ভুইলা গেছি ও একটা ফাও গল্প

১.
ক্যাডেট কলেজে। প্যারেন্টস ডে । এক শুক্রবার সকালে অভিভাবকরা আসতো কলেজে, খাবার আনতো, দেখা করতাম, খেতাম। এক বেলা বাবা-মার সঙ্গে থাকার আশায় সারা মাস অপেক্ষায় থাকতাম। একবার ঢাকা থেকে আমার বাবা গেলেন একা, আমাকে দেখতে। নিয়ম ছিল প্যারেন্টসরা এসে একটা কাগজে নাম লিখে দেবেন, তারপর আমাদের কাছে খবর যাবে, আর আমরা যাবো নির্দিষ্ট স্থানে। হাউজের সামনে বাস্কেটবল কাম প্যারেড গ্রাউন্ডে সামিয়ানা খাটিয়ে প্যারেন্টসদের বসার ব্যবস্থা থাকতো।
আমি জানি বাবা আসবেন, অপোয় আছি। অথচ খবর আসে না। পরে সাগর এসে বললো যে আমার বাবা নাকি বসে আছেন অনেন ধরে। আমার বাবা কি করেছে জানেন? স্লিপে সাজ্জাদ হোসেন লিখে দিয়েছিলেন। এই নামে তো কেউ আর নাই। আসলে আমার ছোট ভাইয়ের নাম সাজ্জাদ হোসেন। 😕

২.
মেয়েকে ভর্তি করাবো। ফর্ম নিয়ে আসছি। এখন পূরণ করে ভর্তি করার পালা। সুন্দর করে নাম লিখে নিয়ে গেছি গতকাল শনিবার। দেখি স্কুল বন্ধ। কাল রাতে বউকে বললাম আমার মেয়ের ভাল নামতো মানিতা তাই না? আমার বউ অবাক হয়ে তাকিয়ে বললো মানিতা হবে কেনো? মানিতা তো বড় বোনের মেয়ের নাম। আমার মেয়ের নাম তানিশা। ফর্মে নাম কেটে আবার লিখলাম তানিশা। বউ কইলো কবে জানি বউরেও ভুইলা যাইবা। (চেষ্টা করতে দোষ কি?) :))

৩.
তারচেয়েও মারাত্বক গল্প আছে বায়রনের। রেজাউল করিম বায়রন, ডেইলি স্টারের সাংবাদিক। একদিন অফিস থেকে সে ফোন করছে তার বউয়ের অফিসে। ফোন ধরতেই অপারেটরকে বায়রন বললো-আমার বউকে দেন তো।
অপারেটর-আপনার বউ কে? নাম কি?
এইবার বায়রন পড়লো মুশকিলে। বউয়ের নাম সে আসলে ভুলে গেছে, ঐ মুহূর্তে মনে করতে পারছিলো না। বায়রন বললো একটা দাঁড়ান। তারপর বায়রন মোবাইল ফোনটা হাতে নিয়ে ফোনবুকে যেয়ে একটার পর একটা নাম ও নাম্বার দেখা শুরু করলো। একটা নাম দেখে মনে পড়লো এইটাই তার বউ। তারপর অপারেটররে বলতে পারলো তার বউয়ের নাম। :goragori:
৪.
এইটা কি ভুলো মনের গল্প বলা যায়? একুশের রাত নামে একটা টকশো হয় রাত ১২টায় একুশে টেলিভিশনে। আমি আছি, সাথে আরও দুইজন। আর একজন সুন্দরী উপস্থাপিকা। আমি তার পাশে। আমার বা পাশে উপস্থাপিকা, আর ডান দিকে ক্যামেরাম্যান, একটু উচুতে বসা। লাইভ অনুষ্ঠান। চলছে। হঠাৎ ডান দিকে তাকাইয়া দেখি ক্যামেরাম্যান মনযোগ দেখে আর হাসে। তাকাইয়া দেখলাম আমার বাম দিকে শাড়ি পড়া উপস্থাপিকার কি কি যেন দেখা যায় আর ক্যামেরাম্যান বেটা সেইটাই দেখে আর হাসে। আমি তো ভদ্র ছেলে , তাই আমি হাসি নাই। তয় চোখের কথা এখন আর মনে নাই।
মাঝখানে ব্রেক, প্যানেলে বসা ছিল মোজাম্মেল বাবু ভাই। সেও খেয়াল করছে। বিরতির সময় আইসা বাবু ভাই কইলো ……….শাড়ি ঠিক করো। উপস্থাপিকা পায়ের কাছে শাড়ি ঠিক করলো। আবার কইলো বাবু ভাই, শাড়ি ঠিক করো। সে আবারও পায়ের কাছে ঠিক করে। তিনবারের বার বাবু ভাই আর না পাইরা নিজেই হাত দিয়া শাড়ি ঠিক কইরা দিলো।
অনুষ্ঠান শেষে ফোন দিলাম ডেইলি স্টারের ইনাম ভাইরে। কাহিনী শুইনাই সে ফোন দিল বাবু ভাইরে। বাবু ভাই আমারে ফোন দিয়া কইলো, ‘মাসুম, তুমি দেখলা আর আমি দেখলাম। কিন্তু পুরা জাতীর দেখার দরকার কী?’ 😀

৫,৭১১ বার দেখা হয়েছে

৬৮ টি মন্তব্য : “ভুইলা গেছি ও একটা ফাও গল্প”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    হাসতে হাসতে :pira:
    বস, প্রেসকি রক‌স.. :thumbup:

    আমার মনে হয় শওকত ভাই ওনার ভুলোমনের কারনেই সিসিবিতে আসতে দেরী করেছেন.. :-B
    ব্লগের নাম অনেক আগে শোনার পরও ভুলে বিবিসি, এবিসি, সিপিবি, বিপিসি..ইত্যাদি নানান কিছু ট্রাই করার পর অবশেষএ.. B-)

    বস আমগোরে কোনদিন ভুইল্যা যাইয়েন না.. :dreamy:


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  2. তাইফুর (৯২-৯৮)

    শাড়ী নামক ডেরেসটার আবেদনই আলাদা ... 😀
    কিছু যদি দেখাও যায় ... নীচের কুচি ঠিক করলেই চলে। :-B

    শওকত মাসুম ভাই আইসা, না দেখা জগতের কত কিছু দেখাইলেন। :salute:


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  3. সাব্বির (৯৫-০১)

    মাসুম ভাই, আমার ব্রাউসারে তো ফাও গল্পটা আসতেছেনা 🙁

    অফটপিকঃ ৪ নম্বর কাহিনিটা কি সচিত্র প্রকাশ করা যায় না B-)
    আমার জন্য না অন্যদের কথা চিন্তা কইরা কইলাম 😀

    জবাব দিন
  4. হাহাহাহাহাহ
    শর্ট টাইম মেমোরি লস। শওকত ভাইরে 'মেমেন্টো' রোগে ধরছে। 😀

    একটার চেয়ে একটা মজার কাহিনী। তবে লাস্টের গল্পের উপস্থাপিকার পরিচয় একটু হিন্টস দিলে ভালো হইতো। পরের বার তার অনুষ্ঠান একটু মনযোগ 😉 দিয়া দেখতাম। 😉 😉

    আমারো সন্ধ্যাবেলায় সিসিবিতে আসাটা উজ্জ্বল হয়ে গেলো। 😀

    জবাব দিন
  5. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    বুঝলাম না, একুশের টকশোতে আমারে যেদিন ডাকতো ওইদিন হয় বাবু নাইলে রাশেদ উপস্থাপক থাকতো। আমারে কি ভয় পাইতো নাকি?? ;;) ;;) ;;)

    অবশ্য মাসুম তো মাসুমই! তাই, ওরে পাশে নিয়া ......শো করতে ক্যাটরিনা কাইফও ডরাইবো না। :no: :no: :no:


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  6. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    শওকত ভাই নায়িকার সাক্ষাৎকার মূলক কাহিনিটা এখনও কইলেননা দেখে সমসাময়িক সিসিবি ধারায় আপনার ব্যাঞ্চাই 😀
    তবে এইরকম চরম ফাও গল্প কইয়া পিরতে পিরতে মির্ডির করানোর লাইগা আগের দাবীকৃত ব্যান উইথড্র করে নতুন করে আবার ব্যাঞ্চাই 😀 :grr: :grr:


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  7. রহমান (৯২-৯৮)

    ক্যামেরাম্যান বেটা সেইটাই দেখে আর হাসে। আমি তো ভদ্র ছেলে , তাই আমি হাসি নাই। তয় চোখের কথা এখন আর মনে নাই

    😛 😀

    একটা ফাও গল্প

    এই পোষ্টের নামকরণের সংশোধনী চাই 😡 (টুশকি-১,২,৩... এর মতো করে প্রেসকি-১,২,৩... এভাবে দেয়া হোক)

    শওকত ভাই,
    প্রেসকি রকস্‌ :thumbup:

    জবাব দিন
  8. জ়ে এম সারোয়ার মুজিব ( এডিসন) (১৯৭৯-১৯৮৫)

    শওকত তোমার ব্লগটা মজার কোন সন্দেহ নাই কিন্তু মন্তব্য এবং প্রতিমন্তব্য এর চেয়ে বেশি মজার মনে হলো। তুমি যে বেজায় রশিক তা বুঝতে বাকি নাই। আমি তোমার নিয়মিত পাঠক হয়ে গেলাম।আমি সিসিবিতে নতুন। তোমার অনেক নাম শুনেছি আজ প্রথম পড়লাম। আসাধারণ :salute:

    জবাব দিন
  9. তানভীর (৯৪-০০)

    শওকত ভাই, প্রেসকি রকস! :thumbup: :thumbup: (কপিরাইটঃ জুনা)

    আপনি দেখি আপনার কন্যার নাম ভুইল্যা গিয়া পারিবারিক ধারাবাহিকতা বজায় রাখছেন। এখন দেখা যাক আপনার কন্যা একই ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে পারে কিনা!

    ৪নংটা ফাটাফাটি হইছে। :thumbup: :thumbup:

    ইয়ে, মানে, ৫নংটা কি আমাদের সাথে শেয়ার করা যায়না? 😀

    জবাব দিন
  10. তৌফিক (৯৬-০২)

    কোন কথা নাই, খালি পাঁচ দিয়া গেলাম শওকত ভাই।

    অফটপিকঃ উৎপল শুভ্ররে একটু কয়েন, মহাকাব্য, কার্ডিফ কাব্য, হেন কাব্য-তেন কাব্য- এইগুলা ছাড়া কি আর কোন উপমা নাই? একদম ক্লিশে হয়ে গেছে কথাগুলা।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।