শুভেচ্ছা রাশি রাশি; সকল সিসিবিবাসী

ঠিক ইচ্ছে ছিল না হাজারতম পোস্টে আলাদা করে কিছু লিখি। কারণ এ পোস্ট বিষয়ক আইডিয়া নিয়ে একখানা পোস্ট আগেই করেছি। যার জন্য ব্লগ এডজ্যুটেন্টের একই পোস্টে অনেকেই আমরা অংশীদার হতে পারছি। তবু কলেজের একখানা পোস্ট বাড়ানোর লোভ সামলাতে পারলাম না। আমার এ নির্লজ্জতার জন্য সবার কাছে ক্ষমা……….

গুছিয়ে উঠতে পারছিলাম না। কি লিখব?? কিভাবে সিসিবির সন্ধান পেলাম?? আর কেনই বা এখন অন্য ব্লগ ছেড়ে কেবল সিসিবিতে পড়ে থাকি? কিন্তু সেটার পেছনেও তো আরো গল্প আছে। এই যেমন আমি না জন্মালে ক্যাডেট কলেজে পড়তাম না। ক্যাডেট কলেজে না পড়লে ক্যাডেট ফিলিংসটা পেতাম না। আর তা না পেলে অবশ্যই সিসিবিকে হোমগ্রাউন্ড হিসেবে নিতাম না।
কিন্তু সেসব গল্পেরও পেছনে গল্প থেকে যায়। যেমন আমার বাবা মায়ের বিয়ে না হলে আমি হতাম না। আবার আমার দাদা দাদি নানা নানি না হলে ……….. হ্যা, বাপেরও তো বাপ থাকে…মায়ের যেমন…….. 😀 ( যথেষ্ট লাইনছাড়া চলছ টিটো এবার লাইনে আসো)

হ্যা কি যেন বলছিলাম?? আদম আর ঈভের গল্প? ( আবারও x-( :chup: )
আমি সিসিবিতে কেমন করে এলাম…এইতো। ঠিক হে….দিনটা ছিল ১২মে। আপনারা যেন আমার আগের লাইনছাড়া ভাব দেখে ভাববেন না আমি অঞ্জনদত্তের গান শুরু করেছি…….আজ ১২ই মে তুমি চলে গিয়েছিলে…জীবন থেকে আমার । আসল সত্য হল ১৯৯৪ এর এ দিনে আমরা গুটি কয়েক দেবশিশু ক্যাডেট কলেজ নামক নতুন স্বর্গে প্রবেশ করি। সেখানে আদিগন্ত মাঠ ছিল……..সুবিশাল জলাধার। যেদিকে চোখ যায় কেবল সবুজ বনানী।( :chup: )
সেখানে সেই দেবশিশুরা লালিতপালিত হতে লাগল মহৎ উদ্দেশ্যে। বড় হয়ে তারা দেশ ও দশের কাজ করবে। আর তাই তাদের খাওয়ার কোণ চিন্তা ছিল না ….পড়ার কোন চিন্তা ছিল না।তারা অন্যরকম ভাবে মানুষ হতে লাগল এবং বুঝতে শিখল তারা সাধারণ নয়। কারণ তারা আম, কাঠাল কিংবা পেয়ারার মত সাধারণ ফলও ঠিক সাধারণ ভাবে উপভাগ করে না। কত কত সৃজনী দক্ষতায় তারা ডাব খায়! আমার মত হরিজনও ঠিক চেপেচুপে সেখানে বড় হয়ে গেল একদিন। অশ্রুশিক্ত নয়নে নব নব দেবশিশুদের কাছ থেকে বিদায়ও নিল তারা। একদিন।
আর তারপর আদমকে স্বর্গ তেকে বিতারণের পর মর্তে যে দশা হয়েছিল তাদেরও সে দশা হয় (এবার মনে হচ্ছে আসলেই আদমের গল্প বলছি 😀 )। তার আর সব সাধারণের সাথে ঠিক মানিয়ে নিতে পারে না। ক্ষণে ক্ষণে ডুবে যায় ফেলে আসা খন্ড স্মৃতিময়তায়।
আমার সে সৌভাগ্য হয়নি। আমি ক্ষণে ক্ষণে ডুবে যাবার অবকাশ পাইনি। ক্যাডেটের বড় ভাইরাই বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র বিষয়ক একটি সংগঠনে যুক্ত করে দিয়ে নিজেরা ফুটে যান। আমি সেখানে এত ব্যস্ত হয়ে পড়ি এবং এত গুরুভার বইতে শুরু করি যে কলেজ রিউনিয়নেও যোগ দিতে পারিনি( দ্যা বিট্রেয়ার 😕 )।
তাতে কলেজ, আপন বন্ধুদের থেকে বেশ দূরত্বই তৈরী হয়। তবে ভার্সিটিতে নিজ কলেজ বা অন্য কলেজের বন্ধুদের সাথে আল্প যোগাযোগ থাকে। এবং সেইসব বন্ধুদের বাইরের বন্ধুদের সাথেও।
তিথি তেমন একজন।
তারেক তখন দেশের বাইরে। তিথি প্রায়শই সাইবার ক্যাফেতে দিন কাটায়। আমার ধারণা সেটা পরবাসী তারেকের সাথে যোগাযোগ রক্ষার্থেই বুঝি! একদিন টিএসসিতে ওকে জিজ্ঞেসও করি। ও বলে- আরে নাহ! ব্লগিং করি। ব্লগিং শব্দটার সাথে সেই প্রথম পরিচয়। তারপর বহুদিন এই শব্দটা আর মাথায়ও আসে নি। এর প্রায় বছর খানেক পর একটি বিজ্ঞাপণী সংস্থায় চাকরী পাই, কাজ আইডিয়া করা (ছেলে ক্রিয়েটিভ…….. :-B )। সেখানকার এক কলিগ অনেকটা জোর করেই সামুতে নিবন্ধন করিয়ে দেন। তাতে তার লাভ ছিল। একটা কমেন্ট বাড়বে। তবে তার লাভ যতটা না বেড়েছিল তার চেয়ে শতক বেড়েছিল আমার। সেই প্রথম ব্যবহারিক ব্লগিং। ওহ…….কি তার উত্তেজনা ……কি তার উৎসাহ!

তা আমার যেরকম এই লেখার মতই সবকিছু যথেষ্ট লাইনছাড়া হয়ে যায়, সেখানেও হল। এর মধ্যে ফেসবুক নেশায় বুদ হলাম। সুদূর অস্ট্রেলিয়ায় তারেকও দেখি সেখানে উপস্থিত! 😮 ফেব্রুয়ারীর এক দিনে ও একটা লিংক পাঠাল। সে বরাবর পৌঁছে দেখি আর একটি নতুন ব্লগ সচলায়তন। আরে করেছে কি ব্যাটা! আমাকে নিয়ে আস্ত একখানা লেখা 😮 :shy: :clap: সাথে ওর সম্পাদিত একটি লিটল ম্যাগে আমার লেখা একটা গল্প। গল্প পড়ে সেখানকার অনেকেই অচল আমাকে সচল হতে বললেন। ওর সাহায্যে সেটাও হয়ে গেলাম।
সেখানেই রায়হান আবীরের সাথে পরিচয়। কলেজের ছেলে। ব্যাক্তিগত ম্যাসেজ অপশনে সাইবারপত্র চালাচালি হতে লাগল। সেখানেই ও সিসিবির খোঁজ দেয়। আমিও বোধহয় কার কাছে প্রার্থনা করছিলাম…..মেরা বাচ্চুপান লটা দে.
সিসিবিতে ঢুকে পড়ি। এবং…………আরে এটাই তো চাইছিলাম! ক্ষণে ক্ষণে ডুবে যাবার অবকাশ। মেরা বাচ্চুপান…..
কামরুলের সহায়তায় নিবন্ধনও হয়। তখন মূলত ওর লেখা পড়েই হাসতে হাসতে পিরা যাই আবার কখনও চোখ বাষ্প হয়। জিহাদের লেখা পড়ি….বণ্যর লেখা পড়ি …….কামতপুর লেখা পড়ি….সামিয়ার লেখা পড়ি..কুচ্ছিত হাসের ছানার(ওর ভাল নাম এটা আর ডাক নাম তুহিন 😀 ) লেখা পড়ি। ছেলেমেয়েগুলোকে খুব চেনা চেনা মনে হয়। আরে তাইতো ওরা তো আমারই কৈশর নিয়ে ফিরেছে। এমনসব পিচ্চিদের মধ্যে একজন কয়েকজন বড় মতন মানুষকেও দেখি। হ্যা ফয়েজ ভাই, আহসান ভাই, সায়েদ ভাই মরতুজা ভাই, ফৌজিয়ান ভাই। তারাও কি রকম যেন আচরণ করছে। আগের ছলেমেয়ে গুলির সাথে খুব বেশি পার্থক্য পাইনা। তখন বুঝতে পারি ..এই ব্লগে আসলে কার বয়স কত সেটা মুখ্য বিষয় নয়, সবাই আসলে তার জীবনের একটা নির্দিষ্ট সময়কে ধরছে।ব্যপক বাচ্চুপান লটালটি হচ্ছে।
ব্যাস, আমিও লিখতে শুরু করি। রবিন(পিরা ভাষার জনক), শোয়েব( গায়েব হবার জনক) আর তানভীরকে(আলস্যের জনক) আবার ফিরে পাই। পাই অনেকদিন যোগাযোগ না হওয়া সিরাজ এবং সাইফকে। পাই কমেন্টশিল্পী জুনা এবং পয়েন্টে পয়েন্টে অবজারভার তাইফুর ভাইকে। দারুণসব লেখক রহমান ভাই,সাকেব ভাই, মুহাম্মদ, হাসনাইন, রাশেদ, আমিন আরো কত কে?
লাবলু ভাইকে এখানে দেখে সত্যি অবাক হয়েছিলাম ভিষণ। আহা.. মেরা বাচ্চুপান লটা দে…….। এই বয়সেও কি আক্ষেপ!
পেলাম সেলিব্রেটি মানুষ মোস্তফা মামুন এবং শওকত ভাইকে। শফি ভাইকে পেয়েও অনেক অনেক খুশি লেগেছে। কলেজে যে ভাইগুলিকে পাইনি তাদের সিসিবির কল্যানে দেখতে পাওয়া সৌভাগ্যের ব্যাপারই বটে।
আর পেলাম মাসরুফকে। এই ছেলেটা শুধু ক্যাডেট কলেজই না দেশের ব্যাপারেও কি যে স্পর্শকাতর, ভাবাই যায় না। আন্দালীবের তো আমি ভক্তবিশেষ। তৌফিকের লেখাও কি দারুণ লাগে!
আরো অনেকে………এডিসন ভাই,ওবায়দুল্লাহ ভাই, মাহফুজ ভাই, মান্নান ভাই, মেহেদী, আহসান, মাহমুদুল আলম,কনক, রকিব,তারিক কতজনের নাম নিব। আপাতত এরাই আমার পরিবার। না দেখেও যে অনেককেই আপন ভাবা যায় এ যেন সিসিবিতে না এলে আমার জানাই হোত না।
তবু্ও আজ এই ক্ষণে সিসিবিকে সমৃদ্ধ করার জন্য কয়েকজনকে স্যালুট না দিয়ে থাকতে পারব না।
তারা হলেন….তারা হলেন…..সিসিবির সবাই :salute: বিশেষত ৯৯ ব্যাচ
এত বিস্তারিত না লিখেও আমার সিসিবিতে আগমন বিষয়ে জানান দেয়া যেত নিচের তিনটি হ্যাটসঅফ দিয়ে
তারেক :hatsoff:
রায়হান আবীর :hatsoff:
কামরুল :hatsoff:
কিন্তু কি আর করা??
যথেষ্ট লাইনছাড়া না চললে যে আমার একদম ভালই লাগে না 😀

৫,৫০০ বার দেখা হয়েছে

৭৮ টি মন্তব্য : “শুভেচ্ছা রাশি রাশি; সকল সিসিবিবাসী”

  1. সাকেব (মকক) (৯৩-৯৯)
    দারুণসব লেখক রহমান ভাই,সাকেব ভাই, মুহাম্মদ, হাসনাইন, রাশেদ, আমিন আরো কত কে?

    :just: চোখে পানি এসে গেল...

    অফটপিকঃ আমার নামটা আবার লাইনছাড়া হয়ে ঢুকে গেল নাতো? :-/


    "আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
    আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস"

    জবাব দিন
  2. রবিন (৯৪-০০/ককক)
    না দেখেও যে অনেককেই আপন ভাবা যায় এ যেন সিসিবিতে না এলে আমার জানাই হোত না।

    :clap: :clap:

    রবিন(পিরা ভাষার জনক), শোয়েব( গায়েব হবার জনক) আর তানভীরকে(আলস্যের জনক) আবার ফিরে পাই।

    আহা, নিজের নাম দেখতে কতো ভালো লাগে

    জবাব দিন
  3. টিটো রহমান (৯৪-০০)
    শুভেচ্ছা রাশি রাশি; সকল সিসিবিবাসী
    লিখেছেনঃ টিটো রহমান (৯৪-০০) | রবি, ১৮/০১/০৯ – ১:৫১ অপরাহ্ন

    হরে.........নিজের নাম দেখতে কতো ভালো লাগে


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
  4. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)
    যেদিকে চোখ যায় কেবল সবুজ বনানী..

    ক্যান্টনমেন্ট এলাকা সবুজ বলা যেতে পারে.. :-B
    কিন্তু সবুজ বনানী???? 😮
    না.. :no:

    :thumbdown:
    টিটো ভাইএর ব্যান চাই.. :dreamy:


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  5. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)
    সেখানে সেই দেবশিশুরা লালিতপালিত হতে লাগল মহৎ উদ্দেশ্যে। বড় হয়ে তারা দেশ ও দশের কাজ করবে। আর তাই তাদের খাওয়ার কোণ চিন্তা ছিল না ….পড়ার কোন চিন্তা ছিল না।তারা অন্যরকম ভাবে মানুষ হতে লাগল এবং বুঝতে শিখল তারা সাধারণ নয়। কারণ তারা আম, কাঠাল কিংবা পেয়ারার মত সাধারণ ফলও ঠিক সাধারণ ভাবে উপভাগ করে না। কত কত সৃজনী দক্ষতায় তারা ডাব খায়! আমার মত হরিজনও ঠিক চেপেচুপে সেখানে বড় হয়ে গেল একদিন। অশ্রুশিক্ত নয়নে নব নব দেবশিশুদের কাছ থেকে বিদায়ও নিল তারা। একদিন।

    ইস্ ইস্ ইস্ ............।

    অঞ্জনের আরেকটা গানের লাইন মনে পড়ল,

    বয়স পনেরতে এসে গেছে আটকে

    আমরা মনে হয় সেই ছয় বছরের জীবনেই আটকে আছি।
    বেরুতে চাইও না।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  6. তাইফুর (৯২-৯৮)

    আদম আর হাওয়ার (ষ্টাইল কইরা কইলে এডাম এন ঈভ) গল্প ভাল ছিল। তবে নূহের (নোয়াহ) মহাপ্লাবনের মত গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট বাদ পরে গ্যাছে। :-B

    (সানাউল্লাহ ভাইয়ের নাম মনে হয় দুর্ঘটনাক্রমে বাদ পরে গ্যাছে। আমার কমেন্টটা সহ তোর লেখা সময় থাকতে এডিট কর)

    এত সুন্দর কইরা লেখস ক্যাম্নে ??


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  7. রকিব (০১-০৭)
    মেহেদী, আহসান, মাহমুদুল আলম,কনক, রকিব,তারিক কতজনের নাম নিব। আপাতত এরাই আমার পরিবার।

    😀 😀 টিটো ভাই আমার দিন বানায় দিল... B-) B-) শার্টের কলার তো নাই, সানগ্লাস পইড়াই এট্টু ভাব নিয়া নেই B-) B-) :thumbup:


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  8. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    সিসিবি'র একটা আকিকা দিছি। ছাগলের চাইরাটা রানের একটা সিসিবি এডু, একটা কামরুল, একটা তাইফুর আর একটা রবিনরে পাঠাইছি। অহনো জানাইলানা খাইতে কেমুন আছিল। ছাগলের বটটা অবশ্য মাস্ফ্যুর জন্য পাঠাইছি।

    জিগাইলা না কেন আকিকা দিলাম? সিসিবির একটা নতুন নামকরণ করছি। তোমাদের সবার নিশ্চয়ই পছন্দ হবে। "পাপিচুস"- অর্থাৎ 'পারস্পরিক পিঠ চুলকানি সমিতি'। 😀 😀 😀 হাজারতম পোস্ট থেকে আমরা তো :just: এইডাই করতাছি। নাকি?


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  9. ভাই আপ্নেই বউ কথা কও গল্প লিখছেন ????? নাহ এই গল্প ভুলা যায় না । এই রকম একটা আইডিয়া পাওয়ার জন্য আমি ২০টা গ্রামান্তর দৌড় দিতে রাজি আছি । গল্প লেখেন । আপ্নে বিখ্যাত হইলে আমরা তাইলে পরে আপ্নেরে দেখায়া বলতে পারব এই লোক এক সময় আমাদের সাথে ব্লগীং করত 😀 তখন অবশ্য পাত্তা দিই নাই 😉

    জবাব দিন
  10. আর এইখানে রাশেদ বলতে কি আমারে বুঝাইছেন ??? :shy:
    বুঝাইলে এই চান্সে একটু ভাব মাইরা লই B-)
    না বুঝাইলেও সমস্যা নাই সব রাশেদ ভাই ভাই তাই ভাব মারতে সমস্যা নাই 😉

    জবাব দিন
  11. রহমান (৯২-৯৮)
    আপাতত এরাই আমার পরিবার। না দেখেও যে অনেককেই আপন ভাবা যায় এ যেন সিসিবিতে না এলে আমার জানাই হোত না

    আমার জন্য ১০০% খাটি কথা :thumbup:

    পাই কমেন্টশিল্পী জুনা এবং পয়েন্টে পয়েন্টে অবজারভার তাইফুর ভাইকে। দারুণসব লেখক রহমান ভাই,সাকেব ভাই, মুহাম্মদ, হাসনাইন, রাশেদ, আমিন আরো কত কে?

    B-) দাও দাও, আরো দাও 😀 । আমার অবশ্য ফুলতে ভালই লাগছে 🙂

    তবু কলেজের একখানা পোস্ট বাড়ানোর লোভ সামলাতে পারলাম না

    এ জগতে হায়, সেই বেশি চায়, যার আছে ভুড়িভুড়ি,
    বরিশালের ঘোড়া ১ম হয়েও করতে চাচ্ছে ডাবল সেঞ্চুরী!!! :bash: :bash: :bash:

    জবাব দিন
  12. তৌফিক (৯৬-০২)

    আমার নাম আছে :party: :party: :party:

    ব্যস্ত আছি টিটো ভাই, নাইলে এই উপলক্ষ্যে আপনাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানায়া একটা ব্লগ নামায়া ফেলতাম। সিসিবির প্রদায়কগোষ্ঠী, পাঠকগোষ্ঠী ও মন্তব্যকগোষ্ঠী রকস। 😀

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।