গুল-গল্পের আসর ২ !!!

(এখানে বর্ণিত সকল ঘটনা, স্থান, কাল, পাত্র…কাল্পনিক)

১।
গত মাসের কথা। এক কলিগ দেখি মনমরা হয়ে বসে আছেন। কথা বলে জানতে পারলাম তার বেশ কয়েকদিন অফিসে আসার দেরি হয়েছে। আমাদের অফিসের নিয়ম হল মাসে তিনদিনের বেশি লেট করলে একদিনের বেতন কাটা যাবে। আমি বললাম, ‘আরে মিয়া চিন্তা কইরেন না…বেতন কাটলে আমাকে জানাবেন। সব ঠিক করে দেব!’
দুই দিন পর তার কল। ‘বস, বাঁচান…এইচ আর থেকে বলেছে তিন দিনের বেতন কাটবে!’ আমি তাকে বললাম সব বিস্তারিত জানিয়ে এবারের মতন মার্জনা চেয়ে একটি দরখাস্ত লিখতে। সেটা নিয়ে তাকে বললাম, ‘এবার মন দিয়ে কাজ করতে থাকুন, বাকিটা আমি দেখছি’।
এই মাসে বেতন পাবার পর তাকে জিজ্ঞাসা করতেই আমাকে জড়িয়ে ধরে বললেন, ‘কি জাদু করলেন ভাই, জিএম স্যার তো আমাকে আদর আপ্যায়ন করে একেবারে রাজকীয় ট্রিট দিলেন!’
-‘যার নামে প্রেসিডেন্ট এর ‘রিকমেন্ডেশন লেটার’ আসে তাকে তো সামান্য জিএম খাতির করবেই…!!’
-‘বলেন কি? কি করে পারলেন? এই সামান্য ব্যাপারে তিনি হস্তক্ষেপ করলেন??’
-‘এক ক্ষমতাবান ভাই আছেন, তাকে দিয়েই…সেই ভাই স্যারের খুব খাস লোক বলে আপনাকে ‘ক্ষমা’ তো করলেনই এরপর ‘রিকমেন্ডেশন লেটার’ও দিলেন…!! আর সামান্য ব্যাপারের কথা বলছেন? ওখানে গিয়ে দেখি এক বিশেষ দলের পাতি নেতা এসেছেন পাড়ার চা এর দোকানের বাকি খাওয়া ১৩৭ টাকা মওকুফের সুপারিশ নিয়ে…’
-‘এমন রাষ্ট্রপতি যেন যুগযুগ ধরে আমাদের দেশের ক্ষমতায় থাকে…’
আমরা একসাথে বলে উঠলাম, ‘আমিন’!!

২।
আমাদের এক বড় ভাই আছেন লেখালিখি করেন। তার কলম বেশি সোচ্চার থাকে সরকারের কর্মকান্ডের গঠনমূলক সমালোচনার কাজে। এতদিন মেরে-কেটে চলে গেলেও ইদানিং বেশ কষ্টে আছেন। সেদিন আমাকে ফোন করে জানালেন, ‘একটা বুদ্ধি দে তো ছোট ভাই, বড় বিপদে আছি! কি করা যায় বলতো? বিভিন্ন মহল, সরকারের নানা এলিট ফোর্স যেমন এফ ও ইউ এল, সি আর এ পি, এস এইচ আই টি…দের হুমকি-ধামকিতে তো লেখা চালু রাখাই মুশকিল হয়ে যাচ্ছে…’
-‘এক কাজ করেন-লেখা বাদ দেন, এদেশে লিখে কিছুই হবে না! পরে দেখা যাবে আপনাকে মেরে মরনোত্তর পরকীয়া কেসে ফাঁসিয়ে দিয়েছে…’
-‘ফাজলামি করিস না, সিরিয়াসলি ভাল বুদ্ধি দে…’
আমি অনেকক্ষন চিন্তা করে বড় ভাইকে একটা বুদ্ধি দিলাম। উনিও দেখলাম বেশ খুশি মনে মেনে নিলেন।

গত কয়েকমাস ধরে তাকে নাকি কেউ আর ঘাঁটাঘাঁটি করছে না। বেশ শান্তিতেই কেটে যাচ্ছে তার দিন।
আমি তাকে কি বুদ্ধি দিয়েছিলাম?
আমি বলেছিলাম, ‘এখন থেকে লেখালেখির কাজ করবেন বেডরুমে থাকা অবস্থায়, আর লেখার আগে পরে ব্রাকেটের মধ্যে লিখে দেবেন ‘বেডরুম থেকে লিখছি’…!!’

(বেডরুম থেকে লিখছি…)

৯৩৮ বার দেখা হয়েছে

৮ টি মন্তব্য : “গুল-গল্পের আসর ২ !!!”

  1. আশিক (২০০৭-২০১১)

    হাসিনা ম্যাডাম আমাদের ফরিদপুর বাসি তথা ওই বঙ্গের সবার স্বপ্নের পদ্মা সেতু করলেন না । সাহারা ম্যাডাম আমার আব্বুর মিশন আটকাইয়া দিলো । তাও কিছু মনে করি নাই । কিন্তূ সত্যিই তার ঐদিন এর ওই ডাইয়লগটা আমার খুব মনে লাগছে । আল্লাহ ওই সাংবাদিক দুইজন কে বেহেস্ত নছিব করুক । মেঘের সফল জীবন কামোনা করি । হয়তো আমার এই কমেনট হাসিনা ম্যাডাম এর চোখে পরবে না । তাও বলি ।আপনার বেড রুম পাহারা দেয়ার লাইগা আমার বাপ ভাইগো মতো মানুষের রাতের ঘুম হারাম করেন ক্যান????

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।