আনন্দাশ্রু এবং…

আমি আর আমার পিচ্চি বোন-ওর ইংলিশ মিডিয়ামি ভাষায় "দি টাইগার সিব্লিংস"!!আমার পিচ্চি বোনটা আমার চেয়ে ঠিক ৭ বছরের ছোট।পৃথিবীর সবচাইতে বড় যন্ত্রনা যে ছোট বোন নামক প্রানী এ নিয়ে মনে হয় “ভুক্তভোগী” কেউ দ্বিমত করবেননা-আমার বোনটাও এর ব্যতিক্রম না।তার বদ্ধমূল ধারণা আমি যেহেতু ক্যাডেট কলেজে ছয় বছর বাড়ির বাইরে ছিলাম তাই আব্বু-আম্মুর উপর আমার চাইতে তার দাবী বেশি।এই দাবী খালি আব্বু-আম্মুর উপর না আমাদের ব্যবহার্য নিত্যপ্রয়োজনীয় সব জিনিসের উপরেই।টিভির রিমোট থেকে শুরু করে কম্পিউটার-সব কিছুতে তার নিয়ন্ত্রন নেয়া চাই।তবে দুষ্টামি করলেও পিচ্চি কিভাবে কিভাবে জানি পড়াশোনায় বরাবরই খুব ভাল ছিল।ইংলিশ মিডিয়ামে পড়ে খুব ভাল রেজাল্টও করেছিল ও লেভেল আর এ লেভেলে।কিন্তু এ লেভেলের পরেই বাঁধল বিপত্তিটা-আব্বু আম্মু ঠিক করলেন যে বাকি সব ইংলিশ মিডিয়ামের ছাত্রছাত্রীদের মত দেশের বাইরে না পাঠিয়ে তাঁরা ওকে দেশের ভাল প্রতিষ্ঠানগুলোতে পরীক্ষা দেওয়াবেন।কি মুশকিল!!যে সিলেবাস আগে কখনো পড়েনি সেই সিলেবাস নিয়ে বসতে হল ওকে-শুরু হল রাত দিন পড়াশোনা।আমি তখন বিসিএস নিয়ে ব্যস্ত-সারারাত পড়ি,মুভি দেখি আর একটু পর পর “ভাইয়া স্থানাঙ্ক মানে কি?জারণ-বিজারণ বিক্রিয়া কি,স্থিতি আর গতি কি” এইসব প্রশ্নের উত্তর দেই।সকালে পড়া শেষ করে যখন ঘুমাতে যাই ৪টা-৫টার দিকে তখন দেখি ও পড়ছে-আবার রাতের বেলাতেও দেখি বই নিয়ে বসে আছে।জুলাইতে এ লেভেল শেষ করে দু মাস সময় নিয়ে ও যে বাংলা মিডিয়ামের সিলেবাস শেষ করতে পারবে এমন আশা আমি বা আমার পরিবারের কেউই করেনি।এমসিসির গাজী(সম্ভবত ২০০৭ এইচ এস সি ব্যাচ),যে কিনা বুয়েট ইলেকট্রিকালের ছাত্র-তাকে রাখা হল হাউস টিউটর হিসেবে।সেই ছেলেও সপ্তাহে ৩/৪ দিন দুই তিন ঘন্টা ধরে পড়িয়ে যেত আমার পিচ্চি বোনটাকে-সাধারণ বাংলা প্রতিশব্দগুলো না জানা ছাত্রীকে যে ধৈর্য নিয়ে ছেলেটা পড়াত সেটা ভেবে অবাক হতাম।যথারীতি ও পরীক্ষা দিল এবং প্রচন্ড মন খারাপ করে বলল যে সূত্র মনে না থাকার কারণে ৩০ নম্বর উত্তরই দিতে পারেনি।পুরো পরীক্ষা কেমন হয়েছে জানতে চাইলে বলল মোট ৬০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষায় খুব বেশি হলে সাড়ে তিনশ এর কাছাকাছি পাবে ।কি আর করা,দুই মাসে নতুন একটা সিলেবাস নিয়ে ও যে সাহস করে পরীক্ষা দিয়েছে এটা নিয়েই কান্নারত ছোটবোনটাকে সান্তনা দিতে থাকলাম আমরা সবাই।

পরীক্ষার ফলাফল দিল গভীর রাত্রে-রেজাল্ট দিয়েছে শুনেও পিচ্চি নির্বিকার-জানে,হবে না।আমার বন্ধু সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিঙ্গের মামুনকে বলেছিলাম ও পরীক্ষা দিয়েছে-ও বুয়েটে যাবার পথে আমার বোনের এডমিশন টেস্টপাস নম্বর জানতে চাইল।”দোস্ত ও তো ইংলিশ মিডিয়াম থেকে পড়েছে মনে হয়না ওর হবে” এই বলে নম্বরটা দিলাম। তার কিছুক্ষণ পরেই গাজীর ফোন-ভাইয়া মোহনা তো বুয়েটে চান্স পেয়েছে-ওর সিরিয়াল নম্বর ৪৪০।

অধিক আনন্দে মানুষ হাসির চেয়ে কান্নাকেই বেছে নেয়-কথাটি কতটা সত্য তা টের পেলাম আমার আম্মাকে দেখে।আমার সব খালারাই বাসার আশে পাশে থাকেন-সেই রাত ১২ টার দিকে সবাই একত্রিত হলেন,পুরো বাসায় যেন ঈদের আনন্দ!

এই আনন্দের অনেক আগে,আমার ছোট বোনটা যখন নতুন সিলেবাস নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে তখন নানাভাবে আমি উৎসাহ যোগাতাম-বলতাম অনেক মানুষের গল্প যারা অসম্ভব প্রতিকূলতার মধ্যেও ভেঙ্গে না পড়ে লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন,হার মানেননি।গল্পগুলো শুনে ঘুম ঘুম চোখে আমার বোনটা আবার মুখ গুজে দিত আগে কখনও না পড়া টেক্সটবইগুলোতে।যখন কল্পনা করতাম যে ওর মুখোমুখি হতে হবে দুই বছর ধরে এই বইগুলো ভাজাভাজা করে ফেলা বাংলা মিডিয়ামের তুখোড় ছাত্রছাত্রীদের-তা-ও আবার দু’মাস সময়ের মধ্যে-আমি নিজে খুব একটা আশার আলো দেখতে পেতাম না।তবুও,ওকে কখনো পশ্চাদপসরণ করতে বলিনি।২০০১ সালের আইসিসিএলএমএমে ডঃ ফস্টাসের এলোকিউশনের সময় স্টেজে এক ক্যাডেটের কান্নার অভিনয় দেখে বিরক্ত হয়ে আরসিসির জয়নাল আবেদীন স্যার বলেছিলেন-“”এ ম্যান ক্যান বি ডেস্ট্রয়েড বাট নেভার ডিফিটেড,হোয়াই ইজ হি ক্রাইং?”।কোন কঠিন পরিস্থিতিতে পড়লে কেন জানি স্যারের এ কথাটি আমার মনে পড়ত।আর সিসিবিতে আসার পর মনে দাগ কাটত আমাদের সবার প্রিয় রেজওয়ানের(১৯৯৯ ব্যাচ) লেখা “জীবনের গল্প”গুলো।আমার ছোটবোনকে তাই প্রায় অসম্ভব এক স্বপ্নের পিছনে ছুটতে বাধা দেইনি।সবাইকে অবাক করে এই অসম্ভব স্বপ্নকে সত্যি করে আমার পিচ্চি বোনটা যে বিজয়ী হয়েছে-এ আনন্দ তাই আমার সবচেয়ে আপন ক্যাডেট পরিবারের সাথে আজ ভাগ করে নিচ্ছি।

আর হ্যাঁ,জীবনের গল্প শোনানো রেজওয়ানকে নিয়ে আপনারা যা ভেবেছিলেন তাই-আর এক ঘন্টা পরে ওর জন্মদিন।হ্যাপি বার্থডে রেজওয়ান!!!

১১,৬১৪ বার দেখা হয়েছে

১২৩ টি মন্তব্য : “আনন্দাশ্রু এবং…”

  1. রাশেদ (৯৯-০৫)

    কি দিয়া শুরু করলেন আর কি দিয়া শেষ করলেন। নাহ আপনি আসলেই একটা মাল 😀 যাক এই পোস্টে দুই খান মিষ্টি খাওয়া পাওনা হয়ছে। মাস্ফু ভাই বোনের জন্য খুশিতে মিষ্টি খাওয়ান 🙂

    আর রেজওয়ান ম্যান, আছু কেমুন? জন্মদিনে বড় হও, তিন প্রহরের বিল দেখ সাথে চাইলে বালিকাও দেখতে পার 😛 শুভ জন্মদিন দোস্ত 🙂

    মাস্ফু ভাই আর রেজওয়ান কেউ মিষ্টী খাওয়ানোর আগে যাই আপাতত ফ্রিজ থেকে মিষ্টি খেয়ে আসি 😀


    মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

    জবাব দিন
  2. আন্দালিব (৯৬-০২)

    অনেক অনেক অভিনন্দন-পার্ক তোমার বোনের জন্যে মাসরুফ। বাংলা মিডিয়ামের বাজে জগতে ওকে স্বাগতম!

    আর সাথে রেজওয়ানকেও জন্মদিনের শুভেচ্ছা। বয়স কতো হলো হে? 😉

    জবাব দিন
  3. রেজওয়ান (৯৯-০৫)

    এই ১ টার সময় অফিস থেকে আইসা পোস্টে ঢুইকা পুরাই ইমোশনাল হইয়া গেলাম
    মাসরুফ ভাই, আপনেরে কি খাওয়ামু কন .....দুইন্যার সব হাজির করমু খালি হুকুম করেন...... :salute:

    জবাব দিন
  4. মেলিতা

    অভিনন্দন ছোট্ট বোনকে।
    শুভ জন্মদিন, রেজওয়ান।
    (বড় ভাইবোন মনে হয় সবসময় এমনি হয়ে। আমার বুয়েট আর মেডিকেল এর রেসাল্ট হওয়ার পর আমার বড়বোন এমন জোরে চিৎকার করছিলো যে বিল্ডিং এর সব লোক ছুটে এসেছিল আগুন লেগেছে ভেবে।)

    জবাব দিন
  5. মোস্তফা (১৯৮৮-১৯৯৪)

    ছোট বোনটিকে অভিনন্দন আর অভিনন্দন গর্বিত ভাইকে। আমি নিজে পরিবারের মাঝে বড়। মিস্ করি এই বড় ভাই বা বোনের আদর ও উচ্ছাসটুকু। আমার ছোট বোনটিও যে'দিন বুয়েটে সুযোগ পেল তোমার মত একই অনুভুতি হয়েছিল। তবে বুয়েটে লেকচার বাংলায় হলেও, সমস্ত বই এবং পরীক্ষা ইংরেজীতে হওয়ায় আমার মনে হয় না তোমার বোনের কোন সমস্যা হবে, বরং সুবিধেই হবে। তবে প্রথম থেকেই যেন সিরিয়াস থাকে। দোয়া রইল তাঁর জন্য।

    জবাব দিন
    • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

      ভাইয়া আমার মনে হয়না ভাষার ব্যবধান বড় কোন সমস্যা।আমরা সবাই নিতান্তই বাংলা মিডিয়াম থেকে এসে যদি অনার্স মাস্টার্স ভালভাবেই ভিন্ন ভাষায় পার হতে পারি তাহলে অর সমস্যা হওয়াটা উচিৎ না,বিশেষ করে ভর্তির বাধা পার হবার পর।দেখা যাক কি হয়!

      জবাব দিন
  6. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    মোহনা
    অভিনন্দন আপু।
    মাস্ফুরে ১০০০ টাকা দিয়া দিলাম। আমার নামে কেএফসি'তে খাইয়া নিও।

    বড় শখ আছিলো জীবনে একবার হইলেও বুয়েটে পড়ুম। কিন্তু আফসোস, ভর্তি পরীক্ষার দিন সকালে খুব বৃষ্টি হইতেছিলো, তাই লেপ গায়ে দিয়া ঘুম দিছিলাম। 😛 ঘুম থেইকা উইঠা শুনি পরীক্ষা শেষ।

    রেজওয়ান
    শুভ জন্মদিন।
    বড় হ। আমি তোরে তিন প্রহরের বিল দেখাতে নিয়ে যাবো।


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  7. রকিব (০১-০৭)

    রেজুদা, শুভ জন্মদিন। বুঝছেন আপনার লাইগা বেকার থেইকা একটা বিশাল কেক কিনছি; মাস্ফ্যুদারে রিকুয়েষ্ট করছি আপনারে পৌঁছে দেয়ার জন্য। আশা করি পাইয়া গেছেন। না পাইলে মাস্ফ্যদার বাসায় গুগল দিয়া সার্চ দিয়েন। :grr: :grr:
    ছোট বোনের জন্য রইলো অভিনন্দন। ভালো করে ফাইট (বুয়েটে তো ফাইটই কয়, নাকি?) দাও আপু। মাস্ফ্যুদা থ্যাঙ্কু এই চমৎকার পোষ্টের জন্য।
    পেইনে আছি- আইজদ্দীন জুনিয়র। 😕 😕


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  8. দিহান আহসান

    আপু'কে অনেক অভিনন্দন। 🙂

    রেজু মিয়া জন্মদিনের অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইলো, :party:
    তোমার খাওয়ার পাওনা রইলো, চইলা আসো, এইখানে খাইয়া যাও 🙂

    ম্যাশ লেখা ভালো হয়েছে, আমি অবশ্য শেষে এসে টুইষ্ট পড়িনি 😛
    একদম পরথম থেকে শেষ 🙂 🙂

    জবাব দিন
  9. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    মোহনা, অভিনন্দন আপু।

    রেজওয়ান শুভ জন্মদিন... :party: :party:

    মাস্ফ্যু, লেখা দুর্দান্ত হইছে :thumbup:


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  10. ইফতেখার আলম খান (৭৯-৮৪)

    হ্যাপি বার্থডে রেজওয়ান। তোমার খাওয়া পাওনা থাকল। ঢাকায় আসলে খেয়ে যেও। :party:
    মাসরুফ তোমার এই আসাধারণ লেখার জন্য অভিনন্দন। :clap: :clap: :clap:
    তুমি বেশি ব্যস্ত থাকলে আর কষ্ট করে খাওয়ার জন্য আসার দরকার নাই। 😛
    ব্যস্ত না থাকলে সময় করে এসে খেয়ে যেয়ো।

    জবাব দিন
  11. তানভীর (৯৪-০০)

    মোহনাকে অনেক অনেক অভিনন্দন। ইংরেজী মাধ্যমের পাঠ্যসূচীর সাথে বাংলার বেশ ব্যবধান। ইংরেজী মাধ্যমের একজনকে পড়াতে গিয়ে এই ব্যবধান ক্ষণে ক্ষণে টের পেয়েছি। এটা অতিক্রম করে বুয়েট ভর্তি পরীক্ষায় এরকম রেজাল্ট করা সত্যিই অনেক কষ্টকর। মোহনা ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে খুব ভালো করবে।
    ওহ্! এই ফাঁকে জানিয়ে নেই, আমার ছোট ভাইটা এবার বুয়েট ভর্তি পরীক্ষায় ১৪তম হয়েছে। আমি খুব খুব খুশি। 🙂

    রেজওয়ান.........জন্মদিনের শুভেচ্ছা। এখানেই থেমে গেলে চলবে না কিন্তু, তোমাকে আরও বড় হতে হবে। তখন কামরুল তোমাকে তিন প্রহরের বিল দেখাতে নিয়ে যাবে। 😀

    জবাব দিন
  12. মাশ্রুফ ভাই,কুইক মিস্টি পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।
    পিচ্চি কে অনেক অনেক কনগ্রেটস।
    রেজওয়ান,বার্থডে টা কবে CORO করাবি,বলিস।
    জটিল পোস্ট মাশ্রুফ ভাই। 🙂

    জবাব দিন
  13. জুলহাস (৮৮-৯৪)

    মোহনা
    অভিনন্দন আপু। :clap: :clap:
    মাস্ফুকে ১,০০,০০০ টাকা দিয়েছিলাম। আমার নামে কেএফসি’তে খেয়ে নেওয়া...এবং তোমার বুয়েটের পড়ালেখার প্রয়োজনীয় কেনা কাটা-র জন্যে...দেয় নি??? :grr: :grr: 😉 😉

    বড় শখ আছিলো জীবনে একবার হইলেও বুয়েটে পড়ুম। আফসোস, ঐ খানে আমারে কঠিন এক সাবজেক্ট-এ পড়াও লাগছে!!!...(ন্যাভাল আর্কিটেকচার এন্ড মেরীন ইঞ্জিনীয়ারীং) :bash: :bash: :bash:

    রেজওয়ান
    শুভ জন্মদিন।
    বড় হও। লক্ষ কোটী সন্তানের জনক হও... ;;; ;;; ;;; :awesome: :awesome: :awesome: :dreamy: :dreamy: :dreamy: (বোঝ ঠেলা!!)


    Proud to be an ex-cadet..... once a cadet, always a cadet

    জবাব দিন
  14. শোভন (২০০২-২০০৮)

    আপুকে অভিনন্দন ।
    রেজোয়ান ভাইয়ের জন্য জন্মদিনের শ্যভেচ্ছা ।
    সুন্দর পোষ্টের জন্য মাশ্রুফ ভাইয়াকে ধন্যবাদ । মিষ্টি পাওনা থাকিল । সময় পাইলে খাওয়াইয়া
    দিয়েন ।

    জবাব দিন
  15. রেজওয়ান, হ্যায় ইয়ো, হ্যাপ্পি বার্থডে, ডুড। সরি ফ' লেইট ইয়ো। গাডা কিক সাম িট্স হোওমি। খ্যাচিউ আপ লেইঠা, ডুড।

    ভগ্নী মোহনা, প্রকৌশল বিদ্যায় অধ্যয়নের বিরল সম্মানমিশ্রিত সুযোগ লাভ হেতু অভিনন্দন, তথাপি ব্যাপক আনন্দিত হইয়া স্নেহার্দ্র ভগ্নীর জন্য ভ্রাত মাস্ফ্যুর নিকট সহস্র অর্থ প্রদান করিলাম। চর্ব্য, চোষ্য, লেহ্য, পেয় যাহা খুশি খাইয়া লইবে।
    অভিনন্দন।

    জবাব দিন
  16. ওয়াহিদা নূর আফজা (৮৫-৯১)

    রেজওয়ান সারা জীবন এই বয়সের মতোই চিরতরুন থেকো।
    মোহনা, মাসরুফের কাছে তোমার জন্য $১০০০ পাঠালাম। নিয়ে নিও।


    “Happiness is when what you think, what you say, and what you do are in harmony.”
    ― Mahatma Gandhi

    জবাব দিন
  17. আহ্সান (৮৮-৯৪)

    ম্যাশ,
    সুন্দর লিখেছ... ভাব প্রকাশের ক্ষমতা তোমার যথেষ্ট প্রখর... এ ব্যাপারে নতুন করে আর কি বলবো...।

    ছোট আপু কে অভিনন্দন। এস এস সি'তে উচ্চতর গণিত না থাকলেও পিতৃদেবের চাপাচাপিতে এইচ এস সি'তে গণিত নেবার লক্ষ্যে এস এস সি'র ছুটিতে ম্যাট্রিকের পুরো সিলেবাস শেষ করে ইলেভেনের অর্ধেক সিলেবাস শেষ করে কলেজে জয়েন করেছিলাম। ভেবেছিলাম আমি একাই শুধু কাবিল... কিন্তু ছোট আপু টা দেখি আরো বস... :salute:

    মাস্ফ্যু'কেও অভিনন্দন বোন কে উৎসাহ দেবার জন্য...

    জবাব দিন
    • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

      বিবাহের পর আপনে এক্কেবারে উধাও হয়া গেছেন...বুঝতে পারতেছি অফিস আর সংসার নিয়া অনেক ব্যস্ত তাই নতুন কোন দাবী উত্থাপন করা থেইকা বিরত থাকলাম।সিসিবির বিপ্লবের ইতিহাসে আপনের বিবাহের দাবীতে আমাদের গণআন্দোলনের কথা স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে :grr:

      জবাব দিন
  18. কমেন্ট গুলা পরে হাসতে হাসতে গরায়ে পরসি ! সব ভাইয়ারা যারা আমাকে অভিনন্দন জানাইসে তাদের কে অনেক অনেক ধন্যবাদ .... 😡 🙂 সবাই প্লিজ দোআ কইরেন যাতে আমি আরো প্রসপার করতে পারি লাইফ এ . ইত্জ জাস্ট দা বিগিনিং ...আই হাভ গট আ লং ওয়ে টু গো 🙂 .
    পি.এস - ভাইআ আমি পিচ্চি না x-( আমি এখন উনিভারসিটির স্টুডেন্ট B-) ...আর আব্বু আম্মু আসলেই আমার বেশি আর তোর কম 😀 :grr: . আমার তোদের ব্লগ এর ইমোটিকনজ গুলআ খুব পছন্দ হইসে কিন্তু আমার ঠিক শব্দ টাইপ করতে অনেক টাইম লাগসে x-( ! এন সরি যদি কোনো স্পেল্লিং মিস্তাকেস করে থাকি :shy: O:-)

    জবাব দিন
  19. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    মোহনা
    অভিনন্দন আপু।
    মাস্ফুরে ফয়েজ ভাইয়ের মাধ্যমে ১০০০ টাকা জুলহাস ভাইরে দিয়া লাখ খানেক আর শান্তাপুর মাধ্যমে ১০০০$ দিয়া দিলাম। কেএফসি’টা কিইন্যা ফালাইও। 😀

    বড় শখ আছিলো জীবনে একবার হইলেও বুয়েটে পড়ুম। কিন্তু আফসোস, ভর্তি পরীক্ষার দিন প্রশ্ন খুব সোজা হইলেও উত্তরগুলা সেরকম কঠিন হইতেছিলো, তাই লেপ গায়ে দিয়া পরীক্ষা দিছিলাম। 😀 খাতা জমা দিতে উইঠা শুনি পরীক্ষা শেষ। 🙁

    রেজওয়ান
    শুভ জন্মদিন।
    বড় হ। তখন তিন প্রহরের বিল এ মাছ ধইরা পাঁচ প্রহরের বিলে ছাইড়া দেয়া শিখাইমুনে।


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন
  20. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    এক পোস্টে এত এত ভাল খবর। কারে বাদ দিয়ে কারে অভিনন্দন জানামু। মাস্ফ্যুকে ধন্যবাদ। বাকি সবাইকে অনেক অনেক অভিনন্দন।
    রেজুরে জন্মদিনের শুভেচ্ছা

    জবাব দিন
  21. রাহাত (২০০০-২০০৬)
    আব্বু আম্মু ঠিক করলেন যে বাকি সব ইংলিশ মিডিয়ামের ছাত্রছাত্রীদের মত দেশের বাইরে না পাঠিয়ে তাঁরা ওকে দেশের ভাল প্রতিষ্ঠানগুলোতে পরীক্ষা দেওয়াবেন।

    আংকেল আন্টিরে :hatsoff: :hatsoff: :hatsoff: :salute:

    জবাব দিন
    • মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

      অবাক ব্যাপার হচ্ছে এইটা নিয়ে আমার সাথে আম্মা আব্বার কিছুটা তর্ক হয়েছিল,পিচ্চি পাগলের মত পড়েও সিলেবাস কভার করতে পারছিলনা দেখে আমি বেশ কিছুটা রাগই করেছিলাম তাঁদের সিদ্ধান্তের কারণে।কিন্তু শেষে দেখা গেল উনারাই বস! 😛

      জবাব দিন
  22. জিহাদ (৯৯-০৫)

    আমি দেখি লাস্টের লাইন মিস করসি ! 😕

    হ্যাপি বাড্ডে রেজওয়ান। (নাকি অলরেডী বার্থউইক হয়া গেসে?!)

    আর বুঝিসই তো, এখানেই থেমে গেলে চলবেনা কিন্তু.... 😉


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  23. আহমদ (৮৮-৯৪)
    ফুলোকা তারোকা সাবকা কেহনা হ্যায়
    এক হাজারো মে মেরে বেহনা হ্যায় ...

    মাস্ফু ... দারুন লেখা ... mind-blowing ... খুব ভাল লাগল ... কিছু-কিছু ভাল লাগার মুহূর্ত মন খারাপ করে দেয় ... তোমার লেখাটা ঠিক সেইরকমের একটা আনুভূতি এনে দিল।


    চ্যারিটি বিগিনস এট হোম

    জবাব দিন
      • আছিব (২০০০-২০০৬)

        :boss: বস,আপনি সু্যোগ্য ভাই হিসেবেও বস,সাম্প্রতিক মন্তব্যে কমেন্ট দেখে পড়তে ঢুকলাম,এবং ঢুকেই বিমোহিত হয়ে গেলাম !!!!লেখাটা তো ভাল হইছেই,আর আপনার বোনের পরিশ্রম টাও অনুকরণীয় :clap: ।কিন্তু সে ্যে আসলেই ভাল ছাত্রী :hug: ,এ ব্যাপারে সন্দেহের কোন অবকাশ নাই।@মাসরুফ ভাই :boss:
        @ মোহনাঃ :salute: ছোট আপু,বুয়েটে তোমাকে স্বাগতম।'০৯ ব্যাচ তো,তাই না?কোন সাব্জেক্ট নিলা???সিভিল নিলে আরও স্বাগতম। :hug: সবাই চাপা মারলেও আমি মারমু না।কে.এফ.সি. না,বুয়েট ক্যাফেতেই সত্যি সত্যি খাওয়ামু নে তোমারে, :teacup: বস এর বোন বলে কথা!!! :hatsoff:

        জবাব দিন
        • পিন্টু রে,আমার পিচ্চি বোনটাকে দেখে শুনে রাখবিনা পিন্টু? ও সিভিলে ভর্তি হইছে-সামনেই ক্লাস শুরু।বুয়েট ক্যাফেতে একদিন গিয়ে দেখে সবাই নাক-কান বন্ধ করে পড়াশুনা করতেছে,পাশে একটা "কাপল" বসছিল তাদের প্রেম-ভালবাসার কথাগুলাও পড়াশুনা নিয়া-দেখে বেচারী বিরাট ভয় পাইছে।তো পিন্টু,পিচ্চিটাকে দেখে শুনে রাখিস আর ও যদি বান্দ্রামি করে,ঠিকমত পড়াশুনা না করে তাহলে আমাকে জানায় দিস রে পিন্টু।ক্লাস শুরু হইলে তোর সাথে পরিচয় করায় দিয়া বলব-এই টা তোমার বড়ভাই পিন্টুদা, ঠিক আছে পিন্টু?

          জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।