জ্যোতিষ শাস্ত্র (বাংলাদেশ) ১০১-পর্ব এক

জ্যোতিষ শাস্ত্র হল কিছু পদ্ধতি, প্রথা এবং বিশ্বাসের সমষ্টি যাতে মহাকাশে জ্যোতিষ্কসমূহের আপেক্ষিক অবস্থান এবং তৎসংশ্লিষ্ট তথ্যাদির মাধ্যমে মানব জীবন, মানুষের ব্যক্তিত্ব এবং মানবীয় ও বহির্জাগতিক ঘটনাবলী সম্পর্কে ভবিষ্যত বাণী করা হয়।

-সূত্রঃ উইকিপিডিয়া

আপনারা এই লেখার শিরোনাম ভাল করে খেয়াল করে থাকলে নিশ্চয়ই দেখেছেন বন্ধনীর মধ্যে বাংলাদেশ শব্দটি লেখা আছে। এর মানে হচ্ছে আমাদের এই কোর্সটি গতানুগতিক জ্যোতিষ শাস্ত্র থেকে কিছুটা…আসলে মিথ্যে বলে কি লাভ, অনেকটাই আলাদা!! কেননা আমাদের প্রাণপ্রিয় বাংলাদেশের ক্ষেত্রে জ্যোতিষ শাস্ত্রের বেশিরভাগ ভবিষ্যত বানীই খাটে না। দেখা গেছে যে, জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে যেটা কখনোই হবার কথা না-সেটাই অহরহ হচ্ছে। আবার যেটা অনিবার্য ছিল, সেটাই হচ্ছে না। সুতরাং প্রথমেই আপনারা উপরের প্রদত্ত সংজ্ঞার কথা ভুলে যান… 😀

যাই হোক, গতানুগতিক জ্যোতিষ শাস্ত্রের সীমাবদ্ধতা বিবেচনা করে আমাদের মতন কতিপয় ‘বেশি বোঝা আমজনতা’ নতুন এক শাস্ত্রের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে। আর তাদের সম্মিলিত অনুর্বর মেধা এবং অনেক দিনের অক্লান্ত আজাইরা চিন্তাভাবনার ফসল হচ্ছে জ্যোতিষ শাস্ত্র (বাংলাদেশ)!

জ্যোতিষ শাস্ত্র (বাংলাদেশ) ১০১

এই কোর্সটিতে আমরা একেবারেই বেসিক জিনিস নিয়ে আলোচনা করব। আপনাদের সুবিধার্থে জানিয়ে রাখি, এই কোর্সে কোন ক্লাস এটেনডেন্স এর ব্যাপার নেই-অর্থাৎ আপনি চাইলে আসতে পারেন, না চাইলে নাই। কোন ক্লাস টেস্ট নেই, কোন মিড টার্ম-ফাইনাল পরীক্ষা-প্রেজেন্টেশন-টার্ম পেপার কিচ্ছু নেই। এমনকি এই শাস্ত্র পড়ে আপনাদের করা ভবিষ্যত বানী যদি কোন বিশেষ মহলের পছন্দ না হয়, সেক্ষেত্রে দেখবেন- এই ফ্যাকাল্টিরও কোন অস্তিত্ত নেই। 😛

এখন অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে-তাহলে এই কোর্স আমরা কেন করব? কি লাভ হবে এটা পড়ে?

আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি, এই কোর্স পড়লে আপনারা জানতে পারবেন বা ৯৯% গ্যারান্টি সহকারে বলতে পারবেন,

১। সরকারী দলের বর্ষীয়ান নেতার কথা এবং কাজের তারতম্য কতটা হয়…

২। বিরোধী দলীয় নেতার প্রতিশ্রুতির ভবিষ্যত কি হবে…

৩। পুলিশ কাউকে ধরলে তার ভবিষ্যত কি…

৪। মামলা-মোকদ্দমার ভবিষ্যত কি…

৫। সরকারী-বেসরকারী প্রকল্পের ভবিষ্যত কি…

৬। তদন্ত রিপোর্টের ফলাফল কি হবে…

৭। সেই ফলাফলের ভিত্তিতে কারা কারা শাস্তি পাবেন…বা পাবেন না…

৮। জিনিসপত্রের দাম কখন বাড়বে…

৯। শেয়ার মার্কেটে কখন পতন হবে…

১০। ক্রিকেট দল কখন ভাল-খারাপ করবে…

১১। প্রেমে কখন ব্যর্থ-সফল হবেন…ইত্যাদি ইত্যাদি

সুতরাং বুঝতেই পারছেন, জ্যোতিষ শাস্ত্র (বাংলাদেশ) এর পাঠ-প্রয়োজনীয়তা কতটা গুরুত্বপূর্ণ!

খুব সম্ভবত আপনাদের আজ আর বেশি কিছু শুনতে ইচ্ছে করছে না। করার কথাও না, আমার নিজেরই নিজের কথায় ঘুম এসে যাচ্ছে…কোন সমস্যা নেই, আপনারা যখনই চাইবেন তখনই আমি আমার লেকচার বন্ধ করে দেব। আজ শুধু ছোট্ট একটা ভবিষ্যত বানী করে শেষ করছি-

‘শেয়ার মার্কেট কারসাজি’ তদন্ত রিপোর্ট আলোর মুখ দেখবে ঠিকই, কিন্তু মূল রাঘব্‌স এন্ড বোয়াল্‌স ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাবে। ছোট-মাঝারি মাপের কিছু লোক শাস্তি পাবেন, জরিমানার মুখোমুখি হবেন, তবে সেই পরিমান হবে খুবই নগণ্য (এক্ষেত্রে একটি উদাহরণ দিচ্ছি। একটি অ-নির্ভরযোগ্য সুত্র থেকে জানা গেছে কারসাজি করে চুনোপুঁটির চেয়ে ইঞ্চি চারেক বড় এক বিশেষ ব্যক্তি, অল্প পরিমানে…অর্থাৎ প্রায় ২০০ কোটি মতন বাগিয়েছেন। এবং সম্ভবত তাকে জরিমানা করা হবে ১/২ কোটি টাকা!!!) এবং শেষ পর্যন্ত দেখা যাবে তারা বেশির ভাগই বিরোধীদলের সদস্য।

আজ এই পর্যন্তই। আগামী ক্লাসে আপনারা কেউ যদি আবার আসেন, তাহলে দেখা হবে। সেদিন আমরা আলোচনা করব-বাংলাদেশের কোন বিষয়ে ভবিষ্যত বানী করতে গেলে কি কি বিষয় মাথায় রাখতে হয়। একই সাথে কি কি বিষয় হাতে, পায়ে, পকেটে…রাখতে হয়।

সবাই ভাল থাকবেন।

১,৫৮৩ বার দেখা হয়েছে

১০ টি মন্তব্য : “জ্যোতিষ শাস্ত্র (বাংলাদেশ) ১০১-পর্ব এক”

  1. রকিব (০১-০৭)

    যথারীতি দুর্দান্ত!!! স্যাটেয়ারীয় কায়দার পোষ্টে পেলাস 😛
    কোর্সে এনরোল করলাম পোফেচার সাব! 😀 😀


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  2. রাব্বী (৯২-৯৮)

    কম্পিউটারাইজড জ্যোতিষশাস্ত্রের কোন কোর্স থাকলে ভেবে দেখতে পারি। মানে সুদক্ষ কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে হাত দেখা, ভবিষ্যত বলা, পেমবিয়ে নিয়ে জানা এইসব। আছে নাকি?


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
  3. ওয়াহিদা নূর আফজা (৮৫-৯১)

    জুনা - সম্পুর্ন নতুন টপিক। তাড়াতাড়ি পরের কোর্স বাজারে আন। নাকি লক-আপে আটকা পড়ে গেছ। সাবধান ভাইয়া।


    “Happiness is when what you think, what you say, and what you do are in harmony.”
    ― Mahatma Gandhi

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।