ইসসিরে……সব্বাইরে কত্ত মিসাই…

সিসিবির যেকোন গেটটুগেদারেই একটা কথা অনবরত আমার মনে থাকে, সেটা হলো যারা উপস্থিত নাই তাদের কিরম লাগছে। সিসিবি ইতিহাসের প্রথম গেটটুগেদারটিতে আমি অনুপস্থিত ছিলাম, কি কারণ এখন মনে নেই, কিন্তু প্রত্যেকটা মুহুর্তে আমার হিংসা হচ্ছিল, ইসসিরে, আমারে ছাড়া ওরা কত্ত কত্ত মজা করে ফেললো…

আমি তাই মিস করি রকিব হারামজাদাটাকে, পোলাটা খাইতে কত্ত পছন্দ করে… মিস করি জ্ঞানী লাভবী ভাইকে, ঝাঁকড়া চুলের মানুষটা থাকলে জ্ঞানী জ্ঞানী কথা শুনা যেতো। মিস করি বিশাল কমেন্ট করা আমিন ভাইকে, ফটকা নাজমুলকে, প্রাণপ্রিয় রেজুকে, ভুড়িঅলা তারেক ভাই, মিলাপা, শুকনা টনটনা তৌফিক ভাই, সুইট কামতপু ভাই, বিশেষত অবশ্যই মাস্ফ্যু ভাই, ফেলার্টার সাব্বির ভাই, জ্বরে পরা ফরিদ ভাই, মালয়েসিয়ান মেহেদী ভাই, ডুমুর ফল অতিপ্রিয় কাইয়ূম ভাই, ছবি আঁকিয়ে রুম্মান ভাই, কবি এবং অত্যন্ত মায়াময় গলার অধিকারী নূপুরদা, ১৩ তারিখ পরীক্ষাওলা তারিক, চাঁটগায় থাকা আজিজ ভাই, সাল্লু ভাই, আর মিস করি দিহানাপ্পুকে। এরা সব্বাই কেন যেন এক এক করে এসে ঘুরে যেতে থাকে চোখের সামনে দিয়ে।

আমি ইয়াম ইয়াম বেগুনীটাতে একটা কামড় দিতেই বেজে ওঠে ফোন। রায়হান ভয়ে ভয়ে ফোন আগায় দিয়ে বলে বিদেশ থেকে আসছে…আমি হেলো বলতেই শুনি, আমি আমিন…বিশাল কমেন্ট করতে চাইসিলাম, কিন্তু একটু পরেই করবো, আগে একটু লাবলু ভাইয়ের সাথে কথা বলে নেই…আমি একটা চিৎকার দিয়ে উঠি, আমিইইইইইইইইইইইইইইইন ভাইইইইইইইই…

এরপর আবার আড্ডা শুরু হয়, অনেক অনেক কথা হয়…দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক ব্যবস্থা এবং তার পরিপ্রেক্ষিত সম্বন্ধে লাবলু ভাই, এহসান ভাই, ফয়েজ ভাইরা চিন্তিত হয়ে যান, কামরুল ভাই বারবার হাত তুলে ‘কিন্তু লাবলু ভাই, আমার মনে হয়…’ পর্যন্ত বলে থেমে যান, ফ্লোর পাননা, আমরা পিছনে চকলেটের কাগজ ছোড়াছুড়ি খেলি…

এরপর আমি কামড় দেই আলুরচপটাতে, আস্তে আস্তে খেতে থাকি আর ভাবি, ইসসিরে, সবাই কত্ত মিসই না করতছে…আমার মনটা দুঃখী দুঃখী হয়ে যায়…এই সময় আমার চোখ পরে শান্তাপার আনা চকলেটের বাক্সে, যেইটা শুধুই আমার জন্য আনা হয়েছিলো, কিন্তু আমি অত্যন্ত ভাল মেয়ে বিধায় অন্যদেরও খেতে দিয়েছি।

এরপর অনেক অনেক আলুচনা হয়, সিসিবির উন্নতি অবনতি, ভবিষ্যৎ, অতীত, আমরা গম্ভীর গম্ভীর মতামত দেই…এইসময় এসে পরে কমান্ডো আহসান ভাই আর কবি ওবায়েদ ভাই, এরপর দরজায় উঁকি দেয় আমার প্রিয় প্রিয় মিশকাত আপু…আমি আবার গলা ফাটায় একটা চিৎকার দেই। তারপর মনটা আবার দুঃখী দুঃখি হয়ে যায়…ইসসিরে বাইরের সবাই থাকলে কত না মজা হইতো…

এরপর আমরা সমাজ সেবা এবং মানুষের দায়িত্ব ও কর্তব্য নিয়ে আলুচনা করি। সবাই অনেক দরদ নিয়ে কথাবার্তা বলে আর আমি লুকায় লুকায় শান্তাপার আনা চকলেট খাই, আর রকিবের কথা মনে করি। অনেক দুঃখ হয় তাই আবার চকলেট খাই, এক সময় জুনাদার হাতে ধরা পরে যাই। কিন্তু জুনাদার ঘাড়ে একটার বেশি মাথা নাই জন্য উনি আর কিছু বলেনা। আমি আবার চকলেট খেতে থাকি, এরপর মারজু এসে আমাকে ধমক দেয়। তখন থামি।

আমি আবার দুঃখী হয়ে যাই যখন দেখি ডিনার সার্ভ করা হয়েছে। আমার মনে পড়ে যায় মাস্ফ্যু ভাইয়ের কথা, এসময় উনি থাকলে কতই না খুশী হতেন, তারপর মনে পড়ে তারেক ভাইয়ের কথা, উনিও নিশ্চুই কম খুশি হতেন না। আমি আবারও মনের দুঃখে খাওয়া শুরু করি। চোখের পানি ফেলি আর খাই, সবাই জিগাস করে, ‘কি সামিয়া কান্দো কেন?’ আমি বলি, ‘আমার মন তো খুব নরম, সবার কথা মনে করে খেতে পারছি না…’ তারপরেও আস্তে আস্তে অনেক কষ্ট করে (!) খেয়ে ফেলি। মনে পরে লাভবী ভাইয়ের কথা…এবং কি আশ্চর্য! ঠিক সেই সময়ে ফোন্দেন লাভবী ভাই!!।।

আমি আবার চিৎকার দেই…রাব্বীইইইইইইইইইইইইইইইইইইইইই ভাইইইইইইইইইইইইইইইই…

তারপর প্রায় ঘন্টা তিনেক ফোনে সবার সাথে কথা বলেন উনি…এরপর আমি আরেকটু কফি খাই, সবার কথা মনে করে আরেকটু কান্দি, তারপর আর থাকতে না পেরে বের হয়ে যাই…

১,৯৯৯ বার দেখা হয়েছে

২২ টি মন্তব্য : “ইসসিরে……সব্বাইরে কত্ত মিসাই…”

  1. আজিজুল (১৯৭২-১৯৭৮)

    আমার জয়েন করার খুউউউব ইচ্ছা ছিল। লাবলু কে ফোন করতে চাই ছিলাম,( বা তোমাদের কাওকে)। কারো নম্বর নাই।জে সি সি'র একজনকে চিনি, ফোন করলাম।বুদ্ধি দিল, ভাই 'ইফতার পার্টি'র' জন্য খামাখা ৪০০০+৪০০০ টাকা খরচ করে আসবেন-যাবেন? যে দিনকাল খারাপ পরছে, ঐটা দিয়া বাপে-পুতের ঈদের পাঞ্জাবী হয়ে যাইবো। কথাটা মনে ধরল।
    আমি আসলে অবশ্য তোমাদের অনেক লাভ হইত !!! মনে করছিলাম খালি হাতে তো আর পোলা-পাইন দের সাথে দেখা করা যায় না ! কয়েক Kg গরুর মাংশ " মেজবান " স্টাইলে রান্না কইরা সাথে নিয়া যেইতাম, গরম গরম surprise! সাথে লাভ লেইন এর " মিঠা পান " । আফসোস তোমাদের কপালে নাই।
    (জে সি সি'র সেই মিয়াঁর নামটা গোপন রাখতেছি , যদি 'বদ বুদ্ধি' প্রদানের কারনে তোমরা আবার তাকে আক্রমন কর! )
    যাকগে next time! আর 'প্রথম আলো' না ' রেডিও মিরচি' মিয়া সাহেবকে আমার নম্বরটা দিয়ে একটু যোগাযোগ রাখতে বোলো , Loss হবেনা বোলো! 01713-121115.
    Best Regards,-Aziz Bhai.
    P.S. YES! I MISSED THE IFTAR AND MISSED YOU ALL! (সম্পাদিত)


    Smile n live, help let others do!

    জবাব দিন
  2. শাওন (৯৫-০১)

    পরদিন অফিস নাই দেখে বোমার (স্যরি ডিমের) হালুয়া চেখে দেখলাম 😮 ......এখনও পর্যন্ত ঠিক আসে......মনে হয় ভালোই হইছে 😀


    ধন্যবাদান্তে,
    মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান শাওন
    প্রাক্তন ক্যাডেট , সিলেট ক্যাডেট কলেজ, ১৯৯৫-২০০১

    ["যে আমারে দেখিবারে পায় অসীম ক্ষমায় ভালো মন্দ মিলায়ে সকলি"]

    জবাব দিন
  3. সাবিহা জিতু (১৯৯৩-১৯৯৯)

    পার্বত্য চট্টগ্রাম এবং অদিবাসী সম্পর্কিত জমজমাট আলোচনাএ আমার মেয়ের গুরুত্বপূর্ণ মতামতের কথা কেউ উল্লেখও করলো না,

    হুম, লন্ডনেও অনেক মারামারি হচ্ছে


    You cannot hangout with negative people and expect a positive life.

    জবাব দিন
  4. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    লেখাটা পইড়া ইমোশনাল হইয়া গেলাম। কিন্তু কাইয়ুম ভাই নাই তাই লম্বা কমেন্টেও আগ্রহ পাই না। কাইয়ুম ভাইয়ের ইসসিরের কমেন্ট এখনো মিচ করি !!

    সিসিবির আড্ডাতে আরো কিছুক্ষণ কথা বলতে পারলে ভালো লাগতো। ইচ্চা ছিলো সবার সাথে কথা বলার। কিন্তু আমার ভিওআইপি ফোনের কানেকশন ডিসটার্বে বলতে পারলাম না।
    শান্তাপার চকলেটের খোলস গুলোর ছবি দেইখা উদাস হইয়া গেলাম!!!!

    জবাব দিন
  5. রুম্মান (১৯৯৩-৯৯)

    ইসসিরে..................আসলেই মিস করলাম । কি আর করবো ? বউ অসুস্থ; সংগে করে নিয়ে যে চলে যাব সেই অবস্থাও নাই । শান্তা আপা ব্যাপারটা জানে । 🙁


    আমার কি সমস্ত কিছুই হলো ভুল
    ভুল কথা, ভুল সম্মোধন
    ভুল পথ, ভুল বাড়ি, ভুল ঘোরাফেরা
    সারাটা জীবন ভুল চিঠি লেখা হলো শুধু,
    ভুল দরজায় হলো ব্যর্থ করাঘাত
    আমার কেবল হলো সমস্ত জীবন শুধু ভুল বই পড়া ।

    জবাব দিন
  6. রাব্বী (৯২-৯৮)

    এত্তগুলা ইসসিরে পোষ্টের মধ্যে ক্যামনে যেন তোমার ব্লগটা মিস হয়ে গেছিলো। পড়ি নাই! এইমাত্র পড়লাম। আমি আসলেই মিস করছি এবার সবাইকে। পুরা সিরামাত্মক আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়ছিলাম!

    আমারে পচানোর জন্য পোষ্টে মাইনাস 🙂


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
  7. রকিব (০১-০৭)

    সামিয়া আফা, আমি বেশি খাই এই ধারণা হইলো কেন আপনার? 😮 😮
    আমিও সবাইরে মিসাইছি; জি২জি যাইতে মঞ্চায় :((


    আমি তবু বলি:
    এখনো যে কটা দিন বেঁচে আছি সূর্যে সূর্যে চলি ..

    জবাব দিন
  8. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    এইভাবে হগলতের নাম ধইরা ধইরা পঁচানো! আর হেইডা দেহি সইহ্য এবং উপভোগ করতাছে!! নাহ পুলাপাইনের ধৈর্য্য বাইরা গ্যাছে কইতেই হইবো!!

    কিপিটাপ আম্মাজান.........


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।