অটোবায়োগ্রাফি অফ এ স্লেভ

“এক তারা পাইতে আর পাঁচ তারা দিতে ব্যাপক আনন্দ”- রাজীব আহমেদ
আমার নিজের লেখা কবিতার মধ্যে দাসের আত্মকথা খুব প্রিয়। একটা ঘোরের মধ্যে থেকে লিখেছিলাম। কিন্তু এটা লিখে তেমন সাড়া পাওয়া যায়নি। রেটিং এর কথা বাদই দিলাম। সিসিবিতে অনেক কিছুই হচ্ছে কিন্তু রেটিং ফিরে আসছে না।যাই হোক, সাহস করে সেটি ইংরেজীতে অনুবাদ করে অল পোয়েট্রিতে দিলাম। অনুবাদ মান সম্পন্ন না হলেও রেটিং পয়েন্ট ৩। তার মানে খুব একটা খারাপ নয়। বেশ কিছু মন্তব্যও অনুপ্রেরণাদায়ক। বাংলা এবং ইংরেজী দুই সংস্করণ ই এখানে পুনঃপ্রকাশ করা হল।
Autobiography of a Slave
Different rebirth or world Cannot change the fate. All the routestowards the center Of a black hole. Why not ? Who can deny but photon, The fastest particle of universe Can somewhat! The agile takes some time But surrenders at last To the super gravity! Singularity, the inevitable destiny! Oh, I forgot to mention Time there is frozen.

My first life was spider I am sure. Enjoyed spider love To embrace death. Some time a moth or drone Death before the birth of children Then I became a crab Eaten by own child! Ahem, important life was as a dog, The loyal friend or servant. Dedicated life to guard  And serve the masters. Thanks less job Little food and rail with stick But coming back tail shaking. Different domestic animal In different circle of life Youth and children Everything to serve others. Promoted somewhat in pyramid Or in the great Greek democracy. Slave  but not citizen Sold or bought by counting teeth Owner of none or nothing. I was not chained when I was a farmer of North Bengal Always abused by whom I feed with hard work That liquefied my blood. I was blue farmer at the colony Of East India Company That was very nice Mud on the scalp and blue seeds sowed Next life was funnier Drag down the master To be slave of colonial big brothers Had to offer blood for speaking mother tongue. My recent  master is a mask trader.Our mask factories are very cheap and fire friendly.They are not like mines of USSR or SA But fall and burn in no time.We make the masks In risk of being toasted and roasted. If I was born in different time and Space I am sure to be two dimensional.Who must defecate By its mouth, destroyed otherwise! I’m gonna be a cyborg next time. Devil or machine in flesh n blood.If i were an Android robot I could serve my master’s lust. You may laugh, I saw a dream.I am a character of game.Birth, death, win or loseEverything in the hand of the Gamer.
কয়েকটি মন্তব্য
S.zaynub.kamoonpuri : I believe we wil be resurrected into humans only as i dont believe in reincarnation. But for poetry anyting goes, so i enjoyd yor extraordinary, incredible and mindblowing poem and giggled at and adored the cyborg n robot lines most. Hey maybe u meant rebirth into a spider as in metaphor only? Kudos for the style and effort and creativity. And regards.
Hiroshiki : I can relate to your poem because I dream of my previous lives….
Nilen : This was confusing but really interesting to read because I like the whole idea of rebirth. a cool piece overall, i really liked it. Keep on writing!

দাসের আত্মকথা
জন্ম জন্মান্তরে কিংবা দেশ দেশান্তরেঘুরপাক খাই সেই একই বৃত্তে ।যেদিকেই যাই গন্তব্য কৃষ্ণগহ্বরের কেন্দ্র।কেনই বা নয় ?সেই অনন্যতার টান কে কাটাতে পারে ?ফোটনের মত হালকা আর চটপটে হলেএকটু সময় নিয়ে আত্মসমর্পন।ও হো, আমিতো ভুলেই গেছিসেখানে সময়ও স্থির।
প্রথম জন্মে নিশ্চয় মাকড়সা ছিলামরাণীর যৌনক্ষুধায় আত্মবলিদান।কখনও পুরুষ মথ বা মৌমাছিসন্তানের মুখ দেখার পূর্বেই মৃত্যু।তারপর ছিলাম কাঁকড়াসন্তানের জন্ম দিয়ে তাদেরই খাদ্য।
গুরুত্বপূর্ণ জন্ম বোধ করি সারমেয় হিসেবেমানুষের বিশ্বস্ত সঙ্গী।প্রভুর সেবা, পাহারা আর খাদ্যযোগানে জীবন উৎসর্গ।বিনিময়ে সামান্য খাদ্য গালিগালাজপ্রায়শ লাঠি বা লাকড়ির আদরঅতঃপর লেজ নাড়তে নাড়তে ফিরে আসা।কালচক্রে বিভিন্ন গৃহপালিত প্রাণী।জীবন যৌবন ছানাপোনাসবই মানুষের প্রয়োজনে।
পদোন্নতি ঘটে কালে ভদ্রেফারাও এর পিরামিডেকিংবা মহান গণতান্ত্রিক গ্রিসে।দাস কিন্তু নাগরিক নয়।পশুদের মত দাঁত গুনে কেনাবেচানিজেও নিজের নয়পরনের ছালতো দূরের কথা।
দাসত্বের শৃঙ্খল হয়তো ছিলনাযখন ছিলাম উত্তরবঙ্গের কৃষক।রক্ত পানি করে যাদের খাওয়াইতারাই নির্যাতক।ফিরিঙ্গীদের সময় নীলচাষীকেমন সুখে ছিলাম ?মাথায় চারা গজিয়েছি !তার পরের জন্ম আরও মজারপ্রভুকে তাড়িয়ে সেবাদাস বড়ভাইয়ার।কথা বলার দাম দিতে হল রক্তে !
আমার এখনকার প্রভু লজ্জা ঢাকারআর ঢং করার মুখোসের কারবারি।আমাদের সাশ্রয়ী কারখানাপায়রার খোপের মত পলকা ।রাশিয়া বা আফ্রিকার হীরার খনির মতমাটির নীচে নয় কিন্তু অগ্নি ও পতন বান্ধব।দগ্ধপিষ্ট হবার আগে আমরাই মুখোস বানাই।অবশ্যই অন্যদের জন্য।মালিক কিংবা আমাদের লজ্জা বা মুখঢেকে রাখার বিলাসিতা মানায় না।
অন্য মাত্রায় জন্ম হলে নিশ্চয় দ্বিমাত্রিক হতামমুখ দিয়ে খাওয়া মুখ দিয়েই পায়খানা !নইলে অস্তিত্ত্ব টেকে না ।
আগামী জন্মে হয়তো সাইবর্গ হবরক্তমাংসের শরীরে যন্ত্রমানব কিংবা দানব।অ্যান্ড্রয়েড রোবট হলে মালিক বা মালকিনেরসব সেবা এমনকি যৌনসেবাও সম্ভব।
হাসির কথা, সেদিন স্বপ্নে দেখিআমি পাপেট নাকি ভিডিও গেমের কেউ।গেমারের ইচ্ছায় জন্ম মৃত্যু জয় পরাজয় সব।

১,৬২২ বার দেখা হয়েছে

২১ টি মন্তব্য : “অটোবায়োগ্রাফি অফ এ স্লেভ”

  1. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    তুমি কি লেখালেখির অভিনব একটি ধারা চালু করতে চাইছো, ভাইয়া? এক লাইন ইংরেজীর পাশে এক লাইন বা তার খানিক বেশী বাংলা অনুবাদ পড়তে বিরক্তই লাগছে। এক কথা দু'বার বলার মানে কি হে?

    জবাব দিন
  2. সাইদুল (৭৬-৮২)

    কালচক্রে বিভিন্ন গৃহপালিত প্রাণী।জীবন যৌবন ছানাপোনাসবই মানুষের প্রয়োজনে।

    এই লাইনটার পরে

    পদোন্নতি ঘটে কালে ভদ্রেফারাও এর পিরামিডেকিংবা মহান গণতান্ত্রিক গ্রিসে।দাস কিন্তু নাগরিক নয়।পশুদের মত দাঁত গুনে কেনাবেচানিজেও নিজের নয়পরনের ছালতো দূরের কথা।

    পড়ে যে মজাটা পেতাম ইংরেজির ভেজালে সেটা পাচ্ছি না। দু'টোই আলাদা আলাদা দাওনা কেন?


    যে কথা কখনও বাজেনা হৃদয়ে গান হয়ে কোন, সে কথা ব্যর্থ , ম্লান

    জবাব দিন
  3. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    কবিতার পাঠক সবসময়ই কম।
    রবি বাবুর কবিতাও খুব একটা বিকাতো না।
    কোন একবার একটা কবিতার বই ছাপাখানায় দিয়ে কবি বলেছিলেন, এটা শ দুই/তিনেক কপি ছাপিয়ো, ভালো চলবে বাজারে।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  4. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    শুধু বাংলাটা পোস্টে, আর ইংরেজিটা লিঙ্কে দিলে ভালো দেখাতো বোধ হয়। একটা বিরোধ সৃষ্টি হচ্ছে চোখে। ইংরেজি স্কিপ করে বাংলা পড়লাম।
    ভালো লেগেছে দার্শনিকতা বা ভবিতব্যকথা।
    তবে কবিতা মনে হলনা একদম। 🙂

    জবাব দিন
      • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

        ভুল বুঝলেন দুইবার।
        নীচের মন্তব্যের উত্তরও এখানে দিবো।

        ইংরেজি ভালো লাগলেও বাংলাটাই পড়তে চাই সবার আগে। তাই সেটা আগে পড়লাম। ফিরে এসে, বাংলার দিকে একবারো না তাকিয়ে ইংরেজি পড়বো বলে রেখে দেয়া।
        আর বলেছি, কবিতা 'মনে হয়নি'। 'কবিতা হয়নি' এমন বলার দুঃসাহস আমার কোনকালেই হবে না। 🙂
        কবিতা বহুবিধ তো বটেই। তবু, সিকদার আমিনুল হকের টানাগদ্যে বহতা লেখা কবিতা মনে হয়, কিন্তু গুণের কিছু লেখা পাতে দিতে পারিনা। পারিনা জগতখ্যাত এলেন গিন্সবার্গের লেখায় কাব্যমূল্য খুঁজে পেতে। পাঠক হিসেবে আমি যথেষ্টই বেয়াড়া এবং বেয়াদব। মন যখন টানেনা অমন করেই বলি। তাতে লেখকের মন খারাপ হলে চলেনা। তিনি যেমন দেখেন, শব্দ রং ছবি যেমন ধরতে পারেন তেমন বয়ান করেন। কোনদিন হয়তো ম্যাজিকের ছোঁয়ায় পাঠকের কাছেও সব ফকফকা বোধ হয় --- সে ভাবতে বসে, আগে কেন বোঝেনি অমন করে। 🙂

        জবাব দিন
  5. টিটো মোস্তাফিজ

    মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ নুপুরকে। তবে তোমার মন্তব্যের সাথে বিছুটি দ্বিমত রয়েছে। কবিতা যে কত রকমের হতে পারে সেটা চিন্তা করাও কঠিন ব্যাপার। অল পোয়েট্রির প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে গেলে কিছুটা আঁচ করা যায়।


    পুরাদস্তুর বাঙ্গাল

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।