সহজ ভাষায় ইংরেজ়ী- পর্ব দুই!!

[গতকাল থেকেই মনটা খারাপ…কিছুতেই ভাল হচ্ছে না। আমি জানি আমার মতন বাকি সবারই একই অবস্থা…কি করা যায়-ভাবতে ভাবতে মনে হল, আরে তাই তো ইরফানকে স্মরন করা যায়…ওর কথা মনে পড়লে মেজাজ খারাপ হতে পারে, তবে মন খারাপ ভাবটা যে কেটে যাবে তাতে কোন সন্দেহ্‌ নেই…!!!]

-‘হ্যালো, ইরফান, কই তুই?’- মোবাইলে জিজ্ঞাসা করলাম আমি।
-‘আনরাইপ মার্কেট-কাঁচা বাজারে!!’
-‘কাঁচা বাজারে?? তুই ওখানে কি করিস?’
-‘কি আর করব?? বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের ওয়ান-ডে ক্রিকেট খেলা দেখতে এসেছি…!!! ব্রাদার ইন ল’!! কাঁচাবাজারে মানুষ যা করে তাই করছি, তরকারি, শাকসবজি কিনছি…!’
-‘না, মানে, তুই তো বাজার করতে কখনও যাস না- তাই একটু অবাক হলাম আর কি…আচ্ছা তুই ফ্রি হবি কখন?’
-‘উম্‌…বিকালে ফ্রি আছি।’
-‘তাহলে বাসায় চলে আসিস।’
-‘আচ্ছা।’

বিকাল বেলা। রুমে একা একা বসে গান শুনছি আর ভাবছি ইরফান কখন আসবে…ভাল কথা, সেদিন ওকে নিয়ে হাসাহাসি করার পর ওর সাথে তো আর কথা বলাই হয় নি…ওর সাথে সকালের কথা-বার্তা মনে পড়ে গেল। ‘ব্যাটা নিশ্চয়ই এখনও আমার উপর খেপে আছে’- আর এক চোট হেসে নিয়ে ভাবলাম আমি। এমন সময় কলিং বেল বেজে উঠল…ইরফান এল বোধহয়…

-‘ইউ আর আ ঈল!!!- ঘরে ঢুকেই বলে উঠল ইরফান।’
-‘কেন আমি কি করলাম??’
-‘দুইদিন ধরে যে আই মাইন্ডেড এবাভ ইউ…তোর কোন হেড পেইন আছে???’
এখানে বলে রাখা ভাল-আমাদের বহুল ব্যবহৃত একটা গালি আছে…যেটা ছোট হতে হতে এখন শুধু ‘বাইন’ হয়ে গেছে!! আর ইরফানের কাছে হয়েছে ঈল (ফিশ!)!!!

-‘সরি, একদম মনে ছিল না- জানালাম আমি।’
-‘সরি বলার প্রয়োজন নেই। আমার কথা হচ্ছে ইউ লাফ, লাফ! কিন্তু সবার সামনে কি দরকার ছিল???’
-‘আরে বাবা, ভুল হয়ে গেছে-আর হবে না…হ্যাপি?’
-‘ওকে, হ্যাপি!!!’

ইতোমধ্যে বুয়া আমাদেরকে নাস্তা দিয়ে গেল। আমরা কথা বলে সময় নষ্ট না করে, নাস্তা খাওয়ায় ব্যস্ত হয়ে গেলাম। এরপর চা খেতে খেতে ইরফানকে প্রশ্ন করলাম,
-‘কাল তোর চাকরীর একটা ইনটারভিউ ছিল না?? কেমন হল??’
-‘আর বলিস না…মেজাজ গরম হয়ে গিয়েছিল…!’
-‘কেন রে? ‘
-‘চ্যাংড়া একটা পোলা ছিল বোর্ডে। আমাকে বলে কিনা ‘আপনার তো অভিজ্ঞতা নেই, আপনি এসেছেন কেন??”
-‘তারপর?’- জিজ্ঞাসা করলাম আমি।
-‘তারপর আর কি…আমি বললাম, ‘সান অফ এয়ার’, আমার যদি এক্সপেরিয়েন্সই থাকত তাহলে কি আর তোদের এখানে আসতাম?????? সোজা মাল্টিন্যাশনাল কোং-এ গিয়ে দাঁড়াতাম!’…’এরপর কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমি পগারপার…’
-‘সান অফ এয়ার’???’
– ‘ঐ তোরা যাকে ‘হা…য়ার পোলা’ বলিস আর কি!’
-‘সেকি রে…!! এরপর তোরে কোন দিন দেখলে ওরা কি করবে কে জানে!’
-‘ফুঃ, আমার বয়েই গেছে ঐ ‘পিগ’দের কাছে আবার যেতে…!!!’

আমি আগের দিনের কথা ভেবে হাসি চাপার প্রাণপণ চেষ্টা করতে লাগলাম। ‘যেহেতু এখানে আর কেউ নেই, তুই হাসতে পারিস’- জানাল ইরফান। এই কথা শুনে আর নিজেকে ধরে রাখতে পারলাম না…হাসতে হাসতে আমি খাট থেকে ‘পিরা’ গেলাম…!!!

৩,৭০৯ বার দেখা হয়েছে

৪৫ টি মন্তব্য : “সহজ ভাষায় ইংরেজ়ী- পর্ব দুই!!”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    জুনায়েদ ভাই কসম কইতাছি-আইজ থিকা সত্যি সত্যি আপনেরে গুরু মানলাম।সারা দিন আজকে মন খারাপ করে ছিলাম-জানেন ই তো কেন-এই লিখা পড়ে মনের ভার অনেকটা হাল্কা হইয়া গেল।

    সান অফ এয়ার, ঈল-এইগুলা শুইনা এক্কেরে চেয়ার উল্টায় পড়ার দশা-আমার চেয়ার অবশ্য গাছের না- =)) =)) =)) =)) =))

    জবাব দিন
  2. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    চিয়ার্স জেসিসি। কিপ ইট আপ। স্মল কুইয়েশ্চেন, আনরাইপ মার্কেট যুদি কাঁচা বাজার হয়, পাঁকা চুল তাহলে কি? রাইপ হেয়ার?? :goragori: :khekz: :goragori: :khekz: :goragori: :khekz:


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  3. তাইফুর (৯২-৯৮)

    জুনায়েদ, বিলিভ মি, আইজ সারাদিন মনে হয় তোর এই লিখার জন্যই বার বার লগ ইন করতেছিলাম ...... কখন আইস ব্রেক হইব, কে ব্রেক করব। তুই আমারে অনেক কিছু ফিরায়া দিলি। :clap:


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।