অন্ধকারের উপাসনা

আলোর মিথ্যাচারীতায় ক্লান্ত আমি এখন
অন্ধকারের উপাসনা করি ।
চারপাশের আলো ক্রমশ ঝাপসা হয়ে আসে,
রঙ্গিন থেকে সাদাকালো……অতঃপর শুধুই নিকষ কালো ।

আমি প্রার্থনা জানাই অন্ধকারের দেবতার কাছে –
খানিকটা রঙের আশায় ।
আমি কায়মনে গেয়ে যাই আঁধারের স্তুতিগান ।
এক নিঃশ্বাসে বিড়বিড় করে জপি
দুর্বোধ্য সব অপমন্ত্র ।

ঘন ধোঁয়ার উৎকট গন্ধ
আমার চেতনায় পৌঁছে দেয় কস্তুরীর ঘ্রাণ ।
অসুস্থ তরলের বিকট ঝাঁঝ
আমার হৃদয়ে পরম মমতায় হাত বুলিয়ে দেয় ।
সাদা পাউডারের গুঁড়োগুলো আমার শরীরের ভেতর
প্রাণের বন্ধুর মত আমায় জড়িয়ে ধরে ;
আমার সব অনুভূতির সঙ্গে একাত্মতার ঘোষনা দেয় ।

এই ঘোর আধাঁরে
আমার আলোর উৎস কেবল প্রাগৈতিহাসিক আগুন ।
তার চারদিকে আমার জান্তব অগ্নিনৃত্য
বন্ধ করে দেয় অন্য সব আলোর প্রবেশপথ ।
টপ করে বের হয়ে আসতে চাওয়া এক ফোঁটা চোখের পানি
মূহুর্তের মাঝে চোখ দিয়েই গিলে ফেলি !
এ জগতে আমি কাঁদতে আসি নি……

এত কিছুর মাঝেও মনের অবচেতনে লুকিয়ে থাকে –
এক বিন্দু সত্য আলোর আশা !

৯২৪ বার দেখা হয়েছে

১৩ টি মন্তব্য : “অন্ধকারের উপাসনা”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।