ফেসবুক, ই-মেইল আর মোবাইল যন্ত্রণা ও মাস্ফ্যুর জন্মদিন পাগলামির এক বিচিত্র অথচ আনন্দদায়ক অনুভূতি

আমি ব্যক্তিগতভাবে জন্মদিন, ম্যারেজ এনিভার্সারি ইত্যাদিতে আপ্লুত হইনা। আমার জন্মটা নিয়েই মাঝে মাঝে কিছুটা আক্ষেপ আর কিছুটা হতাশার উদ্রেক হয়। এটা নিয়ে আমার হোম মিনিস্টারের সাথে যথেষ্ট গ্যাঞ্জাম আছে। জন্মদিনের উইশ করলে আমি কিছুটা বিব্রত হই আর কিছুটা লজ্জা পাই। যার কারণেই হয়তো উত্তরে যা বলা দরকার, তা বলতে পারিনা। মানুষ আমাকে আন-সোশ্যাল ভাবে।

নিজের জন্মদিনের কথা বরাবরের মত এবারও ভুলে গিয়েছিলাম। এমনকি অফিসে যেয়ে যখন চিঠিগুলোতে ০১ জুন তারিখ লিখছি তখনও। ভুলেই হয়তো থাকতাম। কিন্তু বিধি বাম। মোবাইল ফোন এ কল। মেঝভাই আর ভাবী। দায়সারা কথা আর ধন্যবাদ দিয়ে রাখলাম।

এরপর আমার ইউনিট এডজুটেন্ট এর প্রবেশ। অফিসের কিছু কাজের কথার অজুহাত দেখিয়ে চান্সে “হ্যাপি বার্থ-ডে টু ইউ স্যার” বলে ফেলল। থ্যাংকস দিয়ে জিজ্ঞেস করলাম, “তুমি জানলে কিভাবে?”

“ফেসবুক স্যার”

সাড়ে দশটায় সেন্ট্রাল টি তে ছিল আরও চমক। বেয়াদব জুনিয়রগুলো আমাকে না জানিয়ে সবাই মিলে বড় একটা আইসক্রিম কেক নিয়ে আসল। আমাকে কাটতে হবে। কাটতে না রাজি হওয়ায় একজন বলল, “একটু ছুঁয়ে দিন স্যার”। ছুঁয়ে দিলাম। সবাই হাততালি। আমি যথারীতি বিব্রত এবং ভীষণ লজ্জিত হয়ে গেলাম।

এর পরের কল হোম মিনিস্টারের। অফিসের কাজের দোহাই দিয়ে ধন্যবাদ দিয়ে কথা সংক্ষেপ করলাম। এটা সহজ।

এর পরে কিছু সিনিয়র আর জুনিয়রের কল। আবার বিব্রত আর লজ্জিত।

বিকালে একটা ঘুম দিয়ে প্রায় ৩ দিন পর নেটে ঢুকলাম। ২০-২২ টা ফেসবুক মেসেজ, সবই জন্মদিনের শুভেচ্ছা। আমি দিন দিন ফেসবুক বা অন্যান্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কগুলোর প্রতি ত্যক্ত-বিরক্ত হয়ে যাচ্ছি। কিন্তু, এবার একটু ভাল লাগল। উত্তর দিলাম সবগুলো মেসেজের।

এরপর স্বভাবসিদ্ধভাবেই ভাবলাম একটু সি সি বি তে ঘুরে আসি। ও আল্লাহ, কি কাণ্ড। আমাকে এবং আমার নেমসেক (যার সাথে এখন একই ডাইনিং টেবিলে লাঞ্চ-ডিনার করছি প্রতিদিন) কে নিয়ে একটা পোস্ট। আমার পাগলা ভাগ্নের পাগলা বন্ধু মাসরুফের কাজ। আমি এবার (যেটা কখনও হইনা) আবেগে আপ্লুত হলাম। মাস্ফুর পোস্টের সুবাদে আরও অনেকের কাছ থেকেই শুভেচ্ছা পেলাম। একটা অন্যরকম ভাল লাগল।

বয়স হবার পর, মনে পড়ে না কবে জন্মদিনের উচ্ছাস আমাকে শেষ নাড়া দিয়েছিল। আমার ৩৮তম জন্মদিনে আজ উপলব্ধি করলাম, সি সি বি এই জন্মদিন-বিমুখ আমাকেও জন্মদিনের আবেগে সিক্ত করার মত একটা অসম্ভব কাজ করে ফেলেছে। সি সি বি অনেক কিছুই পারে। আমার অন্তরে যা কিছু অবশিষ্ট আছে তার সবটুকুই আজকে সি সি বি আর এর সদস্যদের দিয়ে দিলাম। আর মাসরুফকে একটা কৃতজ্ঞতার একটা স্পেশাল টুকরা…

৪,২৪০ বার দেখা হয়েছে

৬১ টি মন্তব্য : “ফেসবুক, ই-মেইল আর মোবাইল যন্ত্রণা ও মাস্ফ্যুর জন্মদিন পাগলামির এক বিচিত্র অথচ আনন্দদায়ক অনুভূতি”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    কোথায় মানুষজন আপনেরে জন্মদিনের শুভেচ্ছা দিবে তা না কইরা সবাই ব্যস্ত হইছে কেমনে কেক সামলায় রাখবে সেইটা নিয়া-অন্যায়,ঘোরতর অন্যায়।এন্ড বাই দা ওয়ে,আমাকে খাদক হিসেবে প্রচার করে আমার ভাবমূর্তি বিনষ্ট করার একটা সূক্ষ্ণ ষড়যন্ত্র ইদানীং সিসিবিতে দেখা যাইতেছে,আমি নাম কমু না কিন্তু এদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে এডু স্যারকে ৫ গ্যালন তেল সমেত আবেদন জানাই x-( x-( x-(

    জবাব দিন
  2. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    আমাকে এবং আমার নেমসেক (যার সাথে এখন একই ডাইনিং টেবিলে লাঞ্চ-ডিনার করছি প্রতিদিন) কে নিয়ে একটা পোস্ট।

    😮 😮 😮 মামা কন কি!জেসিসির এক্স এডজুটেন্ট স্যারের পোস্টিং এখন আপনের সাথে, আর উনার সাথে রেগুলার দেখা হয়!কি সাঙ্ঘাতিক!!উনার কি এই ব্লগ পড়ার সম্ভাবনা আছে নাকি??যদি থাকে তাইলে আমাকে আগে থেকে জানায় দিবেন যাতে আমি পলাইতে পারি :(( :(( :((

    তবে একটা কথা,স্যার এই লেখা পড়লে উনাকে প্লিজ বলবেন যে আমার যেই ক্ষোভগুলা সেইটা সেই সময়ের ১৩/১৪ বছরের এক কিশোরের ক্ষোভ-উনি এইটা নিয়া মনে কষ্ট পাইলে আমি আক্ষরিক অর্থেই উনার পায়ে পড়ে ক্ষমা চাব।

    এ্যাডজুটেন্ট স্যার সহ ক্যাডেট কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকারা আমাদের জন্যে যা করেছেন সেই ঋণ রক্ত দিয়েও শোধ হবে বলে আমার মনে হয়না।স্যারকে আমার সালাম পৌঁছে দেবেন প্লিজ।

    জবাব দিন
  3. ফয়েজ (৮৭-৯৩)
    আমার ৩৮তম জন্মদিনে আজ উপলব্ধি করলাম, সি সি বি এই জন্মদিন-বিমুখ আমাকেও জন্মদিনের আবেগে সিক্ত করার মত একটা অসম্ভব কাজ করে ফেলেছে।

    সবডি লাইনে দাঁড়াও, ফন-ইন।

    এডু স্যার খুশিতে বাগবাগুম হই গেছে, এই চান্স ষ্টারের বিরিয়ানী............ :thumbup:


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  4. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    ইউসুফ : স্টারটা আমার অফিসের উল্টা দিকে! প্যাকেটগুলা নিয়া সোজা আমার অফিসে ঢুকে পরো!! আমি আবার কাচ্চিটা বেশ পছন্দ করি কিনা................ 😀 😀 😀


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।