ফুটবল প্যাচাল ০২

১৯৯৪ ও ২০০২ সালের বিশ্বকাপজয়ী ব্রাজিলদলের কোচ কার্লোস আলবার্তো পেরেইরা আর লুইস ফিল স্কলারী একটা বিষয়ে একমত ছিলেন; তা হলো বিশ্বকাপের টুর্নামেন্ট জেতা কোয়ালিফাইং রাউন্ড থেকে সোজা ছিলো। কোয়ালিফাইং রাউন্ডে দুইবারই ব্রাজিল হেরেছিলো বলিভিয়ার কাছে। তারমানে তারা কি দাবী করতে চান বলিভিয়া, ইকুয়েডর এর মত দলগুলো ইটালী কিংবা ফ্রান্স থেকেও শক্তিশালী। কারন আসলে আবহাওয়া, কন্ডিশন আর অবশ্যই উচ্চতা। বিভিন্ন দেশ সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে বিভিন্ন উচ্চতায় অবস্থিত। এছাড়াও রয়েছে চরম ফুটবল পাগল ল্যাটিন আমেরিকান দর্শকে ভর্তি চিৎকার চেঁচামেচিপূর্ণ গ্যালারী। তাই স্বাগতিক দেশগুলো সবসময়ই ফেবারিট থাকে। যেমন এইবারের কোয়ালিফাইং রাউন্ডে স্বাগতিক দল্ গুলো জিতেছে ৩১টি খেলায় পক্ষান্তরে এওয়ে দল্ গুলো জয় পেয়েছে ১০টি খেলায়।

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২৮০০ মিটার উচ্চাতায় অবস্থিত কিটো (ইকুয়েডর) আর ৩৬০০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত লা পাজ (বলিভিয়া)। তাই মোটামুটি মানের ফুটবল দল হলেও নিজের মঠে তারা সারাজীবন ব্রাজিল আর্জেন্টিনার মত দলকে ঘোল খাইয়ে ছেড়েছে। কিছুদিন আগেই মেসি, তেভেজ কিংবা মাশকেরানোসহ অলটাইম গ্রেটেস্ট ফুটবলার ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনা বলিভিয়ার কাছে হেরে গেলো (বিধ্বস্ত হলো!!) বলিভিয়ার কাছে ৬-১ গোলে।
.অধিক উচ্চতায় একেক খেলোয়াড় একেক রকম রি-এক্ট করে। যেমন সারাবছর ইংল্যান্ডে ফুটবল খেললেও জেনেটিক কারন কিংবা ছোটবেলায় ইকুয়েডরে বেড়ে উঠার কারনে উইগানের ভ্যালেন্সিয়া নিজের দেশে একই রকমভাবে ভালোই পারফর্ম করে। কিন্তু বেসিক সমস্যা হলো যদি কন্ডিশনের সাথে খাপ খাওনোর পর্যাপ্ত সময় পাওয়া না যায় (প্রায় তিন সপ্তাহ লাগে, কিন্তু নিজের খেলোয়াড়কে এতদিন ছুটি দেয়ার জন্য আধুনিক ফুটবলের কোনো ক্লাব এতটা উদার না) তাহলে খেলোয়াড়রা এথলেটিক সক্ষমতা ৩০% এর বেশী তাদের হারায়। কারন ফুসফুস ঠিকমত কাজ করতে পারে না তাই শরীর পর্যাপ্ত পরিমানে অক্সিজেন পায় না ফলশ্রুতিতে মাঠে ঠিকমত দৌঁড়াতে পারেনা।

কিন্তু আরেকটা উপায় হলো খেলা শুরু হওয়ার যত কম সময় আগে সেখানে পৌঁছানো যায়। আর্জেন্টিনা খেলার দিনই বলিভিয়া গিয়েছিলো কিন্তু মানসিকভাবে ও ট্যাক্টিক্যালি তারা পিছিয়ে ছিলো। সেখানে তারা তাদের নরমাল ফ্লুইড খেলা ছেড়ে লম্বা টার্গেট স্ট্রাইকার ডিয়াগো মিলিতো সামনে রেখে ধীর স্থির ভাবে খেলা উচিত ছিলো। এমনকি ড্রও হতে পারতো কাংখিত ফলাফল। আর এখানেই ম্যানেজার হিসাবে ম্যারাডোনা অনভিজ্ঞতা বেরিয়ে পড়েছে আর ইদানীং গুস হিডিংক তার অভিজ্ঞতা দিয়েই চেলসির পুনর্জাগরন ঘটিয়েছে। তাই চ্যাম্পিওন্স লীগে বার্সেলোনা ফাইনাল খেলবেই হলফ করে বলা যাচ্ছে না।

বলিভিয়ার ফুটবল দলের প্রাক্তন ফিজিওথেরাপিস্ট রড্রিগো ফিগুয়েরো ‘লা প্রেন্সা’ পত্রিকাকে এক মজার তথ্য দিয়েছেন। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উঁচুতে প্রয়োজনীয় শক্তি সঞ্চয়ের জন্য কমপক্ষে নয়জন খেলোয়াড় কে তিনি সেক্স ড্রাগ ভায়াগ্রা প্রেসক্রাইব করেছেন। তিনি দাবী করেন ভায়াগ্রা নিষিদ্ধ ড্রাগের তালিকায় নেই। কিন্তু কিভাবে খেলোয়াড়দের উপকার করে ভায়াগ্রা! ভায়াগ্রা রক্তের মধ্যে অক্সিজেনের সঞ্চালন বাড়িয়ে দেয় যা খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স বাড়িয়ে দেয়। আসলে খেলোয়াড়রা জানে না তারা কি ঔষধ খাচ্ছে। তাদেরকে সাধারনতঃ ফলের রসের সাথে মিশিয়ে ভায়াগ্রা দেয়া হতো। ফিগুয়েরোর দাবী অধিক উচ্চতায় যেসব খেলোয়াড়রা বেশী ভুগতো তাদেরকেই ভায়াগ্রা দেয়া হতো। কিন্তু ভায়াগ্রা বলিভিয়ার ফলাফলের উপর কি রকম প্রভাব ফেলেছিলো, এই প্রশ্নের উওরে ফিগুয়েরোর দার্শনিক উত্তর ছিলো ‘অধিক উচ্চতায় আপনি জিতবেন, ড্র করবেন কিংবা হারবেন। কিন্তু সেরা ফলাফল আসে যখন আপনার ট্যাকটিক্স ভালো থাকে’। আর ম্যারাডোনার ট্যাক্টিক্স ভালো ছিলো না।

২,৫৮৩ বার দেখা হয়েছে

৩৫ টি মন্তব্য : “ফুটবল প্যাচাল ০২”

  1. তাই চ্যাম্পিওন্স লীগে বার্সেলোনা ফাইনাল খেলবেই হলফ করে বলা যাচ্ছে না।

    বার্সেলোনার আসল সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে ওদের ফিক্সচার ... আগামী তিন সপ্তার স্কেজুয়েল দ্যাখেনঃ

    ২২ এপ্রিল - সেভিয়া - হোম
    ২৫ এপ্রিল - ভ্যলেন্সিয়া - এওয়ে
    ২৮ এপ্রিল - চেলসি - হোম
    ৩ মে - রিয়েল মাদ্রিদ - এওয়ে
    ৬ মে - চেলসি - এওয়ে
    ১০ মে - ভিয়ারিয়াল - হোম
    ১৩ মে - এথলেটিকো বিলবাও - নিউট্রাল [কাপ ফাইনাল]
    ১৭ মে - মায়োর্কা - এওয়ে

    তিন সপ্তায় আটটা ম্যাচ; লিগের ম্যাচগুলি রিয়েল, সেভিয়া, ভ্যালেন্সিয়া, ভিলারিয়াল আর মায়োর্কার সাথে, যার মধ্যে প্রথম চারটা হচ্ছে পয়েন্ট তালিকার দুই থেকে পাঁচ নাম্বার দল ... এথলেটিকোর সাথেরটা কাপ ফাইনাল, ওরা জানবাজি রেখে খেলবে ... সাথে চেলসি তো আছেই ...

    বার্সার উপর বিশাল চাপ ট্রেবল জেতার; চ্যম্পিয়ন্স লীগ না পারলেও বাকি দুইটা হারানোর রিস্ক বার্সা নিতে পারে না গত দুই বছর কিছু না জেতার পর ... কাজেই একটা ম্যাচও বার্সা হালকা ভাবে নিতে পারবে না ... অথচ রিয়েলের সামনে লীগ ছাড়া আর কিছু জেতার চান্স নাই, চেলসিও ইপিএলের আশা ছেড়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ নিয়েই সিরিয়াস ... তার উপর রিয়ালের সাথের ম্যাচটা আর চেলসির সাথে ভাইটাল সেকেন্ড লেগ খেলতে হবে এওয়ে ... ভ্যালেন্সিয়া, সেভিয়া ভিয়ারিয়াল সবার এখন টার্গেট চ্যম্পিয়ন্স লীগে কোয়ালিফাই করে, কেউ ছেড়ে কথা বলবে না ... পেপ গার্ডিওলার সামনে এত বড় চ্যলেঞ্জ আর আসে নাই ...

    এই সিজনে সো ফার বার্সার এত ভালো খেলার একটা ভাইটাল কারণ গার্ডিওলার রোটেশন পলিসি ... মেসি ইতো অঁরি জাভি ইনিয়েস্তা আলভেস সবাই একটা সাইকেল ফলো করে কয়েক ম্যাচ পর পর রেস্টে ছিল ... কিন্তু এই সাত ম্যাচে গার্ডিওলা মনে হয় না এদের কাউকে বসানোর সুযোগ বা সাহস পাবে ...

    দেখা যাক ... অনভিজ্ঞ গার্ডিওলার এতদূরও আসার কথা ছিল না ... আসতে পারল যখন, আশা করতে দোষ কি 😀

    জবাব দিন
    • এহসান (৮৯-৯৫)

      আর্সেনাল আর ম্যান ইউনাইটেডের ফিকচার লিস্ট দেখো। তাহলে আর প্যান প্যান করতে হবে না। নিচে খালি ম্যান ইউ এর টা দিলাম, আর্সেনালের অবস্থা আরো খারাপ। অদের লিভারপুলের সাথে এওয়ে একটা খেলা আছে। আসলে বড় দলগুলো সিজনের শেষে ফিকচার জটে সব সময়ই থাকে। এইজন্যই তাদের স্কোয়াড অনেক বড় থাকে।

      19 April 2009 FA CUP Man Utd v Everton, SF, 16:00

      22 April 2009 Barclays Premier League Man Utd v Portsmouth, 20:00

      25 April 2009 Barclays Premier League Man Utd v Tottenham, 17:30

      29 April 2009 UEFA Champions League Man Utd v Arsenal, SF, L1, 19:45

      03 May 2009 Barclays Premier League Middlesbrough Man Utd, 16:00

      05 May 2009 UEFA Champions League Arsenal v Man Utd, SF, L2, 19:45

      10 May 2009 Barclays Premier League Man Utd v Man City, 13:30

      13 May 2009 Barclays Premier League Wigan v Man Utd, 20:00

      16 May 2009 Barclays Premier League Man Utd v Arsenal, 12:45

      গার্ডিওলারে আমার ভালোই মনে হয়। ম্যানেজার হিসাবে চরম স্বাধীনতা উপভোগ করতেছে। বার্সার পুরান খেলোয়াড়। ক্রুইফ এর পন্ডিতি অর উপর কম। রোটেশন ছড়াও ডিফেন্সের দিকে এই বছর বার্সার মনোযোগ বেশী। যদিও তুমি কইবা পিকে এখনো পাকে নাই। কিন্তু আমার মনে হয় পিকে এর জন্যই বার্সার ডিফেন্স ভালো। এই সামারে যদি ড্যানিয়েল এগ্যারকে কিনে ফেলে তাইলে তো আর কথাই নাই। কিন্তু পিকে আর মার্কেজ বাতাসে ভালো কিন্তু আরেকটু শক্তিশালী হতে হবে নাইলে দ্রগবারে ঠেকানো যাবে না।

      পুয়োল আর মার্কেজ দুইটারেই আমার স্লো মনে হয়। স্পেনিশ লীগ বলেই এখনো বড় দলের সেন্ট্রাল ডিফেন্সে খেলে গেলো। স্পেনিশ লীগ মানেই খালি মেসি, কিংবা আল্ভেস না। এইখানে পুয়োল, ভালদেস, গাগো এর মতো ওভার রেটেড গাবও বড় দলে খেলে। আর পুরা খেলাই হয় স্লো মোশনে... প্রথম দিকের ৫/৬টা দলের সাথে বাকি দলের ডিফারেন্স অনেক আর ইংলিশ লীগের হাল কিংবা স্টোকের মত রেলিগেশন ফাইটের টিম গুলোও বড়দল গুলোরে ধরা খাওয়াইয়া দেয়।

      কিন্তু তথাকথিত স্কিল আর মেসির গল্প বইলা মোস্তফামামুন ভাই এর মত মানুষ স্পেনিশ লিগের চৌধুরী বাড়ির ফুটানী মারে। 😉

      জবাব দিন
      • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

        ইংলিশ লিগের এক্সাইটমেণ্টের সাথে অন্য কোন লিগের তুলনা হবে না।

        আর্সেনালের কাজ অনেকটাই সহজ করে দিচ্ছে অ্যাস্টন ভিলা আর এভারটন... পয়েন্ট লুজ করেই যাচ্ছে।


        আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
        আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

        জবাব দিন
      • হা হা, আসলে বার্সা ট্রেবলের জন্য ফাইট দিতেসে তো তাই প্যান প্যান করি আরকি, নাইলে করতাম না ... ম্যান ইউর ফিক্সচারের অবস্থাও খারাপ, তাও আজকে এফ এ কাপ থেকে বাদ পড়লো, এখন শুধু লীগ আর চ্যম্পিয়ন্স লীগ ... আর্সেনালের সামনে লীগ জিতারো আশা নাই আবার ফোর্থ হওয়া নিয়েও খুব বেশি সংশয় নাই, তাই ওদেরো চিন্তা শুধু চ্যম্পিয়ন্স লীগ ... চেলসির লিগ জিতার তেমন চান্স নাই, ওদের শুধু কাপ আর চ্যম্পিয়ন্স লীগ ...রিয়েল মাদ্রিদ আর লিভারপুল তো সবকিসু থেকেই বাদ, এখন খালি লীগ ... তাই বলতেসিলাম যে অন্য টিমগুলি চাইলে একটা দুইটা ম্যাচে স্লিপ করতে পারে, বার্সা পারে না ...

        বার্সা টিমটারে এত ভালো লাগে তার একটা বড় কারণ ওদের ম্যানেজমেন্ট আর প্রিন্সিপল ... গত সীজনে মরিনহোর মত ম্যানেজার বার্সার দায়িত্ব নিতে রাজি ছিল, বার্সা বোর্ড তারে বাদ দিয়ে গার্ডিওলার উপরে আস্থা রাখছে কারণ মরিনহোর যেকোনভাবেই হোক জিততে হবে এই মেন্টালিটিটা বার্সার স্টাইলের সাথে যায় না ... যাই হোক, গার্ডিওলা অনভিজ্ঞ হইলেও নিজের কাজটা ভালোই পারে, দেখা যাক কি হয় ...

        পিকের ব্যপারে আপনার সাথে "বিনীতভাবে" দ্বিমত 😀 ... পিকে খুবই ভালো একটা ডিফেন্ডার হবে, কিন্তু এখনো পর্যন্ত সে ইনকন্সিস্টেন্ট ... প্রায়ই টুকটাক ভুল করে ... রাফা মার্কুয়েজের ব্যপারে একমত, সে একসময় ভালো ছিল এখন খুবই অর্ডিনারী ... ওকে রিপ্লেস করার জন্যই গতবার পিকে আর ক্যাসেরাসকে আনা হয় ...

        আর পুয়োলের ব্যপারেও একমত না ... পুয়োল এক্টু স্লো ঠিক, কিন্তু ওর ট্যকলিং, পজিশনসেন্স আর মোটিভেশন এখনও অসাধারণ ... ওকে ওভাররেটেড বলাটা বেশি হয়ে যায় 😀

        ড্যনি এগারকে বার্সা কিনবে নাকি? শুনি নাই কিন্তু ... ব্রাজিলের একটা ইয়াং ডিফেন্ডার হেনরিককে কেনা আছে গতবার, এই সীজন জার্মানিতে লোনে খেলতেছে, ওকে ফিরায় আনবে শুনলাম ...

        ভালদেস একটা গাব, দুইশো ভাগ একমত ... শুধু ক্যটালান বলে খেলতেছে, অন্য কেউ হইলে অনেক আগেই বিদায় হইতো [ভাবা যায়, ভালদেস আর পেপে রেইনা কিন্তু একই সাথে বার্সা ইয়ুথ থেকে আসছে, ভালদেস মেইন টিমে যায়গা পাইছে রেইনা পায় নাই বলে এখন লিভারপুলে খেলে 🙁 ] ... গাগোর খেলা নিয়ে বিশেষ আইডিয়া নাই ...

        আর ইন জেনারেল স্প্যানীশ লীগ নিয়ে একমত ... বার্সা, এথলেটিকো ছাড়া আর কারো খেলা দেখে ঠিক আরাম পাওয়া যায় না, সেই তুলনায় ইপিএলের ফাস্ট খেলা দেখতে ভালো লাগে ... তবে ছোটখাট সব টীম যে একেবারে গাব তা কিন্তু না, এস্পানিওল কিভাবে বার্সাকে ছ্যাঁচা দেয়া দেখেন নাই? 😀

        জবাব দিন
  2. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    আমি তো কড়ে আংগুলে এখন দিন গুনি, ফুটবলের ইশ্বর কেমন ভিলেন হয় এইটা দেখার জন্য।

    অনেকদিন পরে তোমার পোষ্ট, আছ ক্যামন, কাইল্কা আসলে ল্যাপির সামনে ছিলাম না জন্য তোমারে মিস করছি।

    টরেশ আছে ক্যামন? আর তোমার মন ভালো হইছে তো, লিভারপুল খেলছে জমাট, এমনে হারলেও সুখ লাগে।


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
    • কামরুল হাসান (৯৪-০০)
      আমি তো কড়ে আংগুলে এখন দিন গুনি, ফুটবলের ইশ্বর কেমন ভিলেন হয় এইটা দেখার জন্য।

      ফয়েজ ভাইয়ের ব্যাঞ্চাই ।


      ---------------------------------------------------------------------------
      বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
      ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

      জবাব দিন
    • এহসান (৮৯-৯৫)

      @ ফয়েজ ভাই,

      ম্যারাডোনারে আপনার মতো ব্রাজিলিয়ান ফ্যানরা যতই পচান, লাভ নাই। ফুটবলের ঈশ্বর; ঈশ্বরই থাকবে।

      টরেস ভালো নাই। ভাইরাস আক্রান্ত হইসে। গত এক সপ্তাহ ঘুমের বারোটা বাজছে। দোয়া কইরেন।

      লিভারপুলের ভাগ্য খারাপ ছিলো আর গুস হিডিংক দারুন গেম ট্যাক্টিক্স চালাইসে, মানতেই হবে।

      জবাব দিন
      • কামরুল হাসান (৯৪-০০)
        ম্যারাডোনারে আপনার মতো ব্রাজিলিয়ান ফ্যানরা যতই পচান, লাভ নাই। ফুটবলের ঈশ্বর; ঈশ্বরই থাকবে।

        এহসান ভাই
        দেখা যাচ্ছে আজকাল অনেক ব্যাপারেই আমরা একমত হচ্ছি। ;;;

        যদিও আপনারে নিয়া আমার ভয় হয়, একই সঙ্গে এন্টি ব্রাজিল এবং এন্টি আর্জেন্টিনা হওয়ার কারনে আপনি যেকোন সময় ব্যাপক গণরোষের মুখে পরতে পারেন ;;; 😛


        ---------------------------------------------------------------------------
        বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
        ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

        জবাব দিন
        • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

          আমিও আছি "এন্টি ব্রাজিল এবং এন্টি আর্জেন্টিনা" গ্রুপে।


          আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
          আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

          জবাব দিন
            • এহসান (৮৯-৯৫)

              আমি হল্যান্ড এর ফ্যান।
              এছাড়াও ইংলিশ লীগে লিভারপুল। স্পেনিশ লীগে বার্সেলোনা আর এথলেটিকো(আসলে এন্টি রিয়াল মাদ্রিদ।। কারন এক সময় রিয়ালে ব্রাজিলিয়ান বেশী খেলতো)
              আর ইটালিয়ান লীগে এসি মিলানের ফ্যান ছিলাম ছোটবেলায় কারন তখন গুলিট, বাস্তেন, রাইকার্ড আর কোয়েম্যান খেলতো। কিন্তু এখন আর মিলান ফ্যান নাই। বার্লুসকোনীরে ঘৃনা করি আর একারনেই এসিমিলান রে আর ভালো লাগে না কিন্তু এখনো এন্টি ইন্টার রয়ে গেছি।

              আইজকা আরেকটা ক্লাসিক খেলা হইলো। যদিও আমার বেশী ভালো লাগে নাই। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে আমার মতে সেরা ফুটবলার আরশাভিন একাই লিভেরপুলরে ৪ গোল দিলো। কেনো যে আরশাভিন আরসেনাল এ খেলে! উফফফ...

              ইউরোতে এই একই পোলা আর গুস মিল্লা হল্যান্ডরে বিদায় করে দিসিলো 🙁

              জবাব দিন
              • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

                এহসান ভাই, আপনার সাথে তো দেখি ৯০% মিলে গেল। আর্সেনাল সাপোর্ট করি, কারন হল্যান্ডের বার্গক্যাম্প আর্সেনালে খেলত... আর গুলিত হলো আমার ১ম ফুটবল হিরো।

                কালকের খেলায় আর্সেনাল হারলেও মনে হয় বেশি খারাপ লাগত না, লিগে তো আর আর্সেনালের পাওয়ার কিছু নাই, ম্যান ইউরে আগে আটকানো দরকার... ইউরোতে হল্যান্ডের সাথে খেলা দেইখাই আরশাভিনের ফ্যান হয়ে গেছিলাম, ক্যান যে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে কাপ টাইড হয়ে আছে ~x(


                আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
                আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

                জবাব দিন
              • সামি হক (৯০-৯৬)

                এহসান ভাই আপনার কি মনে হয় লিভারপুলের এখনো চান্স আছে কোন?

                আজকে তো ম্যান ইউ এর খেলা পোর্টসমাউথের সাথে, আজকে তো জিতবেই ম্যান ইউ। তবে টটেনহ্যাম এর সাথে যেই খেলাটা আছে ওইটাতে হারতে পারে তারপর আর্সেনালের সাথেরটাও একটা ভরসা, কি বলেন?

                লিভারপুলের এইবার এত্তোগুলা খেলা যদি ড্র না করত তাহলেই হয়ে গেছিল কাপটা :((

                জবাব দিন
                • এহসান (৮৯-৯৫)

                  লিভারপুলের চান্স নাই বলা যায়। কিন্তু আমি এখনি গিভ আপ করতে রাজি না ভাই। ফুটবল বড়ই জটিল। ম্যান ইউ ৯৯ এ চ্যাম্পিওন্স লীগ জিতবে এইটা ফারগুসনও চিন্তা করে নাই আর ২০০৫ ইস্তাম্বুল এর ঘটনা দেখো।

                  তুমি বলতেছো ড্র এর কথা। আর এই বছর কতগুলা খেলা লিভারপুল জিতসে ৮৫ মিনিট থেকে ইঞ্জুরী টাইমের ভিতর সেইটা খেয়াল করসো। আসলে এইবারের লিভারপুলের খেলার স্টাইলটাই চেঞ্জ হয়ে গেছে। ডিফেন্স টাইট রাইখা ১-০ এ জিতার প্ল্যান ছেড়ে দিছে। আজকালতো সবাইরেই ৪ গোল দিতেছে। এই ভাবে যদি আরো আগেই শুরু করতো...

                  টটেনহ্যামের সাথে কিছু ঘটুক আর না ঘটুক... মিডলসবোরো, ম্যাঞ্চেস্টার ডার্বি আর আর্সেনাল এই তিন টা খেলা ইম্পর্ট্যান্ট। যদিও আর্সেনালের সাথে খেলাটা বেশী দেরীতে পরে গ্যাছে। যদি লাস্ট সপ্তাহ পর্যন্ত রেস চলে তাইলে ম্যান ইউ পারবে না। কারন শেষ খেলা এওয়ে হাল সিটীর সাথে। অই খেলায় হাল এর রেলিগেশন নির্ভর করবে হয়তো।

                  জবাব দিন
        • এহসান (৮৯-৯৫)
          একই সঙ্গে এন্টি ব্রাজিল এবং এন্টি আর্জেন্টিনা হওয়ার কারনে আপনি যেকোন সময় ব্যাপক গণরোষের মুখে পরতে পারেন

          আমি প্রায়ই গনরোষের মুখে পড়ি। যেকোনো বড় টুর্নামেন্ট চলাকালীন আমার মেইল বক্স abusive মেইলে ভরে যায়। 🙁 আমি কিন্তু এন্টি আর্জেন্টিনা না। আর্জেন্টাইন মৌলবাদের বিরুদ্ধে।

          কিন্তু শতভাগ ব্রাজিল বিরোধী। আমি খেলা বুঝার পর থেকে কাকা ছাড়া সব ব্রাজিলিয়ান প্লেয়ারকে আমার ওভার রেটেড মনে হয়।

          জবাব দিন
  3. হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    আর্জেন্টিনাতে কোনো জিনিসের দাম চল্লিশ পেসো হলে দোকানদারকে দাম জানতে চাইলে বলে 'ফোর ডিয়েগো'। সুতরাং যে যাই বলুক ওদের কাছে ডিয়েগো ডিয়েগোই থাকবে। B-)

    জবাব দিন
  4. এহসান (৮৯-৯৫)

    একটা ভালো খবর। ম্যান ইউনাইটেড এফ এ কাপ সেমিফাইনালে হেরেছে। :tuski:

    সামিউর Quintuple না পেন্টা কি যেনো একটা কইসিলো। এক মৌসুমে ৫ শিরোপা...আহারে...

    কামরুল, স্বপ্নচারী, সীমান্ত ............ সরি আছি... =((
    সবে শুরু... আরো বাকি আছে... 😉

    জবাব দিন
  5. এহসান (৮৯-৯৫)

    ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জন্য রিয়াল মাদ্রিদের কাছ থেকে শর্তবিহীন ৮০ মিলিয়ন পাউন্ডের বিশ্ব রেকর্ড-ভাঙ্গা প্রস্তাব পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আবারো দল ছেড়ে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করা ক্রিস্টিয়ানোর অনুরোধে এবং তার প্রতিনিধির সঙ্গে আলোচনা করে ইউনাইটেড রিয়াল মাদ্রিদকে তার সঙ্গে কথা বলার অনুমতি দিতে রাজি হয়েছে। 🙁 ৮০ মিলিয়ন দিয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তেভেজ, বেনজেমা, ভ্যালেন্সিয়া সবাইরে কিনবে।

    বলিভিয়া-দুঃস্বপ্ন ভুলতে না ভুলতেই ইকুয়েডরের কাছে ০-২ গোলে হারছে আর্জেন্টিনা। :awesome: :awesome: :awesome:

    জবাব দিন
  6. আহসান আকাশ (৯৬-০২)
    বলিভিয়া-দুঃস্বপ্ন ভুলতে না ভুলতেই ইকুয়েডরের কাছে ০-২ গোলে হারছে আর্জেন্টিনা।

    :awesome: :awesome: :awesome: আহারে, ম্যারাডোনার জন্য আমার কষ্টই লাগতেছে 🙁 :grr: :grr: :grr:

    প্রতি সপ্তাহে সপ্তাহে রোনাল্ডোকে দেখতে হবে না এতেই আমি অনেক খুশি, তবে এই টাকা কাজে লাগিয়ে ম্যান ইউ আরো স্ট্রং স্কোয়াড গড়বে :no: :no: তবে রিয়াল মাদ্রিদ আবার টাকার খেলা শুরু করছে... এর জন্যই ওদের (সাথে চেলসি) দেখতে পারি না... x-(

    আর ঐদিকে ট্রান্সফার মার্কেটে আর্সেনালে নতুন কোন প্লেয়ারের আসার খবর নাই, খালি যাওয়ার খবর ~x( ~x(


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।