অধরের কানে অধরের ভাষা

উত্তমকুমারকে নাকি একবার এক মহিলা রিপোর্টার জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘আচ্ছা আপনি কী খেতে সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন?’
মহানায়ক হেসে জবাব দিয়েছিলেন, ‘গলদা চিংড়ি আর চুমু।’

আমার চিংড়িতে এলার্জি। খেলেই শরীরের চামড়া লাল হয়ে যায় (কালা মাইনষের আবার চামড়া লাল হয় ক্যাম্নে!)। কিন্তু মহানায়কের মত আমিও চুমু খেতে ভীষন পছন্দ করি। আই জাস্ট লাভ টু কিস। তবে অবশ্যই বালিকাদের।
ম্যারাডোনার মত টাকলু ভেরনকে না !

এইটুকু পড়েই আবার কেউ ভাববেন না আমি লোকটা লুইস টাইপের, সারাদিন চুমু খেয়ে বেড়াই। নিকোলা মাতোভিচ ও ক্রিস্টিনা রেইনহার্টের কসম দিয়ে বলতেছি, আমি সারাজীবনে চুমু খেয়েছি মাত্র দুই বার। এর একটা ক্যারিয়ারের একেবারে শুরুর দিকে, ক্লাস ফোরে পড়ার সময়!

মেয়েটার নাম এখনো মনে আছে। কিন্তু এতোদিন পরে এসে পরনারীর চরিত্রে কালিমা লেপন ঠিক হবে না, সুতরাং গোপন করে গেলাম। আমার সঙ্গে পড়তো। কো-এডুকেশন ছিলাম তো। দেখতে এতো মিষ্টি ছিল, যে আমার শুধু মনে হত ও কে কাঁচা খেয়ে ফেলি। মিষ্টি আবার আমার খুব পছন্দের কিনা। খেতে না পারলেও একবার চেটে দেখার তো ইচ্ছে ছিলোই।
ঈশ্বর নাকি তার প্রিয় বান্দাদের কোন ইচ্ছাই অপূর্ণ রাখেন না। আমারো সুযোগ আসলো। স্কুলে টিফিনের ফাঁকে লুকোচুরি খেলতে খেলতে সেই বালিকাকে একা পেয়ে গেলাম। উম্মম্মম্মম্মা…….

কসম খোদার ওই চুম্বনে কোন পাপ ছিল না। আমি শুধু ঠোট দিয়ে তার গালটা ছুয়ে দিয়েছিলাম একবার। জাস্ট এ লিটল হার্মলেস কিস।

সুইট হলে কী হবে বালিকার মনে দয়ামায়া বলতে কিচ্ছু ছিল না। ভ্যাঁ ভ্যাঁ করে কাঁদতে কাঁদতে গিয়ে প্রথমে নালিশ করলো ক্লাস টিচারের কাছে। তিনি একদফা পিটিয়ে আমার আগাপাস্তলা এক করার পর নালিশ দিলেন আমার মায়ের কাছে। যারা আমার মা কে চিনেন না তাদের জন্যে এই ফাঁকে ছোট্ট একটা তথ্য দিয়ে রাখি। শলার ঝাড়ু দিয়ে যদি মানুষ পিটানোর প্রতিযোগিতা হয় তাহলে আমার আম্মার সঙ্গে কেউ পারবে না। বহু বছরের সাধনায় এটাকে উনি শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। তার ক্লাস ফোরে পড়া ছেলে অন্য মেয়ের সঙ্গে চুম্মাচাট্টি করেছে শুনেই তিনি হুকুম দিলেন, ‘খোরশেদ, আমার শলার ঝাড়ুটা দে।’ খোরশেদ আমার সেজ মামার নাম। আমাদের বাসায় থেকে তখন ছাত্র রাজনীতি করেন। আমার ছেলেবেলার নায়ক। ইট্টূ লুইস টাইপ ছিলেন আর কী! সেই আমলে মটর সাইকেলের পিছনে সুন্দরী মেয়ে বসিয়ে ঘন ঘন ব্রেক মারতেন। আমাকেও তিনি তাঁর আদর্শে মানুষ করতে চাচ্ছিলেন। সেই পথে একটু এগিয়েছি শুনে তাঁর খুশি আর ধরে না। আম্মার হাতে মার খাওয়ার পর আমি যখন বাবা গো, মা গো বলে চিৎকার করছি তখন মামা আমার কাঁধ ছুয়ে বলেছিলেন, ‘দেখিস এমন একদিন আসবে যখন মেয়েদের চুমু দিলে তোকে আর কেউ শলার ঝাড়ু দিয়ে পিটাবে না।’

সেজমামা যে সত্যি কথা বলেছিলেন সেটা আমি বুঝেছিলাম মামার মত বড় হয়ে। জীবনে দ্বিতীয় চুম্বনের অভিজ্ঞতাটা হয়েছিল ইউনিভার্সিটিতে এসে। ভীষন ঝড় বৃষ্টির দিনে, রিকশার হুড তোলা এক বিকেলে আমি এক বালিকার ঠোটে ঠোট রেখে ব্যারিকেড দিয়ে বলেছিলাম……..

ধুর, ঠোটে ঠোট ব্যারিকেড দিয়ে কি কিছু বলা যায় নাকি! আমিও বলিনি, তবে হয়তো করেছিলাম। বালিকা গাল লাল করে বলেছিল, ‘যাহ, তুমি না একটা ইয়ে….” । আমি যে একটা কিয়ে, সেটা আমার কোনদিনই জানা হয়নি।

আষাঢ়ের বৃষ্টিতে, হুড তোলা রিকশায় আমাকে আলজিব ছোঁয়া চুম্বনের স্বাদ দিয়েছিল যে মেয়েটি, সে এখন অন্য একজনের সঙ্গে ফ্যামিলি প্ল্যানিংয়ে ব্যস্ত!

১০,৮৬৯ বার দেখা হয়েছে

১৪৪ টি মন্তব্য : “অধরের কানে অধরের ভাষা”

  1. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    পুরা লেখাটা অসম্ভব মজার হইছে কামরুল ভাই............তবে পড়ার পরে মনে হইতেছে ইস,আরেকটু বড় হইলে আরো অনেক মজা হইতো... =)) =)) =)) =)) ভাইজান তো দেখি পুরা ছুপা রুস্তম...এই লেখায় অন্ততঃ দশটা লাইন আছে যেইগুলা পইড়া হাহাপিগে... =))
    সেই আমলে মটর সাইকেলের পিছনে সুন্দরী মেয়ে বসিয়ে ঘন ঘন ব্রেক মারতেন। =)) =)) জট্টিল জট্টীল!

    জবাব দিন
  2. তাইফুর (৯২-৯৮)

    জম্পেশ, ঝাক্কাস লেখা ...
    অল আই'স আর ডটেড, অল টি'স আর ক্রসড ... কুথাও কুনো ডাউট দেওয়ার স্কোপ নাই ...

    আমার চিংড়িতে এলার্জি। খেলেই শরীরের চামড়া লাল হয়ে যায় (কালা মাইনষের আবার চামড়া লাল হয় ক্যাম্নে!)
    ভীষন ঝড় বৃষ্টির দিনে, রিকশার হুড তোলা এক বিকেলে আমি এক বালিকার ঠোটে ঠোট রেখে ব্যারিকেড দিয়ে বলেছিলাম……..
    ধুর, ঠোটে ঠোট ব্যারিকেড দিয়ে কি কিছু বলা যায় নাকি!

    গালে চুমু, মালে দেয়
    ঠোটে দেয় মরদে
    তোর তরে, বুক ভরে
    উথলালো দরদে


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  3. ফয়েজ (৮৭-৯৩)
    The kiss must be continuous and the lips must be touching at all times.
    If the lips part - the couple are immediately disqualified.
    Contestants must be over the age of consent in the country the event is being held.
    The couple must be awake at all times.
    The contestants must stand during the attempt and cannot be propped together by any aids, such as pillows, cushions or people.
    No rest breaks are allowed.
    Incontinance pads or adult nappies/diapers are not allowed.
    Couples must not leave the venue during their attempt.

    অনেক কড়া কড়া নিয়ম কানুন দেখি। বাপ্রে বাপ, অন্যকিছু না হয় বুঝলাম, কিন্তু এতক্ষন বাথরুম আটকায় রাখে কেমনে 😮


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  4. সামীউর (৯৭-০৩)
    আষাঢ়ের বৃষ্টিতে, হুড তোলা রিকশায় আমাকে আলজিব ছোঁয়া চুম্বনের স্বাদ দিয়েছিল যে মেয়েটি, সে এখন অন্য একজনের সঙ্গে ফ্যামিলি প্ল্যানিংয়ে ব্যস্ত!

    অফিসে কামরুল ভাই বলতেসেন এইটা নাকি একটা আষাঢ়ে গল্প, পাঠককে মজা দেওয়ার জন্য।

    জবাব দিন
  5. সাইফ (৯৪-০০)

    কেম, মামুর যোগ্য শীর্ষ হইতে পারলি না ,মামা ব্রেক কষতেন দাবাইয়া মোটর সাইক্লেলে,তুই ত মোটর সাইকেল ই চালাইতে শিখলি না। :)) :)) :)) :)) :)) :)) :)) :)) :)) :)) :)) :))
    রিক্সার হুড তুইলাই থাক আর কি?
    জোশিলা হইসে।হঠাত একসাথে এত্ত লেখা ,তাও আবার সুপার ডুপার,আর্জেন্টিনার বিরহে .........নতুন করে কি কারো প্রেমেপড়লি নাকি রে...নক করলে আওয়াজ দিস না কেন দোস্ত?অভিমান করছিস?

    জবাব দিন
  6. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)
    উত্তমকুমারকে নাকি একবার এক মহিলা রিপোর্টারজিজ্ঞেস করেছিলেন

    কামরুল: তুমি নিশ্চিত উত্তমকুমারের ওই সাক্ষাৎকার মহিলা (নারী) রিপোর্টারই নিয়েছিলেন? আহ্‌ গলদা চিংড়ি! আমি কি মাস্ফ্যুর পথ ধরলাম নাকি? ;;;


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  7. শাহাদাত মান্না (৯৪-০০)

    এই আষাঢ়ে গল্পের কিছু চরিত্রের সাথে পরিচয় থাকাটা নিতান্তই কাকতাল মাত্র । 😉 । আমি কাউকেই চিনতে পারলামনা। :))
    মাত্র দু'খানা কাহিনী, বড্ড অবিচার হয়ে গেলো। বাকিগুলো নিয়ে মহাকাব্য করা যেতে পারে।

    জবাব দিন
  8. তাইফুর (৯২-৯৮)

    কামরুল (৯৪-০০) : মজা লইতেছেন ?
    তাইফুর (৯২-৯৮) : ম্যালা দিন পর
    কামরুল (৯৪-০০) : আসেন জমাই
    তাইফুর (৯২-৯৮) : এখনো তোর জমে নাই ?? আমার তো নাইমা গ্যাছে
    :khekz: :khekz: :khekz:


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  9. তাইফুর (৯২-৯৮)
    আমি সারাজীবনে চুমু খেয়েছি মাত্র দুই বার

    প্রথমটা গালে দিছিস ... ওইটা তো হাপ
    তাইলে হইল দেড় খান
    বাকি হাপের হিসাব মিলায়া দিয়া যা


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  10. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    অ কামরুল, মাথা থেইকা নামছেনি? নাইম্যা গেছেনি অল্রেডি? 😉
    প্ল্যানিং প্লুনিং বাদ্দে। ছফা বসের টেরাসে বসতে বসতে না আবার উনার মতোন হয়া যায় সবকিছু খিয়াল কইরা কিন্তুক B-)


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।