চ্যাম্পিওন্স লীগ… ড্র ২০০৯

আজকে চ্যাম্পিওন্স লীগের ড্র হলো সুইজারল্যান্ডের নিয়নে। ১১টা বেজে ১০ মিনিটে নির্ধারিত হলো খান্দানী এই পর্বে কারা খেলবে।
.
১ম লেগ ৭/৮ই এপ্রিল ও ২য় লেগ ১৪/১৫ এপ্রিল ২০০৯ ১৯৪৫ GMT (একই সময়ে খেলাগুলো বাংলাদেশ সময় রাত ১:৪৫ শুরু হবে।)
চ্যাম্পিওন্স লীগ কোয়ার্টারফাইনাল ড্র :
ভিয়ারিয়াল বনাম আর্সেনাল
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম এফ সি পোর্তো
লিভারপুল বনাম চেলসি
বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখ

চ্যাম্পিওন্স লীগ সেমিফাইনাল ড্র :
ভিয়ারিয়াল/ আর্সেনাল বনাম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড/এফসি পোর্তো
লিভারপুল/চেলসি বনাম বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখ

ভিয়ারিয়াল বনাম আর্সেনালঃ
ভিয়ারিয়ালকে সবাই খুব দূর্বল দল ভাবতেছে। কিন্তু ২০০৬ এই ভিয়ারিয়াল আর্সেনালের সাথেই সেমিফাইনাল খেলেছিলো। খুবই জমজমাট সেই খেলার শেষ মুহূর্তে ভিয়ারিয়ালের রিকুয়েমের পেনাল্টি শট আলমুনিয়া ঠেকিয়েছিলো; নাহলে অন্যরকম ফলাফল হতে পারতো। যাই হোক এই খেলায় সেই রিকুয়েমে আর নাই। কিন্তু আছে প্রাক্তন গানার রবার্টো পিরেস।আরো আছে সান্তি কাজোরোলা আর ইবাগাজা। আমার ভিয়ারিয়ালকে সবমিলিয়ে আর্সেনালের তুলোনায় হালকা মনে হচ্ছে। আর্সেনালের বিগ গানস ইঞ্জুরী কাটিয়ে ফেরত আসছে। আরশাভিন কাপ টাইড হলেও ফেব্রিগ্যাস হয়তো আগামী সপ্তাহ থেকেই মাঠে ফিরবে। সেরে উঠেছে এডিবায়োরও। যদিও ২য় লেগ স্পেনে গিয়ে খেলতে হবে, তারপরও আমার ধারনা এমিরেটস স্টেডিয়ামে লীড নিতে পারলে কলু টুরে আর গালাস সেটা ঠেকিয়ে রাখতে পারবে। আর থীও ওয়ালকট আর এডুয়ার্ডোর মত দ্রুতগতির খেলোয়াড়রা এওয়ে গোলও এনে দিতে পারবে।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম এফ সি পোর্তোঃ
ম্যানচেস্টার এই রাউন্ডের সবচেয়ে সোজা দল পেয়েছে। তারা ড্রতে বেশ ভাগ্যবান। সেমিফাইনালে উঠলে তারা ২য় লেগ ওল্ডট্র্যফোর্ডে খেলবে। আমি এখানে পোর্তোর কোনো সম্ভাবনা দেখতে পারছি না। ম্যানচেস্টার নিজেদের আরো ভাগ্যবান মনে করতে পারে এই ড্রতে তারা লিভারপুল, বায়ার্ন কিংবা বার্সা কে এড়িয়েছে।

লিভারপুল বনাম চেলসিঃ
টানা পঞ্চমবারের মত চ্যামিওন্সলীগে লিভারপুল আর চেলসি মুখোমুখি হচ্ছে। চেলসির সাথে ফিল স্কলারীর চেলসির দুইবার হারলেও গুস হিডিঙ্ক চেলসিকে বেশ গুছিয়ে এনেছে। মাইকেল এসিয়েন আর দ্রগবা ইঞ্জুরী থেকে ফিরে আসার পর তারা দল হিসাবে খেলা শুরু করেছে। চেলসির সৌভাগ্য তারা ২য় লেগ খেলবে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে। চেলসি এর আগের চার বছরে তিনবার হেরেছে। হয়তো ভাবছে এইবারও গতবছরের মত জিতবে কিন্তু এই মুহুর্তে ইউরোপের কোন দলই লিভারপুলের মুখোমুখি হতে চাইবে না। ইউরোপের দুই পরাশক্তি রিউয়াল মাদ্রিদ আর ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে উড়িয়ে দেয়ার পর লিভারপুলের আত্ববিশ্বাস এই মুহুর্তে আকাশচুম্বী। আর সুস্থ টরেস নিজের মাঠ পরের মাঠ যেকোনো জায়গায় গোল এনে দেয়ার নিশ্চয়তা দিতে পারে। যাই হোক এই দুইদলের বিজয়ীর জন্য অপেক্ষা করছে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে আক্রমনাত্বক দুই দলের একটি বায়ার্ন অথবা বার্সেলোনা।
.
বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখঃ
কোয়ার্টার ফাইনালের সবচেয়ে আকর্ষনীয় খেলা হলো বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখ। দুইদলই গোল করার ক্ষেত্রে সমান পারঙ্গম। দুই দলের আক্রমন ভাগ এই মুহুর্তে ইউরোপের সেরা। বার্সেলোনার যেমন আছে মেসি, অনরী, এতো, জাভি, ইনিয়েস্তা তেমনি বায়ার্নও কম না। লুকা টনি, ক্লোজা, পডোলস্কি কে গোল বানিয়ে দেয়ার জন্য আছে রিবেরী, শোয়াইন্সটাইগার। বায়ার্নের ডিফেন্স তুলোনামুলক ভালো। তাদের সেন্ট্রাল ডিফেন্স বেশ লম্বা কিন্তু বার্সেলোনা ইংলিশ টিমের মত লং বল খেলেনা আবার বাতাসে আক্রমনেও নির্ভরশীল না তাই তাদের তথাকথিত ভালো ডিফেন্স তেমন কাজে আসবে না। তেমনি বার্সার ডিফেন্সও ভয়াবহ। যদিও কিংকং এর মতে পুয়ুল খুব ভালো খেলোয়াড়। কিন্তু আমার মতে ওইখানেই বার্সার দূর্বলতম দিক। বয়সের কারনে পুয়ুল বেশ স্লো। ড্যানী আলাভেজ অনেকটা চেলসির বসিঙ্গোয়ার মত। আক্রমনে যতটা ভালো ডিফেন্সে ততটাই খারাপ। তাই এইখেলায় কোনো প্রেডিকশান করতে পারছি না। কিন্তু লিভারপুলের সম্ভাব্য পছন্দের সেমিফাইনালিস্ট চাইলে আমি বার্সেলোনারেই চাইতাম। কারন আমি বিশ্বাস করি লিভারপুলের জন্য বার্সার ডিফেন্স ভাঙ্গাই সোজা হবে। কারন আলাভেজ, পুয়ুল আর ভালদেস। আর অন্যদিকে মাশকেরানো, আলোন্সো, ক্যারাঘার আর স্ক্ররটেল বার্সার আক্রমনের সৃজনশীলতা নষ্ট করতে ভালোই পারবে।
পরিসংখ্যান
যদিও প্লাটিনির খুব রাগ হবে তাও অল ইংলিশ ফাইনালের সম্ভাবনা যথেস্ট.

২,২৬৬ বার দেখা হয়েছে

২৫ টি মন্তব্য : “চ্যাম্পিওন্স লীগ… ড্র ২০০৯”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    আমি মনে মনে চাচ্ছিলাম ইংলিশ টিমগুলো যাতে মুখোমুখি না হয়... তারপরও আমি খুশি... আর্সেনাল ভিলারিয়াল কে পেয়েছে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. এইবারো তিনটা ইংলিশ টীম সেমিতে যাবে ... ম্যান ইউ আর আর্সেনালের যাওয়া মোটামুটি নিশ্চিত ... চেলসি-লিভারপুলের যেকোন একজন যাবে, সাম্প্রতিক ফর্ম অনুযায়ী লিভারপুল ফেভারিট ... বার্সা-বায়ার্ন ম্যাচ নিয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না, যেকোন টীম জিততে পারে ...

    সেমিফাইনাল হবে (সম্ভবত) ম্যান ইউ-আর্সেনাল আর লিভারপুল/চেলসি - বার্সা/বেয়ার্ন ...

    জবাব দিন
  3. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ক্লিন্সম্যানের বায়ার্ন মিউনিখ এবার কি করে দেখা যাক... দুই ম্যাচে ১২ গোল দিয়া তো হাওয়ায় উড়তে ছিল... এবার দেখা যাক ওরা উরে না বার্সা উড়ে...


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  4. সামি হক (৯০-৯৬)

    ইউয়েফার প্রব্লেম আছে কোন প্রতিবার মনে হয় ইচ্ছা করে ওরা লিভারপুল আর চেলসির খেলা ফেলায় জানি একটা টীম আগেই বাদ পরে। যাইহোক লিভারপুল এর চ্যান্স আছে ভালোই তবে একটু কঠিন হয়ে গেছে এই যা। চামে চামে ম্যান ইউ বেশ সহজ ড্র পাইসে।

    জবাব দিন
  5. এহসান (৮৯-৯৫)

    @হাসান,

    আমারো মনে হয় মুল শক্তি নিহাত আর সেনা। আসলে সেনা তো অই যে সিয়েনা (স্পেনিশ জাতীয়দলের)। ও ভালো হোল্ডিং প্লেয়ার। নিহাত ত তুরস্কের হয়ে দারুন খেললো ইউরোতে। আর রসি আজকাল কেমন খেলতেসে জানি না। কিন্তু অরে আমার ভালোই লাগে কিন্তু পোলাটা ছো্ট খাটো তাই ইংলিশ লীগে বেইল পাইলো না।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।