরও বলি,বড় ভাই হিসেবে আপনার এই সচেতনতা দেখে খুব ভাল লাগল ভাইয়া।ওর সাথে সাথে আমিও উপকৃত হলাম।অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

      জবাব দিন
      • I did not mean to be so harsh, Shahriar. Indeed, your list of books is quite impressive - you have read a large number of good books. I was just a little shocked that out of 400 books you list, the first 200 books are by Humayun Ahmed and Zafar Iqbal. I am 34 now. When I was 17 like you, I would have argued that they are the best writers in Bengali literature. But now I think they are average or below average. It's very interesting to read them as a teenager - enough suspense, mystery, a little science trivia, etc and then the perception that they are both some sort of intellectuals - Ph.D.s in science (you need a degree to be a professor not a writer) - so their books must be worth something. In our generation, people also used to read a lot of Masud Rana - Sheba prokashoni series (which are not considered literature) which parents did not like. And then books by Humayun Ahmed and Imadadul Haque Milon substituted that, and it's considered literature. Indeed a few of their early books are good - that's how they got into writing success - but it's no good now. Ask any of their past fans who are in their thirties, it was not worth spending so much time reading so many of their books. They were slightly better than Sheba prokashoni books in that they are original, but does not have a great value as a piece of literature. Zafar Iqbal's science fiction books you can argue is good to read. But still his best book is his first one - Kopotronic.., and writing hundred's of books is more like earning a living, and entertaining children, and not literature. I found a lot of books to be silly although it contains some science ideas - he is experimenting, and meeting publisher's demands by coming out with 4/5 books in Ekushe boimela which no one is going to read after 30 years. Good writers do not write hundreds of thin books.

        You read Humayun's book 'Kobi' - the title he plagiarized. 'Kobi' is a famous book by Tarashankar which is considered one of the greatest novels in Bangla literature. I do not see that in your list.

        My advice - there are so many books in college library - Bengali literaure, English literature, so many kinds of nonfiction especially autobiography of famous people are really interesting to read.

        Keep up your habit of reading. For your age you have read quite a lot. Keeping all the knowledge in your head would be very selfish. Writing may not be that fun as reading - but really you should develop writing habit. I do not have enough time to read a lot of books now other than my specific area of research. When you get older you will also face this problem and realize that time is so limited and although you want to read this or that, you do not get the time. And some people who I know have read so much as a teenager, now do not read anything other than news, time and interest both are lacking in the professional world. That's why I am emphasizing reading worth while books. You can target a thousand good books in bengali and several thousand great books in English that are to your liking, and may end up, over your lifetime, reading only a fraction of them, but still getting maximum from your reading time.

        And don't forget that you have to keep your academics good - that will ensure that you have more reading time in the future.

        জবাব দিন
    • শাহরিয়ার (২০০৪-২০১০)

      হুমায়ুন আহমেদ ৪-৫টা পড়ব??
      আমার পড়াশুনাটা হয়েছে ভালো লাগা থেকে......শুরুর দিকে সাহিত্যবোধ তেমন ছিল না।
      ব্যাপারটা অনেকটা বিবর্তনের মতবাদ দিয়ে ব্যাখ্যা করা যেতে পারে।আজকাল আমাদের অনেকেই হুমায়ুন আহমেদ নাম শুনে নাক সিটকান।এটার কতটুকু সত্যি উপলব্ধি করে কতটা জাতে ঊঠার জন্য আমার সন্দেহ আছে।
      যখন খুব ছোট ছিলাম,বই পড়াতে পারতাম না তখন আম্মুর কাছে,দাদুর কাছে গল্প শুনতাম।সেটা ছিল প্রথম ধাপ!!!
      তারপর কমিকসটাই অনেক আনন্দদায়ক ছিল আমার জন্য,রঙ্গিন ছবি আর তাতে গল্প,সেটা তখন আমার কাছে আমার প্রিয় মানিকের যে কোনো লেখার চেয়ে প্রিয় ছিল।আমার হাতে তখন যদি মানিক বন্দোপাধ্যায়ের কোন ছোট গল্প ধরিয়ে দিতেন,সেটা আমার কাছে কেমন দুর্বোধ্য লাগত সেটা চিন্তা করেন।তারপর এল ঠাকুরমার ঝুলি,রাশিয়ান রূপকথা,তিন গোয়েন্দা......সেই ধারাবাহিকতাতেই জাফর ইকবাল আর হুমায়ুন আহমেদ!তখনো পশ্চিম বঙ্গের লেখকদের বই বড় মনে হত।তারপর যখন হুমায়ুন আহমেদ অনেক পড়ে ফেলছি,বড় বই পড়ার মানসিকতা তৈরি হয়েছে ভেতর ভেতর...তখনই তুলে নিলাম সমরেশের উত্তরাধিকার।সেদিন যে আনন্দ পেয়েছিলাম,সেটাই পরবর্তীতে আমাকে বড় বই পড়ার প্রতি আকর্ষণ যুগিয়েছে।এখন বলেন তো আমাকে যদি সেই প্রস্তুতি না থাকত আমি কি সেই বড় বইগুলো দূরে সরিয়ে রাখতাম না!!!!

      আবার হুমায়ুন আহমেদে আসি...হিমুর বই পরে অনেকে হিমু হতে চায়,মিসির আলীকে তো মনে প্রাণে ভক্তি করে!
      আমার ক্লাসের কয়টা ছেলে পাঠ্যপুস্তক ছাড়া অন্য বই পড়ে।ভাই এখন প্রযুক্তির যুগ।মানিক আর রবীন্দ্রনাথের টান এখন আর নাই।এগুলো পড়ার জন্য চিন্তা করতে হয়,সচেতন মানবিক বোধ থাকতে হয়।সেই কন্ডিশনে সবাই চায় অন্তত ক্যাডেটরা,কম সময়ে বেশী মজা!
      আমার যেসব বন্ধুরা বই পড়েই না,যারা মনে করে এত কঠিন কাজ আমার না,তাদের আমি হিমু তুলে দেই।তারা বিভুতির মেঘমল্লার পড়ে মজা পায় না,হিমুর আজগুবিটা তাদের বেশী টানে।তবুও বই পড়ুক।
      পড়তে পড়তে একটা রুচি হয়।গেমসের লেভেল ক্রস এর মত।আমি চাই হিমু পড়তে পড়তে তারা সেই লেভেল ক্রস করুক,নিজেই পরের ধাপে যাক...।বিবর্তিত রুচিতে তারা সুনীলের লেভেল ক্রস করুক......মানিকের রাজ্যে আসুক!!!!!
      সেই বিবির্তনের সময়ই আমার হুমায়ুন আহমেদ পড়া।অবশ্য এখনো পড়ি,কোনো বইকে আমি অমর্যাদা করি না।
      হসপিটালে কিছুদিন আগে জ্বর নিয়ে এডমিট।জ়্বরের মাঝে আমার কিন্তু মানিকের শ্রেষ্ঠ গল্প পড়তে পারতেসিলাম না।একলাইন বাদ দিলেই পরেরটা বোঝতে কষ্ট হয়।তখন আমি হুমায়ুন আহমেদের কবি বইটা পড়ে রিল্রফ পাইসিলাম।তখনি হুমায়ুনের প্রতি অবহেলাটা কেটে যায়।হুমায়ুম আহমেদকে কেউ বাংলা সাহিত্য থেকে বাদ দিতে পারবেন না।বাংলা সাহিত্যে পাঠক সৃষ্টি তার অবদান অন্সীকার্য।
      হুমায়ুন আহমেদকে যদি বাদ দেন তবে শরৎচন্দ্রকেও বাদ দিতে হবে।দুজনেই তুমুল জনপ্রিয় কথাসাহিত্যক...শুধু সময়টা ভিন্ন।আর মানিক আর রবীন্রনাথ ছাড়া বাংলা সাহিত্যে কোন জীবনের শিল্পী ছিল না,যারা বাস্তবতাকে অস্বীকার করেননি।
      সো,আমার কথা মানিক-রবীন্র ছাড়া গদ্য সাহিত্যে সবাই প্রায় একই...।হয়ত দু একটা মাস্টারপিস তৈরি করে গেসেন,তেমন মাস্টারপিস হুমায়ুন আহমেদেরও আছে!

      কেঊ যদি সুস্থ তর্কে বা আলোচনায় আসতে চান স্বাগতম!!!আমি এই বিষয়ে কথা বলতে খুব আগ্রহী!!!


      People sleep peaceably in their beds at night only because rough men stand ready to do violence on their behalf.

      জবাব দিন
      • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

        পাঠক সৃষ্টিতে অবদান নিয়ে হুমায়ুন আহমেদকে খাটো করছিনা।আমার নিজের বই পড়ার শুরু "বোতলভুত" দিয়ে।কিন্তু হুমায়ুন আহমেদকে শরতচন্দ্রের(খন্ড ত আসছে না) সাথে তুলনা করাটা একটু বালখিল্যতার পর্যায়ে পড়ে বলে আমার ধারণা।একজন সৃষ্টি করেছেন মহেষ,বিলাসীর মত গল্প আর শ্রীকান্তের মত উপন্যাস,আরেকজনের গুটি কয়েক বই বাদে বাকি সব গুলো হচ্ছে "আমি সৈয়দ বংশের লোক, আমার কাজ করা মানায়না তাই চুরি করি" টাইপের সস্তা রসিকতার পুনরাবৃত্তি।

        আশা করি ব্যাপারটা বুঝাতে পেরেছি।

        জবাব দিন
        • রায়হান আবীর (৯৯-০৫)

          প্রথমেই তুমি যেই পাব্লিকরা বিরোধিতা করবে তাদের একহাত দেইখা নিলা।
          '''আজকাল আমাদের অনেকেই হুমায়ুন আহমেদ নাম শুনে নাক সিটকান।এটার কতটুকু সত্যি উপলব্ধি করে কতটা জাতে ঊঠার জন্য আমার সন্দেহ আছে।'''

          যাই হোক এখন আসল কথাই আসি। হুমায়ুন আহমেদকে নিয়ে কথা বলতে যেয়ে তুমি যা কইলা সেইটা হলো হুমায়ুন আহমেদকে আমরা ফেলে দিতে পারিনা। কারণ তার পাঠক প্রিয়তা আছে। ভাইগো, পাঠকপ্রিয়তা থাকলেই কি তিনি উচুঁদরের লেখক হয়ে গেলেন? কিছুতেই না। তাহলে তো রসময় গুপ্তকেও ফেলে দেওয়া যায় না। তার নিজেরও তো পাঠক প্রিয়তা হুমায়ুন আহমেদ এর চেয়ে কোন অংশে কম না। 😛 😛

          হুমায়ুন আর শরৎ এর তুলনার কথা তো মাসরুফ ভাই বললোই। এখন হুমায়ুন সাহেবের সাহিত্য নিয়া দুইটা কথা বলি। এইটা আমার নিজের কথা না। এক জায়গায় পড়ছিলাম। আমার পছন্দ হৈছে।

          হুমামুন সাহেবের বেশীরভাগ লেখার বৈশিষ্ট্য হচ্ছে সিরিয়াস বিষয় নিয়ে তামাশা করা। সুতরাং হুমায়ূন আহমেদ মানে শুধু সহজ ভাষাই নয়। তার চরিত্র, তার দৃশ্য কল্পনার মধ্যেই রয়েছে রস যোগানের চেষ্টা। পাঠককে আমোদিত করার পরিকল্পনা থেকেই এসবের সৃষ্টি। তার ভাষাভঙ্গি প্রধানত ব্যবহৃত হয় চুটকিতে বা রম্যরচনায়। কিন্তু উপন্যাসের মঞ্চে একে তুলে আনেন হুমায়ূন আহমেদ। সেটা কার্যকরিও হয়। কারণ তার কাহিনীর মূল সুরের জন্য, তার উদ্দিষ্ট পাঠকশ্রেণীর জন্য এরকম ভাষাভঙ্গিই যথার্থ বলে প্রমাণিত হয়।

          এই জিনিসগুলায় তুমি বিরোধিতা করবানা জানি। তাও বললাম।

          শেষ কথা হইলো গিয়া সুনীল-মানিকদের স্টেজে যাওয়ার জন্য যে হালকা বই দিয়ে শুরু করতে হবে এইটা ঠিক না। ছোটবেলায় আমি তিন গোয়েন্দা, একটু বড়বেলায় মাসুদ রানা, কিচ্ছু পড়ি নাই। তারপরও আমার বই পড়ার অভ্যাস গড়ে উঠছে।

          জবাব দিন
          • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

            রায়হান রে, বুকে হাত দিয়া কোন শিক্ষিত বাঙ্গালি কি কইতে পারব যে সে জীবনে রসময় গুপ্তের নাম শুনে নাই? 😀 😀

            আর শাহরিয়ার,হুমায়ুন আহমেদের একেবারে সব কিছুই যে সস্তা সেইটাও বলি নাই।উনার একটা বই আছে হোটেল গ্রেভার ইন।ওইখানে "বাংলাদেশ নাইট" নামের একটা গল্পে মিজান নামের এক বাংলাদেশি ছাত্রের একা একা বাংলাদেশ ফেস্টিভাল উদযাপন করার কথা আছে।গল্পের শেষে দেখা যায় অপ্রত্যাশিতভাবে দূর দূরান্ত থেকে অনেক বাংলাদেশি অনুষ্ঠানে যোগ দেয়।সবাই একসাথে গায়-"সকল দেশের সেরা সে যে আমার জন্মভূমি"।এই অনুষ্ঠান নিয়ে আমেরিকান এক সাংবাদিক পত্রিকায় লিখেন-"একটি অত্যন্ত আবেগপ্রবন জাতির অনুষ্ঠানে যোগদান করার সৌভাগ্য আমার হয়েছে।অনুষ্ঠানের শুরুতে দেশের গানের সাথে সাথে দেখা গেল প্রত্যেকের চোখে জল।আমি আমার সুদীর্ঘ ২০ বছরের সাংবাদিক জীবনে এত মধুর দৃশ্য দেখিনি..."
            এই যে দেখ ভাই,আমি এইটা ভুলভাল ভাবে লিখতেসি তাতেই আমার চোখে পানি চলে আসছে।যেই লেখকের এত ক্ষমতা তাকে কোনভাবেই অগ্রাহ্য করা যায়না।কিন্তু এই মানুষটাই যখন দেখি তার "শুভ্র"গল্পে শুভ্রের মা কিভাবে বাসার আশ্রিতা মেয়েটা তার অন্তর্বাস জানালায় ঝুলিয়ে শুভ্রের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছে এরকম ভাবনার বর্ণনা দেন,তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাবোধ সংগত কারণেই কমে যায়।এছাড়া আমি যদিও লেখকের ব্যক্তিগত জীবনকে তার লেখার সাথে মিলিয়ে ফেলতে আগ্রহী নই,তারপরেও তিনি যখন তাঁর খুব সাম্প্রতিক ভ্রমন কাহিনী বা আত্মজৈবনিক লেখাগুলোতে(এ মুহূর্তে নাম মনে আসছে না)তাঁর সেই ব্যক্তিগত জীবনের কীর্তির(!!) পক্ষে সাফাই গাইতে চান,সত্যি কথা বলতে কি, আমার বমি করতে ইচ্ছা করে।

            প্লাসে মাইনাসে মিলিয়েই মানুষ।কিন্তু লেখক হুমায়ুন আহমেদের ক্ষেত্রে মাইনাসের পাল্লাটাই ভারী বলে পাঠক হিসেবে আমার মনে হয়েছে।সেটা তার ব্যক্তিগত জীবনের জন্যে নয়,তাঁর লেখার মানের কারণেই।

            আমার ধারণা ছিল ডিভিডি আর এমএসএনের এই যুগে আমরা বইপ্রেমীরা বিপন্ন প্রজাতি।তোমাকে দেখে ভাল লাগল।আরো অনেক বই পড়বা আশা করি।

            জবাব দিন
            • সামিয়া (৯৯-০৫)

              হুমায়ুন আহমেদের নন্দিত নরকে, এইসব দিনরাত্রি কিংবা শঙ্খনীল কারাগার কোন অংশেই কম যায় না, তবে ওনার বেশির ভাগ বইই আসলে মন রিফ্রেশের জন্য, চিন্তা করার সুযোগ খুব কম। যখন মাথা জ্যাম বাঁধে তখন ওনার বই খুবই উপকারী...
              তবে রবীন্দ্রনাথ যখন লেখা শুরু করেন ওনার লেখা পাঠক কিন্তু তেমন ভাবে নেয়নি, তরুণদের মাঝে জনপ্রিয়তাই ছিল বেশি। হয়ত যখন সাহিত্য আরও চিন্তাভাবনাহীন হয়ে যাবে, কে জানে হয়ত হুমায়ুন আহমেদই হবেন সেকালের রবীন্দ্রনাথ! :dreamy:

              জবাব দিন
            • You are right, "Hotel Grever Inn" and also "Shobai Geche Bone" - these earlier books are good, and show his originality and genius in expressing human emotions. Unfortunately, it's not original if you write the same stuff, characters behaving same way, in a slightly different form again and again. He is recycling the same package since the early nineties. It is extremely difficult to invent novelties if you write more than hundred novels. May be he should be making movies. Are they any good?

              জবাব দিন
            • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

              একবার জুনিওর এক ছেলে গুপ্ত সাহেবের বই নিয়া ধরা খাইছে। এক্সট্রা ড্রিল চলল। তার হাউস মাস্টার স্টাফ রে বলল এরে ভালো কইরা ডলা দেন, খারাপ বই নিয়া ধরা পড়ছে।
              আমাদের ফর্ম মাস্টার আইসা বলে,
              তোমরা ক্যাডেটরা এইসব বই কেমনে কেন?
              আমি কোনোদিন এইসব বই কিনিনি।
              পিছন থিকা আওয়াজ উঠলো, অন্যের কাছ থিকা নিয়া পড়ছেন।
              স্যার আবার বললেন, অথবা পড়িনি।


              এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

              জবাব দিন
  4. শাহরিয়ার (২০০৪-২০১০)

    থ্যাঙ্কস,উপদেশের জন্য!
    আমি কিন্তু লিখিও http://www.somewhereinblog.net/blog/chintashilpyblog
    এটা আমার লেখার জায়গা!
    ওয়ার্ল্ড লিটারেচার!!!!!
    সেটা আমি আগ্রহী নই।কজ,১)সেটা ভিন্ন ভাষা,সেখানে আর যাই হোক বাংলার মত আমার কাছে সবকিছু তুলে ধরতে পারবে না!২)সেখানে যে জীবনধারা সেটা আমার কাজে আসবে না।৩)একমাত্র কাজে আসতে পারে জীবন দর্শনটা।সেই ফিলোসোফিটা আমি নিজের জীবন থে শিখতে চাই,কোনো বই থেকেনা!


    People sleep peaceably in their beds at night only because rough men stand ready to do violence on their behalf.

    জবাব দিন
    • রায়হান আবীর (৯৯-০৫)

      ”’একমাত্র কাজে আসতে পারে জীবন দর্শনটা।সেই ফিলোসোফিটা আমি নিজের জীবন থে শিখতে চাই,কোনো বই থেকেনা!”’

      বেশ এরোগেন্ট জবাব। এই কথাটা কোনভাবেই ঠিক না। আরেকটু বড় হও বুঝতে পারবা।

      আমি কি বুঝলাম সেইটা বলি। ভীনদেশী লিটারেচার পড়ে পাওয়া জীবন দর্শনের ফিলোসফিটা তুমি নিজের জীবন দিয়েই বুঝতে চাইছ। ছোট্ট একটা জীবন দিয়ে তুমি কতটা ধরতে পারবা? উত্তর একটাই, খুব সামান্য। তারচেয়ে যদি এমন হয় তুমি তোমরা এই ছোট্ট জীবনে এই কাজটা করলা...
      ১. তুমি তোমার পূর্ব পুরুষরা হাজার হাজার বছর ধরে যেই ফিলোসফিটাটা বুঝতে পারলা সেইটা প্রথমে তোমার মাথায় নিয়ে নিলা। পুর্ব পুরুষেরা সহস্র বছর ধরে যা পেয়েছে সেটা তুমি পেয়ে গেলা নিমেষেই।
      ২. আগের পাওয়া দর্শনের সাথে তোমার জীবনের নতুন দর্শটাকে তুমি যোগ করে দিলা পরবর্তী প্রজন্মের জন্য।

      এখন কথা হলো প্রথমটা তুমি কিভাবে পেতে পারো? তার জন্য অবশ্যই তোমাকে প্রচুর বই পড়তে হবে। শুধু বাংলা না, যেকোন ভাষার। এক বাংলা ভাষায় তো আর সব লেখা নাই। তাই না…

      তুমি আরেকটু বড় হয়ে সোফির জগৎ বইটা পড়ে নিও। এইটার বাংলা অনুবাদ আছে।

      তোমার আগের দুইটা পয়েন্টের সাথেও একমত না। রাত অনেক হয়ে গেছে। আর কথা বাড়াইলাম না।

      ভালো থাইকো।

      জবাব দিন
    • রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

      ভাইয়া
      তোমার বইএর লিস্ট দেখে খুব ভাল লাগছে।
      বই পড়লে ত মানুষের মন উদার হয়, প্রশস্ত হয়। কিন্তু তুমি এইটা কি বললা?
      বিদেশি ভভাষার বই নিয়া!
      ফাতেহা যেমন পুরা কোরানের মূল। তেম্নি বাংলা সাহিত্য মানে হইল রবিঠাকুর, ৫ পান্ডব, আর ৩ বন্দোপাদ্ধায়।
      আর মজা হইল এরা পচ্চিম থিকা অনেক ধার করছে। (সম্পাদিত)


      এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

      জবাব দিন
  5. I am reposting this
    *****************
    I did not mean to be so harsh, Shahriar. Indeed, your list of books is quite impressive - you have read a large number of good books. I was just a little shocked that out of 400 books you list, the first 200 books are by Humayun Ahmed and Zafar Iqbal. I am 34 now. When I was 17 like you, I would have argued that they are the best writers in Bengali literature. But now I think they are average or below average. It’s very interesting to read them as a teenager - enough suspense, mystery, a little science trivia, etc and then the perception that they are both some sort of intellectuals - Ph.D.s in science (you need a degree to be a professor not a writer) - so their books must be worth something. In our generation, people also used to read a lot of Masud Rana - Sheba prokashoni series (which are not considered literature) which parents did not like. And then books by Humayun Ahmed and Imadadul Haque Milon substituted that, and it’s considered literature. Indeed a few of their early books are good - that’s how they got into writing success - but it’s no good now. Ask any of their past fans who are in their thirties, it was not worth spending so much time reading so many of their books. They were slightly better than Sheba prokashoni books in that they are original, but does not have a great value as a piece of literature. Zafar Iqbal’s science fiction books you can argue is good to read. But still his best book is his first one - Kopotronic.., and writing hundred’s of books is more like earning a living, and entertaining children, and not literature. I found a lot of books to be silly although it contains some science ideas - he is experimenting, and meeting publisher’s demands by coming out with 4/5 books in Ekushe boimela which no one is going to read after 30 years. Good writers do not write hundreds of thin books.

    You read Humayun’s book ‘Kobi’ - the title he plagiarized. ‘Kobi’ is a famous book by Tarashankar which is considered one of the greatest novels in Bangla literature. I do not see that in your list.

    My advice - there are so many books in college library - Bengali literaure, English literature, so many kinds of nonfiction especially autobiography of famous people are really interesting to read.

    Keep up your habit of reading. For your age you have read quite a lot. Keeping all the knowledge in your head would be very selfish. Writing may not be that fun as reading - but really you should develop writing habit. I do not have enough time to read a lot of books now other than my specific area of research. When you get older you will also face this problem and realize that time is so limited and although you want to read this or that, you do not get the time. And some people who I know have read so much as a teenager, now do not read anything other than news, time and interest both are lacking in the professional world. That’s why I am emphasizing reading worth while books. You can target a thousand good books in bengali and several thousand great books in English that are to your liking, and may end up, over your lifetime, reading only a fraction of them, but still getting maximum from your reading time.

    And don’t forget that you have to keep your academics good - that will ensure that you have more reading time in the future.

    জবাব দিন
  6. Your writings are very good Shahriar.

    Please do not mind my comments about a few things in earlier posts. I am impressed with your reading list, and writing.

    Can you solve this riddle for me please. I find that cadets read more books on average than a student from outside - it's a great source of entertainment in college. Reading books in rest hours, prep whenever we got a chance. But so far no writers came out of cadet college. One or two wrote cadet memoirs so far by Shakur Majid, Mostofa Mamun. Why no writers among ex-cadets? One reason I can think is that number of ex-cadets are actually 0.0001% or even less. So the chances are also less by pur numbers. But still..

    My cadet days were in mid 80s. I love this CCB.

    জবাব দিন
  7. আদনান (১৯৯৪-২০০০)

    amar experience share kori...tomar list ta asholei khub interesting..and i do agree with u..evolution of reading..amader hsc er english text e akta golpo?! silo reading for pleasure..pore jao man..ja valo lage..tobe world literature o poro..dekhba onek new idea ashtese..sohel vai ki r bolbo..age onek boi portam..akhon shudhu boi kini porar time pai na..ar nijer dhol ektu nije pitaye jai..tomar list er dekhi 70% boi amar pora..hehe..valo theko..all the best

    জবাব দিন
  8. সাব্বির (৯৫-০১)

    কলেজে থাকা কালীন আমারও একটা লিস্ট ছিল আমার ডায়েরী তে। ওই টা এখনো আমার কাছে আছে। এই লেখা পইড়া আমার নিজের লিস্ট টা দেখবার মন চাইতাসে।
    আমার লিস্টে মাত্র ১৩৭ টা বইয়ের নাম। ক্লাশ ১১ পর্যন্ত হিসাব রাখসিলাম, তারপর আর রাখা হয় নাইক্কা।
    শাহরিয়ার, ভাই তুমি তো প্রচুর বই পড়ছ। কনগ্রাচুলেসন!!!!

    জবাব দিন
  9. তারেক (৯৪ - ০০)

    শাহরিয়ারের বইয়ের লিস্ট দেখে খুব ভাল লাগলো। অনেক বই পড়েছ তুমি, এবং আরো আরো পড়তে থাকো, পারলে দুনিয়ার সব বই পড়ে ফেলো।
    এই পোস্টের মন্তব্যে বেশ কিছু আলোচনার সুযোগ আছে, আমি এই মুহুর্তে দৌড়ের ওপর আছি, সময় পেলেই বসবো অবশ্যই।


    www.tareqnurulhasan.com
    www.boidweep.com

    জবাব দিন
  10. মেহেদী হাসান সুমন (৯৫-০১)

    ভাল বই হল ‘অপেক্ষা’ । তবে তার বেশির ভাগ বই সস্তা মানের। আবার কিছু বই এ অনেক ভুল তথ্য আছে, জোছনা ও জননীর গল্প ... তে আমি অনেক অসঙ্গতি পেয়েছি । আবার প্রবাস জীবন নিয়ে লিখছেন, তাকে আমেরিকান হোটেল এর ওয়েটার নাকি বিনা পয়সা খাবার খাওয়াছে ... এটা আমার মনে হয় চাপা । আমার প্রবাসের অভিজ্ঞতা তাই বলে

    জবাব দিন
  11. আবার প্রবাস জীবন নিয়ে লিখছেন, তাকে আমেরিকান হোটেল এর ওয়েটার নাকি বিনা পয়সা খাবার খাওয়াছে … এটা আমার মনে হয় চাপা । আমার প্রবাসের অভিজ্ঞতা তাই বলে

    =)) =)) =))

    জবাব দিন
  12. মুহাম্মদ (৯৯-০৫)

    এইরকম লিস্ট দেখলেই ভাল্লাগে। লিস্ট রাখা ভাল। অনেক বই পড়ছ। আমি নিজে এই লিস্টের ২০% বইও পড়ি নাই। তবে তোমার লিস্ট থেকে কিছু কিছু পড়ার চেষ্টা করতে পারি। :boss:

    জবাব দিন
  13. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    শাহরিয়ার অফ দি টপিক তোমাকে একটা কথা বলি,
    তুমি অনেক গুলো বড় বড় ব্যাপারে মন্তব্য না করে একেবারে ডিসিশন দিয়েছ...
    ভাল লাগত যদি 'আমার মনে হয়...' এটা দিয়ে শুরু করতে...
    যাই হোক, বই পড়ার অভ্যাসটা কখন ছেড়ে দিও না।


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  14. সস্থা বলেন আর যাই বলেন...আমার কিন্তু হুমায়ুন আহমেদের বই ভালো লাগে...আমার আবার ঊচ্চ শ্রেনীর বই পোষায় না...সহজ সরল বই পড়ি...গারলের মতো হাসি...আবার সস্থা সেন্টিমেন্টে দুক্ষিঃত হই...আমি এতেই খুশি...অকে ফাইন থেঙ্ক ইয়ু

    জবাব দিন
  15. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    সবাই যার যা খুশি তাই পড়ুক।সস্তা, ভারী ইত্তাদি।
    শুধু জামাতের বই পঅইড়া না আবার কার মগজ ধোলাইহয়! (সম্পাদিত)


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।