চলে গেলেন নুরুল ইসলাম স্যার…

ক্যাডেট কলেজের মা-বাবা ছাড়া দিনগুলিতে কিছু মানুষের নিবিড় স্নেহ-মমতা আমাদের আজীবন ঋণী করে রেখেছে। আমাদের সবার প্রিয় ম্যাথাম্যাটিক্সের নুরুল ইসলাম স্যার তাঁদের অন্যতম প্রধান। ক্যাডেটদের স্বভাবসিদ্ধ ‘শিক্ষকদের নিয়ে আলোচনা’র উর্ধের এই মানুষটি ছিলেন দার্শনিক গোত্রের। তিনি কেন রাগ করতে পারেন না, বা করেন না – এটাই আমাদের কাছে বিস্ময়ের বিষয় ছিল। অন্যদের বেদম প্রহারে যা হত না – নুরুল ইসলাম স্যারের ‘কি রে বেটা!’ ‘স্টুপিড’ বা ‘বোকা ছেলে’ ধরনের বকাঝকাতেই কাজ হয়ে যেত – আমরা আমাদের ভুল বুঝতে পারতাম, লজ্জিত হতাম, শপথ করতাম আর কোনদিন কৃত অপরাধের পুনরাবৃত্তি করব না।

অংক শেখানোর ব্যাপারে স্যার ছিলেন প্রফেসর শ্রেণীর, একই অংক কয়েকভাবে করিয়ে তিনি প্রমান করতেন, অংক ব্যাপারটায় অনেক মজাও আছে। স্যার আমাদের মাঝে মাঝে ইংরেজিও পড়াতেন, শেখাতেন ইংরেজি আবৃত্তি। মনে পড়ে, উইলিয়ম ওয়ার্ডসওয়ার্থ এর দ্য সলিটারি রিপার, তার শেখানো স্টাইলে আবৃত্তি করেই প্রথম পুরস্কার পেয়েছিলাম।

পরম শ্রদ্ধেয় এই সাধুশ্রেণীর মানুষটি, আমার ক্লাসমেট তৌফিকের (২০/১১৩৯) বাবা, জনাব নুরুল ইসলাম আজ সকালে তাঁর ঝিনাইদহের বাসায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। যে মানুষটি দীর্ঘতম সময়ের জন্য ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজের ছোট ছোট ছেলেগুলোকে স্নেহরসে সিক্ত করে আমাদের হৃদয়ে আমাদের নিজেদের বাবা-মায়ের মতই আজীবনের জন্য জায়গা করে নিয়েছেন, তাঁকে পরম করুণাময় নিজে হাজার লক্ষগুণ উত্তম আশীর্বাদে সিক্ত করে রাখবেন – এই কামনা করি।

৭০২ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “চলে গেলেন নুরুল ইসলাম স্যার…”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।